অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সেরা ১২ টি ওয়েবসাইট (2022)

অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সেরা ওয়েবসাইট : Best online earning websites of 2022. ঘরে বসে অনলাইনে আয় করার ওয়েবসাইট।

আমরা অনেক সময় অনলাইনে ইনকাম বাংলাদেশী ওয়েবসাইট খুঁজে থাকি।

অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সেরা ১২ টি ওয়েবসাইট
অনলাইনে টাকা ইনকাম করার ওয়েবসাইট

বাংলাদেশ ছাড়াও অনেকেই টাকা ইনকাম করার ওয়েবসাইট খোঁজে থাকে। আবার দক্ষতা ছাড়াই ঘরে বসে অনলাইনে ইনকাম করতে চাই।

যদিওবা দক্ষতা ছাড়া আপনি কোন প্ল্যাটফর্মে টাকা ইনকাম করতে পারবেন না। তবে আপনাকে কোন একটি কাজ ভালোভাবে শিখে নিতে হবে।

কাজ শেখার পর আপনার দক্ষতা দ্বারা পরিশ্রম করার মাধ্যমে প্রচুর পরিমাণ টাকা অনলাইন ইনকাম করতে পারবেন।

তো আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আমি আপনাকে ঘরে বসে আয় করার সহজ উপায় গুলো জানিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করব।

আপনার জন্য আরোও লেখা… 

তার সাথে আপনি আরোও জানতে পারবেন । অনলাইনে ইনকাম বাংলাদেশী সাইট Earn Money Free, মোবাইলে এড দেখে টাকা আয় করার সেরা ৫ টি ওয়েবসাইট ।

মূলত এই অনলাইন ইনকাম সাইট গুলো তে কাজ করে আপনি প্রচুর পরিমাণ টাকা ইনকাম করে নিতে পারবেন।

তাহলে চলুন আর দেরি না করে সরাসরি সেই Best online earning websites গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

২০২২ এর সেরা অনলাইন টাকা ইনকাম করার ওয়েবসাইট

প্রিয় পাঠক, অনলাইনে ইনকাম করা আমাদের অনেকের মধ্যে একটা স্বপ্নের মত। কারণ যখন আপনি অনলাইন থেকে ইনকাম করতে পারবেন।

তখন আপনি নিজের ঘরে বসে টাকা আয় করার একটা সুযোগ তৈরি করতে পারবেন। আর সে কারণে আমাদের মধ্যে প্রায় অনেক মানুষের এই অনলাইন ইনকামের প্রতি যথেষ্ট পরিমাণে আগ্রহ রয়েছে।

কিন্তু সবার মধ্যে এই আগ্রহ থাকলেও সব ধরনের মানুষ এই অনলাইন থেকে ইনকাম করতে পারে না। কেননা আমরা মনে করি যে অনলাইন ইনকাম এর জন্য কোন প্রকার দক্ষতার প্রয়োজন হয় না।

আর যদি আপনিও এমনটা ভেবে থাকেন তাহলে আমি আপনাকে বলব। যে, আপনার এই ধারণা সম্পূর্ণ ভুল।

কারণ অনলাইনে কাজ করার জন্য অবশ্যই আপনার দক্ষতার প্রয়োজন হবে। এবং সেই দক্ষতার বিনিময়ে আপনি অনলাইন এর মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

তো যখন আপনার মধ্যে এমন কোন দক্ষতা থাকবে। যে দক্ষতা গুলো কে আপনি অনলাইন সেক্টরে কাজে লাগাতে পারবেন।

তখন আপনাকে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সেরা ওয়েবসাইট গুলো খুঁজতে হবে। কারণ আপনার মধ্যে যে দক্ষতা রয়েছে সেই দক্ষতা গুলো কে কাজে লাগানোর জন্য।

এই ধরনের অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সেরা ওয়েবসাইট গুলো যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

কেননা আপনি যখন আপনার দক্ষতার বিনিময়ে এই অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সেরা ওয়েবসাইট গুলো তে কাজ করবেন। তখন আপনার কাজের বিনিময়ে টাকা উপার্জন করতে পারবেন।

এভাবে আপনি আপনার দক্ষতার বিনিময়ে যত বেশি কাজ করতে পারবেন। আপনার অনলাইন ইনকাম এর পরিমাণ ঠিক তত বেশি বৃদ্ধি পাবে।

আর এবার আমি আপনাকে সেই অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সেরা ওয়েবসাইট গুলোর সাথে পরিচয় করিয়ে দিব। এবং সেই ওয়েবসাইট গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত বলার চেষ্টা করব।

Freelancer.com

আপনারা যারা ফ্রিল্যান্সিং এর কাজ করেন। তারা অবশ্যই এই ওয়েবসাইট কে চিনে থাকবেন। কেননা এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে মানুষ ফ্রিল্যান্সিং এর কাজ খুঁজে নিতে পারে।

এবং সেই কাজ গুলো করার মাধ্যমে প্রচুর পরিমাণ টাকা অনলাইন ইনকাম করে নিতে পারে। আর উক্ত ওয়েবসাইটের মধ্যে আপনি ফ্রিল্যান্সিং এর সকল কাজ দেখতে পারবেন।

যেমন, আপনি যদি একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার হয়ে থাকেন । তাহলেও আপনি এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে কাজ খুঁজে পাবেন।

এর পাশাপাশি আপনি যদি একজন কন্টেন্ট রাইটার হয়ে থাকেন। তাহলে আপনি কন্টেন্ট রাইটিং এর বিভিন্ন জব এই ওয়েবসাইটে খুঁজে পাবেন।

আর বর্তমান সময়ে এমন লক্ষ লক্ষ ফ্রিল্যান্সার দীর্ঘদিন থেকে এই ওয়েবসাইট এর আওতায় কাজ করে আসছে।

কাজের ধরণ

যখন আপনি অনলাইন থেকে ইনকাম করার জন্য কোন দক্ষতা অর্জন করবেন। এবং এই ওয়েবসাইটের মধ্যে কাজ করতে যাবেন।

তখন আপনি দেখতে পারবেন যে, উক্ত ওয়েবসাইট এর মধ্যে বিভিন্ন রকমের জব ক্যাটাগরি রয়েছে। আর এই ধরনের জব ক্যাটাগরির মধ্যে আপনার আসলে কোন কাজে দক্ষতা রয়েছে

সে গুলো আপনি খুব সহজেই খুঁজে নিতে পারবেন। এবং সেই ক্যাটাগরি তে থাকা যে সকল জব এর জন্য পোস্ট করা হয়েছে।

সে গুলো তে আপনি এপ্লাই করতে পারবেন। আর যখন ক্লাইন্ট আপনাকে উক্ত কাজ টি প্রদান করবে।

তখন আপনি সেই কাজ টি করার মাধ্যমে উক্ত ক্লায়েন্ট এর কাছে প্রাপ্ত অর্থ উপার্জন করতে পারবেন।

বিশেষত্ব

মূলত এই ওয়েবসাইটের মধ্যে একজন ক্লায়েন্ট তার নির্দিষ্ট কাজের জন্য পোস্ট করে থাকে। এবং সেই কাজ করার বিনিময় যে পরিমাণ অর্থ প্রদান করবে।

সেটি উল্লেখ করে দেয়। আর আপনি সেই জব পোস্ট গুলো তে এপ্লাই করতে পারবেন। এবং যদি আপনি আপনার ক্লাইন্ট এর থেকে সেই কাজ টি নিতে পারেন।

তাহলে আপনি উক্ত কাজ টি করার মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন।

অসুবিধা

যেহেতু বর্তমান সময়ে ফ্রিল্যান্সারদের সংখ্যা অধিক পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে। সেহেতু এই ধরনের অনলাইন ইনকাম করা সাইট গুলো থেকে কাজ পাওয়া বর্তমানে অনেক কঠিন হয়ে গেছে।

কেননা এখন আপনাকে অনেক প্রতিযোগিতার মাধ্যমে এই ধরনের কাজ গুলো নিতে হবে। এর পাশাপাশি আপনি যদি একজন বাংলাদেশী হয়ে থাকেন।

তাহলে পেমেন্ট নেয়ার সময়ও আপনাকে একটু ঝামেলায় পড়তে হবে। কারণ তারা আমেরিকান ডলারে পেমেন্ট করে থাকে।

People Per Hour

অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সেরা ওয়েবসাইট হিসেবে People Per Hour হলো অন্যতম একটি ওয়েবসাইট।

কারণ এখানে আপনি বিভিন্ন ধরনের ফ্রিল্যান্সিং জব দেখতে পারবেন। এবং আপনার যে ফ্রিল্যান্সিং এর কাজে দক্ষতা রয়েছে।

আপনি সেই দক্ষতা কে কাজে লাগিয়ে উক্ত ওয়েবসাইট থেকে অনলাইনে ইনকাম করতে পারবেন। আর বর্তমান সময়ে লক্ষ লক্ষ ফ্রিল্যান্সার রয়েছেন।

যারা মূলত এই ওয়েবসাইট এ কাজ করে থাকে। ভালো লাগার মতো বিষয় হলো যে, অন্যান্য ওয়েবসাইটের তুলনায় আপনি এই ওয়েবসাইট থেকে প্রতি ঘন্টা অনুযায়ী টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

কাজের ধরণ

বর্তমান সময়ে ফ্রিল্যান্সিং এর যে সকল কাজ রয়েছে। তার অধিকাংশ কাজ আপনি এই ওয়েবসাইটের মধ্যে দেখতে পারবেন।

আর যখন আপনি উক্ত ওয়েবসাইটের মধ্যে প্রবেশ করবেন। তখন দেখতে পারবেন যে বিভিন্ন দেশ থেকে আসা ক্লায়েন্ট নির্দিষ্ট কাজের জন্য জব পোস্ট পাবলিশ করে রেখেছে।

এবং আপনি একজন ফ্রিল্যান্সার হিসাবে সেই জব পোস্ট গুলো তে এপ্লাই করতে পারবেন। এবং যদি ক্লাইন্ট আপনাকে পছন্দ করে তাহলে সে আপনাকে কাজ দিবে।

এবং উক্ত কাজ টি করার মাধ্যমে আপনি অনলাইন ইনকাম করবেন।

আপনি আরোও পড়তে পারেন…

বিশেষত্ব

আপনি এই ওয়েবসাইটের মধ্যে যে ফ্রিল্যান্সিং জব গুলো দেখতে পারবেন। সে গুলো মূলত ঘন্টা হিসেবে পেমেন্ট করা হয়ে থাকে।

অর্থাৎ একটি কাজ করার জন্য কি পরিমাণ সময় লাগবে। সেই সময় অনুযায়ী উক্ত কাজের জন্য অর্থ প্রদান করা হয়। যা আসলে অন্যান্য ইনকাম ওয়েবসাইট গুলোর থেকে একে বারেই ভিন্ন।

আর সে কারণেই এই ওয়েবসাইট টি তে প্রচুর পরিমানে ফ্রিল্যান্সার কাজ করে থাকে।

অসুবিধা

বর্তমান সময়ে এই ধরনের অনলাইনে টাকা ইনকাম করার ওয়েবসাইট গুলো তে প্রধান যে সমস্যা টি রয়েছে।

সেটি হল, অনেক প্রতিযোগিতার মাধ্যমে ক্লায়েন্ট দের থেকে কাজ নিতে হয়।

সেই সাথে যখন আপনি কোন একটি কাজ করবেন। তখন পেমেন্ট নেওয়ার ক্ষেত্রেও আপনাকে বেশ ঝামেলার সম্মুখীন হতে হবে।

কারণ এই ওয়েবসাইট থেকে আয় করা টাকা গুলো আমেরিকান ডলারে দেওয়া হয়।

মার্চ বাই আমাজন (Merch by Amazon)

যদি আপনি একজন ইন্ডিয়ান নাগরিক হয়ে থাকেন। তাহলে এই ওয়েবসাইট টি আপনার জন্য অনেক বেশি হেল্পফুল হবে।

কারণ এই ওয়েবসাইট কে ইন্ডিয়ায় থাকা ব্যক্তিদের জন্য তৈরি করা হয়েছে। মূলত এমন অনেক মানুষ কে খুঁজে পাওয়া যাবে। যারা অনেক ভালো ভালো ডিজাইন করতে পারে।

আর তারা তাদের এই ডিজাইনিং দক্ষতা কে কাজে লাগিয়ে উক্ত ওয়েবসাইট থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবে। তবে আপনি যদি এই ওয়েবসাইট থেকে অনলাইনে ইনকাম করতে চান।

তাহলে অবশ্যই আপনাকে একজন দক্ষ ডিজাইনার হতে হবে। অন্যথায় আপনি এই ওয়েবসাইটে কাজ করে নিজে কে টিকিয়ে রাখতে পারবেন না।

কাজের ধরণ

এখানে অন্যান্য ওয়েবসাইট এর মত বিভিন্ন ধরনের ফ্রিল্যান্সিং জব দেখতে পারবেন না। বরং এই ওয়েবসাইট থেকে শুধুমাত্র সেই ব্যক্তিরা ইনকাম করতে পারবে।

যাদের ডিজাইনের মধ্যে সৃজনশীলতা রয়েছে। এবং আপনি যদি এমন একজন দক্ষ ডিজাইনার হয়ে থাকেন। তাহলে আপনি আপনার ডিজাইনিং দক্ষ তাকে কাজে লাগিয়ে।

উক্ত ওয়েবসাইটে কাজ করতে পারবেন এবং সেই কাজের বিনিময়ে অনলাইন ইনকাম করতে পারবেন।

বিশেষত্ব

তো যখন আপনি এই ওয়েবসাইটের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করবেন। এবং আপনি আপনার ডিজাইনিং দক্ষতার পরিচয় দিতে পারবেন।

তাহলে আপনি এই ওয়েব সাইটে কাজ করার ফলে এক ধরনের লাইসেন্স পাবেন। যা আপনার ডিজাইনিং দক্ষতার পরিচয় বহন করবে।

অসুবিধা

বরাবরের মতো এই ওয়েবসাইটে কাজ করার পরে যখন আপনি পেমেন্ট নিবেন। তখন আপনাকে বেশ অসুবিধার মধ্যে পড়তে হবে।

কারণ এই ওয়েবসাইট থেকে ও আমেরিকান ডলার এর মাধ্যমে পেমেন্ট করা হয়ে থাকে।

আর সেই ডলার গুলো আপনাকে Payoneer একাউন্টের মাধ্যমে উত্তোলন করতে হবে।

ডিজিটাল মার্কেট (Digital Market)

যদি আপনি অনলাইন থেকে ইনকাম করতে চান। তাহলে অবশ্যই কোন না কোন সময় আপনি ডিজিটাল মার্কেটিং এর কথা শুনে থাকবেন।

মূলত এই পদ্ধতি তে অনলাইনের মাধ্যমে একটি প্রোডাক্টের প্রচারণা করা হয়ে থাকে। তো আপনি যদি এই ওয়েবসাইট থেকে টাকা ইনকাম করতে চান।

তাহলে অবশ্যই আপনাকে বিভিন্ন ডিজিটাল মার্কেটিং এর সাথে সম্পর্ক যুক্ত উপাদান নিয়ে কাজ করতে হবে।

যেমন, ডিজিটাল মার্কেটিং করার জন্য ব্লগের প্রয়োজন হবে, ভালো ভালো কনটেন্ট এর প্রয়োজন হবে। তো এই বিষয় গুলো আপনি উক্ত ওয়েবসাইট এর মধ্যে বিক্রি করতে পারবেন।

এবং আপনার প্রয়োজন হলে সেই ধরনের বিষয় গুলো আপনি নিজের প্রয়োজন কিনে নিতে পারবেন।

কাজের ধরণ

কোন একটি পণ্য কেনাবেচা করার সময় তৃতীয় পক্ষের প্রয়োজন হয়ে থাকে। কিন্তু আপনি যখন এই ওয়েবসাইটের মধ্যে কাজ করবেন।

তখন আপনার কোন প্রকারের তৃতীয় পক্ষের প্রয়োজন হবে না।

বরং আপনি সরাসরি আপনার কোন উপাদান এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিক্রি করতে পারবেন। এবং প্রয়োজন হলে কিনে নিতে পারবেন।

বিশেষত্ব

অনলাইনের মধ্যে এটি হল বিশ্বস্ত একটি প্ল্যাটফর্ম। যেখানে একজন ডিজিটাল মার্কেটের সাথে যুক্ত থাকা ব্যক্তি। তার মার্কেটিং এর কাজের বিভিন্ন উপাদান কিনে নিতে পারবে।

এবং এই ডিজিটাল মার্কেটিং এর কাজ গুলো সম্পন্ন করার জন্য যে সকল পরিষেবার প্রয়োজন হয়। তা এই ওয়েবসাইট থেকে সংগ্রহ করতে পারবে।

অসুবিধা

তো যখন আপনি আপনার ডিজিটাল মার্কেটিং এর সাথে যুক্ত থাকা বিভিন্ন পরিষেবা এই ওয়েবসাইট থেকে কিনতে যাবেন।

তখন আপনি লক্ষ্য করতে পারবেন যে, উক্ত ওয়েবসাইট থেকে এই সকল পরিষেবা কেনার জন্য ব্যাপক পরিমাণ অর্থ ব্যয় করতে হয়। অর্থাৎ এগুলো অনেক ব্যয়বহুল।

সাটারস্টক (Shutterstock)

আমাদের মধ্যে এমন অনেক মানুষ আছেন। যারা মূলত ফটোগ্রাফি করতে অনেক ভালোবাসে।

আর তাদের জন্য উপযুক্ত একটি অনলাইনে ইনকাম করার ওয়েবসাইট হলো, সাটারস্টক (Shutterstock).

কারণ এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনি আপনার ফটোগ্রাফির মাধ্যমে তোলা ছবি গুলো প্রচুর পরিমাণ টাকার বিনিময়ে বিক্রি করতে পারবেন।

আর আজকের দিনে আপনার মত এমন অনেক ফটোগ্রাফার রয়েছেন। যারা মূলত তাদের ফটোগ্রাফির মাধ্যমে তোলা ছবি গুলো এই ওয়েবসাইটে বিক্রি করে।

বিপুল পরিমাণ টাকা ইনকাম করে আসছে। কেননা এটি হলো ছবি বিক্রি করার বিশ্বস্ত একটি প্ল্যাটফর্ম।

কাজের ধরণ

প্রথমত আপনাকে বিভিন্ন ছবি তুলতে হবে। এবং তারপরে সেই ছবি গুলো উক্ত ওয়েবসাইটের মধ্যে আপলোড করে রাখতে হবে।

এরপর ক্লায়েন্ট যখন আপনার কোন একটি ছবি দেখে পছন্দ করবে। তখন সে আপনার কাছ থেকে নির্ধারিত টাকা দিয়ে সেই ছবিটি কিনে নিবে।

মূলত এই পদ্ধতি অনুসরণ করে আপনি উক্ত ওয়েবসাইট থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

বিশেষত্ব

তো অনেকের মনে একটি প্রশ্ন জাগতে পারে যে। আপনি আপনার ফটোগ্রাফির মাধ্যমে কোন একটি ছবি তোলার পর যখন এই ওয়েবসাইটে আপলোড করবেন।

তখন যদি অন্য কেউ আপনার সেই ছবির মালিকানা দাবি করে। তখন আপনি কি করবেন। যদি আপনার মনে এই ধরনের প্রশ্ন জেগে থাকে।

তাহলে আমি আপনাকে বলব যে, এমন কিছু হওয়ার সুযোগ নেই।

আপনি আরোও দেখতে পারেন…

কেননা আপনার ছবি গুলো যাতে করে অবৈধ ভাবে কেউ ব্যবহার করতে না পারে। সে জন্য এই ওয়েবসাইট যত্নবান হবে। যা আপনি নিজেও লক্ষ্য করতে পারবেন।

অসুবিধা

তো যখন আপনি এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ছবি বিক্রি করবেন। তখন সেই বিক্রি হওয়ার পরে যে অর্থ পাবেন।

সেটা মূলত আপনাকে আমেরিকান ডলারে পেমেন্ট করবে। এবং এই পেমেন্ট উত্তোলন করার সময় আপনি একটু অসুবিধার মধ্যে পড়বেন।

আপওয়ার্ক (Upwork)

বর্তমান সময়ে অনলাইন ইনকাম ওয়েবসাইট গুলোর মধ্যে আপওয়ার্ক অনেক জনপ্রিয় একটি ওয়েবসাইট।

মূলত অনেক বড় বড় প্রজেক্ট এর জন্য এই ওয়েবসাইট থেকে ফ্রিল্যান্সারদের হায়ার করা হয়ে থাকে। যেমন, কোন ধরনের বড় এসইও ফিল্ড কিংবা ওয়েব ডিজাইন এর প্রজেক্ট সম্পন্ন করার জন্য।

এই ওয়েবসাইট থেকে দক্ষ এবং অভিজ্ঞ ব্যক্তিদের নেওয়া হয়। এর পাশাপাশি আপনি উক্ত ওয়েবসাইটের মধ্যে আরও বিভিন্ন ধরনের ফ্রিল্যান্সিং প্রজেক্ট দেখতে পারবেন।

এবং যদি আপনার দক্ষতা থাকে তাহলে আপনি এই ওয়েব সাইটের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রজেক্টে কাজ করে অনলাইন ইনকাম করতে পারবেন।

কাজের ধরণ

এই অনলাইন ইনকাম ওয়েবসাইট এর মধ্যে আপনি বিভিন্ন ধরনের ফ্রিল্যান্সিং জব দেখতে পারবেন।

তার মধ্যে অন্যতম হলো কন্টেন্ট রাইটিং জব, গ্রাফিক্স ডিজাইন জব, এসইও অপটিমাইজেশন এর জব সহ আরো বিভিন্ন ধরনের কাজ দেখতে পারবেন।

যেহেতু এই কাজ গুলো প্রজেক্ট বেস, সেহেতু বিভিন্ন প্রজেক্ট এর আওতায় আপনি এই ওয়েবসাইটে কাজ করতে পারবেন।

বিশেষত্ব

অবাক করার মত বিষয় হলো যে, এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে যারা কাজ করে। তাদের কাজের উপরে নির্ভর করে কমিশন প্রদান করা হয়।

এবং সেই কমিশন 5% থেকে শুরু করে 20% পর্যন্ত হয়ে থাকে। আর আপনার এই ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম করার পরিমাণ যত বেশি বৃদ্ধি পাবে। আপনার এই কমিশনের পরিমাণ ঠিক তত বেশি বেড়ে যাবে।

অসুবিধা

যেহেতু আপওয়ার্ক এর মধ্যে কাজ করার বিভিন্ন রকম সুবিধা রয়েছে। সেহেতু এখানে কাজ পাওয়াটা অনেক কঠিন।

কেননা এখানে কাজ পেতে হলে অনেক প্রতিযোগিতার মধ্যে টিকে থাকতে হয়। তো যারা নতুন ব্যক্তি হিসেবে এই ওয়েব সাইটে কাজ করতে যাবেন।

তাদের ক্ষেত্রে কাজ পাওয়াটা বেশ কষ্টকর হয়ে দাঁড়াবে।

নিওবাক্স (NeoBux)

আমাদের মধ্যে এমন অনেক ব্যক্তি আছেন। যারা মূলত খুব কম পরিশ্রম করে অধিক পরিমাণ টাকা অনলাইন থেকে ইনকাম করে নিতে চায়।

আর তাদের জন্য নিওবাক্স (NeoBux) অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সেরা ওয়েবসাইট হবে। কারণ এখানে আপনি যে কাজ গুলো দেখতে পারবেন।

সে গুলো তুলনা মূলক ভাবে অনেক সহজ। এবং এই কাজ গুলো করার জন্য খুব বেশি একটা দক্ষতার প্রয়োজন হয় না।

বরং আপনি মাত্র কয়েকবার চেষ্টা করার মাধ্যমে এই কাজ গুলো করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। কারণ এখানে যে সব কাজ পাওয়া যায় সে গুলো কে বলা হয়ে থাকে, পিটিসি কাজ।

অর্থাৎ আপনি প্রতি ক্লিক করার বিনিময়ে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

কাজের ধরণ

আমি শুরুতেই আপনাকে একটা কথা বলেছি। আর সেই কথাটি হল যে, এই ওয়েবসাইটে আপনি যে সকল কাজ দেখতে পারবেন।

সে গুলো অনেক সহজ কেননা এখানে বিভিন্ন ধরনের কাজ পাওয়া যায়।

যেমন ভিডিও দেখা, কোন ওয়েবসাইটের মধ্যে ভিজিট করা, আবার গেমস খেলার মতো সহজ সহজ কাজ দেখতে পাওয়া যায়।

আর এই কাজ গুলো সহজ হওয়ার পরেও আপনি যখন ভালো ভাবে উক্ত কাজ গুলো করবেন। তখন আপনি অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

বিশেষত্ব

এই ওয়েবসাইটের মধ্যে আপনি অনেক ছোট ছোট কাজ করে টাকা ইনকাম করা পাশাপাশি। এক ধরনের রেফারেল প্রোগ্রাম দেখতে পারবেন।

যেখানে আপনি আপনার পরিচিত মানুষদের এই ওয়েবসাইটের রেফার করে যুক্ত করতে পারলে।

আপনি আলাদা কমিশন পাবেন যা আপনার ইনকামের পরিমাণ কে আরো বাড়িয়ে দিবে।

অসুবিধা

যদিও বা এই ওয়েবসাইট থেকে গেম খেলা, ওয়েবসাইট ভিজিট করা, ভিডিও দেখার মাধ্যমে টাকা ইনকাম করা যায়। কিন্তু সেই ইনকামের পরিমাণ খুব অল্প।

তবে এই ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম করতে হলে অবশ্যই আপনাকে রেফার প্রোগ্রামের উপর নির্ভরশীল হতে হবে।

অর্থাৎ আপনি যত বেশি মেম্বার এই ওয়েব সাইটে যুক্ত করতে পারবেন। আপনার ইনকাম তত বেশি হবে।

ফাইভার (Fiverr)

আমাদের মধ্যে যারা এনিমেশন নিয়ে কাজ করেন। তাদের জন্য অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সেরা ওয়েবসাইট হল, ফাইভার (Fiverr).

কারণ বর্তমান সময়ে বিভিন্ন ধরনের এনিমেশন এর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। আর আপনি যদি এই এনিমেশন সেক্টরে নিজেকে দক্ষ হিসেবে গড়ে তুলতে পারেন।

তাহলে আপনি আপনার তৈরি করা এনিমেশন গুলো ফাইভার এর মাধ্যমে প্রচুর পরিমাণ টাকা দিয়ে। সেই অ্যানিমেশন গুলো বিক্রি করতে পারবেন।

আর সে কারণে আজকের দিনের এনিমেশন ক্রিয়েটররা এই ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে কাজ করে থাকে। এবং সেই কাজের বিনিময়ে অনলাইন ইনকাম করে।

কাজের ধরণ

তো প্রথমত আপনাকে একটি ফাইবার অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে। এবং সেই অ্যাকাউন্টের মধ্যে আপনি আপনার যাবতীয় তথ্য গুলো প্রদান করতে পারবেন।

এর পাশাপাশি ফাইবার নামক ওয়েবসাইটে যে সকল ক্লায়েন্ট রয়েছে। তাদের সাথে আপনি সরাসরি কথা বলতে পারবেন।

এবং তাদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিতে পারবেন।

বিশেষত্ব

তো অন্যান্য ফ্রিল্যান্সিং ওয়েবসাইট গুলোর মত আপনি এই ফাইবার নামক ওয়েবসাইটে নিজের প্রোফাইল তৈরি করতে পারবেন।

এবং সেই প্রোফাইলে আপনি আপনার দক্ষতা কে খুব সুন্দর ভাবে ফুটিয়ে তুলতে পারবেন। এর ফলে ক্লায়েন্টরা আপনাকে কাজ দিতে আগ্রহ প্রকাশ করবে।

অসুবিধা

যখন আপনি এই ওয়েবসাইটের মধ্যে কাজ করবেন। তখন আপনি একটা বিষয়ে খুব ভালো ভাবে লক্ষ্য করলে দেখতে পারবেন ।

যে, অন্যান্য ওয়েবসাইট এর তুলনায়। এই ওয়েবসাইটে কাজ করে টাকা আয় করার পরিমাণ অনেকটা কম।

কেননা বর্তমান সময়ে ক্লায়েন্টদের তুলনায় ফ্রিল্যান্সারদের পরিমাণ অনেক বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে।

আমাদের শেষ কথা

অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সেরা ওয়েবসাইট গুলো নিয়ে আজকে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

মূলত আজকের এই আলোচনার মাধ্যমে আপনি বিশ্বের জনপ্রিয় অনলাইন ইনকাম করার ওয়েবসাইট গুলোর মধ্যে। যে সমস্ত বিষয় রয়েছে।

তার প্রতিটি বিষয় কে আজকে আমি ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করেছি। যদিও বা আমি আমার এই ওয়েবসাইটে অনলাইন ইনকাম নিয়ে বিভিন্ন আর্টিকেল পাবলিশ করেছি।

তবে এরপরও যদি আপনার অনলাইন ইনকাম রিলেটেড কোন কিছু জানার থাকে। তাহলে অবশ্যই নিচে কমেন্ট করে জানিয়ে দিবেন। আর দেখা হবে অন্য কোনো আর্টিকেলে।

সে পর্যন্ত সুস্থ থাকুন, ভালো থাকুন, ধন্যবাদ।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap