রিসেলার ব্যবসা কি ? রিসেলার ব্যবসা করে টাকা ইনকাম করার উপায়

রিসেলার ব্যবসা : যারা মূলত বিজনেস করে নিজের ক্যারিয়ার গড়ে নিতে চান। তাহলে আজকের আর্টিকেলটি আপনার জন্য অনেক বেশি হেল্পফুল হবে।

বলা যায়, বিজনেস করে যারা ক্যারিয়ার গড়তে চান। তাদের ক্যারিয়ার গড়ার সেই স্বপ্নটিকে এক ধাপ এগিয়ে দিতে যথেষ্ট সহায়তা করবে আজকের এই আর্টিকেলটি।

রিসেলার ব্যবসা কি ? রিসেলার ব্যবসা করে টাকা ইনকাম করার উপায়
রিসেলার ব্যবসা কি ? রিসেলার ব্যবসা করে টাকা ইনকাম করার উপায়

যদিও আমি অন্যান্য আর্টিকেল গুলোতে বিভিন্ন ব্যবসা করার আইডিয়া গুলো নিয়ে আলোচনা করেছিলাম। কিন্তুু আমি আজ শুধমাএ রিসেলার ব্যবসা নিয়ে ধারনা দেয়ার চেস্টা করবো।

কেননা, বর্তমানে অন্যান্য ব্যবসার তুলনায় রিসেলার ব্যবসা অনেক গুন এগিয়ে আছে।

আপনি জানলে অবাক হয়ে যাবেন, কারন এই Reseller Business এর অনেক সুবিধা রয়েছে। যদি আপনি একজন স্টুডেন্ট হয়ে থাকেন ৷

তাহলেও আপনি এই রিসেলার ব্যবসা করতে পারবেন।

অথবা আপনি যদি একজন চাকুরীজীবি হয়ে থাকেন। তাহলেও আপনি পার্ট টাইম জব হিসেবে এই Reseller Business করে বাড়তি কিছু টাকা ইনকাম করে নিতে পারবেন।

শুধু এই সুবিধাটি নয় বরং আপনি আরও অনেক ধরনের সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। যদি আপনি ব্যবসা করার জন্য এই রিসেলার বিজনেস এ নিজেকে নিযুক্ত করেন।

আর সে কারনেই মূলত বর্তমান সময়ে আপনার মতো এমন অনেক মানুষ প্রতিনিয়ত যোগ দিচ্ছে এই রিসেলার ব্যবসা তে।

এখন আপনি একজন নতুন মানুষ হিসেবে যদি এই রিসেলার বিজনেসে যুক্ত হতে চান। তাহলে আপনাকে কি কি কাজ করতে হবে, কিভাবে আপনি এই বিজনেস শুরু করবেন।

আপনি আরো দেখুন…

এবং এই ব্যবসার শুরুতে আপনার সামনে কি কি বাধা আসবে। এবং সেই বাধা গুলো কিভাবে অতিক্রম করবেন। এই বিষয় গুলো নিয়েই মূলত আজকের আর্টিকেলে বিষদভাবে আলোচনা করা হবে।

তো যদি আপনি লাভজনক এই রিসেলার ব্যবসা করতে চান। তাহলে আজকের পুরো আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়বেন।

তাহলে আজকের পর থেকে আপনার মনে আর Reseller Business রিলেটেড কোনো প্রকার অজানা বিষয় থাকবে না। তো আর দেরী না করে চলুন একেবারে মূল আলোচনা তে ফিরে যাওয়া যাক। 

রিসেলার মানে কি?

রিসেলার শব্দটি মূলত ইংরেজি শব্দ থেকে নেয়া হয়েছে। যার ইংরেজি তে অনুবাদ হবে, Re – Seller. এখন আপনি যদি এই অনুবাদের বাংলা অর্থ খুজে থাকেন ৷

তাহলে আপনার সামনে এসে দাড়াবে যে, Re শব্দের অর্থ হলো, পুনরায়। এবং Seller শব্দের অর্থ হলো বিক্রেতা ৷

এখন আপনি যদি Re এবং Seller এই দুটো শব্দকে একসাথে জুড়ে দেন ৷ তাহলে আপনি দেখতে পারবেন যে Reseller শব্দের বাংলা অর্থ হলো, পুনরায় বিক্রেতা।

তো আশা করা যায়, রিসেলার শব্দের মুল অর্থ কি সে সম্পর্কে একটা ক্লিয়ার ধারনা পেয়ে গেছেন ৷ 

রিসেলার ব্যবসা কি?

যেহুতু আপনি উপরের আলোচনা থেকে জানতে পারলেন যে Reseller শব্দের অর্থ হলো পুনরায় বিক্রেতা। সেহুতু আপনার মনে আরও একটি প্রশ্ন জাগতে পারে যে, রিসেলার ব্যবসা কাকে বলে? –

তো আমার মনে হয় এই বিষয়টি নিয়েও আপনাকে একটা ক্লিয়ার ধারনা দেওয়া উচিত।

দেখুন, যদি আমরা এই বিষয়টি কে সংঙ্গার মাধ্যমে প্রকাশ করি। তাহলে বলবো যে, যখন আপনি কোনো পন্য অন্য কোনো মানুষের কাছ থেকে ক্রয় করবেন ৷

এবং সেই পন্যকে পুনরায় আবার অন্য কারো কাছে সেল করে দিবেন। তখন এই সম্পূর্ন প্রক্রিয়া কে বলা হবে রিসেলার ব্যবসা।

যেমন ধরুন, আপনি খোলা মার্কেট থেকে শার্ট কিনে নিলেন। এরপর আপনি সেই শার্ট গুলো কে পুনরায় অন্য কাস্টমার এর কাছে বিক্রি করে দিলেন।

এবং সেখান থেকে আপনি কিছু পরিমান টাকা ইনকাম করলেন। তো ব্যবসা করার এই প্রক্রিয়া কে বলা হবে রিসেলার ব্যবসা।

তো আশা করা যায়, এই ছোট্ট আলোচনা থেকে আপনি রিসেলার মানে কি এবং রিসেলার ব্যবসা কাকে বলে। সে সম্পর্কে একটি পরিস্কার ধারনা পেয়ে গেছেন।

তবে যদি এখনও আপনি না বুঝে থাকেন। তাহলে বলবো যে আপনি নিয়মিত লাউয়ের বিচি খাওয়া শুরু করে দিন৷ এতে করে আপনার মস্তিষ্কের গঠন ভালো হবে। 

রিসেলার ব্যবসা কত প্রকার? 

যখন আপনি কোনো বিজনেস শুরু করবেন। তখন সেই বিজনেস সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেয়াটা আপনার দায়িত্ব এবং কর্তব্যের মধ্যে পড়ে।

ঠিক তেমনি ভাবে যখন আপনি রিসেলার বিজনেস করতে যাবেন ৷ তখন আপনার এই ব্যবসা সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেয়াটাও বেশ গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাড়াবে।

তো এখন আপনার জানার দরকার যে এই রিসেলার ব্যবসা আসলে কত প্রকার এর হয়ে থাকে। কেননা অন্যান্য ব্যবসার মতো এই ব্যবসারও কিন্তুু বিভিন্ন প্রকার রয়েছে।

এবং সেগুলো সম্পর্কে আপনার অবশ্যই জেনে নেয়া উচিত বলে আমি মনে করি।

এখন আপনি Reseller Business কে বিভক্ত করার চেস্টা করেন। তাহলে আপনার সামনে দুটি ভাগ চলে আসবে। যেমনঃ

  • একটি হলো অফলাইন রিসেলার ব্যবসা  ও 
  • আরেকটি হলো অনলাইন রিসেলার ব্যবসা

এখন বিজনেস এর এই দুটি ভাগ সম্পর্কে জানার পর আপনার মনে আরও প্রশ্ন জেগে থাকতে পারে।

যেমন, অফলাইন এবং অনলাইন রিসেলার ব্যবসা কাকে বলে? -তো চলুন এবার এই দুটি ভাগ সম্পর্কে ছোট্ট করে জেনে নেয়া যাক। 

অফলাইন রিসেলার ব্যবসা কাকে বলে? 

এখন যদি আপনাকে প্রশ্ন করা হয় যে, অফলাইন বলতে আপনি কি বোঝেন? – তাহলে এর উওরে আপনি অবশ্যই বলবেন যে, যখন কোনো ব্যবসা করার জন্য ইন্টারনেট কানেকশন এর প্রয়োজন হয়না।

তখন সেই ব্যবসা কে বলা হয়, Offline Business.

হুমমম আপনার এই ধারনা সম্পূর্ণ সঠিক। কারন প্রত্যেকটি ব্যবসার এমন কিছু কিছু ক্ষেএ আছে। যেগুলো তে আপনার কোনো প্রকার Internet Connection এর প্রয়োজন হয়না।

এবং প্রয়োজন থাকলেও তা খুব বেশি একটা গুরুত্বপূর্ণ নয়। মূলত এই ধরনের বিজনেস গুলোকে অফলাইন বিজনেস বলা যেতে পারে।

ঠিক একইভাবে আমরা যদি এখন এই বিষয়টি কে রিসেলার ব্যবসার সাথে জুড়ে দেই।

তাহলেও কিন্তুু আপনি দেখতে পারবেন যে, যখন আপনি রিসেলার করার জন্য কোনো প্রকার অনলাইন এর সহায়তা নিবেন না।

তখন সেই ব্যবসার প্রক্রিয়াকে বলা হবে, অনলাইন রিসেলার ব্যবসা। 

অনলাইন রিসেলার ব্যবসা কাকে বলে?

যদি আপনি উপরের আলোচনা থেকে Offline Re Seller Business সম্পর্কে বুঝে থাকেন ৷ তাহলে আপনি খুব সহজেই অনলাইন রিসেলার ব্যবসা টিও বুঝতে পারবেন ৷

কেননা উপরের আলোচিত বিষয়টি তে যদিও কোনো ইন্টারনেট কানেকশন এর প্রয়োজন না হলেও। এই প্রক্রিয়াতে কিন্তুু আপনার অবশ্যই অনলাইন কানেকশন এর প্রয়োজন হবে।

তো সহজ কথায় যদি বলি, তাহলো বলবো যখন আপনি অনলাইন কে কেন্দ্র করে এক বা একাধিক পন্য কে রিসেল করার চেস্টা করবেন ৷ তখন তাকে বলা হবে অলাইন রি-সেলার বিজনেস।

যেমন ধরুন, আপনি কোনো খোলা মার্কেট থেকে কম দাম দিয়ে কিছু টি-শার্ট কিনে নিলেন। এখন আপনি সেগুলোকে পুনরায় বিক্রি করার জন্য ফেসবুক কে বেছে নিলেন ৷

এবং ফেসবুক এর মাধ্যমে আপনার ক্রয় করা টি-শার্ট গুলো পুনরায় আবার বিক্রি করে দিলেন। মূলত বিজনেস করার এই সম্পূর্ন প্রক্রিয়াকে বলা হবে, অনলাইন রিসেলার ব্যবসা ৷ 

কেন রিসেলার বিজনেস শুরু করা উচিত? 

আমরা সবাই জানি যে, বর্তমান সময়ে ব্যবসা করার এমন অনেক গুলো আইডিয়া রয়েছে। এবং আমার এই ওয়েবসাইটে ব্যবসা করার অনেক গোপন আইডিয়া গুলো শেয়ার করা হয়েছে।

তো এখন আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে, বর্তমান সময়ে বিজনেস করার এতো আইডিয়া থাকার পরও কেন আপনার রিসেলার বিজনেস শুরু করা উচিত?

তো এই রিসেলার বিজনেস শুরু করার বেশ কিছু কারন রয়েছে। এবং এই বিজনেস এ আপনি তুলনামূলক ভাবে বেশি পরিমানে সুবিধা ভোগ করতে পারবেন।

আপনার জন্য আরো লেখা…

যা আমি এই আর্টিকেল এর শুরুতেই উল্লেখ করে দিয়েছি। তো এই ব্যবসা শুরু করার কারন গুলো সম্পর্কে এবার আলোচনা করা হবে।

বর্তমানে সময়ে আপনার রিসেলার বিজনেস শুরু করার এমন বেশ কিছু কারন রয়েছে। যেগুলো কারনে আপনার অবশ্যই রিসেলার বিজনেস শুরু করা উচিত। যেমনঃ 

০১| এই ব্যবসা তে ঝুঁকি অনেক কম 

যদি আপনি কোনো ব্যবসা শুরু করেন। তাহলে সবার আগে যে বিষয়টি আপনার সামনে আসবে৷ তা হলো ব্যবসা করার সময় অবশ্যই আপনাকে ঝুঁকি নিতে হবে।

কেননা প্রত্যেকটি ব্যবসা তে কিন্তুু যথেষ্ট পরিমান ঝুঁকি আছে। যার প্রতিযোগীতা আপনাকে সবসময় এর করতে হবে।

কিন্তুু আপনি যদি রিসেলার বিজনেস করেন। তাহলে কিন্তুু আপনার এই ব্যবসা তে ঝুঁকির পরিমান অনেক গুন কম থাকবে। যা আপনি অন্যান্য ব্যবসাতে অনেক বেশি পরিমানে লক্ষ্যে করতে পারবেন ৷

তো এখন আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে, এই ব্যবসা তে ঝুঁকি কম থাকার কারন কি? তাহলে শুনুন…

এখানে মূলত আপনি প্রথম অবস্থায় অনেক কম মূল্যে অর্থাৎ পাইকারি দামে কোনো পন্য কিনে নিবেন। এরপর আপনি আপনার প্রয়োজন এবং সুবিধামতো সেই পন্য গুলোকে পুনরায় সেল করে দিবেন ৷

এতে করে আপনার কেনা পন্য গুলোতে লস খাওয়ার সম্ভাবনা অনেক গুন কম থাকবে। 

০২| লাভের পরিমান অনেক বেশি থাকবে

আমরা যারা ব্যবসা করার সিন্ধান্ত নেই। তারা কিন্তুু সবাই লাভের আশাতেই ব্যবসা করে থাকি। কেননা, যেখানে কোনো লাভ নেই ৷ সেই ব্যবসা করার কোনো মানেই হয়না।

অপরদিকে আপনি যদি এই রিসেলার বিজনেস করেন। তাহলে কিন্তুু আপনার এই লাভ করার সম্ভাবনা অনেক গুন বেশি থাকবে।

কেননা, এখানে আপনি শুরুর দিকে পাইকারি দামে পন্য কিনবেন। এরপর সেই পন্য গুলোকে আপনি বেশি দামে সেল করে দিতে পারবেন। আর এখান থেকে আপনি বেশি পরিমান টাকা আয় করে নিতে পারবেন।

তো এইসব বিষয় গুলোর কারনে আপনার মতো মানুষের জন্য অবশ্যই অবশ্যই রিসেলার বিজনেস শুরু করে দেওয়া উচিত। তবে এগুলো ছাড়াও আরও বেশ কিছু সুবিধা রয়েছে।

যেগুলো আমি নিচের দিকে পর্যায়ক্রমে স্টেপ বাই স্টেপ আলোচনা করবো। 

কিভাবে রিসেল ব্যবসা শুরু করা যাবে?

তো এতোক্ষন ধরে আপনি রিসেলার ব্যবসা রিলেটেড অনেক অজানা বিষয় সম্পর্কে জানতে পারলেন। যেমন, রিসেলার ব্যবসা কাকে বলে, কেন আপনার রিসেলার বিজনেস শুরু করা উচিত।

তো আমার বিশ্বাস যে আপনি সেই বিষয় গুলো বেশ ভালোভাবে বুঝতে পেরেছেন।

এখন এই বিষয় গুলো জেনে নেয়ার পর আপনাকে জেনে নিতে হবে যে, যদি আপনি একজন নতুন মানুষ হিসেবে রিসেলার বিজনেস করতে চান।

তাহলে আপনি কিভাবে এই বিজনেসটি শুরু করবেন। অর্থ্যাৎ প্রাথমিক অবস্থাতে আপনাকে কি কি কাজ করতে হবে। চলুন এবার সে নিয়ে বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক।

যদি আপনি উপরোক্ত আলোচনা গুলো পড়ে থাকেন। তাহলে আপনি এতোক্ষনে অবশ্যই জানতে পেরেছেন যে, রিসেলার ব্যবসা কে প্রধানত দুটি ভাগে ভাগ করা সম্ভব।

এখন আপনি এই দুটি ভাগের মধ্যে কোন ধরনটি কে বেছে নিবেন।

তা সম্পূর্ন আপনার উপর নির্ভর করবে। কিন্তুু আপনার সুবিধার জন্য আমি এই দুটি ভাগ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো। যেন আপনার কোনো প্রকার অসুবিধা না হয়। 

কিভাবে অফলাইন রিসেলার ব্যবসা শুরু করবেন? 

যদি আপনি রিসেলার ব্যবসা করার জন্য অনলাইন পদ্ধতি কে বেছে নেন। তাহলে আপনাকে বেশ কিছু ধাপ অতিক্রম করতে হবে।

যদি আপনি সঠিকভাবে এই ধাপ গুলো অতিক্রম করতে পারেন। তাহলে আপনার সফলতা পাওয়ার সম্ভাবনা অনেক অংশে বেড়ে যাবে।

ধাপ-১ঃ যেহুতু আপনি অফলাইনে রিসেল করার বিজনেস করবেন। সেহুতু আপনাকে সব কাজ ম্যানুয়ালি করতে হবে। এবং সেভাবেই আপনাকে শুরু থেকে প্রস্তুুতি নিতে হবে।

ধাপ-২ঃ এরপর আপনাকে কোনো এক বা একাধিক পন্য নির্বাচন করে নিতে হবে। যে পন্য গুলো কে দিয়ে আপনি রিসেলার ব্যবসা করতে চান।

ধাপ-৩ঃ যখন আপনি আপনার ব্যবসা করার পন্যকে বাছাই করতে পারবেন ৷ তখন আপনাকে খুজে নিতে হবে আপনার পন্য গুলো কোথা থেকে নিলে অনেক কম দামে নেওয়া যাবে।

কেননা, এই পন্য গুলো আপনি যতো কম দাম দিয়ে কিনতে পারবেন ৷ আপনার আয় এর পরিমান ঠিক ততোটুকুই বৃদ্ধি পাবে।

ধাপ-৪ঃ এরপর যখন আপনি উপরোক্ত ধাপ গুলো সঠিকভাবে অতিক্রম করতে পারবেন। তখন আপনার পরবর্তী ধাপ হবে আপনার কিনে নেয়া সেই পন্য গুলো কে কোথায় সেল করবেন।

আর এই স্থান নির্বাচন করার সময় অবশ্যই লোকবহুল স্থানকে বেশি প্রাধান্য দিবেন ৷ কারন যদি আপনি পর্যাপ্ত কাস্টমার না পান। তাহলে কিন্তুু আপনি আশানুরূপ সেল করতে পারবেন না ৷

ধাপ-০৫ঃ এরপর আপনাকে আর তেমন কিছু করতে হবে না। বরং আপনি উপরোক্ত ধাপ গুলো পুনরাবৃত্তি করে যাবেন। এবং রিসেলিং বিজনেস কে কন্টিনিউ ভাবে পরিচালনা করবেন।

তো যদি আপনি অফলাইনে রিসেলার বিজনেস করতে চান। তাহলে উপরোক্ত ধাপ গুলো সঠিকভাবে অতিক্রম করতে হবে। এবং যদি আপনি এই ধাপ গুলো অতিক্রম করতে পারেন।

তাহলে আমার বিশ্বাস যে আপনি খুব কম সময়ের মধ্যে এই বিজনেস থেকে অধিক পরিমান টাকা লাভ করে নিতে পারবেন। 

কিভাবে অনলাইন রিসেলার বিজনেস শুরু করবেন? 

যেহুতু আপনি উপরের আলোচনা থেকে অফলাইন Reseller Business সম্পর্কে জানতে পারলেন ৷ সেহুতু অবশ্যই আপনাকে অনলাইন রিসেলার বিজনেস শুরু করার পদ্ধতি গুলো সম্পর্কেও জেনে নিতে হবে।

কেননা, অফলাইন এর চাইতে আপনি অনলাইনে অধিক পরিমান সুবিধা ভোগ করতে পারবেন।

তো যদি আপনি অনলাইন কে কেন্দ্র করে রিসেলার ব্যবসা করতে চান। তাহলে আপনার সামনে এমন অনেক ধরনের পথ চলে আসবে ৷

এখন আপনি এই যে কোনো একটি পথকে অনুসরন করে এই ধরনের ব্যবসা শুরু করে দিতে পারবেন।

এখন জানার বিষয় হলো যে, আপনি এই অনলাইন রিসেলিং ব্যবসা মোট দুইভাবে করতে পারবেন। যেমন

  • নিজস্ব ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে এবং 
  • সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে

মূলত বর্তমান সময়ে যারা যারা অনলাইন প্লাটফর্মে রিসেলার ব্যবসা করেন। তারা মূলত এই দুই মাধ্যমে এই বিজনেসটি পরিচালনা করে থাকে।

তো এই দুটি মাধ্যম নিয়ে একটু বিস্তারিত আলোচনা করলে আপনার বুঝতে সুবিধা হবে। 

নিজস্ব ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে অনলাইনে রিসেলিং বিজনেস 

যেহুতু আপনি রেগুলার একজন অনলাইন ইউজার। সেহুতু আপনার অবশ্যই আপনার ওয়েবসাইট সম্পর্কে ধারনা থেকে থাকবে।

এখন আপনি কিন্তুু এই ওয়েবসাইটে এর মাধ্যমে খুব সহজেই এই ধরনের রিসেলিং বিজনেস করতে পারবেন। যা আপনার মতো অনেক মানুষ ই দীর্ঘদিন ধরে করে আসছে।

আপনি আরো পড়ুন…

এখন আপনি যদি অনলাইন এর মাধ্যমে খুব সহজ ভাবে রিসেলার ব্যবসা করতে চান। তাহলে সবার আগে আপনাকে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে হবে।

এরপর আপনাকে সেই ওয়েবসাইট বিভিন্ন পন্য গুলোকে সাজিয়ে রাখতে হবে। এবং কাস্টমারদের নিকট সেই পন্য গুলোকে সেল করে টাকা ইনকাম করে নিতে পারবেন। 

সোশ্যাল মিডিয়াতে রিসেলিং বিজনেস 

আমরা বর্তমান সময়ে সবাই কমবেশি সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে থাকি। আজকের দিনে এমন অনেক মানুষ আছেন যারা মূলত দৈনিক ২৪ ঘন্টার মধ্যে ১৬ ঘন্টাই বিভিন্ন ধরনের সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে থাকে।

তো এই সুযোগটাকে কাজে লাগিয়ে আপনি খুব সহজেই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে রিসেলার ব্যবসা করতে পারবেন।

যেমন আপনি যদি ফেসবুকে একটি পেজ তৈরি করেন। এবং সেই ফেসবুক পেজের মাধ্যমে আপনি যেকোনো ধরনের পন্য সেল বা রিসেল করতে পারবেন।

কেননা, বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়া তে প্রচুর পরিমানে ইউজার রয়েছে। 

আমাদের শেষকথা 

আজকের আর্টিকেলে আমি রিসেলার ব্যবসা সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। আশা করি এই ছোট্ট আলোচনা থেকে আপনি রিসেলার ব্যবসা সম্পর্কে পরিস্কার একটা ধারনা পেয়েছেন।

এখন এরপরও যদি আপনার Reseller Business সম্পর্কে আরও কোনো বিষয় জানার থাকে। তাহলে নিচের দিকে ছোট্ট করে একটা কমেন্ট করবেন। আমি আপনার কমেন্ট এর অপেক্ষায় থাকবো।

নতুন নতুন সব আপডেট পেতে Bangla it Blog এর সাথেই থাকুন। ধন্যবাদ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap