রাউটার কি ? Router এর কাজ কি এবং দাম কত টাকা ?

রাউটার কি : আপনি হয়তবা জেনে থাকবেন যে, বর্তমানে ২০ জন মানুষ এর মধ্যে প্রায় ১৫ জন মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করে ৷

রাউটার কি ? Router এর কাজ কি এবং দাম কত টাকা ?
রাউটার কি ? Router এর কাজ কি এবং দাম কত টাকা ?

আর এই সময়ে এসেও যদি আপনি রাউটার কি (Router কি)  তা না জানেন।

তাহলে আপনাকে খোলা মাঠে নয়, বরং আপনাকে জাদুঘরে রেখে দেয়া উচিত (কথাটা মজা করেই বলা)।  তবে, এখন শুধু শহর বন্দরে নয়।

এখন প্রত্যন্ত অঞ্চল গুলোতেও রাউটার এর জনপ্রিয়তা ক্রমাগত বৃদ্ধি পাচ্ছে। কেননা, Router হলো এমন এক ধরনের ইন্টারনেট হার্ডওয়্যার।

যার মাধ্যমে আপনি অনেক দ্রুততার সাথে অনলাইন প্লাটফর্মে আপনার প্রয়োজনীয় ডাটা গুলো আদান প্রদান করতে পারবেন।

আপনার জন্য আরো লেখা…

শুধু তাই নয়, আপনি যদি রাউটার ব্যবহার করেন। তবে আপনাকে আর প্রতি মাসে Data Pack নিয়ে ভাবতে হবেনা ৷

কারন, এই ছোট ছোট সমস্যা গুলোকে নিমিষেই দুর করার জন্য। Router এর ভূমিকা অপরিসীম।

তাই আজকে আমি আপনাকে রাউটার সম্পর্কে পূর্নাঙ্গ ধারনা দেয়ার চেস্টা করবো। মূলত, রাউটার কি (What Is Router in Bangla),

রাউটারের কাজ কি, রাউটার ব্যবহারের নিয়ম গুলো কি কি। এবং রাউটার এর দাম কত।

এ সব গুলো বিষয় নিয়ে আজকে বিস্তারিত ভাবে কথা বলবো।

আপনি যদি এসব বিষয়ে জানতে চান। তবে এই পুরো লেখাটি মন দিয়ে পড়ুন ৷ 

রাউটার কি বা রাউটার কাকে বলে ? 

যদি আপনি স্বল্প আকারে জানতে চান যে, রাউটার কি বা রাউটার কাকে বলে ৷ তাহলে বলবো যে, Router হলো এক প্রকার নেটওয়ার্ক হার্ডওয়্যার।

যা আপনার হাতে থাকা ডিভাইস যেমন, মোবাইল অথবা কম্পিউটার এর সাথে সংযুক্ত করা থাকবে।

এবং সেই ডিভাইসে যেন ইন্টারনেট ব্যবহার করা যায় ৷ সেই কাজে যথেষ্ট ভূমিকা পালন করবে।

এই রাউটার মূলত Internet protocol এর মাধ্যমে কাজ করে থাকে। যেখানে আপনার একটা নির্দিষ্ট আইপি (IP) থাকবে। আর সেই আইপির আওতায় আপনি অনলাইন এর যাবতীয় কাজ করতে পারবেন।

এবং ইন্টারনেটে যেকোনো ধরনের Data স্থানান্তর করতে পারবেন।

আর কেউ যদি আপনাকে জিজ্ঞেস করে যে, রাউটার কি। তাহলে আপনি উপরের সংঙ্গাটি ব্যবহার করতে পারবেন ৷ 

What Is Router in Bangla?

তবে রাউটার কি, এর উওরটা কে যদি আরেকটু সংঙ্গায়িত করা যায়। তবে উওরটা কিন্তুু একটু আলাদা হবে। কারন, আপনি যদি রাউটারকে একটি Electronics Device বা External Hardware বলেন ৷

তাহলেও কিন্তুু কোনো রকম ভুল হবেনা। কারন, এটি হলো এমন এক ধরনের উন্নত ডিভাইস।

যাকে আপনি একইসাথে অধিক ডিভাইস এর সাথে আলাদা আলাদা করে Connected করতে পারবেন।

রাউটার নামক এই জনপ্রিয় ডিভাইসের প্রথম উৎস তৈরি হয়েছিলো ১৯৭৪ সালে ৷ আর সেই সময়ে এই ধরনের উন্নত ডিভাইসটি কে ডেভলপ করা হয়েছিলো।

আর ডেভলপ করার সময় মূলত রাউটার এর মধ্যে দুই ধরনের বৈশিষ্ট নজরে পড়ে৷ একটি হলো, তার সংযুক্ত রাইটার (Wire Router)  এবং অন্যটি হলো তারহীন রাউটার (Wireless Router).

যাকে আমরা সবাই Wifi Router বলে থাকি। 

রাউটার কত প্রকার ও কি কি? (Types Of Router)

রাউটার কি (What Is Router in Bangla) যখন আপনি এই প্রশ্নের উওর জানবেন। তখন আপনাকে আরও একটি বিষয়ে ধারনা রাখতে হবে।

সেটি হলো, রাউটার কত প্রকার। এবং মোট কত প্রকার রাউটার (Kind Of Router) আপনি নিজে ব্যবহার করতে পারবেন।

তো চলুন এবার জেনে নেয়া যাক, রাউটার কত প্রকার ও কি কি?

সত্যি বলতে, আজকের দিনে আপনি নানা ধরনের রাউটার দেখতে পারবেন। যেগুলো ভিন্ন ভিন্ন মানুষ আলাদা কাজে ব্যবহার করে থাকে ৷

তবে এবার আপনাকে এমন কিছু রাউটার এর সাথে পরিচয় করিয়ে দিবো। যেগুলো আজকের দিনে জনপ্রিয়তার শীর্ষে অবস্থান করে আছে। যেমনঃ 

০১| Broadband Router 

ব্রডব্যান্ড রাউটার এর বিশেষ কিছু গুন আছে। তার মধ্যে অন্যতম হলো, Broadband Router এর সাহায্য এক বা একাধিক কম্পিউটার এর সাথে কানেক্ট করা সম্ভব।

আর যখন আপনি একইসাথে অনেক কম্পিউটার এ internet Connection দিবেন ৷ তখন এই ধরনের রাউটার গুলো আপনার অনেক কাজে আসবে ৷

আর সেই কারনে আজকের দিনে এগুলো প্রচুর পরিমানে ব্যবহার করা হচ্ছে। 

এই সুবিধার পাশাপাশি আপনি ব্রডব্যান্ড রাউটার এর আরও একটা বিশেষ সুবিধা দেখতে পারবেন ৷ সেটি হলো, আপনি যদি এই ধরনের Router ব্যবহার করেন।

তাহলে আপনি অনেক দ্রুতগতির ইন্টারনেট কানেকশন ব্যবহার করতে পারবেন। কারন এগুলো মূলত Wired Based হয়ে আপনার মডেম এর সাথে কানেক্ট হবে।

আর তারপর থেকে আপনি আপনার নির্দিষ্ট এড়িয়াতে থাকা কম্পিউটার বা মোবাইলে internet কানেকশন দিতে পারবেন।  

০২| Wireless Router 

বর্তমান সময়ে মার্কেটে থাকা অন্যান্য রাউটার এর মধ্যে Wireless Router হলো অন্যতম। যার মাধ্যমে আপনি কোনো তারের সংযোগ ছাড়াই নির্দিষ্ট ডিভাইসে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন ৷

আর সবচেয়ে মজার বিষয় হলো। আপনি যেটুকু এড়িয়া নির্ধারন করে দিবেন। শুধুমাত্র সেই এড়িয়াতে থাকা কম্পিউটার বা মোবাইল দিয়ে। ইন্টারনেট ব্যবহার করা যাবে।

এই ধরনের Wireless Router গুলো আপনি সুবিধামতো স্থানে ব্যবহার করতে পারবেন। যেমন আপনি চাইলে শপিং মল, অফিস আদালত কিংবা স্কুল-কলেজের নির্দিষ্ট এড়িয়াতে ব্যবহার করতে পারবেন ৷

মজার বিষয় হলো, এই তারবিহীন রাউটার কেউ যদি ব্যবহার করতে চায়। তাহলে অবশ্যই আপনার Router users permission নিতে হবে।  

০৩| Core Routers 

যখন বৃহৎ আকারের জায়গাতে একই IP সংযুক্ত রাউটার এর দরকার হয়। তখন Core Routers হবে তাদের জন্য উপযুক্ত একটি রাউটার ৷

কেননা, এর মাধ্যমে আপনি আপনার পছন্দ অনুযায়ী স্থানে। সেম আইপি দিয়ে কানেক্ট করতে পারবেন ৷ চলুন বিষয়টা আরেকটু সহজ করে জেনে নেয়া যাক।

মনে করুন, আপনার একটা বড় ধরনের শপিংমল আছে। এখন সেই মলের প্রত্যেকটা দোকানে আলাদা আলাদা করে Router সেট করা আছে।

আপনি আরো দেখতে পারেন…

কিন্তুু আপনি সবগুলো দোকানের রাউটার কে একই আইপির সাথে কানেক্ট করে। আপনার নিকট থাকা রাউটার এর মধ্যে যুক্ত করে দিলেন।

এই ধরনের রাউটার বেশিরভাগ সময় স্বল্প Wifi Business এর কাজে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। 

What Kind Of Routers is available? 

উপরের ৩ প্রকার ছাড়াও আপনি আরও অনেক ধরনের রাউটার দেখতে পারবেন। আর আপনার সময় বাঁচানোর জন্য। আমি সবগুলো রাউটারকে সংক্ষেপে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছি। সেগুলো হলো, 

  • Broadband Routers 
  • Wireless Routers 
  • Core Routers 
  • Edge Routers 
  • Inter Provider Board Routers 

তো আজকের দিনে যেসব রাউটার জনপ্রিয় হয়ে আছে। সেগুলোর সাথে আমি আপনাকে বর্ননা সহো পরিচয় করিয়ে দেয়ার চেস্টা করেছি ৷

এখন আপনি এগুলোর মধ্যে যে রাউটার টি ভালো লাগবে ৷ সেটি আপনি নিজের কাজের সুবিধার ক্ষেএে ব্যবহার করতে পারবেন। 

রাউটারের কাজ কি?

আর্টিকেল এর শুরু থেকে আপনি রাউটার রিলেটেড অনেক অজানা বিষয় জানতে পেরেছেন। যেমন, সবার শুরুতে আপনি জেনেছেন, রাউটার কি (what is router in Bangla).

তারপর জেনেছেন, রাউটার কত প্রকার ও কি কি। তো এগুলো জানার পাশাপাশি আপনাকে আরও একটি বিষয়ে জানতে হবে। সেটি হলো, রাউটার এর কাজ কি

রাউটার মূলত দারুন একটি কাজ করে। সেটি হলো এরা Internet Connection কে এক স্থান থেকে। অন্য একটি স্থানের রাউটারে ট্রান্সফার করে দেয়।

আর সে কারনে আমরা নিজের বাড়ি থেকে wifi দিয়ে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারি। আশা করি, রাউটারের কাজ কি। সে সম্পর্কে একটা পরিস্কার ধারনা পেয়ে গেছেন। 

রাউটার কেন ব্যবহার করা হয়? 

উপরে আপনি রাউটারের কাজ সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। এবার আপনি জানতে পারবেন, রাউটার কেন ব্যবহার করা হয়। কারন, পৃথিবীতে সৃষ্ট প্রতিটি বস্তুুই কোনো না কোনো উদ্দেশ্য নিয়ে তৈরি করা হয়েছে।

ঠিক তেমনিভাবে রাউটার বিভিন্ন রকমের কাজে ব্যবহার করা হয়। আর সেই কাজ গুলোকে এবার ধাপে ধাপে আলোচনা করার চেস্টা করবো। 

01| ISP (Internet service provider) 

আমরা ব্যক্তিগত ভাবে যেসব দোকান থেকে ওয়াইফাই কানেকশন কিনে নেই। তাদেরকে বলা হয়, ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার।

এরা মূলত তাদের ডাটা কানেকশন কে রাউটার এর মাধ্যমে Data Connect করে। যার ফলে আমাদের নিজের কাছে থাকা Router এর সাহায্যে তাদের কানেকশন এর সাথে কানেক্ট হতে পারি।

আর সে কারনে ISP দের রাউটার ব্যবহার করা অতি গুরুত্বপূর্ণ। 

02| Easy Data Control 

মনে করুন, আপনার একটি বড় ধরনের শপিংমল কিংবা একটি অফিস আছে ৷ এখন আপনার অফিসে অনেক গুলো রুম আছে।

এই সময়ে আপনি, প্রতিটা ফ্লোরে আলাদা আলাদা রাউটার দিয়ে ডাটা কানেক্ট করতে পারবেন ৷ এবং এই সমস্ত রাউটারকে আপনি নিজের রুম থেকে কন্ট্রোল করতে পারবেন।

আর সেজন্যই এটিকে Easy to control বলা হয়ে থাকে। 

পকেট রাউটার কি?

যেহুতু আজকের আর্টিকেলে আপনি রাউটার কি  (router  ki) জানতে এসেছেন ৷ সেহুতু আপনার আরও একটি নতুন Router এর নাম জানতে পারবেন।

সেটি হলো পকেট রাউটার। আসলে বর্তমান সময়ে আমরা যে কতটা উন্নত প্রযুক্তির যুগে বাস করছি। তার একটা জলন্ত উদাহরন হলো এই পকেট রাউটার।

তাই চলুন এবার সে সম্পর্কে একটু ধারনা নেয়া যাক।

আপনি যদি Pocket Router কে পোর্টেবল পকেট রাউটার বলেন। তাহলেও কোনো প্রকার ভূল হবেনা।

মজার বিষয় হলো, এদের নামের সাথে কাজের অনেকটাই মিল আছে। কারন, এরা অন্যান্য রাউটার এর থেকে অনেক বেশি ছোটো হয়ে থাকে।

আপনি আরো পড়ুন…

যার কারনে আপনি এই ছোটো ডিভাইস গুলোকে আপনার চাহিদা মতো স্থানে বহন করতে পারবেন।

তবে এই ধরনের পেকট রাউটার গুলো সাধারনত পোর্টেবল হয়ে থাকে। যার কারনে আপনি যদি এই ধরনের রাউটার দিয়ে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে চান।

তাহলে অবশ্যই সেই রাউটারে Wifi Connect থাকতে হবে। এবং সেখান থেকে ডাটা কানেক্ট করতে হবে। তবে যদি কোনো কারনে পকেট রাউটারে ইন্টারনেট কানেকশন এর দরকার হয়।

তাহলে সেই রাউটার গুলোর মধ্যে একটি SIM Card ব্যবহার করা হয়ে থাকে। 

পকেট রাউটার এর সুবিধা কি কি? 

আপনি যদি internet ব্যবহার করার জন্য পকেট রাউটার কে কাজে লাগান। তাহলে আপনি নানা দিক থেকে সুযোগ সুবিধা ভোগ করতে পারবেন।

আর এই বিশেষ ধরনের সুবিধা গুলোর জন্যই মূলত। বেশিরভাগ মানুষ এখন ব্যাপক হারে Pocket Router ব্যবহার করে আসছে।

তো চলুন এবার সেই সুবিধা গুলো জেনে নেয়া যাক। 

  1. এটি আকারের দিক থেকে অনেক ছোট একটি রাউটার ৷ যার কারনে এটি যেকোনো স্থানে বহন করা সহজ। 
  2. এই ধরনের রাউটার গুলো অনেক ছোট। তাই এই রাউটার গুলোকে আপনি নিজের পকেটে নিয়ে যেকোনো জায়গাতে ব্যবহার করতে পারবেন। 
  3. যারা নিয়মিত রাউটার ব্যবহার করেন। তারা বেশ ভালো করেই জানেন। এখনকার দিনের রাউটার গুলো অনেক বেশি দামে বিক্রি হয়ে থাকি।
  4. কিন্তুু সেদিক থেকে আপনি অনেক কম দামে Pocket Router কিনে নিতে পারবেন। 
  5. এই ধরনের পকেট রাউটার গুলোর বিশেষ একটি সুবিধা হলো। এগুলোর মধ্যে Internet Access করার জন্য SIM Card ব্যবহার করতে পারবেন। 
  6. আর এগুলোর আরও একটি সুবিধা আছে। সেটি হলো এর মাধ্যমে আপনি যেকোনো স্থানে বসে নিজের সুবিধামতো ইন্টারনেটে এক্সেস করতে পারবেন। 

তো আপনি যদি উপরোক্ত সুবিধা গুলো ভোগ করতে চান। তবে আপনাকে অবশ্যই পকেট রাউটার ব্যবহার করতে হবে।

আর এই সুবিধা গুলোর প্রয়োজনে এখন প্রায় অনেক মানুষ। ভালো মানের Pocket Router ব্যবহার করে থাকে। 

পকেট রাউটার কিভাবে কাজ করে?

উপরে আপনি জেনেছেন যে, রাউটার আসলে কিভাবে কাজ করে। তো সেই বিষয় এর সাথে পকেট রাউটার এর নামগত মিল থাকলেও।

কাজের দিক থেকে কিছুটা ভিন্নতা খুজে পাবেন ৷ আর সেই ভিন্ন বিষয় গুলো নিয়ে এবার আপনাকে ধারনা দেয়ার চেস্টা করবো।

তো আপনি হয়তবা জেনে গেছেন যে, রাউটার মূল ডাটা কানেকশন কে ট্রান্সফার করে থাকে। তবে পকেট রাউটারও সেম কাজ করলেও।

এই ধরনের Router গুলোতে ইন্টারনেট এক্সেস নেয়ার জন্য SIM Card ব্যবহার করা হয়ে থাকে। যে সিমে থাকা ডাটা কানেকশন টি পকেট রাউটার এর সাহায্য অন্যান্য ডিভাইস গুলোতে কানেক্ট করা হয়ে থাকে। 

কম দামে রাউটার | রাউটারের দাম বাংলাদেশ

বর্তমান সময়ে আপনি আমাদের বাংলাদেশে বিভিন্ন দামের রাউটার দেখতে পারবেন। আর দামের উপরেই মূলত এক একটি Router এর কার্যক্ষমতা নির্ভর করে থাকে।

চলুন এবার আমাদের বাংলাদেশে কম দামে পাওয়া যায়। এরকম কিছু কম দামে রাউটার সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক। এতে করে পরবর্তী সময়ে আপনার রাউটার কিনতে কোনো ধরনের সমস্যা হবে না।

এবার আমি আপনাকে কিছু রাউটার এর দাম সম্পর্কে বলবো। এর পাশাপাশি ঐ রাউটার গুলোর কার্যক্ষমতা এবং ওয়ারেন্টি বা গ্যারান্টি নিয়েও বিশেষভাবে আলোচনা করবো।

তো চলুন এবার সে সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক। 

০১| Tenda N301

যারা মোবাইল নিজের বাড়িতে ইন্টারনেট ব্যবহার করার জন্য রাউটার কিনতে চান। তবে আপনার জন্য উপযুক্ত হবে Tenda N301 Router.

সত্যি বলতে একটি মানসম্মত রাউটার এর মধ্যে যে যে ফিচার গুলোর থাকার দরকার। তার প্রায় সবগুলোই আপনি এই রাউটার এর মধ্যে খুজে পাবেন।

যার কারনে, Tenda N301 কে একটি আদর্শ রাউটার ও বলা হয়ে থাকে। আর আজকের দিনে এই রাউটার এর দাম ১০০০-১৫০০/- টাকার মধ্যে থাকবে। এর পাশাপাশি আপনি পাবেন ১ বছরের সার্ভিস ওয়ারেন্টি। 

০২| DIR-615 N300

এই ধরনের রাউটার গুলোতে মূলত ২ টি করে এন্টেনা লাগানো থাকে। আর এর Data Transfer রেট হলো ৩০০ এমবিপিএস। যদি আপনি নতুন কোনো পন্য কিনে নেয়ার পাশাপাশি সেই পন্যের ওয়ারেন্টির সুবিধা দীর্ঘদিন পেতে চান।

তবে আপনার জন্য উপযুক্ত একটি রাউটার হবে DIR -615 N300. কেননা, এই Router টি কিনলে আপনি মোট ৩ বছরের ওয়ারেন্টি সার্ভিস ভোগ করতে পারবেন।

তাছাড়া এটি দামের দিক থেকেও হাতের নাগালে। এর বাজারদর হলো, ১৩০০-১৫০০/- টাকার মধ্যে। 

০৩| Tenda F-3

তিনটি এন্টেনা বিশিষ্ট বিশেষ এক ধরনের রাউটার এর নাম হলো, Tenda F-3. যেখানে আপনি মোট ৩০০ এমবিপিএস ডাটা ট্রান্সফার স্পিড পাবেন।

আমাদের মধ্যে এমন অনেকেই আছেন। যারা কম দামের মধ্যে ৩ এন্টেনা বিশিষ্ট রাউটার খুজে থাকেন। তাদের জন্য Tenda F-3 একটি অন্যতম রাউটার হবে।

এছাড়াও আপনি যদি এই রাউটার টি কিনেন। তবে আপনি পাবেন ১ বছরের ওয়ারেন্টি সার্ভিস। আর এত গুণসম্পন্ন রাউটার টি আপনি মাত্র ১১৫০-১৩০০/- টাকার মধ্যে পেয়ে যাবেন। 

০৪| TP Link- TL WR840N (V2)

টিপি লিংক এর রাউটার সম্পর্কে তো আর নতুন করে কিছু বলার নেই। কারন, TP Link নামক এই রাউটার ব্রান্ডটি। আমাদের দেশে অনেক বেশি জনপ্রিয়।

কারন, এই ব্রান্ডের রাউটার গুলো দামের দিক থেকে যেমন হাতের নাগালে থাকে। ঠিক তেমনিভাবে সার্ভিসের দিক থেকেও আপনি অনেক বেশি সন্তুষ্ট হতে পারবেন।

আপনি আরো পড়তে পারেন…

তাই, যারা নতুন রাউটার কিনতে যাবেন। তাদের TP Link এর রাউটার গুলোকে কিনে নিয়ে ব্যবহার করা উচিত। 

আমাদের শেষকথা 

আজকের এই ছোট্ট আর্টিকেলে আমি রাউটার কি (Router in Bangla) পরিস্কার আলোচনা করেছি। আশা করি রাউটার কি সে সম্পর্কে ক্লিয়ার ধারনা পেয়ে গেছেন।

তবে এরপরও যদি আপনার মনে router নিয়ে কোনো ধরনের প্রশ্ন থাকে। তাহলে নিচে কমেন্ট করে জানাবেন।

আর এমন সব অজানা বিষয়ে জানতে Bangla it blog এর সাথে থাকবেন। ধন্যবাদ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap