VPN কি ? Vpn এর পূর্ণরূপ কি ? ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম

VPN কি : যদি আপনি বিগত কয়েক বছর আগের কথা চিন্তা করেন। তবে সেই সময়ে VPN ব্যবহার করা হতো। শুধুমাত্র ফ্রি ইন্টারনেট ব্যবহার করার জন্য।

VPN কি ? Vpn এর পূর্ণরূপ কি ? ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম
VPN কি ? Vpn এর পূর্ণরূপ কি

আর সেই সময় গুলোতে এমন সব ভিপিএন ছিলো ৷ যেগুলো দিয়ে এন্ড্রয়েড ফোনে একদম বিনামূল্যে ফ্রি ইন্টারনেট ব্যবহার করা যেত। আর যার কারনে আমাদের মধ্যেই অনেকেই মনে করতো।

যে, হয়তবা VPN শুধুমাএ এই কাজেই ব্যবহার করা হতো।

কিন্তুু ভিপিএন নিয়ে এই ধারনাটি সম্পূর্ন ভূল ৷ কারন Vpn হলো ফুল মিনিং হলো, ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক। আর এই Virtual Private network দিয়ে আপনি অনেক কিছু করতে পারবেন।

তার মধ্যে অন্যতম কারন হলো, আপনি VPN ব্যবহারে। নিজের প্রাইভেসি কে সুরক্ষিত রাখতে পারবেন। আর এগুলো ছাড়াও আরও অনেক কারন আছে।

আপনার জন্য আরো লেখা…

যেগুলোর জন্য আজকের দিনে ভিপিএন এর ব্যবহার ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে।

আর আজকের আলোচনার মূল টপিক হলো এটিই। যদি আপনি না জেনে থাকেন যে, vpn কি এবং VPN কেন ব্যবহার করা হয়। তবে আজকের এই আর্টিকেল টি আপনার জন্য অনেক বেশি হেল্পফুল হবে।

কারন আজকে আমি ভিপিএন এর যে সমস্ত খুটিনাটি বিষয় আছে। তার সবগুলো নিয়ে পর্যায়ক্রমে আলোচনা করার চেস্টা করবো ৷ 

Vpn কি বা Vpnমানে কি?

সবার আগে আপনাকে Vpn কি, তা জেনে নিতে হবে। তো আপনি উপরে জানতে পেরেছেন যে, ভিপিএন হলো ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক।

অর্থ্যাৎ, আমরা যখন কোনো ইলেকট্রনিকস পন্য ব্যবহার করি। যেমন, মোবাইল, ল্যাপটপ কিংবা কম্পিউটার। তখন আমাদের নির্দিষ্ট একটা IP থাকে।

আর এই IP এতোটাই শক্তিশালী যে, এর মাধ্যমে আপনি কোথায় বসে ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন। তা খুব সহজেই শনাক্ত করা যাবে।

কিন্তুু ভিপিএন এই শনাক্তকরন এর কাজে বিশেষ ব্যাঘাত ঘটায়। কারন এটি আপনার পারসোনাল আইপিকে Encrypted করবে।

যার ফলে আপনার রিয়েল যে আইপি থাকবে। সেটাকে Hide করে রাখবেন। যার কারনে আপনি আপনার প্রাইভেসি কে সুরক্ষিত রাখতে পারবেন ৷ 

Vpn এর পূর্ণরূপ কি ? 

vpn কি এটি জানার পর আপনাকে আরও একটি বিষয়ে জেনে নিতে হবে। সেটি হলো, vpn এর পূর্ণরূপ কি? কেননা, এই ভিপিএন শব্দটি হলো একটি শব্দ সংক্ষেপ।

এবং এই শব্দ সংক্ষেপ এর একটি পূর্নরুপ রয়েছে। তো এই ভিপিএ শব্দের পূর্নরুপ হলো, Virtual Private network. যার অর্থ হলো, আপনি যেকোনো নেটওয়ার্ক এর আইপিতে কানেক্ট থাকুন না কেন।

সেই নেটওয়ার্ক এর সমন্বয়ে আরও একটি ভার্চুয়াল নেটওয়ার্ক তৈরি হবে ৷ এবং এই ভার্চুয়াল নেটওয়ার্ক টি এতোটাই শক্তিশালী যে। এটি আপনার সমস্ত প্রাইভেসি কে Hide করে রাখবে। 

vpn এর কাজ কি?

পৃথিবীতে সৃষ্টি হওয়া প্রত্যেকটা বস্তুুর কোনো না কোনো উদ্দেশ্য নিয়ে তৈরি করা হয়। ঠিক তেমনিভাবে VPN কিন্তুু এমনি এমনি তৈরি করা হয়নি।

বরং এই VPN এর অনেক ধরনের কাজ রয়েছে। আর সেই কাজ গুলো সম্পন্ন করার জন্যই বর্তমানে ভিপিএন এর ব্যবহার বৃদ্ধি পাচ্ছে।

আর এবার সেই ভিপিএন এর কাজ গুলো নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো। যেন আপনার Vpn এর কাজ গুলো জানা থাকে। 

০১| Hide Your Location 

আপনি হয়তবা জেনে থাকবেন যে, আমরা যখন আমাদের মোবাইল কিংবা কম্পিউটার থেকে ইন্টারনেট ব্যবহার করি ৷ তখন আমরা নির্দিষ্ট একটি আইপির মধ্যে কানেক্ট হয়ে থাকি।

আর সেই কারনে এই আইপি এড্রেস এর মাধ্যমে যে কোনো ব্যক্তির অবস্থান শনাক্ত করা সম্ভব হয়। যেমন, আপনি যদি ঢাকার কোনো স্থান থেকে ইন্টারনেট ব্যবহার করেন।

তাহলে আপনার IP Address এর মাধ্যমে খুব সহজেই আপনার সঠিক লোকেশন কে ট্রাক করা যাবে।

কিন্তুু ভিপিএন থাকলে, আপনার Location Track করা খুব কঠিন কাজ হয়ে যাবে। কারন, আপনি ইন্টারনেট চালানোর সময় যেকোনো নেটওয়ার্ক এর আওতায় থাকুন না কেন।

ভিপিএন সেই অরজিনাল লোকেশন কে হাইড করে রাখবে। যেমন, আপনি যদি বাংলাদেশে বসে ইন্টারনেট ব্যবহার করেন।

তারপরও কিন্তুু ভিপিএন এর মাধ্যমে আপনার সঠিক লোকেশন কে হাউড রেখে অন্য লোকেশন দেখাতে পারবেন।

যেমন ধরুন, আপনি বাংলাদেশের কোনো স্থান থেকে ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন। এখন আপনি যদি একটি VPN কানেক্ট করে আপনার লোকেশন অন্য কোনো দেশকে সিলেক্ট করেন।

তাহলে কেউ যদি আপনাকে Track করার চেস্টা করে। তবে আপনি ভিপিএন এ যে দেশ সিলেক্ট করবেন। সে শুধুমাএ সেই দেশের আইপি বা এড্রেস দেখতে পারবে। 

০২| Hide Your Privacy 

ইন্টারনেট এমন একটি জায়গা। যেখানে আপনার প্রাইভেসি খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। কেননা, আপনি যদি আপনার Privacy রক্ষা করতে না পারেন ৷

তবে আপনি হ্যাকিং রিলেটেড নানা রকম সমস্যার সম্মুখীন হবেন। আর একবার যদি আপনি কোনোভাবে হ্যাকিং এর শিকার হয়ে যান।

তাহলে আপনার কি কি ক্ষতি হবে। সেটা তো আমার থেকে আপনিই ভালো বলতে পারবেন।

কিন্তুু আপনি যদি Vpn ব্যবহার করেন। তবে আপনার এই হ্যাকিং থেকে অনেকটাই সুরক্ষিত থাকবেন। কেননা, এতে করে আপনার Privacy Hide থাকবে।

যার কারনে অনলাইন প্লাটফর্মে আপনার কোনো প্রকার ক্ষতি হবে না। এজন্য আপনার মতো এমন অনেক মানুষ আছেন। যারা তাদের প্রাইভেসি সুরক্ষার জন্য এই ধরনের ভিপিএন ব্যবহার করে থাকে। 

০৩| Inter blocked website 

অনেক সময় আপনি শুনতে পারবেন যে, ওমুক ওয়েবসাইট টি বাংলাদেশ থেকে ব্যান করে দেয়া হয়েছে। আবার অনেক সময় বিভিন্ন Android Apps গুলো ব্যান করে দেয়া হয়।

যার কারনে আমরা চাইলেও এইসব ওয়েবসাইট বা অ্যাপ কে ব্যবহার করতে পারিনা। কিন্তুু আপনি যদি ভিপিএন ব্যবহার করেন।

তাহলে কিন্তুু আপনি খুব সহজেই এসব সাইট বা এপসে প্রবেশ করতে পারবেন ৷

কারন, যখন অনলাইনে কোনো কিছুকে Banned করে দেওয়া হয়। তখন এসবকে IP Address থেকে ব্যান করে দেয়া হয়। কিন্তুু ভিপিএন থাকলে আপনি খুব সহজেই আপনার পারসোনাল আইপি কে পরিবর্তন করতে পারবেন।

আর সেই ব্যান করে দেয়া সাইট বা অ্যাপ গুলোকে কোনো প্রকার ঝামেলা ছাড়াই ব্যবহার করতে পারবেন। 

০৪| Increase Internet Speed 

আজকের দিনে এমন কিছু ভিপিএন ডেভলপ করা হয়েছে। যেগুলোর মাধ্যমে আপনি আপনার ইন্টারনেট স্পিডকে অনেক গুন বাড়িয়ে নিতে পারবেন ৷

আর সেই কারনে এখন অনেক মানুষ তাদের ইন্টারনেট এর গতিকে বাড়িয়ে নেয়ার জন্য VPN ব্যবহার করে থাকে। তবে আপনি যদি এই কাজের জন্য ভিপিএন ব্যবহার করতে চান।

তাহলে অবশ্যই আপনাকে প্রিমিয়াম ভিপিএন ব্যবহার করতে হবে। কেননা, ফ্রি ভিপিএন গুলোতে এই ধরনের ফিচার অনেক কম থাকে। 

VPN এর ব্যবহার কি জরুরি?

উপরের আলোচনা থেকে vpn কি এবং vpn এর পূর্নরুপ কি। সেগুলো সম্পর্কে জানার পর আপনার মনে আরও একটি প্রশ্ন জেগে থাকতে পারে।

সেটি হলো, এই VPN এর ব্যবহার কি জরুরি। কেননা, সবাই তো আর vpn ব্যবহার করেনা। তাহলে আপনি কেন ভিপিএন ব্যবহার করবেন।

তো চলুন এবার সে নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা যাক।

দেখুন, এটা আমি বলবো না যে আপনাকে বাধ্যতামূলক ভিপিএন ব্যবহার করতে হবে। তবে আপনি যদি আপনার পারসোনাল ডাটাকে সুরক্ষিত রাখতে চান।

তাহলে আপনার জন্য VPN ব্যবহার করা উচিত। কারন, আমাদের সবার নিজস্ব পারসোনাল ডাটা থাকে। যেগুলোর প্রাইভেসি থাকা অতি প্রয়োজনীয়।

কিন্তুু আপনি যদি অনলরেডি কোনো ধরনের প্রাইভেট নেটওয়ার্ক এর সাথে সংযুক্ত থাকেন। তাহলে আপনার ভিপিএন ব্যবহার করার কোনো দরকার নেই।

কিন্তুু আপনি যদি কোনো অপেন সোর্স নেটওয়ার্ক ব্যবহার করেন। যেমন, কোনো Public hotspot, Realway Station, Hotel এর মতো কোনো স্থানের নেটওয়ার্ক ব্যবহার করেন।

আপনি আরো দেখতে পারেন…

তবে এসব স্থানে আপনার তথ্য গুলো হ্যাক হওয়ার সম্ভাবনা থাকবে। আর সেই কারনে এসব স্থানে অবশ্যই আপনার ভিপিএন ব্যবহার করা উচিত।

কেননা, আমাদের সবার নিজস্ব প্রাইভেসি কে সুরক্ষিত রাখা উচিত। এতে করে অনলাইন প্লাটফর্মে কেউ আপনার ক্ষতি করতে পারবে না।  

ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম

সত্যি বলতে আপনি যদি ভিপিএন ব্যবহার করতে চান। তবে আপনাকে বেশ কিছু নিয়ম মেনে কাজ করতে হবে। কারন ভিপিএন যেমন আপনার প্রাইভেসি কে সুরক্ষিত রাখবে ৷

ঠিক তেমনিভাবে আপনি যদি ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম গুলো না জানেন ৷ তাহলে কিন্তুু আপনি উল্টো নানা ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হবেন।

তো এমন বেশ কিছু বিষয় আছে। যেগুলো ভিপিএন ব্যবহার করার সময় আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে। যেমন,

  1. যখন আপনি কোনো ভিপিএন ব্যবহার করবেন। তখন সবার আগে আপনাকে সেই VPN এর রিভিউ দেখে নিতে হবে। 
  2. কেননা, আপনি যদি ভুয়া ভিপিএন ব্যবহার করেন। তাহলে কিন্তুু আপনার প্রাইভেসি তো সুরক্ষিত থাকবেই না। উল্টো আপনার পারসোনাল ডাটা গুলো চলে যাবে হ্যাকার এর কাছে। 
  3. তো এইসব কিছু দেখার পর আপনাকে এমন কিছু ভিপিএন খুজে নিতে হবে। যেগুলো দীর্ঘদিন থেকে মানুষের মাঝে বিশ্বস্ততা অর্জন করতে পেরেছে। 
  4. এরপর আপনাকে সেই ভিপিএন গুলোকে ডাউনলোড করতে হবে। এবং আপনার ডিভাইসে ইনস্টল করে নিতে হবে। 
  5. সবশেষে আপনি যখন এই ইনস্টল করা ভিপিএন গুলোতে প্রবেশ করবেন। তখন আপনাকে আইপি সিলেক্ট করতে হবে। এবং সেই আইপিতে আপনার ডিভাইসে কানেক্ট করতে হবে। 

তো আপনি খুব বেশি ভিপিএন ব্যাবহারের নিয়ম দেখতে পারবেন না। কারন, বর্তমান সময়ে অনলাইন প্লাটফর্মে যতগুলো VPN আছে।

তার সবগুলোই প্রায় একই পদ্ধতিতে ব্যবহার করতে হয়। আর উপরে যে নিয়ম গুলো উল্লেখ করা হয়েছে। সেই নিয়ম গুলো ভিপিএন ব্যবহার এর জন্য উপযুক্ত। 

ভিপিএন কিভাবে ব্যবহার করবেন ?

অতিতের দিন গুলোতে শুধমাএ কম্পিউটার ডিভাইস এর জন্য ভিপিএন পাওয়া যেত।

কিন্তুু বর্তমান সময়ে আপনি চাইলে কম্পিউটার এর পাশাপাশি মোবাইল ডিভাইসেও কোনো প্রকার ঝামেলা ছাড়াই ভিপিএন ব্যবহার করতে পারবেন।

আর যেহুতু আপনি উপরে ভিপিএন ব্যবহার এর নিয়ম গুলো জানতে পেরেছেন। তাই কিভাবে আপনি VPN ব্যবহার করবেন। সে নিয়ে আর কোনো আলোচনা করবো না।

বরং এবার আমি আপনাকে বেশ কিছু VPN এর সাথে পরিচয় করিয়ে দিবো। যেগুলো আপনি আপনার মোবাইল এবং কম্পিউটারে ব্যবহার করতে পারবেন। 

সেরা ফ্রি ভিপিএন সফটওয়্যার কম্পিউটারের জন্য

তো সবার শুরুতে আমি আপনাকে কিছু সেরা ফ্রি ভিপিএন এর সাথে পরিচয় করিয়ে দিবো। যেগুলো আপনি একদম বিনামূল্যে আপনার কম্পিউটার ডিভাইসে ব্যবহার করতে পারবেন।

এবং আপনি যদি আপনার কম্পিউটার বা ল্যাপটপে এই Free VPN গুলো ব্যবহার করেন ৷ তাহলে আপনি আপনার প্রাইভেসি কে সুরক্ষিত রাখতে পারবেন।

তাহলে আর দেরী কেন, চলুন এবার সেই ভিপিএন গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক। 

০১| WindScribe VPN

বর্তমান সময়ে সবচেয়ে জনপ্রিয় VPN হলো Windscribe. যেটি আপনি একেবারে ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন। এবং মজার বিষয় হলো, আপনি এই ভিপিএন দিয়ে প্রতি মাসে প্রায় 10GB এর মতো ফ্রি ডাটা পাবেন ৷

যা দিয়ে আপনি কোনো প্রকার চার্জ ছাড়াই আপনার প্রাইভেসি কে সুরক্ষিত রাখতে পারবেন ৷ আর বর্তমান সময়ে প্রায় বেশিরভাগ মানুষ Windscribe ভিপিএন ব্যবহার করে আসছে।

তাই চাইলে আপনিও এই Free Vpn টি ব্যবহার করে দেখতে পারেন। 

০২| Tunnelbear VPN

উপরের ভিপিএন ছাড়াও আরও একটি জনপ্রিয় ভিপিএন হলো Tunnelbear. যার মাধ্যমে আপনি আপনার কম্পিউটারে অনায়াসেই আপনার ব্যক্তিগত প্রাইভেসি কে হাইড রাখতে পারবেন।

আর আপনি যদি Tunnelbear VPN ব্যবহার করেন। তাহলে আপনি প্রতি মাসে 500MB ডাটা পাবেন। যা দিয়ে আপনি গোটা মাস বিনামূল্যে এই ভিপিএন টি ব্যবহার করতে পারবেন। 

০৩| Speedify VPN

আমি আর্টিকেলে একটি কথা বলেছি। সেটি হলো, আজকের দিনে এমন অনেক ধরনের প্রিমিয়াম ভিপিএন আছে। যেগুলোর মাধ্যমে আপনি আপনার ইন্টারনেট এর গতিকে অনেক ফাষ্ট করতে পারবেন।

আর আপনার এই কাজটি সহজ করার জন্য Speedify vpn যথেষ্ট। কেননা, এই ভিপিএন এর বিশেষ গুন হলে লো স্পিডের ইন্টারনেট কে আরও ফাষ্ট করে দেয়া।

তাই আপনি যদি ভিপিএন ব্যবহারে একবারে নতুন হয়ে থাকেন। তাহলে Speedify হবে আপনার জন্য উপযুক্ত একটি VPN. 

সেরা ফ্রি ভিপিএন apps এন্ড্রয়েড মোবাইলের জন্য

কম্পিউটার এর পাশাপাশি বর্তমানে মোবাইল এর জন্যও অনেক ধরনের ফ্রি এবং পেইড ভিপিএন আছে। যেগুলোর মাধ্যমে আপনি আপনার মোবাইল ডিভাইস এর প্রাইভেসি কে গোপন এবং সুরক্ষিত রাখতে পারবেন।

আর এবার সেই ধরনের VPN Apps নিয়েই কথা বলবো। তো চলুন এবার সে সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক। 

০১| Hotspot Shield VPN

আপনি যদি মোবাইল এর জন্য ভালো কোনো ভিপিএন খুজে থাকেন ৷ তবে সবার আগে যে নামটি আসবে৷ সেটি হলো, Hotspot Shield vpn.

এখানে আপনি প্রতিদিন ৫০০ এমবি ডাটা পাবেন ৷ যেগুলো দিয়ে আপনি খুব সহজে আপনার ফোনে এই VPN টি ব্যবহার করতে পারবেন।

০২| TunnelBear VPN

দীর্ঘদিন থেকে মোবাইলের জন্য বেশ জনপ্রিয় একটি এন্ড্রয়েড ভিপিএন এর নাম হলো, TunnelBear Vpn. যা বর্তমান সময়ে অনেক মানুষ এই জনপ্রিয় ভিপিএন টি ব্যবহার করে আসছে।

তবে এখানে আপনি প্রতি মাসে শুধুমাত্র ৫০০ এমবি ডাটা পাবেন ৷ তবে আপনি যদি তাদের প্রিমিয়াম ভার্সনে যান ৷ তাহলে এর থেকেও বেশি ডাটা ব্যবহার করতে পারবেন।

০৩| Turbo Vpn 

আপনি যদি একবারে Free vpn খুজে থাকেন ৷ তাহলে বলবো আপনার জন্য সবচেয়ে অন্যতম হবে TurboVpn.

মজার বিষয় হলো, এর মধ্যে থাকা সমস্ত ফিচার গুলো একবারে বিনামূল্যে ব্যবহার করা যাবে। এর পাশাপাশি আপনি এর মধ্যে অনেক সার্ভার দেখতে পারবেন ৷

যেগুলোর মাধ্যমে অনলাইনে আপনার প্রাইভেসি কে হাইড রাখতে পারবেন। 

০৪| iTop VPN

গুগল প্লে স্টোরে ৪.৩ রেটিং পাওয়া একটি জনপ্রিয় ভিপিএন এর নাম হলো, iTop. এর মধ্যে আপনি গ্লোবাল প্রক্সি ব্যবহার করতে পারবেন ৷

তাছাড়া আপনি যদি গেম প্রিয় মানুষ হয়ে থাকেন ৷ তবে আপনার গেমের ইন্টারনেট গতিকে কয়েকগুন বাড়িয়ে দিতে ৷ এই VPN টি অনেক কার্যকরী ভুমিকা পালন করবে।

সবচেয়ে বড় কথা হলো, এখানে আপনি কোনো প্রকার data limit পাবেন না ৷ তাই আপনি একবার হলেও iTop vpn ব্যবহার করে দেখতে পারবেন ৷ 

Vpn দিয়ে কি ফ্রি নেট চালানো যায় ? 

যেহুতু আর্টিকেলের শুরুতে আমি বলেছিলাম যে। অতীতের কয়েক বছর আগে কিছু VPN ছিলো। যেগুলো দিয়ে ফ্রি ইন্টারনেট ব্যবহার করা যেত।

সত্যি বলতে আমি নিজেও একটা সময় এই ফ্রি ভিপিএন গুলো দিয়ে Free internet ব্যবহার করতাম।

কিন্তুু বর্তমান সময়ে এগুলো তেমন একটা কাজ করেনা। আমরা যেই সময়ে এমন চুরি করে ইন্টারনেট ব্যবহার করতাম। সেই সময়ে সিম কোম্পানি গুলোর সার্ভারে অনেক ত্রুটি ছিলো ৷

আর সেগুলো কে কাজে লাগিয়ে একটা সময় অনেকেই মোবাইল দিয়ে Free internet ব্যবহার করতো।

তবে এখনও যদি সিম কোম্পানি গুলোর সার্ভারে সেই রকম কোনো ত্রুটি থাকে ৷ তবে এখনও সেই আগের দিন গুলোর মতো। কিছু কিছু ভিপিএন দিয়ে ফ্রিনেট চালানো যাবে।

তবে আমার মনে হয়না বর্তমান সময়ে সেই টিপস গুলো কাজে লাগবে। তবে আপনি চেস্টা করে দেখতে পারেন ৷ 

আজকে কি কি শিখতে পারলেন?

আজকে আপনি ভিপিএন রিলেটেড অনেক অজানা বিষয়ে জানতে পেরেছেন । আর এই আর্টিকেলে যে বিষয় গুলো নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে ৷

সেগুলো পুনরায় আরেকবার রিপিড করবো। যেমনঃ

  • vpn কি ? 
  • vpn এর পূর্ণরূপ কি? 
  • ভিপিএন এর কাজ কি?
  • কোন ভিপিএন ভালো?
  • মোবাইল ভিপিএন কোনটি? 
  • Turbo VPN এর কাজ কি?
  • Free vpn কি ? 
  • ভিপিএন দিয়ে ফেসবুক চালানো যাবে? 
  • সুপার ভিপিএন কেমন?
  • Vpn ব্যবহারের নিয়ম?
  • Turbo VPN এর কাজ কি?
  • Vpn দিয়ে কি ফ্রি নেট চালানো যায়?
  • কোন ভিপিএন ভালো?
  • ফ্রি ভিপিএন কোন গুলো?

তো আপনি যদি উপরোক্ত বিষয় গুলো সম্পর্কে জেনে নিতে চান ৷ তবে আপনাকে উপরের পুরো লেখাটি মন দিয়ে পড়তে হবে। 

Vpn নিয়ে আমাদের শেষকথা 

Vpn কি এবং vpn এর পূর্ণরূপ কি। এ নিয়ে আজকের এই আর্টিকেলে স্টেপ বাই স্টেপ আলোচনা করা হয়েছে।

এছাড়াও মোবাইল এবং কম্পিউটার এর জন্য কিছু ফ্রি ভিপিএন এর সাথে আপনাকে পরিচয় করিয়ে দিয়েছি।

তবে আপনি যদি আরও কোনো Free Vpn সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চান ৷ তবে নিচে একটা কমেন্ট করে জানাবেন ৷ আমি আপনার জন্য পুনরায় আরও একটি আর্টিকেল লিখবো।

আর এমন সব গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানতে Bangla it blog এর সাথে থাকবেন। ধন্যবাদ।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

HandsUp! কপি করা যাবে না বস!

Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap