কিভাবে প্রফেশনাল ইউটিউব থাম্বনেইল ডিজাইন করতে হয়

ইউটিউব থাম্বনেইল ডিজাইনঃ সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। সদ্য আপলোড করা একটি ভিডিওতে কি পরিমানে ভিউ আসবে। তার প্রায় ৭০% নির্ভর করে ইউটিউব থাম্বনেইল ডিজাইন এর উপর।

কিন্তুু দুঃখজনক হলেও সত্য যে, আমরা যারা নতুন ইউটিউবিং শুরু করি। তাদের মধ্যে প্রায় বেশিরভাগ Youtuber তাদের ইউটিউব থাম্বনেইলকে তেমন একটা গুরুত্ব দেয় না।

প্রফেশনাল ইউটিউব থাম্বনাইল ডিজাইন করার উপায়
প্রফেশনাল ইউটিউব থাম্বনাইল ডিজাইন

তবে একটি নতুন চ্যানেলকে গ্রো করার পেছনে থাম্বনেইল ডিজাইন যে কতটা ভূমিকা পালন করে। সে সম্পর্কে জানলে আপনি রীতিমতো অবাক হবেন। আপনার ভিডিওতে আকর্ষণীয় ইউটিউব থাম্বনেইল ব্যবহার করলে ক্লিক এবং ভিউ বাড়ার চান্স বেশি থাকে।

যারা বড় বড় ইউটিউবার, যারা আজকের দিনে ইউটিউব সেক্টরে সফলতা অর্জন করতে পেরেছে। তারা সবসময়ই একটা কথা বলে থাকে। সেটি হলো, “কোনো চ্যানেল এর Content Making এ যতোটা সময় ও শ্রম ব্যয় করবেন ৷ ঠিক ততোটা সময় Youtube Thumbnail এর পেছনেও ব্যয় করা উচিত”।

আপনি আরো পড়তে পারেন…

এখন এই যুক্তির সাথে আপনি কতটা একমত হবেন সেটা তো আমি বলতে পারবো না। তবে আপনি যদি আজকের এই আর্টিকেলটি একটু মনোযোগ সহকারে পড়েন। তাহলে আমি গ্যারান্টি দিয়ে বলতে পারবো যে, Youtube Thumbnail এর গুরুত্ব সম্পর্কে আপনি একটা ক্লিয়ার ধারনা পেয়ে যাবেন। 

ইউটিউব থাম্বনেইল কি?

সাধারণত আমরা যখন ইউটিউবে আপলোড করা কোনো ভিডিও দেখতে যাই। তখন সরাসরি সেই ভিডিওকে দেখতে পারি না। কারন ইউটিউব তাদের এলগরিদমকে ঠিক সেভাবেই সাজিয়ে নিয়েছে। তাই ইউটিউব এর এলগরিদম অনুযায়ী, কোনো দর্শক যখন একটি ভিডিও দেখতে চাইবে।

তখন সেই দর্শক সবার আগে সেই ভিডিও রিলেটেড একটি Picture দেখতে পারবে। আর প্রত্যেকটি ভিডিওতে ব্যবহার করা এই পিকচার গুলোকে বলা হয়, ইউটিউব থাম্বনেইল। ইউটিউব এর যেসব ব্যবহারকারী আছে, তাদের কথা মাথায় রেখেই Youtube কর্তৃপক্ষ এমন পদ্ধতি চালু করেছে।

দর্শকরা যখন কোনো ভিডিও দেখার জন্য ইউটিউবে সার্চ করবে। তখন যেন ভিডিওর থাম্বনেইল দেখে মূল বিষয়বস্তু বুঝে নিতে পারে। মূলত সেই কারনেই Youtube Thumbnail এর ব্যবহার করা হয়। 

ইউটিউব থাম্বনেইল সাইজ কত?

ইউটিউব থাম্বনেইল ডিজাইন এর Size নিয়ে অনেকেই অনেক রকমের বিড়ম্বনায় পড়ে যায়। কারন যতক্ষন পর্যন্ত আপনি থাম্বনেইল এর সঠিক সাইজ সম্পর্কে জানতে পারবেন না। ততোক্ষন পর্যন্ত আপনি মানসম্মত Thumbnail Create করতে পারবেন না।

তো ইউটিউব সচারচর সব ভিডিওতে একই সাইজের থাম্বনেইল তৈরি করার সুযোগ দিয়েছে। অর্থ্যাৎ, আপনি যদি একবার এই Ratio সম্পর্কে জানতে পারেন। তাহলে আপনাকে আর এই বিষয় নিয়ে তেমন মাথা ঘামাতে হবে না।

তবে প্রশ্ন হলো যে, আসলে একটি Youtube Thumbnail তৈরিতে কোন সাইজটি সিলেক্ট করতে হয়? বা কোন Ratio অনুযায়ী থাম্বনেইল তৈরি করতে হয়?

সচারচর ইউটিউব 16:9 Ratio এর থাম্বনেইলকে সাপোর্ট করে থাকে। অর্থ্যাৎ, ইউটিউবের ভিডিওতে আমরা যে (1280×720) সাইজের ভিডিও আপলোড করি। ঠিক একইভাবে থাম্বনেইল তৈরি করার জন্যও আপনাকে (1280×720) বা 16:9 Ratio তে রাখতে হবে।

[⚠️ ALART: যদি আপনি বড় সাইজের থাম্বনেইল তৈরি করেন। কিংবা উপরে আলোচিত Spect Ratio কে গুরুত্ব না দেন। তাহলে আপনার থাম্বনেইলকে ইউটিউব সাপোর্ট করবে না]

কেন ইউটিউব থাম্বনেইল ব্যবহার করবেন?

বেশ গভীর একটা প্রশ্ন, “কেন আমাদের Youtube Thumbnail ব্যবহার করতে হয়”? যদি আমরা থাম্বনেইল ব্যবহার না করি, তাহলে আমাদের কোনো সমস্যা হবে?

এই প্রশ্নের উওর জানার আগে একটু ভেবে দেখুন। যখন আপনি ইউটিউবে প্রবেশ করেন, তখন আপনি কি কি করেন!  নিশ্চই সবার আগে Notification Check করেন। এবং এরপরে ইউটিউবের হোমপেজে থাকা নিউজফিডকে স্ক্রল করেন, তাইনা?

এবার চিন্তা করে দেখুন, যখন আপনি ইউটিউব এর Newsfeed স্ক্রল করেন। তখন যে ভিডিওর থাম্বনেইল আপনার নজরে পড়ে সেখানে আপনি থেমে যান। এবং সেই থাম্বনেইলকে কি আছে, সেটি দেখার চেস্টা করেন, তাইনা?

এখন সেই থাম্বনেইল দেখে যদি আপনার ভালো লাগে, তখন কিন্তুু আপনি উক্ত ভিডিওতে কি আছে, সেটি দেখার জন্য সেই ভিডিওতে ক্লিক করবেন। এবং সেই ভিডিওটি দেখতে থাকবেন। এবার ভেবে দেখুন, যখন আপনি ইউটিউব এর নিইজফিড স্ক্রল করছিলেন।

তখন কিন্তুু একটার পর একটা ভিডিও থাম্বনেইল আপনার নজরে এসেছে ৷ কিন্তুু কোনো একটা সময় একটি Youtube Thumbnail আপনার স্ক্রল করাকে সম্পূর্নরুপে বন্ধ করে দিয়েছে। এবং আপনাকে সেই ভিডিওতে ক্লিক করতে বাধ্য করেছে। তাহলে ভেবে দেখেছেন, থাম্বনেইল কতটা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

এখন আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে, ” ভাই আমি তো এমন অনেককেই দেখেছি যারা ভিডিওতে কোনো থাম্বনেইল ব্যবহার করেনা ৷ এরফলে তাদের কোনো সমস্যা হয়না “?

ভাই শুনুন, ইউটিউবে কোথাও লেখা নেই যে আপনাকে বাধ্যতামূলক থাম্বনেইল ব্যবহার করতেই হবে। কারন আপনি যদি এটি ব্যবহার না করেন। তারপরেও কিন্তুু ইউটিউব আপনার ভিডিও এর কোনো একটি অংশকে অটোমেটিক থাম্বনেইল হিসেবে Detect করে নিবে।

অর্থ্যাৎ, যাইহোক না কেন, ইউটিউবের কিছু কিছু ভিডিও ছাড়া  এমন কোনো ভিডিও খুজে পাবেন না। যে ভিডিও গুলোতে কোনো Thumbnail নেই। মানে যারা রেগুলার ইউটিউব নিয়ে কাজ করে।

কিভাবে ইউটিউব থাম্বনেইল বানানো যায়?

তো এবার আমরা জানবো যে, ” আপনি কিভাবে একটি ইউটিউব থাম্বনেইল তৈরি করবেন”। আপনি হয়ত এখন জানতে চাইবেন কিভাবে একটি আকর্ষণীয় ইউটিউব থাম্বনেইল বানাবেন।

দেখুন, এই কাজটি আপনি তিনটি পদ্ধতিতে করতে পারবেন। যথাঃ 

  • মোবাইল দিয়ে
  • কম্পিউটার বা ল্যাপটপ দিয়ে এবং 
  • অনলাইনে বিভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে 

হুমমম, আপনি চাইলে উপরে আলোচিত যেকোনো একটি মাধ্যম অনুসরন করে খুব সহজেই একটি Youtube Thumbnail তৈরি করতে পারবেন। যদি আপনার কাছে কম্পিউটার থাকে। তাহলে আপনি এমন অনেক Software খুজে পাবেন। যার মাধ্যমে খুব দ্রুত এই কাজটি করতে পারবেন।

কিন্তুু আপনার কাছে যদি কম্পিউটার বা ল্যাপটপ না থাকে। তাহলেও চিন্তা করার কোনো দরকার নেই, কারন বর্তমান সময়ে আমাদের স্মার্টফোন গুলোর জন্য এমন ডজন খানেক Apps আছে। যে Apps গুলোর মাধ্যমে আপনার ক্রিয়েটিভিটি অনুযায়ী মানসম্মত থাম্বনেইল তৈরি করতে পারবেন।

এখন আপনার যদি মনে হয় যে, না ভাই! ফটো এডিটিং আমার তেমন ভালো লাগে না। এসব সফটওয়্যার দিয়ে কাজ করতে ইচ্ছে করেনা। তাহলে আপনার জন্য আরও একটি বিকল্প উপায় আছে। সেটি হলো অনলাইনের বিভিন্ন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে এই কাজটি করতে হবে।

আপনি আরো দেখুন…

আপনি যদি গুগল এ “YouTube Thumbnail Maker”- লিখে সার্চ করেন। তাহলে আপনার সামনে শত শত ওয়েবসাইট চলে আসবে ৷ যেখান থেকে আপনি মাএ কয়েক মিনিটের মধ্যে একটি আর্কষনীয় Youtube thumbnail তৈরি করে নিতে পারবেন।

এই ওয়েবসাইট গুলোর সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো, এখানে আপনাকে তেমন সময় ও শ্রম দিতে হবে না। বরং এই ওয়েবসাইট গুলোতে আগে থেকেই Template তৈরি করা থাকে। আর আপনি সেই টেমপ্লেট গুলোকে নিজের ইচ্ছামতো কাস্টমাইজেশন করে নিতে পারবেন। 

মোবাইল দিয়ে ইউটিউব থাম্বনেইল ডিজাইন করা যাবে কি?

হ্যাঁ! ভাই আপনি মোবাইল থেকেই খুব সহজেই এই কাজটি করতে পারবেন ৷ সত্যি বলতে আপনার ভেতরে যদি ক্রিয়েটিভিটি থাকে। তাহলে কম্পিউটার হোক কিংবা মোবাইল, এসবে তেমন কোনো যায় আসবে না।

আপনি যদি একটু খোজ নেন, তাহলে দেখবেন শতকরা ৬০% ইউটিউবার মোবাইল দিয়েই তাদের Youtubing Career শুরু করেছিলো। কিংবা বর্তমানেও এমন অনেক ব্যক্তি আছেন। যারা মূলত মোবাইল দিয়েই ইউটিউব এর যাবতীয় কাজকর্ম করে থাকে।

তাছাড়া প্রযুক্তির অগ্রসরের সাথে সাথে স্মার্টফোনে ব্যবহার করা Apps এর সংখ্যাটাও দ্বিগুন হারে বেড়েছে। কম্পিউটারের সফটওয়্যার এর পাশাপাশি স্মার্টফোনের এপস গুলোও সমানভাবে প্রতিযোগীতা করে যাচ্ছে।

সেইদিক থেকে বিবেচনা করলে, বর্তমানে ফোনে যেসব Photo Editing Apps গুলো পাবলিশ হয়েছে। সেই এপস গুলোর ফিচার দেখলে আপনি রীতিমতো অবাক হয়ে যাবেন।

আপনার হাতে কম্পিউটার নেই বলে টেনশন করার কোনো দরকার নেই। আপনার ভেতরে যদি প্রতিভা থাকে, তাহলে সেই প্রতিভাকে বিকশিত করার জন্য এই স্মার্টফোনেই যথেষ্ট বলে আমি মনে করি। 

মোবাইল দিয়ে ইউটিউব থাম্বনেইল বানানোর এপ্স

যাক, মোবাইল দিয়ে ইউটিউবিং নিয়ে যখন এতো আলোচনা করলাম। সেহুতু মোবাইলের জন্য যেসব জনপ্রিয় ফটো এডিটিং এপস রয়েছে। যার মাধ্যমে আপনি ইউটিউব থাম্বনেইল তৈরি করবেন ৷ সেই এপস গুলোর সাথে এবার পরিচিত হওয়া যাক।

তো আপনি যদি Google এ যান, কিংবা Play Store গিয়ে সার্চ করেন। তাহলে আপনার সামনে অনেক গুলো এপস চলে আসবে। এখন কোন এপস গুলো ভালো আর কোন এপস গুলো নিন্মমানের। তা নির্ধারন করা বেশ কষ্টকর হয়ে পড়বে।

তাই আপনার সুবিধার কথা মাথায় রেখে, আমি জনপ্রিয় কিছু এপস এর লিষ্ট তৈরি করেছি। যথাঃ

Picsart (Thumbnail making apps)

মোবাইলের ফটো এডিটিং করার জন্য Picsart যে কতটা জনপ্রিয়, তা বলে শেষ করা যাবে না। সত্যি বলতে আমি নিজেও অনেক গুলো এপস ব্যবহার করেছি। কিন্তুু Picsart এর মতো কোনো এপসকে খুজে পাইনি। এই এপসটির মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই প্রফেশনালি ইউটিউব থাম্বনেইল তৈরি করতে পারবেন ৷

কারন, এখানে আপনি থাম্বনেইল তৈরি করার জন্য বিভিন্ন ধরনের ফিচার দেখতে পারবেন ৷ তারমধ্যে অন্যতম ফিচার হলো, এখানে আপনি আপনার চাহিদা অনুযায়ী Spect Ratio তে ইমেজ ইডিট করতে পারবেন। এর পাশাপাশি আপনি Layer ব্যবহার করার সুবিধা ভোগ করতে পারবেন।

এছাড়াও Blending Mode, Brush, Filter, Custom Effect সহো প্রচুর পরিমানে ফিচার দেখতে পারবেন। এবং এই ফিচার গুলোকে কাজে লাগিয়ে আপনি খুব দ্রুত একটি আর্কষনীয় Youtube Thumbnail তৈরি করতে পারবেন। 

PixelLab (Thumbnail making apps)

মোবাইল দিয়ে ইউটিউব থাম্বনেইল তৈরি করবেন। অথচ আপনি PixelLab  সম্পর্কে জানবেন না, তা কি করে হয়। সত্যি বলতে, এই এপসের মাধ্যমে আপনি খুব কম সময়ের মধ্যে প্রফেশনালি Youtube Thumbnail তৈরি করতে পারবেন।

তবে Picsart এর থেকে এই এপসে একটু কম ফিচার দেখতে পারবেন। কিন্তুু কোনো ফটোতে Text Add করার জন্য পিক্সল ল্যাব খুব জনপ্রিয় একটি এপস। তবে টেক্সট যুক্ত করার পাশাপাশি আপনি আরও বেশ কিছু ফিচার দেখতে পারবেন।

যেমন, Unlimited layer,Colour blending mode,Modern Effect, Colour Remover সহো অনেক রকমের ফিচারের মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই মানসম্মত থাম্বনেইল তৈরি করতে পারবেন। 

Photoshop Touch (Thumbnail making apps)

নাম দেখেই হয়তবা বুঝে গেছেন যে এটি বিখ্যাত Adobe কোম্পানির একটি প্রোডাক্ট। সাধারনত কোনো একটি পিকচার এর Colour matching এবং নিখুঁত Colour Correction এর জন্য Photoshop Touch এর কোনো বিকল্প নেই।

কিন্তুু সমস্যা হলো, মোবাইল দিয়ে থাম্বনেইল তৈরি করা এই এপসটিকে আপনি Play Store এ খুজে পাবেন না। কারন এডোবি কোম্পানি কম্পিউটারের Photo Editing Software তৈরি করার পাশাপাশি ফোনের জন্যেও খুব ভালো মানের Apps Release করেছিলো।

কিন্তুু কোনো কারনে তারা পুনরায় এই এপসের সার্ভিস বন্ধ করে দেয়। কিন্তুু আপনি যদি গুগলে সার্চ করেন। তাহলে এমন অনেক ওয়েবসাইট আছে, যেখানে থেকে আপনি Photoshop Touch নামক জনপ্রিয় এপসটিকে ডাউনলোড করতে পারবেন। 

কম্পিউটার দিয়ে ইউটিউব থাম্বনেইল বানানোর সফটওয়্যার

আমরা এতক্ষন ধরে, মোবাইল দিয়ে থাম্বনেইল তৈরি করার কথা বলছি। এবার আমরা জানবো, “কিভাবে Computer দিয়ে আর্কষনীয় Thumbnail তৈরি করবেন”। মূলত যারা পিসি ইউজার, তারা Adobe Photoshop এর মতো অনেক ভালো সফটওয়্যার ব্যবহার করতে পারবেন।

যারা গ্রাফিক্স ডিজাইন নিয়ে কাজ করে। তারা এই Software গুলো ব্যবহার করে থাকে।

[💡PRO TIPS: মনে রাখবেন, Adobe Photoshop একটি কম্পিউটার সফটওয়্যার। তাই শুরুর দিকে আপনার কাছে একটু কঠিন (Hard) মনে হবে। সেটা নিয়ে টেনশন করবেন না, আপনি যদি নিয়মিত অনুশীলন করেন। তাহলে Adobe Photoshop এর সকল খুটিনাটি জানতে পারবেন]

তাই বলে আবার ভাইবেন না যে, কম্পিউটারে Adobe ছাড়া আর কোনো সফটওয়্যার নাই। যদি এমনটা ভাবেন, তাহলে আপনার ধারার সম্পূর্ণ ভুল। কারন, কম্পিউটার এর জন্য আপনি আরও ডজনখানে Software পাবেন। তবে ক্যাটাগরি অনুযায়ী এই সফটওয়্যার গুলোল কাজের মধ্যেও ভিন্নতা খুজে পাবেন।

যেমন, কম্পিউটার এর জন্য ফটো এডিটিং করার আরও একটি সফটওয়্যার এর নাম হলো, Adobe illustrator. কিন্তুু এর সমস্যা হলো, ফটোশপ যেমন ভালো ফটো এডিটিং করতে পারে। অন্যদিকে ইলাষ্ট্রেটর (illustrator) এর কাজ হলো, ভেক্টরকে কেন্দ্র করে কাজ করা।

তো আমার জানামতে, কম্পিউটার দিয়ে থাম্বনেইল তৈরি করার জন্য উপরোক্ত সফটওয়্যার গুলো থাকলেই যথেষ্ট। 

অনলাইন থেকে ইউটিউব থাম্বনেইল বানানোর ওয়েবসাইট

যদি আপনি চান যে, কোনো পরিশ্রম করবেন না। অথচ অন্যদের তুলনায় খুব ভালো Thumbnail তৈরি করবেন। তাহলে আপনার জন্য একটি উপায় আছে। সেটি হলো Online Website থেকে থাম্বনেইল তৈরি করা ৷

হ্যাঁ! বর্তমানে এমন অনেক ওয়েবসাইট আছে। যেখান থেকে আপনি এই কাজটি বিনা পরিশ্রমে করতে পারবেন। এই ওয়েবসাইট গুলোতে আগে থেকেই ইউটিউব থাম্বনেইল এর Template তৈরি করা থাকে।

আপনার জন্য আরো লেখা…

আপনি শুধু কাস্টমাইজ করে নিজের মতো করে সাজিয়ে নিতে পারবেন। আর এমন কিছু ওয়েবসাইট এর নাম হলো, 

  • Canva 
  • Fotor
  • Snappa
  • Visme
  • Bannersnack
  • Fotojet
  • PicMonkey

এগুলো ছাড়াও আরও অনেক ওয়েবসাইট আছে। আপনার যেটা পছন্দ হবে। সেখানেই কাজ করিয়েন। 

কিভাবে মোবাইল থেকে ইউটিউব থাম্বনেইল সেট করা যায়?

ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিও আপলোড করার পর। আপনি খুব সহজেই মোবাইলের মাধ্যমে Thumbnail সেট করতে পারবেন।

সেজন্য আপনার ফোনে YouTube Studio নামের একটি Apps ইনষ্টল করা থাকতে হবে। এবং এই এপসের মাধ্যমে আপনার চ্যানেলে আপলোড করা ভিডিও গুলোকে ইডিট করতে পারবেন। যখন এই এপসটিতে প্রবেশ করবেন।

তার পর আপনার ইউটিউব চ্যানেল জিমাইল দিয়ে লগিন করলে নিচের মতো একটি Interface দেখতে পারবেন। যেখানে সবার উপরে আপনার চ্যানেল এর নাম এবং লোগো থাকবে। 

 

ইউটিউব থাম্বনাইল সেটাপ করার নিয়ম
ইউটিউব থাম্বনাইল সেটাপ

এর পর আপনার চ্যানেল এর সকল ভিডিও গুলো দেখতে পারবেন। এখন আপনি যেই ভিডিওতে থাম্বনেইল সেট করতে চান। সেই ভিডিওতে ক্লিক করুন। তার পর নিচের ছবির মত কলম মার্কা আইকন এ ক্লিক করলে আপনি ভিডিওর টাইটেল, ডিস্ক্রিপশন এবং ট্যাগ ব্যবাহার করতে পারবেন।

ইউটিউব থাম্বনাইল সেটাপ করার উপায়
থাম্বনাইল সেটাপ

আবার আপনাকে কলম মার্কা আইকনে ক্লিক দিলে থাম্বনাইল সেট করারা ফাইনাল স্টেপে চলে এসেছেন। তার পর আপমার থাম্বানাইল সেলেক্ট করে সেভ করুন।

ইউটিউব থাম্বনাইল সেটাপ
থাম্বনাইল সেটাপ করার উপায়

আপনার ডিজাইন করা থাম্বনাইল আপলোড করে সেভ করুন।

[💡PRO TIPS:যদি আপনি মোবাইল থেকেই কম্পিউটার এর মতো কাজ করতে চান। তাহলে আপনার যেকোন, Browser এর মেনু অপশন থেকে Desktop Mode অন করে নিবেন]

কিভাবে পিসি থেকে ইউটিউব থাম্বনেইল সেট করা যায়।

এবার আমরা জানবো, “কিভাবে কম্পিউটার থেকে YouTube Thumbnail সেট করবেন”। তো সবার আগে আপনাকে একটি ব্রাউজার (Browser) সিলেক্ট করতে হবে। আমার মতে গুগল ক্রম ব্রাউজার হলে খুব ভালো হয়। এরপর ব্রাউজারে গিয়ে Type করুন, ” studio.youtube.com অথবা এখানে ক্লিক করুন

এবার আপনি ঠিক নিচের মতো একটি ইন্টারফেস দেখতে পারবেন। 

[Insert Image]

যেখানে আপনার চ্যানেল এর যাবতীয় তথ্যগুলো দেওয়া আছে। তো আপনি সবার বামপাশের অপশন গুলো থেকে Video/Media নামের অপশনটিকে ক্লিক করবেন।

এরপর আপনার সমস্ত ভিডিও এর লিষ্ট দেখতে পারবেন। এখন আপনি যেই ভিডিও এর থাম্বনেইল সেট করতে চান। সেই ভিডিওতে ক্লিক করলে বাকি কাজ গুলো নিজে থেকেই করতে পারবেন। 

আমাদের শেষকথা 

আশা করি, ইউটিউব থাম্বনেইল রিলেটেড যাবতীয় তথ্যগুলো বুঝতে পেরেছেন। কারন আপনাকে বোঝানোর জন্য আমি যথেষ্ট চেস্টা করেছি। এরপরও যদি আপনার Youtube Thumbnail সম্পর্কিত কোনো প্রশ্ন থাকে৷ তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। 

আমি আপনার কমেন্ট দেখার পর সমস্যার সমাধান নিয়ে সঠিক উপায় দেওয়ার চেষ্টা করব। বাংলা আইটি ব্লগের সাথে থাকুন। ধন্যবাদ 

2 thoughts on “কিভাবে প্রফেশনাল ইউটিউব থাম্বনেইল ডিজাইন করতে হয়”

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই লেখা কপি করবেন না!
Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap