ইনস্টাগ্রাম থেকে ইনকাম করার উপায় ২০২১

ইনস্টাগ্রাম থেকে ইনকাম : আপনি কি জানেন বর্তমানে ইনস্টাগ্রাম থেকে টাকা ইনকাম করা সম্ভব? আপনার আশেপাশে এমন অনেক ব্যক্তি আছেন। যারা নিজের ঘরে বসে ইনস্টাগ্রাম থেকে বিপুল পরিমানে টাকা ইনকাম করে আসছে।

ইন্সটাগ্রাম থেকে ইনকাম করার উপায়
ইন্সটাগ্রাম থেকে ইনকাম করার উপায়

শুধু তাই নয়, আপনি যদি এই প্লাটফর্মে সঠিকভাবে কাজ করতে পারেন। তাহলে আপনি ইনস্টাগ্রাম থেকে যে ইনকাম করতে পারবেন। তা একটি চাকরির বেতন এর থেকেও বেশি হতে পারে।

যদি আপনিও Instagram থেকে আয় করতে চান। তাহলে আপনাকে বেশ কিছু উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে হবে। আর সেই উপায় গুলো সম্পর্কে জানিয়ে দেয়ার জন্যই মূলত আজকের আর্টিকেলটি লেখা হয়েছে। 

[💡READ THIS: যেকোনো সেক্টর থেকে ইনকাম করতে হলে সেই সেক্টর এর কিছু নিয়ম মেনে চলতে হয়। আর তাই সবার আগে আপনাকে উক্ত সেক্টর এর সকল নিয়ম কানুন গুলো জেনে নিতে হবে।]

তো খুব কম সময় এর মধ্যে ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করতে চাইলে আজকের পুরো আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়বেন। তাহলে আজকের এই আর্টিকেল থেকে অনেক অজানা বিষয় সম্পর্কে জেনে নিতে পারবেন। 

ইনস্টাগ্রাম কি? 

ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করার উপায় গুলো নিয়ে অবশ্যই আলোচনা করবো। তবে সবার আগে আপনাকে জানতে হবে যে, ইনস্টাগ্রাম কি (What is Instagram).

সহজ কথায় ইনস্টাগ্রাম হলো একটি সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং ওয়েবসাইট। যেখানে আপনি আপনার যে কোনো পিকচার বা ভিডিও আপলোড করতে পারবেন।

আপনার জন্য আর লেখা…

এর পাশাপাশি আপনি আপনার অন্যান্য Instagram User দের সাথে যোগাযোগ অক্ষুন্ন রাখতে পারবেন।

আমরা যেমন দৈনন্দিন জীবনে নানা ধরনের সোশ্যাল প্লাটফর্ম গুলো ব্যবহার করি। যেমন, কখনওবা Facebook ব্যবহার করি, আবার কখনওবা Youtube ব্যবহার করি।

ঠিক তেমনি ফেসবুক বা ইউটিউব এর মতো আরও একটি সোশ্যাল প্লাটফর্ম হলো, Instagram. 

কেন ইনস্টাগ্রাম থেকে টাকা ইনকাম করবেন? 

এবার আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে, ভাই বর্তমানে তো অনেক ভাবে অনলাইন থেকে ইনকাম করা যায়। তাহলে কেন আপনি শুধু ইনস্টাগ্রাম থেকে ইনকাম করবেন?

এখানে কাজ করলে আলাদা ভাবে কোনো বেনিফিট পাওয়া যায় কিনা?

দেখুন আমাদের মধ্যে এমন অনেক ব্যক্তি আছেন। যারা নিয়মিত বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া গুলোতে Photo Upload করতে পছন্দ করে। কিন্তুু তার বিনিময়ে তারা কোনো কিছুই পায় না।

যেমন আপনি শুধুমাএ ফেসবুকে যতো পিকচার আপলোড করুন না কেন। সেখান থেকে কিন্তুু আপনি কোনো প্রকার আয় করতে পারবেন না।

অপরদিকে আপনি কিন্তুু এই কাজটি যদি ইনস্টাগ্রামে করেন ৷ তাহলে কিন্তুু আপনি শুধু ইনস্টাগ্রামে Photo Upload করেই টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

আর আমার দৃষ্টিকোন থেকে অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করার জন্য এর থেকে আর কোনো সহজ উপায় খুজে পাওয়া যাবে না।

এছাড়াও পূর্বের সময়ে Instagram নামক এই প্লাটফর্ম এর জনপ্রিয়তা না থাকলেও ৷ আজকের দিনে এই প্লাটফর্ম টি জনপ্রিয়তার শীর্ষে অবস্থান করে আছে।

আর তাই মিলিয়ন মিলিয়ন মানুষ এখন রীতিমতো ঝুকে পড়ছে এই সোশ্যাল প্লাটফর্ম এর দিকে।

এখন আপনি যদি এই মিলিয়ন মিলিয়ন মানুষকে দিয়ে ইনকাম করার চেস্টা করেন ৷ তাহলে একবার চিন্তা করে দেখুন যে, আপনি ছোট ছোট কাজের মাধ্যমে ইনস্টাগ্রাম থেকে কি পরিমান ইনকাম করতে পারবেন ৷

[💡NOTE: অন্যান্য প্লাটফর্ম গুলো তে আয় করতে হলে আপনাকে অনেক কিছু নিয়ে স্ট্যাডি করার প্রয়োজন পড়বে। অপরিদকে আপনি যদি ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করতে চান ৷] 

তাহলে আপনাকে শুধু কয়েকটা কৌশল সম্পর্কে জানলেই হবে। 

ইনস্টাগ্রাম থেকে টাকা ইনকাম করার জন্য কি কি প্রয়োজন হবে? 

পূর্বের আলোচনা থেকে “ইনস্টাগ্রাম কি” এবং “কেন আপনি ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করবেন”- সে সম্পর্কে পরিস্কার ধারনা পেয়ে গেছেন।

তো সেই ধারাবাহিকতায় আমরা জেনে নিবো যে যদি আপনিও ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করতে চান। তাহলে আপনার কি কি জিনিস এর প্রয়োজন পড়বে। এবার চলুন সে সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা যাক।

হুমমম! এটা সত্য যে আপনি অনলাইনে কাজ করুন অথবা অফলাইন এ কাজ করুন। সবার আগে আপনি যে কাজটি করবেন, সেই কাজটি সম্পর্কে ভালোভাবে জানতে হবে।

এরপর উক্ত কাজ করার জন্য পর্যাপ্ত ইনস্ট্রুমেন্ট এর প্রয়োজন পড়বে।

ঠিক তেমনি কোনো ব্যক্তি যখন ইনস্টাগ্রাম নামক সোশ্যাল প্লাটফর্ম এ কাজ করতে চাইবে। এবং সেই কাজের বিনিময়ে এইসব সোশ্যাল মিডিয়ার থেকে টাকা ইনকাম করতে চাইবে।

তখন তার জন্য বেশ কিছু দরকারি জিনিস এর প্রয়োজন পড়বে। যেমন, 

No-1: A Quality Full Device

অস্ত্র ছাড়া যেমন যুদ্ধ করা অসম্ভব। ঠিক তেমনি আপনি যদি অনলাইন এর মাধ্যমে কাজ করে টাকা ইনকাম করতে চান ৷ তাহলে আপনার কাছে একটি কোয়ালিটি সম্পন্ন ডিভাইস থাকা অতি আবশ্যক।

এখন হয়তবা আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে, ভাই ইনস্টাগ্রামে কাজ করতে হলে কোন ধরনের ডিভাইস এর প্রয়োজন হবে? তো এবার এই বিষয় নিয়ে জেনে নেয়া যাক।

এখানে ডিভাইস বলতে আপনি মোবাইল অথবা কম্পিউটার যেকোনো একটি ব্যবহার করতে পারবেন। আপনার কাছে যদি শুধুমাএ একটি স্মার্টফোন থাকে।

তাহলেও আপনি Instagram এ কাজ করতে পারবেন। অথবা আপনার কাছে যদি কম্পিউটার বা ল্যাপটপ থাকে। তাহলেও আপনি এই প্লাটফর্ম এ কাজ করতে পারবেন।

তবে শুধু ডিভাইস থাকলেই হবে না, বরং আপনার ডিভাইস টি যথেষ্ট কোয়ালিটি সম্পন্ন হতে হবে। অর্থ্যাৎ, আপনার কাছে একটি স্মার্টফোন আছে তাই বলে আপনি যে এখানে কাজ করতে পারবেন।

বিষয়টা কিন্তু এমন নয়। বরং ইনস্টাগ্রাম এ কাজ করার জন্য আপনার হাতে থাকা স্মার্টফোন টি যথেষ্ট উপযুক্ত হতে হবে। 

No-2: Fasted Internet Connection 

অনলাইন এ কাজ করবেন কিন্তু আপনি ইন্টারনেট ব্যবহার করবেন না সেটি কি করে হয়। অলাইনে কাজ করতে হলে অবশ্যই আপনার ডিভাইস টি Internet এর সাথে সংযুক্ত থাকতে হবে।

নাহলে আপনি অনলাইন এর কোনো কাজ সঠিকভাবে করতে পারবেন না।

তবে শুধুমাএ আপনার ডিভাইস টিতে Internet Connection থাকলেই আপনি অনলাইন এর সবগুলো কাজ করতে পারবেন না। বরং আপনার ডিভাইস এ থাকা কানেকশন টি অবশ্যই মানসম্মত হতে হবে।

অর্থাৎ, আপনার ইন্টারনেট কানেকশ টি অবশ্যই দ্রুত গতি সম্পন্ন হতে হবে। 

No-3: A Professional Instagram Account 

ফেসবুক একাউন্ট না থাকলে আপনি যেমন ফেসবুক ব্যবহার করতে পারবেন না। ঠিক তেমনি যতেক্ষন না আপনার একটি Instagram Account না থাকবে ৷

ততোক্ষন পর্যন্ত আপনি এই সোশ্যাল প্লাটফর্ম থেকে কোনো প্রকার কাজ করতে পারবেন না। তাই সবার আগে আপনার একটি ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট থাকতে হবে।

আপনি আরো দেখুন…

তবে বলে রাখা ভালো যে, একটি সাধারন একাউন্ট এবং একটি প্রফেশনাল একাউন্ট এর মধ্যে যথেষ্ট  পার্থক্য রয়েছে।

কারন যেগুলো নরমাল একাউন্ট সেগুলো শুধুমাএ Personal Use এর জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে। কিন্তুু আপনি যদি আয় করার উদ্দেশ্যে একাউন্ট তৈরি করে থাকেন ৷

তাহলে অবশ্যই আপনার তৈরি করা একাউন্টটি একেবারে প্রফেশনাল হতে হবে। 

[💡PRO TIPS: কিভাবে আপনি একটি Professional Instagram Account Create করবেন ৷ সে নিয়ে আমার একটি আর্টিকেলে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। আপনি সে সম্পর্কে জানতে চাইলে এখানে ক্লিক করুন।]

ইনস্টাগ্রাম থেকে টাকা ইনকাম করার উপায়

যাক এবার আমরা মূল আলোচনায় ফিরে এসেছি। এতোক্ষন আমরা টুকটাক বিষয় গুলো নিয়ে জেনেছি। তবে এবার আমরা জানবো যে, এমন কি কি উপায় রয়েছে।

যে উপায় গুলো অবলম্বন করলে আপনিও ইস্টাগ্রাম থেকে আয় করতে পারবেন।

তো আপনি যদি সঠিকভাবে কাজ করতে পারেন। তাহলে আপনি Instagram থেকে বিভিন্ন উপায়ে ইনকাম করতে পারবেন। আর আপনি যদি সঠিকভাবে কাজ করতে না পারেন।

তাহলে আপনি কোনো সেক্টর থেকে আশানুরূপ ইনকাম করতে পারবেন না।

সত্যি বলতে আমি নিজেও বেশ কয়েক বছর ধরে উক্ত সেক্টরে কাজ করে আসছি। সেই তুলনায় বেশ কিছু অভিজ্ঞতাও অর্জন করতে পেরেছি। এবং আমি যেভাবে ইনকাম করি।

এর পাশাপাশি যারা অনেকদিন ধরে এই সেক্টরে কাজ করে আসছে। এই সবগুলো উপায় সম্পর্কে এবার বিস্তারিত আলোচনা করবো।

তাই আপনি যদি উপরোক্ত আলোচনা গুলো স্কিপ করে থাকেন। তাহলে প্লিজ এখন থেকে একটু মনোযোগ দিয়ে পড়ার চেস্টা করুন। না হলে আপনার অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় অজানা থেকে যাবে।

Instagram Income From Your Content

আমরা যেমন অন্যান্য প্লাটফর্ম গুলোতে একজন কন্টেন্ট ক্রিয়েটর হিসেবে বিভিন্ন উপায়ে ইনকাম করি।

ঠিক তেমনি আপনি ইনস্টাগ্রাম থেকেও একজন Content Creator হিসেবে কাজ করেও বিপুল পরিমান টাকা Instagram থেকে ইনকাম করতে পারবেন।

তবে আপনি যদি কন্টেন্ট ক্রিয়েটর হিসেবে ইনস্টাগ্রামে আয় করতে চান। তাহলে কিন্তুু আপনাকে বেশ কিছু বিষয় এর দিকে খেয়াল রাখতে হবে।

এবার প্রশ্ন হলো যে, কি সেই বিষয়! যেগুলো আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে? এবার চলুন সে সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক। 

Instagram Cash From IGTV Video Monetization

যেহুতু আপনি ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করতে চান। সেহুতু আপনি কোনো না কোনো একটা সময়ে আইজি টিভি (IGTV) ভিডিও মনিটাইজেশন সম্পর্কে শুনে থাকবেন।

যেখানে আপনি একজন পাবলিশার হিসেবে Video Upload করে ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করতে পারবেন।

আমাদের মধ্যে এমন অনেক মানুষ আছেন। যারা মূলত Youtube বা ইউটিউব এর মতো বিভিন্ন প্লাটফর্মে ভিডিও পাবলিশার হিসেবে কাজ করে থাকেন।

ঠিক একইভাবে আপনি ইনস্টাগ্রামে ভিডিও পাবলিশ করেও বেশ ভালো পরিমানে ইনকাম করতে পারবেন।

এখন আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে, কিভাবে আপনি ইনস্টাগ্রামে Video Upload করে আয় করবেন? তাহলে শুনুন…..

দেখুন আমরা যখন ইউটিউব বা ফেসবুকে অন্যের আপলোড করা ভিডিও দেখি। তখন ভিডিও শুরু হওয়ার আগে কিংবা ভিডিও চলাকালীন আমাদের ১০ থেকে ১২ সেকেন্ড এর বিজ্ঞাপন দেখতে হয়।

এবার আমরা যে এই বিজ্ঞাপন গুলো দেখি। তার বিনিময়ে যে মানুষটি উক্ত ভিডিও এর ক্রিয়েটর। সেই ব্যক্তি এই বিজ্ঞাপন দেখানোর বিনিময়ে টাকা ইনকাম করে থাকে।

তবে ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করার এই প্রক্রিয়াটি খুব দ্রুততার সাথে সম্পন্ন হবে কিনা। সে সম্পর্কে ইনস্টাগ্রাম কতৃপক্ষ তেমন কোনো সঠিক ধারনা দেয়নি।

তারা এক আলোচনায় বলেছিলো যে, ভিডিও পাবলিশ করে ইনস্টাগ্রাম থেকে ইনকাম করার বিষয়টি এখনও চুড়ান্ত হয়নি। তবে শুরুর দিকে শুধুমাএ কয়েকটা দেশে এই পদ্ধতি চালু করা হবে।

যেমন, USA, MEXICO, BRAZIL, CANADA ইত্যাদি।

আর তারা আরও একটি কথা বলেছিলো। সেটি হলো, ভিডিও মনিটাইজ করে ইনকাম করার বিষয়টি প্রথম দিকে শুধুমাএ আমেরিকাতে শুরু করা হবে।

এবং পরবর্তীতে ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করার এই প্রক্রিয়াটি অন্যান্য দেশের জন্যও কার্যকর করা হবে।

Instagram Cash From Live Video  

এবার আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে, আপনি ভিডিও আপলোড করে তো ইনস্টাগ্রাম থেকে টাকা আয় করতে পারবেন। কিন্তুু সেজন্য আপনাকে কোন ধরনের ভিডিও আপলোড করতে হবে?

ঠিক একইভাবে আপনাকে ইনস্টাগ্রামে গিয়ে লাইভ স্ট্রিম করতে হবে। এরপর যখন আপনার ফলোয়াররা আপনার স্ট্রিম করা ভিডিও তে কমেন্ট করবে।

সেই কমেন্ট গুলোকে পিন করে রাখা হবে। অর্থ্যাৎ, উক্ত কমেন্ট গুলো সাধারন কমেন্ট এর মতো স্ক্রল করবে না।

এবার আপনার স্ট্রিম চলাকালীন যতো বেশি ফলোয়ার আপনার ভিডিও কে দেখবে। আপনার ভিডিও তে যতো বেশি Pin Comment থাকবে৷ আপনার ইনকাম ঠিক ততো বেশি বৃদ্ধি পাবে। 

Note For Cash in Instagram Live 

ইনস্টাগ্রামে যখন আপনি লাইভ ভিডিও করবেন। এবং আপনি যখন সেই লাইভ ভিডিও গুলো থেকে আয় করতে চাইবেন। তখন আপনি Live Badge নামক নতুন একটি ফিচার এর সাথে পরিচিত হবেন।

সত্যি বলতে লাইভ ভিডিও থেকে টাকা আয় করার জন্য Live Badge খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।তো এবার আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে, ভাই সবি তো বুঝলাম।

কিন্তুু এই লাইভ ব্যাজ আবার কি জিনিস?  চলুন এবার সে সম্পর্কে একটু আলোচনা করা যাক।

যখন আপনি ইনস্টাগ্রামে কোনো লাইভ ভিডিও দেখবেন। তখন আপনি সরাসরি কোনো Live Video তে Chat করতে পারবেন না।

কারন এটি হলো ইন্সটাগ্রাম এর একটি পেইড ফিচার। যার সুবিধা ভোগ করতে হলে আপনাকে অর্থ প্রদান করতে হবে। এখন আপনার লাইভ স্ট্রিমে যখন কেউ ইনস্টাগ্রাম এর এই Live Badge কিনে নিয়ে আপনার ভিডিওতে কমেন্ট করবে।

তখন আপনার একাউন্ট এ একটি করে special heart জমা হতে থাকবে। আর এই special heart এর উপর ডিপেন্ড করে আপনি আয় করতে পারবেন।

আর যদি আপনি একজন সাধারন ইউজার হিসেবে ইনস্টাগ্রাম এর special heart কে কিনে নিতে চান। তাহলে আপনাকে বেশ ভালো পরিমানে অর্থ ব্যয় করতে হবে।

যেমন, আপনি যদি একটা special heart কিনতে চান। সেক্ষেএে আপনাকে $0.99 ডলার ব্যয় করতে হবে।

ঠিক একইভাবে আপনার special heart এর উপর নির্ভর করে টাকা প্রদান করতে হবে। যেমন, 

  • 1 special heart = $0.99
  • 2 special heart = $1.99
  • 3 special heart = $4.99

ইনস্টাগ্রাম ইনকাম নিয়ে কিছু প্রশ্ন ও তার উওর 

যেহুতু আমরা ইনস্টাগ্রাম এ কাজ করে অনলাইন থেকে ইনকাম করতে চাচ্ছি। সেহুতু কাজ করার শুরুতে বা কাজ চলাকালীন সময়ে আমাদের মনে নানান ধরনের প্রশ্ন জাগতে পারে ৷

তো আমি অনেক খোজাখুজি করে বেশ কিছু প্রশ্ন কে এক করে রেখেছি। এবং গুগল কিংবা বিভিন্ন সোর্স থেকে উক্ত প্রশ্ন গুলোর উওর খুজে নিয়েছি।

এবার চলুন সেই প্রশ্ন এবং প্রশ্নের উওর গুলো সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক। 

প্রশ্নঃ কিভাবে ইনস্টাগ্রাম থেকে ইনকাম করা সম্ভব?

উওরঃ আপনি চাইলে ইনস্টাগ্রাম থেকে বিভিন্ন উপায়ে আয় করতে পারবেন। যেমন, স্পন্সারশীপ থেকে, এফিলিয়েট থেকে, ডিজিটাল মার্কেটিং থেকে এবং সবশেষে আপনি আপনার নিজস্ব কন্টেন্ট থেকেও আয় করতে পারবেন। 

প্রশ্নঃ ইনস্টাগ্রাম থেকে কত টাকা ইনকাম করা যাবে?

উওরঃ দেখুন প্রত্যেকটা প্লাটফর্ম থেকে আয় করার জন্য কিছু সুনির্দিষ্ট নিয়ম কানুন থাকে। আপনাকে সঠিকভাবে উক্ত নিয়ম কানুন গুলোকে মেনে চলতে হবে।

আর আপনি নিজের পরিকল্পনা মতো যতো দ্রুত এই নিয়ম গুলোকে রপ্ত করতে পারবেন। আপনার ইনকাম ঠিক ততো দ্রুত বৃদ্ধি পেতে থাকবে।

এখন আপনি যদি সঠিকভাবে ইনস্টাগ্রামে কাজ করতে পারেন। তাহলে আপনি বেশ ভালো পরিমানে টাকা ইনস্টাগ্রামে কাজ করে আয় করে নিতে পারবেন। 

প্রশ্নঃ কতগুলো ফলোয়ার থাকলে ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করতে পারবেন?

উওরঃ আপনি যদি ইউটিউব বা ফেসবুকে একজন পাবলিশার হিসেবে আয় করতে চাইবেন ৷ তখন কাজের শুরুতে আপনাকে বিভিন্ন ধরন এর টার্মস এন্ড কন্ডিশন দেয়া হবে।

আর যখন আপনি এই Terms and conditions মেনে আপনাকে দেয়া টার্গেটকে পূরন করবেন। তখন থেকে আপনি অনলাইন থেকে ইনকাম করতে পারবেন।

কিন্তুু অপরিদিকে আপনি যদি ইনস্টাগ্রামে একজন পাবলিশার হিসেবে কাজ করেন। তাহলে এখানেও আপনাকে বিভিন্ন টার্মস এন্ড কন্ডিশন দেয়া হবে।

কিন্তুু আপনাকে কোনো প্রকার টার্গেট দেয়া হবে না। এর মানে হলো, আপনি যতো বেশি ফলোয়ার আপনার Instagram Account এ রাখতে পারবেন।

আপনার কাজও ঠিক ততো দ্রুত গ্রো করতে পারবে।

এফিলিয়েট করে ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় 

আজকের দিনে অনলাইন থেকে ইনকাম করার জনপ্রিয় একটি উপায় হলো এফিলিয়েট। আপনি জানলে অবাক হয়ে যাবেন, বর্তমানে এমন অনেক মানুষ আছেন।

যারা শুধুমাএ Affiliate Marketing করে নিজের ক্যারিয়ার গড়তে সক্ষম হয়েছেন।

এবার আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে, ভাই সব কিছু তো বুঝলাম। কিন্তুু এই এফিলিয়েট আবার কি জিনিস? এটা কিভাবে করতে হয়? তাহলে শুনুন….

মনে করুন, আপনি কোনো একটি অনলাইন শপ সম্পর্কে জানেন। যেমন, Amazon, Flip Cart, Daraz ইত্যাদি। এখন আপনি যদি এই অনলাইন শপের কোনো প্রোডাক্ট কে আপনার লিংকের মাধ্যমে বিক্রি করতে পারেন।

তাহলে যে অনলাইন শপের প্রোডাক্ট বিক্রি করে দিবেন। তারা আপনাকে ঐ প্রোডাক্টের মূল্যের উপর নির্ভর করে আপনাকে কিছু পরিমান কমিশন প্রদান করবে।

আর এভাবে আপনি ইনস্টাগ্রাম থেকে এফিলিয়েট করে বিপুল পরিমান টাকা ইনকাম করতে পারবেন। বর্তমান সময়ে অনেক তরুন তরুনী এই কাজটি করে নিজেকে স্বাবলম্বী করতে পেরেছে।

এখন তারা যদি এই কাজটি করে ইনকাম করতে পারে। তাহলে আপনি কেন পিছিয়ে থাকবেন?

[💡PRO TIPS:এফিলিয়েট প্রোগ্রাম কি এবং কিভাবে আপনি এফিলিয়েট করবেন। সে নিয়ে আমার একটি আর্টিকেল এ বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। উক্ত আর্টিকেলটি পড়তে চাইলে এখানে ক্লিক করুন। 

স্পন্সরশীপ করে ইনস্টাগ্রাম থেকে আয়

সহজ কথায়, Sponsorship এর অর্থ হলো, আপনাকে দিয়ে কোনো প্রোডাক্ট এর প্রোমোশন করা। যেমন, আমরা টিভির বিভিন্ন বিজ্ঞাপনে দেখি যে ক্রিয়েটার কিংবা বড় বড় সেলিব্রিটিরা প্রোডাক্ট এর বিজ্ঞাপন করে থাকে।

এবং এর বিনিময়ে তারা উক্ত প্রোডাক্ট এর মালিকের কাছ থেকে প্রচুর পরিমান টাকা নিয়ে থাকে।

আপনি আরো পড়তে পারেন…

তবে এবার আপনার মনে হতে পারে যে,  আপনি তো কোনো সেলিব্রেটি না। তাহলে একটি কোম্পানি কেন তাদের প্রোডাক্ট কে আপনাকে দিয়ে প্রোমোশন করাবে? তাহলে শুনুন…

কোনো প্রোডাক্ট এর প্রোমোশন করার জন্য আপনাকে যে সেলিব্রিটি হতে হবে। বিষয়টা আসলে তেমন নয়। বরং আপনি সেলিব্রেটি না হলেও যেকোনো প্রোডাক্ট এর Promotion করাতে পারবেন।

তবে এবার প্রশ্ন হলো যে, কিভাবে আপনি কোনো কোম্পানির প্রোডাক্ট এর প্রোমোশন করাবেন, তাইতো?

সেক্ষেএে আপনার একটি Instagram Account থাকতে হবে। আর শুধুমাএ একাউন্ট থাকলেই হবে না। বরং সেই একাউন্টে প্রচুর পরিমান ফলোয়ার থাকতে হবে।

যখন আপনার একাউন্টে অনেক বেশি Followers থাকবে৷ তখন অনেক কোম্পানি আপনাকে নক করবে তাদের বিভিন্ন Products এর প্রোমশন করানোর জন্য।

আর আপনি তাদের সেই পন্য গুলোর প্রোমোশন করিয়ে বিপুল পরিমান টাকা ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করে নিতে পারবেন। 

নিজের প্রোডাক্ট সেল করে আয় 

কেমন হয় যদি আপনার একটি Online Shop থাকে। এবং সেই পন্য গুলোকে আপনি অনলাইন এর মাধ্যমে সেল করে টাকা আয় করবেন। যদি এমনটা হয, তাহলে কিন্তুু বিষয়টা মন্দ হয়না।

হুমমম ইনস্টাগ্রাম হলো এমন একটি সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং প্লাটফর্ম। যেখানে আপনি সামাজিক যোগাযোগ করার পাশাপাশি বিভিন্ন প্রোডাক্ট সেল করেও টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

মনে করুন, আপনার একটি কেক এর দোকান আছে। এখন আপনি চান যে অফলাইনে কেক বিক্রি করার পাশাপাশি অনলাইন এর মাধ্যমেও কেক বিক্রি করতে চান।

সেক্ষেএে আপনি যদি আপনার Instagram Account এ আপনার দোকানের কেক গুলোর পিক আপলোড করলেন।

এবার বিভিন্ন ইনস্টাগ্রাম ইউজার রা আপনার কেকের পিক দেখে আপনার কাছ থেকে কিনে নিতে আগ্রহী হবে। আর আপনি যদি সঠিকভাবে সেই অর্ডার গুলোর ডেলিভারি দিতে পারেন ৷

তাহলে কিন্তুু এই কাজটি করে আপনি বেশ ভালো পরিমানে ইনকাম জেনারেট করে নিতে পারবেন। 

ছবি বিক্রি করে ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় 

যদি আপনার অনলাইন সমন্ধে টুকটাক ধারনা থাকে। তাহলে আপনি অবশ্যই জেনে থাকবেন যে, অনলাইনে ছবি বিক্রি করেও কিন্তুু প্রচুর পরিমান টাকা আয় করা সম্ভব।

মূলত যারা Photography এর সাথে যুক্ত আছে। তারাও কিন্তুু এভাবে আয় করে থাকে।

সেক্ষেত্রে আপনি যদি একটি ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট তৈরি করেন। এবং সেই একাউন্টে প্রতিনিয়ত বেশ ভালো মানের কোয়ালিটি সম্পন্ন পিকচার আপলোড করেন ৷

তাহলে সেই পিকচার গুলো বিক্রি করেও বিপুল পরিমান টাকা আয় করতে পারবেন।

তো এবার আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে, আপনার তোলা পিকচার গুলো কিনবে কে? তাহলে শুনুন,

বর্তমান সময়ে এমন অনেক ওয়েবসাইট আছে। যেখানে এই ধরনের পিকচার কেনা বেচা করা হয়ে থাকে। যেমন, Shutter stock,  istock photo, Fotolia ইত্যাদি।

এই ওয়েবসাইট গুলোতে সেইসব মানুষদের আনাগোনা আছে। যারা মূলত ফটো কেনা বেচা করে থাকে।

তাই আপনি যদি Proffesonal এবং High Quality পিকচার আপলোড করতে পারেন। তাহলে কিন্তুু আপনি ইনস্টাগ্রাম এর মাধ্যমে অনেক বেশি পরিমানে টাকা আয় করে নিতে পারবেন। 

অন্যের আইডি প্রোমশন করে আয় 

মনে করুন আপনার একটা ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট আছে। যেখানে আপনার লক্ষ লক্ষ ফলোয়ার আছে। এবার আমি একটা নতুন একাউন্ট তৈরি করেছি।

এবং আমার একাউন্টটি একেবারে নতুন হওয়ার কারনে তেমন কোনো ফলোয়ার নেই।

এখন আমি চাচ্ছি লক্ষ লক্ষ ফলোয়ার আছে এমন একটি একাউন্ট এর মাধ্যমে আমার সদ্য তৈরি করা একাউন্ট টিকে Promote করাতে। সেক্ষেএে যদি আমি আপনাকে এই কাজটি করে দিতে বলি। 

তাহলে আপনি উক্ত কাজের বিনিময়ে ডিমান্ড ধার্য করতে পারবেন ৷

হুমমম আর এভাবে শুধু আপনি নন, বরং অনেক মানুষ এই কাজ এর মাধ্যমে ইনকাম করে আসছেন। তো সেজন্য আপনাকে আগে থেকেই কিছু কাজ করে নিতে হবে।

এবং সেই কাজটি হলো, আপনার Instagram Account এ প্রচুর পরিমানে ফলোয়ার নিয়ে আসতে হবে। তাহলেই আপনি এই কাজের বিনিময়ে টাকা ইনকাম করে নিতে পারবেন। 

Pro Tips For Increase Your Instagram Income

দেখুন আমি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত একটি কথা বারবার বলছি। সেটি হলো, ইনস্টাগ্রামে থেকে ইনকাম করতে হলে অবশ্যই আপনার একাউন্টে প্রচুর পরিমানে Followers থাকতে হবে।

যদি আপনার একাউন্টে ফলোয়ার না থাকে। তাহলে কিন্তুু আপনি কোনো উপায়ে ইনকাম করতে পারবেন না।

তো এবার প্রশ্ন হলো যে, কিভাবে আপনি আপনার ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট এর ফলোয়ার বৃদ্ধি করবেন?

যদি আপনি আপনার Instagram Account এর Followers বাড়িয়ে নিতে চান ৷ তাহলে আপনাকে নিচের উপায় গুলো ভালোভাবে অনুসরন করতে হবে।

আপনার জন্য আরো…

আর যতোক্ষন না আপনি নিচের আলোচনা গুলো প্রয়োগ না করবেন ৷ ততোক্ষন আপনি সফলতার ধারের কাছেও যেতে পারবেন না।

তো একটি নতুন Instagram Account এর ফলোয়ার বাড়ানোর জন্য বেশ কিছু উপায় আছে। যেমন,

TIPS-1: আপনার প্রোফাইল এ থাকা Bio নামের একটি অপশন রয়েছে। আপনাকে সেই অপশনে এমন কিছু লিখতে হবে। যা আপনার কাজের মূল বিষয় বস্তু প্রকাশ পায়। এবং অন্যের কাছে সেটি যেন আর্কষনীয় হয়।

TIPS-2: আপনাকে নিয়মিত আপনার ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট পোষ্ট পাবলিশ করতে হবে। সেরকম হলে প্রতিদিন ২ থেকে ৩ টি করে কোয়ালিটি সম্পন্ন পিকচার আপলোড করতে হবে।

প্রয়োজন হলে প্রতিদিন ২ টি করে স্টোরি এবং ভিডিও আপলোড করতে হবে।

TIPS-3: হ্যাশট্যাগ (#) খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় ৷ কোনো কাস্টমার বা ইউজার এই হ্যাশ ট্যাগের মাধ্যমে খুব সহজেই খুজে নিতে পারবে ৷

তাই আপনার পাবলিশ করা প্রত্যেকটি পোষ্টে অবশ্যই Hash Tag এর ব্যবহার করবেন ৷

TIPS-4: আপনার আইডি তে থাকা ফলোয়ার দের সাথে খুব ভালো এনগেজমেন্ট থাকতে হবে। আপনি এই এনগেজমেন্ট এর রেশিও যতো বেশি রাখতে পারবেন ৷

আপনি ফলোয়ারদের কাছে ঠিক ততো বেশি বিশ্বস্ত হতে পারবেন ৷ সেক্ষেএে ফলোয়ারদের প্রত্যেকটি কমেন্ট বা প্রাইভেট মেসেজ এর রিপ্লে দিতে দেয়ার চেস্টা করবেন।

এগুলো ছাড়াও ইনস্টাগ্রাম এর ফলোয়ার বাড়ানোর অনেক টিপস রয়েছে। আপনি সেই টিপস গুলো সম্পর্কে জানতে চাইলে ছোট্ট করে একটা কমেন্ট করুন। আমি সে বিষয়ে একটি পূর্নাঙ্গ আর্টিকেল পাবলিশ করবো। 

আমাদের শেষকথা

যদি আপনি এই আর্টিকেল টি মনোযোগ দিয়ে পড়ে থাকেন ৷ তাহলে আশা করা যায় ইনস্টাগ্রাম সম্পর্কে আলোচিত বিষয় গুলো ভালোভাবে বুঝতে পেরেছেন।

কারন আজকের আর্টিকেলে আমি ইনস্টাগ্রাম থেকে ইনকাম করার সবগুলো বিষয় স্টেপ বাই স্টেপ আলোচনা করা চেস্টা করেছি।

এরপরও যদি আপনার ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করা নিয়ে কোনো প্রশ্ন থাকে ৷ তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। আমি আপনার কমেন্ট এর অপেক্ষায় থাকবো।

বাংলা আইটি ব্লগের সাথে থাকুন ৷ ধন্যবাদ 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: কপি করা যাবে না !!
Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap