ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল থেকে আয় করার উপায় – বাংলা আইটি ব্লগ

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলঃ ফেসবুকের যতোগুলো নতুন ফিচার যুক্ত হয়েছে। তারমধ্যে “facebook instant article” – নামক ফিচারটি অবাক করা মতো। যদি আপনার একটি ব্লগ বা ওয়েবসাইট থাকে, এবং এর পাশাপাশি একটি ফেসবুক পেজ থাকে।

তাহলে আপনি ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল থেকে বিপুল পরিমানে ইনকাম করতে পারবেন।

হ্যালো বন্ধু, বাংলা আইটি ব্লগের নতুন একটি  আর্টিকেলে আপনাকে স্বাগতম। আজকের আর্টিকেলে আমি, ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল সম্পর্কে যাবতীয় বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল
ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল

যে বিষয় গুলো জানার পরে, আপনিও facebook instant article এর সকল সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। আমরা অনেকেই আছি, যারা ঘন্টার পর ঘন্টা ফেসবুকের নিউজফিড স্ক্রল করে সময় ব্যয় করি।

কিন্তুু আপনি একটু খোজ খবর নিলেই দেখতে পারবেন যে, আপনার আশেপাশে এমন অনেকেই আছেন। যারা ফেসবুক থেকে ভিন্ন ভিন্ন উপায়ে লক্ষ টাকা পর্যন্ত ইনকাম করছে।

আর এই ইনকামের পথ আরও প্রসস্ত হয়েছে, ‘ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল ” এর জন্য। আপনি জানলে অবাক হবেন, বর্তমানে বাংলাদেশের প্রথম সাড়িতে থাকা সোশ্যাল মিডিয়া গুলো এখন ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলের সাথে যুক্ত হয়েছেন।

যেমন, প্রথম আলো, সময় টিভির মতো বড় মিডিয়া গুলো আজ এই ফিচারটি ব্যবহার করছে। 

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল কি?

ইনস্ট্যান্ট শব্দটির অর্থ হলো, ‘তাৎক্ষণিক’। ফেসবুক ব্যবহার করার সময় যদি কোনো লিংকে ক্লিক করা হয়। তাহলে অন্যান্য লিংকের তুলনায় এই ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল যুক্ত লিংক গুলো ১০ গুন বেশি স্পিডে কাজ করবে।

Facebook এর যেকোনো খবর যেন খুব তাড়াতাড়ি পড়া যায়। সেই সুবিধার কথা মাথায় রেখেই এই ফিচারটি যুক্ত করেছে। যা শুধুমাত্র মোবাইল ইউজাররা ব্যবহার করতে পারবেন।

ব্যবহারকারীরা যেন দীর্ঘ সময় ফেসবুকে ব্যয় করে। সেজন্য তাদের সুবিধার কথা চিন্তা করেই এমন ফিচার যুক্ত করেছে ফেসবুক।

আপনার জন্য আরো আর্টিকেল…

আগে ফেসবুকে কোনো নিউজ পড়ার জন্য শিরোনাম বা লিংকে ক্লিক করতে হতো। তারপর নতুন একটা ব্রাউজার Open হওয়ার পর আমরা সেই নিউজ পড়তাম।

কিন্তুু ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এমন একটি ফিচার। যার মাধ্যমে আপনি কোনো শিরোনাম বা লিংকে ক্লিক করার পর কোনো প্রকার বাধা ছাড়াই সাথে সাথে নিউজ Open হবে। এবং তার জন্য কোনো আলাদা Tab খুলতে হবে না।

এর ফলে ব্যবহারকারীদের নতুন করে এমবি খরচ করে, নতুন কোনো ব্রাউজারে যাওয়ার প্রয়োজন পড়বে না। পাশাপাশি ব্রাউজার দিয়ে কোনো লিংকে প্রবেশ করতে যে লোডিং টাইমের দরকার হয়।

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলে কোনো প্রকার লোডিং না নিয়ে, খুব দ্রুত গতিতে কোনো লিংক অপেন হবে। মূলত, ব্যবহারকারীরা যেন সুবিধা পায়, পাশাপাশি বিশ্বের বড় বড় নিউজ ওয়েবসাইট গুলো যেন আরও ফেসবুকমুখী হয়।

এবং বিজ্ঞাপনদাতারা যেন খুব সহজেই তাদের টার্গেটেড অডিয়্যান্স পায়। সেই জন্যই ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল নামক ফিচারটি চালু করেছে ফেসবুক।

কখন ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল চালু হয়?

২০১৫ সালের শুরুর দিকে মার্ক জাকারবার্গ বিশ্বের বড় বড় সংবাদ মাধ্যমগুলোকে লিংক শেয়ার (Instant Article) এর মাধ্যমে কন্টেন্ট পাবলিশ করার প্রস্তাব দেন।

যেখানে বিশ্বের প্রথম সাড়িতে থাকা নিউজ পাবলিশাররা অংশগ্রহণ করেছিলো ৷ তারমধ্যে হাফিংটন পোস্ট, ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক, নিউইয়র্ক টাইমস, বিবিসি ও বাজফিড সহো বেশ কিছু নিউজ সাইট  সরাসরি কন্টেন্ট পাবলিশ করার সুযোগ পেয়েছিলো।

পরবর্তীতে ফেসবুক এই ফিচারটিকে সর্ব সাধারনের জন্য উন্মুক্ত করার পরিকল্পনা করে। এবং ২০১৬ সালের ২২ শে এপ্রিল ফেসবুক অফিশিয়ালি জানিয়ে দেয় যে, “ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল” – ফিচারটি এখন থেকে সবার জন্য উন্মুক্ত।

এর সাথে আরও জানিয়ে দেয় যে,এই ফিচারটি শুধুমাত্র মোবাইল ইউজাররা ব্যবহার করতে পারবে। এরপরে শুধু বড় বড় নিউজ মিডিয়া নয়, বরং আপনার বা আমার মতো মানুগুলোর যাদের নিজস্ব ব্লগ বা ওয়েবসাইট আছে। তারাও এই ফিচারের সাথে যুক্ত হতে পেরেছে। 

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল চেনার উপায়

ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল যুক্ত কোনো লিংকে ক্লিক করার পর, সেই লিংকটি এতো দ্রুত অপেন হবে। আপনার মনেই হবে না যে আপনি ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন।

হয়তবা আপনার মনে হবে, কোনো মেমোরিতে থাকা একটি ফাইল বা ফোল্ডারকে অপেন করলেন। তবে প্রশ্ন হলো, কোনো লিংক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এর সাথে যুক্ত কিনা। তা আপনি কিভাবে বুঝতে পারবেন?

কোনো লিংক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলের সাথে যুক্ত কিনা। সেটি বোঝার জন্য একটি সহজ উপায় আছে। যে কোনো শেয়ার করা লিংকের ডানপাশে যখন একটি বিদ্যুতের (বজ্রপাতের) মতো চিহ্ন দেখতে পাবেন, বুঝে নেবেন সেটি ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল।

ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল যুক্ত কোনো লিংকে খুব দ্রুত গতিতে হাই রেজুলেশনের পিকচারকে জুম করতে পারবেন। এছাড়াও কোনো প্রকার বাধা ছাড়াই স্বয়ংক্রিয় ভাবে কোনো ভিডিওকে প্লে করতে পারবেন। 

ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এর সুবিধা ও অসুবিধা

মূলত ফেসবুক প্ল্যাটফর্মে ব্যবহারকারীরা যেন আরও বেশি ব্যয় করে। এবং নিউজ সাইটগুলো যেন আরও বেশি ফেসবুকের প্রতি আগ্রহ প্রকাশ করে। এই কারনেই Instant article এর ফিচার চালু করেছে ফেসবুক।

তবে আমার দৃষ্টিকোন থেকে এই ফিচারটি ব্যবহার করলে একদিকে ইউজাররা যেমন সুবিধা পাবে। অপরদিকে যারা কন্টেন্ট পাবলিশার, তাদের ক্ষেএে সুবিধার পাশাপাশি বেশ কিছু অসুবিধা পরিলক্ষিত হবে।

চলুন এবার জেনে নেয়া যাক, ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলের কিছু সুবিধা ও অসুবিধা সম্পর্কে। 

সুবিধা (ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল)

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলের বেশ কিছু সুবিধা রয়েছে। যেমন,

  • যেকোনো আর্টিকেল খুব দ্রুততার সাথে লোড হয়
  • সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো, যখন আপনি প্রথম আর্টিকেল থেকে Next আর্টিকেলে যাবেন। এরপর পুনরায় প্রথম আর্টিকেলে আসার জন্য কোনো প্রকার লোড নেয়ার প্রয়োজন পড়বে না। 
  • ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলে যুক্ত হওয়ার পরে,আপনার ওয়েবসাইটের Ranking এ কোনো প্রকার প্রভাব পড়বে না। 
  • ফেসবুক থেকে প্রচুর পরিমানে ভিজিটর গেইন করা যায়।
  • যেহুতু অন্যান্য লিংকের তুলনায় আপনার লিংক ১০ গুন বেশি স্পিডে কাজ করবে। সেহুতু আপনার FB CTR এর পরিমান অনেক গুন বেড়ে যাবে। 
  • আর যখন আপনার ভিজিটর বাড়বে। তখন বিজ্ঞাপন থেকে ইনকাম করার পরিমারও বেড়ে যাবে। 

অসুবিধা (ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল)

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলের সুবিধার পাশাপাশি বেশ কিছু অসুবিধা পরিলক্ষিত হয়। যেমন,

  • যেহুতু অন্যান্য লিংকের তুলনায় instant article যুক্ত লিংক গুলো ১০ গুন বেশি স্পিডে কাজ করবে। সেহুতু আপনার ওয়েবসাইটকে তারা এমনভাবে Simplify করবে যে,এর কারনে আপনার ওয়েবসাইটের অনেক গুলো প্লাগইন এবং উইজেড সঠিকভাবে কাজ করবে না। 
  • সবচেয়ে বড় সমস্যা হলো,এই ফিচারটি যুক্ত করার পর আপনার ওয়েবসাইটে তুলনামূলক অর্গানিক ভিজিটরের সংখ্যা অনেকটাই হ্রাস পাবে।
  • অর্থ্যাৎ আগে যেমন আপনার টার্গেড ছিলো সার্চ ইঞ্জিন থেকে ভিজিটর নিয়ে আসা।কিন্তুু এই ফিচারটি যুক্ত করার পর আপনার মূল টার্গেট হবে, ফেসবুক থেকে ভিজিটর নিয়ে আসা। 

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল সুবিধার পাশাপাশি বেশ কিছু অসুবিধাও বিদ্যমান রয়েছে। যদি আপনি আপনার ওয়েবসাইটকে এই ফিচারের সাথে যুক্ত করতে চান। তাহলে সবদিক বিবেচনা করার পর, কোনো সিন্ধান্ত গ্রহ করবেন। 

ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলে কিভাবে যুক্ত হওয়া যায়?

মাএ কয়েকটি পদ্ধতি অনুসরন করে আপনি আপনার ওয়েবসাইট কে ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এ যুক্ত করতে পারবেন। চলুন এবার সেই পদ্ধতি গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক। 

Step-1:

সর্বপ্রথম আপনাকে একটি ব্রাউজার অপেন করতে হবে। তারপর ব্রাউজারের সার্চ বারে গিয়ে টাইপ করুন, ‘https://instantarticles.fb.com‘. এরপর আপনি সরাসরি ফেসবুকের ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলের অফিশিয়াল ওয়েব পেজে চলে যাবেন। 

Step-2:

এরপর আপনাকে সাইন আপ করতে হবে। যখন আপনি Sign Up বাটনে ক্লিক করবেন। তখন পরবর্তী অপশনে আপনি আসলে কোন পেজের মাধ্যমে ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল লিংক শেয়ার করতে চান ৷ সেই পেজটি সিলেক্ট করতে বলবে। 

Step-3:

আপনি যেই পেজে এই ফিচারটি চালু করতে চান। আপনাকে সেই পেজটি সিলেক্ট করতে হবে। এরপর একটু নিচের দিকে তাকালেই দেখতে পারবেন ফেসবুকের Terms and conditions এর একটি চেক বক্স রয়েছে। আপনাকে সেই বক্সটিতে টিক মার্ক দিয়ে কন্টিনিউ করতে হবে। 

Step-4:

এ পর্যন্ত আপনার কাজ মোটামুটি হয়ে যাবে ৷ এরপর আপনি সরাসরি আপনার ফেসবুক পেজে চলে যাবেন। তারপর Publishing Tools নামের একটি অপশন দেখতে পারবেন। আপনাকে সেই অপশনে ক্লিক করতে হবে। 

Step-5:

Publishing Tools এ ক্লিক করার পর,বাম পাশের নিচের দিকে ‘ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল ‘- নামের নতুন একটি অপশন দেখতে পারবেন। আপনাকে সেই অপশনে ক্লিক করে কন্টিনিউ করতে হবে। 

Step-6:

এরপর কনফিগার নামের একটি নতুন অপশন দেখতে পারবেন। আপনাকে সেই অপশনে ক্লিক করতে হবে। তারপরে ‘Authorize Your Site’ এই অপশনে ক্লিক করতে হবে। 

Step-7:

এই অপশনে ক্লিক করার পর একটু নিচের দিকে স্ক্রল করলে নতুন একটা বক্স দেখতে পারবেন। আপনাকে সেই বক্সে আপনার ওয়েবসাইটের লিংক (domain link) দিতে হবে। 

[Note] এরপরের কাজ গুলো একটু মনোযোগ দিয়ে করবেন। কারন যারা একেবারে নতুন তারা এই পর্যন্ত আসার পরে কিছু বুঝতে পারেনা৷ তাই তাদেরকে এই পর্যন্ত আসার পরে চলে যেতে হয়।

Step-8:

যদি আপনার ওয়েবসাইটটি ওয়ার্ডপ্রেস হয় এবং আপনি সেই ওয়েবসাইটকে Instant article এ যুক্ত করতে চান। তাহলে আপনাকে “facebook instant article” নামের একটি Add ons যুক্ত করতে হবে। এবং এই এডস অনে আপনার ওয়েবসাইটের url বসিয়ে সাবমিট করতে হবে। 

Step-9:

আর যদি আপনার ওয়েবসাইট টি Html এর হয়ে থাকে। তাহলে আপনি এই কাজটি খুব সহজেই করতে পারবেন। আপনাকে শুধু ওয়েবসাইটের url বসিয়ে দেয়ার পর ক্লেইম করতে হবে।

তবে যদি আপনি ক্লেইম করতে না পারেন ৷ সেক্ষেএে আপনার সাইটের ডেভলোপারকে দিয়ে সেই কাজটি করিয়ে নিতে পারবেন। 

Step-10:

যখন আপনি সঠিকভাবে এই কাজ গুলো করতে পারবেন। তখন আপনার ওয়েবসাইটে যতোগুলো আর্টিকেল পাবলিশ করা হয়েছে। সেই সবগুলো আর্টিকেল অটোমেটিক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলে যুক্ত হয়ে যাবে। 

রিভিউ করতে কতদিন সময় লাগবে?

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এর জন্য আপনার ওয়েবসাইট কে সাবমিট করার পর৷ ঠিক কতদিন পরে আপনার রিভিউকে একসেন্ট করবে। তা সঠিকভাবে বলা সম্ভব নয়।

তবে সাধারণত রিভিউ করতে ২-৩ দিন পর্যন্ত সময় লাগে৷ কিন্তুু অনেক ক্ষেএে দেখা যায় ৭-৮ দিন পর্যন্ত সময় লাগতে পারে। 

তবে এখানে একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো, যদি রিভিউ করার পর ফেসবুক আপনার রিকুয়েষ্টকে রিজেক্ট করে দেয়। তাহলে ভুল করেও সাথে সাথে পুনরায় Instant article জন্য এপ্লাই করবেন না।

যদি আপনার রিভিউকে ফেসবুক রিজেক্ট করে দেয়। তাহলে পুনরায় আপনার ওয়েবসাইটতে খোজার চেস্টা করুন যে কেন আপনার রিভিউকে ফেসবুক রিজেক্ট করলো।

এরপর পুনরায় আপনার ওয়েবসাইটে নতুন নতুন আর্টিকেল যুক্ত করুন। সাইটে কোনো সমস্যা থাকলে সেটির সমাধান করুন। তারপর পুনরায় ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলের জন্য Apply করবেন। 

ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল থেকে ইনকাম করতে কি কি লাগবে?

এটা সত্য যে ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল থেকে প্রচুর পরিমানে ইনকাম করা যায়। কিন্তুু ইনকাম করার আগে আপনার  কাছে ২(দুই) টি জিনিস থাকতে হবে।যথাঃ 

  1. একটি ফেসবুক ফ্যান পেজ
  2. একটি ওয়েবসাইট 

হুমম যদি আপনি ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল থেকে ইনকাম করতে চান। তাহলে সর্বপ্রথম আপনার কাছে একটি Facebook Page থাকতে হবে। এর পাশাপাশি আপনার একটি ওয়েবসাইট থাকতে হবে।

তবে এখন প্রশ্ন হলো, শুধু কি ফেসবুক পেজ আর ওয়েবসাইট থাকলেই কি আপনি ইনকাম করতে পারবেন?  -এ প্রশ্নের উওরে বলবো, না! শুধু আপনার ফেসবুক পেজ বা ওয়েবসাইট থাকলেই আপনি ইনকাম করতে পারবেন না।

যদি আপনি ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল থেকে ইনকাম করতে চান। তাহলে আপনাকে কিছু টার্মস এন্ড কন্ডিশন মানতে হবে। কিছু কিছু বিষয় আছে যেগুলো আপনার ওয়েবসাইটে বিদ্যমান থাকতে হবে।

এবার সেই বিষয় গুলো সম্পর্কে আলোচনা করবো। 

Facebook Fan Page For Instant Article 

আপনি এতোক্ষনে জেনে গেছেন যে, ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এপ্রুভাল পেতে হলে, সর্বপ্রথম আপনার একটি ফেসবুক পেজ থাকতে হবে। কিন্তুু প্রশ্ন হলো, শুধু একটি ফেসবুক পেজ থাকলেই কি সেই পেজে Instant Article Approval পাওয়া সম্ভব?

না, কয়েক বছর আগে যেকোনো একটি ফেসবুক পেজ থাকলেই সেই পেজে এপ্রুভাল পাওয়া যেত। কিন্তুু ফেসবুক অফিশিয়ালি কোনো কিছু না বললেও বর্তমানে নতুন পেজে এপ্রুভাল পাওয়া বেশ কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে।

অপরদিকে আপনার ফেসবুক পেজটি কতদিনের জন্য পুরাতন হতে হবে। সে বিষয়েও ফেসবুক ষ্পষ্ট কোনো ধারনা দেয়নি।তবে আমার দৃষ্টিকোন থেকে আপনার ফেসবুক পেজটি কয়েক মাসের পুরোনো হলে ভালো হয়।

আপনি আরো পড়ুন…

তাহলে আর এপ্রুভাল পেতে কোনোরকম বেগ পেতে হবেনা। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো, আপনার সেই FB Page টিতে বেশ জনপ্রিয় হতে হবে। অর্থ্যাৎ আপনার পেজে যথেষ্ট Followers থাকতে হবে।

তবে এটা ভাববেন না যে, পেজে ফলোয়ার না থাকলে ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এপ্রুভাল পাওয়া যায়না। আপনার ফেসবুক পেজে ফলোয়ারের সংখ্যা কম থাকলেও আপনি Approval পাবেন ৷ কিন্তুু আপনার পেজে হিউচ পরিমানে ফলোয়ার থাকলে আপনিই তার বেনিফিট পাবেন।

যেমন, যখন আপনি আপনার ওয়েবসাইট কে ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলে যুক্ত করবেন। তখন আপনার ওয়েবসাইটের Ranking ঠিক থাকলেও, আপনার অর্গানিক ভিজিটর অনেক অংশে কমে যাবে।

সেহুতু আপনাকে আপনার ফেসবুক পেজের ফলোয়ারের উপর ডিপেন্ড করবে যে আপনার ওয়েবসাইটে আসলে কি রকম ভিজিটর গেইন করতে পারবেন।

এখন আপনার ফেসবুক পেজে যদি ফলোয়ার বেশি থাকে। তাহলে আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর বেশি থাকবে। আর অপরদিকে আপনার ইনকামের পরিমানও বৃদ্ধি পাবে। 

Website For Instant Article

আরেকটি বিষয় হলো, আমি আর্টিকেলের শুরুতে বলছি যে, Instant Article Approval পেতে হলে আপনার একটি ওয়েবসাইট থাকতে হবে। তবে এখন প্রশ্ন হলো, যেকোনো ওয়েবসাইটে কি এপ্রুভাল পাওয়া সম্ভব?

উওরে বলবো, -না! আপনি চাইলে যেকোনো ধরনের ওয়েবসাইটে এপ্রু্ভাল পাবেন না। আপনার ওয়েবসাইট টি অবশ্যই ফেসবুক পলিসির সাথে ম্যাচিং হতে হবে।

যদি আপনার ওয়েবসাইট ফেসবুক পলিসির বাইরে থাকে। তাহলে এপ্রুভাল পাওয়া বেশ কষ্টকর হবে। তবে আপনার ওয়েবসাইট যদি ফেসবুকের সকল পলিসি মেনে কাজ করে। তাহলে আপনি খুব দ্রুত এপ্রুভাল পাবেন।

তো ফেসবুকের সকল পলিসির মধ্যে কমন একটি পলিসি হলো, ইউনিক আর্টিকেল। হ্যাঁ! আপনি গুগল এডসেন্স থেকে এপ্রুভাল নিতে চান কিংবা ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এপ্রুভাল নিতে চান ৷ সব জায়গাতে এটি একটি কমন রিকোয়ারমেন্ট।

ফেসবুকের রুলস অনুযায়ী, আপনার ওয়েবসাইটে কমপক্ষে ১০-১২ টি ইউনিক আর্টিকেল পাবলিশ থাকতে হবে। কারন ফেসবুক অফিশিয়ালি জানিয়ে দিয়েছে যে, যখন কেউ তাদের পার্টনার প্রোগ্রামে অংশনগ্রহন করার জন্য Apply করবে।

তখন ফেসবুক কর্তৃপক্ষ প্রথমে সেই ওয়েবসাইটের আর্টিকেলকে ম্যানুয়ালি রিভিউ করবে। সেজন্য আপনার ওয়েবসাইটে কমপক্ষে ১০-১২ টি আর্টিকেল থাকতে হবে।

এছাড়াও আপনার পাবলিশ করা সেই আর্টিকেল গুলো অবশ্যই লিগ্যাল ক্যাটাগরির আওতায় থাকতে হবে। যেমন আপনি যদি ১৮ (এডাল্ট) কন্টেন্ট, সহিংসতা পূর্ন কোনো কন্টেন্ট পাবলিশ করেন। সেক্ষেএে আপনি ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলের এপ্রুভাল পাবেন না।

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলের শর্ত কি?

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলে যুক্ত হতে হলে আপনাকে বেশ কিছু শর্ত মানতে হবে। আপনি চাইলে সেই শর্ত গুলো এখানে ক্লিক করেও জেনে নিতে পারবেন।

কিন্তুু সেই শর্তগুলো ইংরেজিতে আছে। যার কারনে অনেকেই সেই শর্তগুলো সম্পর্কে সঠিকভাবে বুঝতে পারবে না। তাই আপনার সুবিধার কথা মাথায় রেখে আমি যথাসাধ্য চেস্টা করবো, সেই শর্তগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করার।

তো আমি সবগুলো শর্তকে দুইটি ভাগে ভাগ করেছি। যথাঃ

  1. Content Policies 
  2. Facebook Page Policies 

যদি আপনি ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলে যুক্ত হতে চান। তাহলে অবশ্যই আপনাকে এই পলিসি গুলো মেনে চলতে হবে। তাই এই পলিসি গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেয়া উচিত। 

Policies For Content

আপনি আপনার ওয়েবসাইটে যে কন্টেন্ট গুলো পাবলিশ করবেন। সেই কন্টেন্টের উপর ভিওি করে ফেসবুক কিছু পলিসি তৈরি করেছে। যেমন,

  • আপনার পাবলিশ করা কন্টেন্ট গুলো সম্পূর্ন ইউনিক হতে হবে। এবং এর পাশাপাশি আপনার ওয়েবসাইটের সম্পূর্ণ কন্ট্রোল আপনার হাতেই থাকতে হবে। 
  • আপনার ওয়েবসাইটে কোনো প্রকার ইস্যু থাকা যাবে না। যেমন,  multiple broken links, duplicative or minimal content, or that use placeholder content. 
  • আরেকটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো, আপনার ওয়েবসাইটটি একেবারে নতুন হলে। আপনি সেই ওয়েবসাইটে ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এপ্রুভ করতে পারবেন না।  
  • এমন অনেক ওয়েবসাইট যেসব সাইটে Account না থাকলে, সেই ওয়েবসাইটের কোনো পোষ্ট পড়া যায়না। যদি আপনার সাইটে সেরকম কিছু থাকে। তাহলে আপনি Instant Article এপ্রুভাল পাবেন না। 
  • আপনার সাইটে যদি অপ্রাসংঙ্গিক আর্টিকেল পাবলিশ করা থাকে।তাহলে আপনার ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এপ্রুভাল হবে না। যেমন, content that is illegal, misleading or deceptive, or that promotes regulated goods, personal health articles,sexual tips or fetishes, casual dating, violence, hacking or cracking, weapon sales, online real money games.

Policies For Facebook Page

আপনি যে ফেসবুক পেজের মাধ্যমে Instant article approval নিতে চান। সেই পেজে অবশ্যই ফেসবুকের দেয়া নিয়ম মেনে কাজ করতে হবে। যেমন, 

  • সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো, ownership. অর্থ্যাৎ আপনি যে পেজের মাধ্যমে ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলের জন্য এপ্রুভাল নিতে চান। সেই পেজের সম্পূর্ন কন্ট্রোল আপনার হাতে থাকতে হবে। 
  • আপনার ওয়েবসাইটকে উক্ত ফেসবুকের সাথে যুক্ত করতে হবে। সেক্ষেএে ফেসবুক পেজের about অপশনে আপনার ওয়েবসাইটের লিংকটি add থাকলেই যথেষ্ট। 
  • আপনার ওয়েবসাইটে যে আর্টিকেল গুলো পাবলিশ করা আছে। সেই আর্টিকেলের লিংক গুলো আপনার ফেসবুক পেজে শেয়ার থাকতে হবে। 
  • আপনার ফেসবুক পেজটি অবশ্যই পুরাতন হতে হবে। নতুন কোনো ফেসবুক পেজে ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এপ্রুভাল পাবেন না। 

তো এগুলো ছাড়াও আরও কিছু শর্ত আছে৷ তবে আমি মূল শর্তগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। আপনি চাইলে উপরে দেওয়া লিংক থেকে সম্পূর্ণ বিষয় গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন। 

ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল থেকে কত টাকা আয় করা সম্ভব?

আপনি ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল থেকে মোট কত টাকা ইনকাম করতে পারবেন। সে বিষয়ে একটু পরে আসছি। তার আগে জেনে নিন, ফেসবুক আপনাকে কোন পদ্ধিতে উপার্জন করতে পারবেন।

দেখুন ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলে আয়ের মূল উৎস হলো বিজ্ঞাপন প্রচার ৷ অর্থ্যাৎ বিজ্ঞাপন দাতারা তাদের Ad এর জন্য যে পরিমান টাকা ফেসবুককে দিবে। তার মধ্যে কিছু পরিমান অর্থ কন্টেন্ট ক্রিয়েটরদের সাথে শেয়ার করবে ফেসবুক।

তবে জানার বিষয় হলো যে, এই বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য ফেসবুক আপনাকে কত টাকা দিবে? 

তাহলে শুনুন, ফেসবুক তাদের কন্টেন্ট ক্রিয়েটরদের 1.5$ থেকে 4$ CPM পর্যন্ত রেভিনিউ শেয়ার করে। তবে মনে রাখবেন, আপনাকে কি পরিমান রেভিনিউ শেয়ার করবে। তা সম্পূর্ন নির্ভর করবে আপনি কোন দেশ থেকে ভিজিটর আনবেন তার উপর।

আপনার টার্গেট যদি উন্নত দেশ যেমন, Us/Uk এর মতো দেশ গুলো হয়। তাহলে আপনার দৈনিক ১০০$ ইনকাম করা অসম্ভব কিছু নয়।

তারমানে এটা ভাববেন না যে, আপনার টার্গেট বাংলাদেশের ভিজিটর হলে আপনি ইনকাম করতে পারবেন। হ্যাঁ! বাংলাদেশি ভিজিটর থাকলেও আপনি প্রচুর পরিমান ইনকাম করতে পারবেন। তবে সেজন্য আপনাকে প্রচুর পরিমান ভিজিটর আনতে হবে।

বাংলাদেশে এমন অনেক কন্টেন্ট পাবলিশার আছেন, যারা মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ইনকাম করছে। উদাহরন হিসেবে ‘প্রথম আলো’- অনলাইন নিউজ পোর্টালের দিকে তাকালেই বুঝতে পারবেন।

তারা কি পরিমানে ইনকাম করছে যা শুনলে আপনি রিতীমতো অবাক হবেন। 

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল থেকে কিভাবে টাকা তুলবো?

এবার আসা যাক মূল বিষয়ে। সেটি হলো আপনি ফেসবুকের ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলে যুক্ত হওয়ার পর যে টাকা ইনকাম করবেন। সেই টাকা গুলো আপনি কিভাবে উওলন (Withdraw) করবেন।

দেখুন যখন আপনি ফেসবুকের সকল টার্মস এন্ড কন্ডিশন মেনে কাজ করবেন। তখন ফেসবুক থেকে আপনি বিপুল পরিমানে ইনকাম করতে পারবেন।

আপনার উপার্জিত এই টাকা গুলো আপনি আপনার ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে উওলন করতে পারবেন। সেক্ষেত্রে আপনার নিজস্ব একটি ব্যাংক একাউন্ট থাকতে হবে। যদি আপনার আগে থেকেই কোনো ব্যাংক একাউন্ট থাকে।

তাহলে তো কোনো সমস্যা নেই। কিন্তুু যদি না থাকে, তাহলে নতুন করে কোনো ব্যাংকে একাউন্ট খুলতে হবে। তবে আপনি যখন Bank Account খুলবেন।

তখন সেই ব্যাংকের কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা করবেন যে, সেই একাউন্ট দিয়ে আপনি ফেসবুক থেকে উপার্জিত টাকা লেনদেন করতে পারবেন কিনা।  কারন, অনেক সময় ব্যাংকের বিভিন্ন ঝামেলার সম্মুখীন হতে হয়। যার কারনে তারা পেমেন্ট হোল্ড করে রাখে।

যখন আপনার Bank Account এর যাবতীয় তথ্য ফেসবুকে সাবমিট করবেন। তখন আপনার ইনকাম ১০০$ হওয়া মাএই আপনি তা উইথড্র করতে পারবেন। 

গুগল এডসেন্স আর ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল কি এক?

মূলত যারা আগে থেকেই গুগল এডসেন্স ব্যবহার করে থাকেন ৷ তাদের মনে এই প্রশ্নটি জাগতে পারে যে, Google AdSense কি এক নাকি আলাদা। আমি এই প্রশ্নের উওরে বলবো, হ্যাঁ এবং না।

অর্থাৎ কিছু কিছু ক্ষেএে এই দুটোর মিল থাকলেও, বেশ কিছু ক্ষেএে অমিল দেখা যায়। যদি আপনি এই দুটোর মধ্যে মিল খুজতে চান, তাহলে একটু লক্ষ্য করলেই দেখতে পারবেন। এই দুটো প্ল্যাটফর্মের মূল কাজ হলো ক্রিয়েটরদের দিয়ে বিজ্ঞাপন প্রচার করা।

এবং উক্ত বিজ্ঞাপন থেকে কিছু পরিমান রেভিনিউ কন্টেন্ট ক্রিয়েটরদের সাথে শেয়ার করা। আবার, গুগল এডসেন্সে কাজ করার পর ১০০$ হওয়া মাএই আপনি তা উইথড্র করতে পারবেন।

অপরদিকে আপনি ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল নিয়ে কাজ করার পর ১০০$ ডলার হওয়া মাএই আপনি তা উওলন করতে পারবেন। এই দুটো প্ল্যাটফর্মের মূল কাজ হলো, ভিজিটরদের সর্বোচ্চ সুযোগ সুবিধা প্রদান করা।সেই সাথে কন্টেন্ট ক্রিয়েটরদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে কাজ করা।

অবশ্যয় পড়ুন…

কিন্তুু প্রশ্ন হলো যে, এই দুটো প্ল্যাটফর্মের মধ্যে তফাৎ কোথায়? এদের মধ্যে পার্থক্য কি?

দেখুন, ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলের মূল শর্ত হলো, আপনার ওয়েবসাইটে আর্টিকেল পাবলিশ করার পাশাপাশি। সেই আর্টিকেল গুলোকে অবশ্যই ফেসবুক পেজে শেয়ার করতে হবে।

এবং আপনার শেয়ার করা লিংক থেকে যে ভিজিটর গুলো আসবে। শুধুমাএ সেইসব ভিজিটররা Instant Article এর সুযোগ সুবিধা ভোগ করতে পারবে।

অপরদিকে গুগল এডসেন্স নিয়ে কাজ করলে ঠিক তার উল্টোটা করতে হবে। শেয়ার করা লিংক থেকে ভিজিটর এর চেয়ে অর্গানিক ভিজিটরকে সবচেয়ে বেশি প্রাধান্য দেয় গুগল।

আর এজন্যই আমি বলছি যে, গুগল এডসেন্স ও ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলের মধ্যে বেশ কিছু ক্ষেএে মিল এবং অমিল রয়েছে। 

আমাদের শেষকথা

“ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল “- আসলে কি!  আশা করি এই স্বল্প আলোচনা থেকে তা বুঝতে পেরেছেন। আর এতক্ষণে এটাও বুঝতে পেরেছেন যে, ফেসবুকের এই নতুন ফিচার থেকে কি পরিমানে ইনকাম করা সম্ভব।

যদি আপনি এই সেক্টরে নতুন হয়ে থাকেন, কিংবা ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলে যুক্ত হতে চাচ্ছেন। তাহলে আপনাকে স্বাগতম। কেননা আপনি যদি লিগ্যাল ওয়েতে কাজ করে থাকেন৷ তাহলে আপনার ইনকাম করার দায়িত্ব সম্পূর্ন ফেসবুক বহন করবে।

আপনার প্রয়োজন শুধু তাদের সকল রুলস মেনে কাজ করা। যেখানে বিশ্বের প্রথম সাড়িতে থাকা মিডিয়া গুলো যদি ” ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল”- এর সাথে যুক্ত হতে পারে।

সেখানে আপনি কেন পিছিয়ে থাকবেন! তো ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল সম্পর্কে যদি আপনার কোনো কিছু জানার থাকে। কিংবা কোথাও না বুঝে থাকেন৷ তাহলে এই আর্টিকেলে অবশ্যই তা কমেন্ট করে জানাবেন।

আমি যথাসাধ্য চেস্টা করবো আপনার সমস্যার সমাধান করার জন্য। আজ আর নয়, দেখা হবে পরবর্তী আর্টিকেলে। সে পর্যন্ত সুস্থ থাকুন, ভালো থাকুন। হ্যাপি ফেসবুকিং।

আমি নিলয় হাসান-এই ব্লগের প্রতিষ্ঠাতা পাশাপাশি লেখালেখির কাজটাও করি। অনলাইনে প্রযুক্তির বিষয় নিয়ে যা জানি তা মানুষের মাঝে শেয়ার করার ইচ্ছায় এ ব্লগ টি তৈরি করা।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: কপি করা যাবে না !!
Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap