ওয়েবসাইট (Website) কি ? অনলাইনে ওয়েবসাইট কত প্রকার ? 

Website কি : গুগল নামক সার্চ ইঞ্জিনে আমরা ভিন্ন ভিন্ন মানুষ ভিন্ন টপিক নিয়ে সার্চ করে থাকি। ঠিক তেমনি ভাবে এমন অনেক জ্ঞানপিপাসু মানুষ আছেন।

ওয়েবসাইট (Website) কি ? অনলাইনে ওয়েবসাইট কত প্রকার ? 
ওয়েবসাইট (Website) কি ? অনলাইনে ওয়েবসাইট কত প্রকার ?

যারা ওয়েবসাইট সম্পর্কে জানতে চায়। আর সে কারনে সেই মানুষ গুলো Website রিলেটেড অনেক কিছু নিয়ে জানতে চায়। যেমনঃ

  1. ওয়েবসাইট কি ও কেন? 
  2. ওয়েবসাইট এর কাজ কি?
  3. ওয়েবসাইট কিভাবে তৈরি করব?
  4. নিউজ ওয়েবসাইট কি? 

কিন্তুু যাদের গুগল সম্পর্কে একটু ধারনা আছে। তারা অবশ্যই গুগল থেকে এই প্রশ্ন গুলোর উওর খুজে নিতে পারবে।

কিন্তুু যাদের অনলাইন সম্পর্কে তেমন একটা ধারনা নেই। তাদের মনে এই প্রশ্নের উওর গুলো জেনে নেয়াটা অধরাই থেকে যায়। 

আর সত্যি বলতে আজকের আর্টিকেল টি ঐসব জ্ঞানপিপাসু মানুষ গুলোর উদ্দেশ্যেই লেখা হয়েছে।

কেননা, আজকে আপনি ওয়েবসাইট কি, কেন একটি ওয়েবসাইট তৈরি করা হয়। এবং আপনি একজন নতুন মানুষ হিসেবে কিভাবে ওয়েবসাইট তৈরি করবেন।

তার সবগুলো বিষয় নিয়ে আজকে স্টেপ বাই স্টেপ আলোচনা করবো।

তো যদি আপনার মনে Website কি তা জানার ইচ্ছে থাকে। তাহলে আজকের পুরো আর্টিকেল টি মন দিয়ে পড়বেন।

আপনার জন্য আরো লেখা…

তাহলে আজকের পর থেকে আপনার মনে আর ওয়েবসাইট নিয়ে কোনো ধরনের অজানা বিষয় থাকবে না।

তাহলে আর দেরী কেন! চলুন সরাসরি মূল আলোচনা তে ফিরে যাওয়া যাক। 

ওয়েবসাইট কি? | What is Website

বর্তমান সময়ে আমাদের প্রত্যেকের হাতে কোনো না কোনো ডিজিটাল ডিভাইস আছে। কেউ মোবাইল ব্যবহার করছি, আবার কেউ কেউ ল্যাপটপ বা অন্য কোনো ডিভাইস ব্যবহার করছি।

আর সেই ডিভাইস গুলো দিয়ে আমরা বেশিরভাগ সময় কোনো না কোনো Website এ ভিজিট করছি। যেমন, আপনি বর্তমানে যেখানে এই লেখাটি পড়ছেন।

এটিও কিন্তুু এক ধরনের ওয়েবসাইট।

তাহলে ওয়েবসাইট কি এই সংঙ্গাতে বলতে হবে যে, Website হলো এমন একটি অনলাইন প্লাটফর্ম।

যেখানে বিভিন্ন ধরনের তথ্য গুলোকে সর্বসাধারন এর জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া ওয়েবপেজ গুলোকে বলা হয়ে থাকে ওয়েবসাইট।

চলুন বিষয়টা কে আরেকটু সহজ করে জেনে নেওয়া যাক। তাহলে আপনার বুঝতে সুবিধা হবে।

যেমন ধরুন, আমরা আমাদের দৈনন্দিন জীবনের আবেগ অনুভুতি গুলো শেয়ার করার জন্য ফেসবুক ব্যবহার করি। আর মজার বিষয় হলো, এই ফেসবুক হলো একটি ওয়েবসাইট।

যাকে আপনি উন্মুক্ত ভাবে সোশ্যাল মিডিয়া হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন। ঠিক তেমনিভাবে অনলাইনে উন্মুক্ত ভাবে ভিন্ন ভিন্ন তথ্য শেয়ার করার ওয়েবপেজ কে বলা হয় Website.

Web page কি | What Is Webpage ?

ওয়েবসাইট কি, যখন আপনি এই প্রশ্নের উওর খুজে পাবেন। তখন আপনার মনে আরও একটি প্রশ্ন জেগে থাকবে। সেটি হলো, Web Page কাকে বলে।

কারন একটি ওয়েবসাইট এর সাথে ওয়েব পেজ বেশ গভীর ভাবে সম্পর্কযুক্ত রয়েছে৷ তাহলে চলুন এবার Web Page কি সে সম্পর্কে ধারনা নেওয়া যাক।

সহজ ভাষায় বলতে গেলে, কোনো একটি ওয়েবসাইট এর মধ্যে থাকা প্রতিটি সিঙ্গেল পেজ (Single Page) কে বলা হয় ওয়েব পেজ।

যার মাধ্যমে আপনি কোনো একটি ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার পর অন্য কোনো পেজে প্রবেশ করতে পারবেন। যেমনটা, বর্তমানে আপনি আমার ওয়েবসাইটে প্রবেশ করেছেন।

কিন্তুু আপনি আমার সাইটের নির্দিষ্ট একটি পেজে প্রবেশ করে আছেন।

কেননা, এই ধরনের Wefb Page গুলো হলো এমন সব কোডিং এর সমন্বয়। যেগুলোকে html দিয়ে এমন ভাবে তৈরি করা হয়।

যেখানে Hyperlink, Image link সহো Text Link পর্যন্ত ব্যবহার করা যায়।

আর এ কারনে মানুষ এই লিংক গুলোতে ক্লিক করে কোনো একটি ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে। সেই ওয়েবসাইট এ বিদ্যমান থাকা অন্যান্য পেজ গুলোতে প্রবেশ করতে পারে।

Website কি এবং Web Page কাকে বলে। আশা করি এ নিয়ে আপনি একটা পরিস্কার ধারনা পেয়ে গেছেন।

এখন আপনার জন্য আরও একটি বিষয় জেনে নেয়াটা জরুরি। সেটি হলো, ওয়েব পেজ কত প্রকারের হয়ে থাকে। কেননা, কোনো একটি সাইট এর Web Page কে ভিন্ন ভিন্ন ভাগে ভাগ করা সম্ভব। যেমনঃ

  1. Static Web Page এবং 
  2. Dynamic Web Page 

হুমমম, কোনো একটি ওয়েবসাইটে যতগুলো ওয়েব পেজ থাকে। তার সবগুলো কে মূলত এই দুইটি ভাগে ভাগ করা হয়ে থাকে। তাই আপনার জন্য এই দুইটি ভাগ সম্পর্কে জেনে নেয়াটা অতি গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়।

চলুন এবার সে সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক। 

Static Web Page কাকে বলে? 

যখন কোনো একটি ওয়েবসাইট এর ওয়েব পেজের মধ্যে স্থির তথ্য প্রদান করা হয়। তখন সেই ধরনের পেজ কে বলা হয়, Static Web Page.

যেন সেই সাইটে আসা User এবং Browser কে ঠিক সেই নিয়ম অনুসারে লোড করা হয়ে থাকে। যেমন ভাবে ওয়েব সার্ভারে সাজানো থাকে।

সচারাচর এই ধরনের ওয়েবপেজ গুলোকে মূলত html দিয়ে গঠন করা হয়ে থাকে। আর জানার বিষয় হলো যে, এই ধরনের Static Web Page গুলো কে তখনি তৈরি করা হয়ে থাকে।

যখন সেই পেজে থাকা তথ্য গুলো কে ভবিষ্যতে পরিবর্তন করার দরকার হবে। আর সেই কারনে এগুলোকে বলা হয়, Static Web Page. 

Dynamic Web Page কাকে বলে? 

সহজ ভাষায় বলতে গেলে, যখন কোনো একটি সাইট এর নির্দিষ্ট ওয়েব পেজে ভিন্ন ভিন্ন তথ্য শেয়ার করে ৷ সেই ধরনের পেজ গুলোকে বলা হয়, Dynamic Web Page.

আর এই ধরনের পেজ গুলোকে সাধারনত বিশেষ এক ধরনের এপ্লিকেশন দ্বারা নিয়ন্ত্রণ করা হয়ে থাকে।

যেমন, আপনি যখন ফেসবুকে লগ ইন করার পর ফেসবুক এর নিউজফিডে যে পোষ্ট গুলো দেখতে পারবেন। সেই একই রকম পোষ্ট কিন্তুু আমি লগ ইন করলে দেখতে পারবো না।

কারন আপনি লগ ইন করলে ফেসবুকে ভিন্ন ভিন্ন পোষ্ট বা তথ্য দেখতে পারবেন।

এবং আমি যদি আলাদা ভাবে ফেসবুকে লগ ইন করি। তাহলে আমি ভিন্ন ভিন্ন পোষ্ট দেখতে পারবো। আর এই ধরনের পেজ কে বলা হয়ে থাকে, Dynamic Web Page. 

Website কিভাবে কাজ করে ?

আর্টিকেল এর শুরু থেকে এখন অবধি আপনি মূলত অনেক অজানা বিষয়ে জানতে পেরেছেন। যেমন, শুরুতে আপনি জেনেছেন যে, ওয়েবসাইট কি, Web Page কাকে বলে?

এবং সবশেষে আপনি জেনেছেন যে, ওয়েব পেজ কে মোট কত ভাগে ভাগ করা যায়। আশা করি সে বিষয় গুলো সম্পর্কে একটা পরিস্কার ধারনা পেয়ে গেছেন।

কিন্তুু এখন যদি আপনাকে কেউ প্রশ্ন করে , এই ওয়েবসাইট গুলো আসলে কিভাবে কাজ করে? আর কিভাবে আমরা একটি Website থেকে বিভিন্ন তথ্য সম্পর্কে জানতে পারি।

তাহলে এই প্রশ্নের উওরে আপনি কি বলবেন? – চলুন এবার সে নিয়ে বিষদভাবে জেনে নেওয়া যাক।

একটি মানুষ যখন সমাজে বসবাস করে। তখন তার মূল পরিচয় হবে, সেই মানুষটার একটি বাড়ি থাকবে, সেই বাড়িতে একটি ঘর থাকবে।

এবং সেই মানুষটার নির্দিষ্ট একটি কর্মসংস্থান থাকবে। যার মাধ্যমে কোনো প্রয়োজনে আপনি সেই মানুষের নিকট পৌঁছাতে পারবেন।

ঠিক তেমনিভাবে কোনো একটি Website এর মূল তথ্য গুলো লুকায়িত থাকে Web Server এর মধ্যে। আর সেই ওয়েব সার্ভার গুলো এতোটাই শক্তিশালী যে।

আপনি খুব সহজেই যে কোনো ওয়েবসাইটে থাকা যাবতীয় তথ্য গুলো সম্পর্কে জেনে নিতে পারবেন।

মনে করুন, আপনি আপনার ডিভাইস থেকে কোনো একটি ব্রাউজার ওপেন করলেন। এরপর Open করা সেই Browser এ একটি ডোমেইন এর নাম লিখে সার্চ করলেন।

আপনি আরো দেখতে পারেন…

এখন আপনি যখন ইন্টারনেট কানেকশন এর মাধ্যমে ব্রাউজার দিয়ে কোনো একটি ডোমেইন এর নাম লিখে সার্চ করবেন।

তখন Web Server এ উক্ত ডোমেইনে থাকা সকল তথ্য গুলো আপনার ব্রাউজার এর মাধ্যমে দেখতে পারবেন।

আর বর্তমান বিশ্বে মোট যতগুলো ওয়েবসাইট আছে৷ সেই সবগুলো সাইট মূলত এই প্রক্রিয়ায় কাজ করে থাকে। 

ওয়েবসাইটের সাথে জড়িত কিছু বিষয় ও শব্দ 

এমন কিছু বিষয় আছে, যেগুলো আপনার জেনে নেয়াটা অতি গুরুত্বপূর্ণ। কেননা, সেই বিষয় গুলো ওয়েবসাইট এর সাথে গভীর সম্পর্ক যুক্ত।

ঠিক একই ভাবে এমন অনেক শব্দ আছে। যেগুলো একটি সাইট এর সাথে সম্পর্কযুক্ত রয়েছে। তাই এগুলো সম্পর্কে না জানা পর্যন্ত আলোচনার গভীরে যাওয়া ঠিক হবে না।

তাই চলুন এবার সে বিষয়ে বিস্তারিত জানা যাক। 

০১| Website Home Page 

আমরা যেসব বসত বাড়িতে বাস করি। তার সবগুলো বাড়িতে প্রবেশ করার একটি গেট থাকে। ঠিক তেমনি ভাবে বর্তমান সময়ে প্রত্যেকটি ওয়েবসাইট এর একটি করে Home Page থাকে।

যাকে সেই ওয়েব সাইট এর প্রবেশদ্বাড় বললেও কোনো প্রকার ভুল হবে না।

কেননা, প্রত্যেকটি ওয়েবসাইট এর জন্য যে পেজটি বাধ্যতামূলক বা মুখ্য। সেই ধরনের ওয়েব পেজ কে বলা হয়, Website Home Page.

০২| Website Domain Name 

বর্তমান সময়ে প্রত্যেকটি বস্তুুকে কোনো না কোনো নামে প্রকাশ করা হয়ে থাকে। যেমন, আমরা লেখা লেখি করার জন্য কলম ব্যবহার করি।

আবার যখন কম্পিউটার বা ল্যাপটপে লেখালেখি করি, তখন যা ব্যবহার করি।  তখন তাকে বলা হয় কিবোর্ড।

ঠিক তেমনি ভাবে প্রত্যেকটি ওয়েবসাইট কোনো না কোনো Domain এর সাথে সংযুক্ত থাকে। আর সেই ডোমেইনে যে নাম দেওয়া থাকে। সেটিই হলো উক্ত ওয়েবসাইট এর মূল পরিচয়। 

০৩| Website Web Server 

একটি ওয়েবসাইট থাকবে, অথচ সেই সাইটে কোনো Web Server থাকবে না। তা কোনো ভাবেই মেনে নেয়া যায়না।

কেননা, প্রত্যেকটি ওয়েবসাইট কোনো না কোনো ওয়েব সার্ভার এর সাথে সংযুক্ত থাকতে হবে। 

আমরা যখন কোনো একটি সাইটে প্রবেশ করি। তখন আমরা সেই সাইটে যেসব তথ্য দেখতে পাই।

সেই তথ্য গুলো প্রথমে ঐ Web Server থেকে আসে। আর তারপর আমরা আমাদের ব্রাউজার থেকে সার্ভার থেকে প্রদর্শিত ঐ তথ্য গুলো কে দেখতে পাই।

তবে ওয়েবসাইট নিয়ে এমন অনেক বিষয় আছে। এমন অনেক বিষয় নিয়ে আমি বিস্তারিত আলোচনা করেছি।

আপনি চাইলে নিচের লিংক থেকে সেগুলো সম্পর্কে জেনে নিতে পারবেন। 

আপনি যদি উপরের লিংক গুলো সম্পর্কে এই বিষয় গুলো জেনে নেন। তাহলে আপনি ওয়েবসাইট নিয়ে অনেক অজানা তথ্য সম্পর্কে জেনে নিতে পারবেন। 

ওয়েবসাইট কত প্রকারের (Types Of Website)

এখন আপনাকে যদি প্রশ্ন করা হয় যে, ওয়েবসাইট কি? – তাহলে এই প্রশ্নের উওরটা আপনি দিতে পারবেন। কারন এ নিয়ে আপনি আর্টিকেল এর শুরুতে জানতে পেরেছেন।

তো Website কি এটা জানার পর, আপনাকে আরও একটি বিষয়ে জেনে নিতে হবে। সেটি হলো, একটি Website কত ধরনের হয়ে থাকে।

একটা কথা বলে রাখা ভালো, বর্তমান বিশ্বে যতগুলো ওয়েবসাইট আছে। সেই সবগুলো সাইট একই নিয়মে কাজ করে।

কিন্তুু এই প্রত্যেকটা ওয়েবসাইট ভিন্ন ভিন্ন কাজে ব্যবহার করা হয়। হয়তবা কেউ শখের বশে ওয়েবসাইট তৈরি করে। আবার কেউ কেউ আছেন, যারা বিভিন্ন কমার্শিয়াল কাজে ব্যবহার করে।

 সবগুলো বিষয়কে একত্রে করে ওয়েবসাইট এর বেশ কয়েকটি ভাগ আপনি দেখতে পারবেন।

ওয়েব সাইট আসলে কত প্রকারের হয়।  এখন এই বিষয়ে আলোচনা করবো। তাহলে আর দেরী কেন! চলুন শুরু করা যাক। 

#Search Engine Websites

একটা বিষয় চিন্তা করে দেখুন। আপনি আমার এই ওয়েবসাইটে কিভাবে আসলেন? – প্রথমে আপনি Google এ গেছেন। তারপর গুগলে গিয়ে, Website কি এই কথাটা লিখেছেন।

তারপর আপনি আমার মতো এই গরিবের Bangla It Blog এ এসেছেন। আর এই ধরনের ওয়েবসাইট গুলো কে বলা হয়, search engine websites.

তবে প্রশ্ন হলো যে, এই ধরনের ওয়েবসাইট গুলো কে সার্চ ইঞ্জিন ওয়েবসাইট বলার কারন কি? – এর কিন্তুু অনেক গুলো কারন আছে। যেমনঃ

  1. এই ধরনের সাইট গুলোর মূল উদ্দেশ্যে হলো, অজানা বিষয় গুলো মানুষকে জানিয়ে দেয়া। 
  2. search engine websites গুলোর প্রধান টার্গেট হলো, বিভিন্ন সার্চ ইঞ্জিন থেকে তার নিজে সাইটে ভিজিটর নিয়ে আসা।
  3. মজার বিষয় হলো, মানুষ এই সার্চ ইঞ্জিন গুলোতে কি কি লিখে সার্চ করছে। সেগুলোর দিকে শকুনের মতো তাকিয়ে থাকতে হয়।
  4. সত্যি বলতে, আমরা যারা ওয়েবসাইট থেকে টাকা আয় করতে চাই। তারা সবাই এই ধরনের search engine websites নিয়েই কাজ করে থাকি। 

একটা কথা জেনে রাখুন, আপনি যদি এই ধরনের search engine website তৈরি করতে চান। এবং সেই ওয়েবসাইট থেকে টাকা আয় করতে চান। তাদের আরও কিছু বিষয় জেনে নিতে হবে। 

আপনি যদি উপরের লিংকে দেওয়া আর্টিকেল গুলো পড়েন। তাহলে আপনি ওয়েবসাইট থেকে আয় নিয়ে অনেক PRO Tips সম্পর্কে জানতে পারবেন। 

#Personal/Blog websites

সাধারন কথায় যা কিছু নিজের, তাকে বলা হয়ে থাকে পারসোনাল। ঠিক তেমনি ভাবে যখন, আপনি একটি Website এর দিকে দেখবেন।

তখন নিজের জন্য তৈরি করা ওয়েবসাইট গুলোকে বলা হয়, পারসোনাল ওয়েবসাইট। আমরা মনে হয়, এই ব্যাপার টা একটু বিস্তারিত আলোচনা করা যাক। তাহলে আপনার বুঝতে সুবিধা হবে।

দেখুন, আপনি বর্তমানে যে ওয়েবসাইটে এই লেখাটি পড়ছেন ৷ এই ধরনের সাইট গুলোকে বলা হয়ে থাকে Personal/Blog websites.

এখানে আমি আমার নিজের চাহিদা এবং সুবিধামতো বিভিন্ন বিষয়ে তথ্য শেয়ার করে থাকি।

আপনি যদি এই ধরনের ওয়েবসাইট তৈরি করতে চান ৷ তাহলে আপনাকে আরও বেশ কিছু বিষয় নিয়ে ধারনা রাখতে হবে। যেমন, 

মজার বিষয় হলো, যদি আপনার একটি পারসোনাল ওয়েবসাইট থাকে। তাহলে আপনি সেই সাইট থেকে অনেক টাকা আয় করতে পারবেন।

আর এ বিষয় গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে হলে অবশ্যই উপরে দেওয়া আর্টিকেল গুলো পড়ে নিবেন। 

#Image gallery websites

উপরের নাম দেখেই হয়তবা অনুমান করতে পেরেছেন যে, আমি আসলে কি নিয়ে কথা বলতে চাচ্ছি। হুমম! আপনার ধারনা সঠিক। কারন, এবার আমি ছবির ওয়েবসাইট নিয়েই কথা বলবো।

বর্তমান সময়ে আপনি এমন অনেক ওয়েবসাইট দেখতে পারবেন। যেগুলো ভেতরে শুধু বিভিন্ন ফটো (Photo) রয়েছে।

কেননা, এই সাইট গুলো তৈরি করার মূল উদ্দেশ্য হলো মানুষ কে বিভিন্ন Photo প্রদর্শন করা। যেখানে আপনি একেবারে হাই কোয়ালিটি সম্পন্ন HD Photo ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

এমন অনেক মানুষ আছেন, যারা Photography খুব ভালোবাসেন ৷ তাদের জন্য এই ধরনের সাইট তৈরি করা উচিত।

কেননা, আপনার ছবি গুলো বাস্তবিক জীবনের পাশাপাশি অনলাইনের মানুষকেও দেখাতে পারবেন৷ এতে করে আপনার পরিচিতি বৃদ্ধি পাবে। 

#Social networking websites

আমরা সবাই জানি, ফেসবুক হলো একটি জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া। এর প্রধান কাজ হলো, যেসব মানুষ অনলাইনে একটিভ থাকে৷ তাদেরকে এক করা এবং কমিউনিকেশন করিয়ে দেয়া।

যার কারনে আমরা ফেসবুকের মাধ্যমে একে অন্যের সাথে যোগাযোগ করতে পারছি। আর ফেসবুকের মতো আরও যেসব ওয়েবসাইট আছে। সেগুলো কে বলা হয়, Social networking websites. 

তো চাইলে আপনিও এই ধরনের ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন। এবং আপনিও ফেসবুক এর মতো মিলিয়ন মিলিয়ন টাকা ওয়েবসাইট থেকে আয় করে নিতে পারবেন।

তবে তার আগে আপনাকে বেশ কিছু বিষয়ে ধারনা রাখতে হবে। যেমনঃ 

আপনি যদি উপরোক্ত আর্টিকেল গুলো পড়েন। তাহলে আপনার Social networking websites তৈরি সম্পর্কে অনেক বিষয়ে ধারনা পাবেন। যা জেনে নেয়াটা আপনার জন্য অতি গুরুত্বপূর্ণ। 

#Online shopping websites

আমরা সবাই জানি যে, প্রযুক্তি আমাদের দৈনন্দিন জীবন কে অনেক সহজ করে তুলেছে। আর সেই প্রভাব থেকে বাদ পড়েনি Website তৈরির প্লাটফর্ম গুলো।

কেননা, আজকের দিনে আপনি কেনাকাটা করার জন্য অনলাইন কে ব্যবহার করতে পারবেন।

হুমমম, এক ধরনের বিশেষ ওয়েবসাইট আছে। যে সাইট গুলো এতোটাই উন্নত যে। এগুলোর মাধ্যমে আপনি অনলাইনে যেকোনো ধরনের কেনাকাটা করতে পারবেন।

যা আজকের দিনের উন্নত দেশ গুলোর প্রায় অধিকাংশ মানুষ এই ধরনের অনলাইন ওয়েবসাইট থেকে কেনাকাটা করে থাকে।

আর বর্তমান সময়ে এমন অনেক Online shopping websites আছে।

যেগুলো গোটা বিশ্বের মধ্য জনপ্রিয় হয়ে আছে। যেমন, এ্যামাজন কিংবা আলীবাবা এখন গোটা পৃথিবীর কাছে পরিচিত। তাই চাইলে আপনিও এমন একটি জনপ্রিয় Online shopping websites তৈরি করতে পারবেন।

এবং সেই ওয়েবসাইট কে গোটা বিশ্বের কাছে পরিচিত করতে পারবেন। 

#Online directory websites

এবার আমি আপনাকে চমৎকার এক ধরনের নতুন ওয়েবসাইট সম্পর্কে ধারনা দিবো। যে ওয়েবসাইট গুলোর মূল কাজ হলো, অন্যান্য সাইটের ডাটা কালেকশন করা।

আর এই ধরনের কাজের উপর ভিওি করে। এদেরকে বলা হয় Online directory websites.আপনি হয়তবা ভাবছেন যে, এই সাইট গুলো কিসের ডাটা সংগ্রহ করে। তাহলে শুনুন….

উপরে আমি একটি কথা বলেছি যে, প্রত্যেকটি সাইট কোনো না কোনো কারনে তৈরি করা হয়ে থাকে। তবে সবার উদ্দেশ্যে কিন্তুু এক হয়না।

আর কোন সাইট কি উদ্দেশ্য তৈরি করা হয়েছে। সেটা জানিয়ে দেয়ার কাজ করে থাকে Online directory websites গুলো। যেমন, বাংলাদেশে টপ ওয়েবসাইট কোন গুলো। সেটার একটা লিষ্ট তৈরি করে Article Publish করলো।

এখন আপনার যদি directory বিষয়টা ভালো লেগে থাকে। তাহলে আপনার কোনো দিকে চিন্তা না করে। সরাসরি Online directory websites নিয়ে কাজ করা উচিত।

আপনি আরো পড়তে পারেন…

#Question answer Forums

আপনি কোনো একটা প্রশ্ন লিখে Google এ সার্চ করবেন। তারপর আপনার প্রশ্নের সাথে মিল রেখে এমন কিছু ওয়েবসাইট আসবে।

যেখানে আপনি শুধু ঐ প্রশ্নের উওর টুকুই জানতে পারবেন ৷ মূলত এই ধরনের সাইট গুলোকে বলা হয় Question answer Forums.

আপনি একটু সার্চ করলেই দেখতে পারবেন। এখন অনেক অনেক সাইট আছে। যেগুলো শুধুমাত্র  নানা ধরনের প্রশ্নের উওর গুলো সংক্ষিপ্ত আকারে দেয়া থাকে।

মজার বিষয় হলো, এই ধরনের Question answer Forums গুলোতে মিলিয়ন মিলিয়ন ভিজিটর পাওয়া যায়। 

ওয়েবসাইট কি নিয়ে আমাদের শেষ কথা

ওয়েবসাইট কি – এখন তো এই প্রশ্নের উওর দিতে পারবেন। কেননা, এই আর্টিকেলে আমি Website নিয়ে একেবারে স্টেপ বাই স্টেপ আলোচনা করেছি।

আর আমার বিশ্বাস, এই ওয়েবসাইট কি নিয়ে লেখা আর্টিকেল টির সমস্ত বিষয়। আপনি বেশ ভালোভাবে বুঝে গেছেন।

তবে আপনার যদি Website কি নিয়ে বলার মতো কিছু থাকে। তাহলে কমেন্ট বক্স তো আছেই। সেখানে একটু ঘুতা দিন।  ধন্যবাদ! পাশে থাকার জন্য।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

HandsUp! কপি করা যাবে না বস!

Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap