ইউটিউব চ্যানেলের ভিডিওতে ভিউ বাড়ানোর উপায়

ইউটিউব ভিডিওতে ভিউ বাড়ানোর উপায়ঃ একটি ইউটিউব চ্যানেল এর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশ হলো, View এবং Subscriber. কিন্তুু ইউটিউব এসইও সম্পর্কে যথাযথ জ্ঞান না থাকার ফলে এমন অনেকেই আছেন যারা ইউটিউব সেক্টরে সফলতা অর্জন করতে পারে না।

খুব অল্প সময়ে একটি ইউটিউব চ্যানেলের ভিডিওতে ভিউ বাড়ানোর উপায় বা বেশ কিছু কৌশল আছে। যখন আপনি সেই কৌশল গুলোকে রপ্ত করতে পারবেন। ঠিক তখন থেকে আপনি যে কোন ইউটিউব চ্যানেলর ভিডিওতে ভিউ এবং সাবস্ক্রাইব বাড়িয়ে নিতে পারবেন।

ইউটিউব চ্যানেলের ভিউ বাড়ানোর উপায়
ইউটিউব চ্যানেলের ভিউ বাড়ানোর উপায়

যেহুতু আপনি এই আর্টিকেলটি পড়ছেন, সেহুতু ধরে নেয়া যায় আপনি একজন নতুন ইউটিউবার এবং ইউটিউব চ্যানেলের ভিডিওতে ভিউ বাড়ানোর উপায় জানতে আর্টিকেল টি পরতেছেন কিংবা নতুন YouTubing শুরু করতে চাচ্ছেন।

যদি তাই হয়, তবে আজকের এই আর্টিকেলটি শুধুমাএ আপনার মতো মানুষের জন্যই লেখা হয়েছে।

কিভাবে সদ্য তৈরি করা একটি ইউটিউব চ্যানেলের ভিডিওতে ভিউ বাড়ানো যায়। তার জন্য আপনাকে কোন টিপস & ট্রিকস গুলো ফলো করতে হবে। এইসব যাবতীয় বিষয়গুলোই নিয়েই আজকের আর্টিকেলে আলোচনা করা হবে।

যদি আপনিও একজন নতুন ইউটিউবার হয়ে থাকেন। যদি YouTube সেক্টরে অল্প সময়ের মধ্যে সফলতা অর্জন করতে চান। তাহলে আজকের পুরো আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়বেন।

ইউটিউব ভিডিওতে ভিউ বাড়ানো সম্ভব ? 

সত্যিই কি ইউটিউব ভিডিওতে ভিউ বাড়ানো যায়? – এই প্রশ্নটি অনেকের মনে জেগে থাকে। কারন, আমি শুরুতেই বলছি যে, অনেকের মধ্যে YouTube SEO সম্পর্কে তেমন ধারনা নেই।

ইউটিউব এসইও হলো এমন কিছু টেকনিক। যার মাধ্যমে কোনো প্লাটফর্মের এলগরিদম সম্পর্কে জানা সম্ভব। এখন আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে, “এলগোরিদম”- আবার কি জিনিস? তাহলে শুনুন,

ইউটিউবে ভিডিও Upload করার পর সেই ভিডিওতে ভিউ আসে ৷ এটা তো আমরা সবাই জানি ৷ কিন্তুু আপনার দিক থেকে একটু আলাদাভাবে ভাবতে হবে। আপনাকে চিন্তা করতে হবে যে, ইউটিউব সেই ভিডিও গুলোতে কিভাবে View & Watch time নিয়ে আসে।

আপনার জন্য আরো লেখা…

যখন আপনি এ বিষয় গুলো সম্পর্কে জানার চেস্টা করবেন। তখন সবার আগে যে বিষয়টি আসবে সেটি হলো, ইউটিউব এর Algorithm সম্পর্কে জেনে নেওয়া।

কারন ইউটিউব কিভাবে কাজ করে। আপনি যদি সে সম্পর্কে না জানেন। তাহলে আপনাকে কি কি টেকনিক ফলো করে ভিডিওতে ভিউ আনতে হবে। সে সম্পর্কেও কোনো আইডিয়া করতে পারবেন না। 

ইউটিউব ভিডিওতে কিভাবে ভিউ আসে? 

সবার আগে আপনাকে YouTube Algorithm সম্পর্কে ধারনা রাখতে হবে। কারন ইউটিউব হলো একটি প্রোগ্রামিং Robot. যেখানে পূর্বে থেকেই Programme সেটআপ করা থাকে, যা পুনরাবৃত্তি ঘটতে থাকে।

এখন জানার বিষয় হলো, আমরা যখন কোনো ভিডিও আপলোড করি। তখন সেই ভিডিওকে কেন্দ্র করে Youtube কোন কোন কাজ গুলো করে থাকে। সেই কাজগুলো সম্পর্কে আমাদের বিস্তারিত জানতে হবে।

তো যখন আপনি কোনো ভিডিও আপলোড করবেন। ইউটিউব সবার আগে আপনার Subscriber এর নিউজফিডে আপনার ভিডিওকে শো করবে। যাকে বলা হয়, YouTube Browser Feature.

এখন এই ব্রাউজার ফিচার থেকে আপনার ভিডিওতে কিরকম CTR আসছে, কত মিনিট Watch Time আসছে ইউটিউব সেই Data গুলো জমা করে রাখবে।

তো যখন আপনার সাবস্ক্রাইবার এর কাছ থেকে যদি আপনার ভিডিওতে ভালো CTR এবং Watch Time আসে। তাহলে ইউটিউব তখন সেই ভিডিওকে আরও কিছু দর্শকের কাছে পাঠিয়ে দিবে। এবং চেক করবে যে, সেই ভিডিওটি আপনার Subscriber ছাড়া অন্য মানুষেরা দেখছে কিনা।

যখন বাড়তি দর্শকদের কাছে আপনার ভিডিও পৌঁছানোর পর। সেই ভিডিওটি ভালো পারফর্ম করবে। তখন ইউটিউব সেই ভিডিওকে আরও বেশি দর্শকদের নিউজফিডে পৌঁছে দিবে।

এভাবে আপনার ভিডিও যতোই ভালো Perform করবে। আপনার ভিডিও ততোবেশি দর্শকদের নিউজফিডে শো করবে। এভাবে ধীরে ধীরে একটা সময় আপনার ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে যাবে। 

কেন আপনার ভিডিওতে ভিউ আসছে না?

সবচেয়ে বড় সমস্যা হলো, আপনি সব রুলস মেনে ভিডিও আপলোড করছেন। কিন্তুু তারপরও আপনার ভিডিওতে ভিউ আসছে না। আর এই সমস্যাটি শুধুমাএ আপনার নয়, বরং অনেক ইউটিউবার দের হয়ে থাকে।

তাহলে সবচেয়ে বড় প্রশ্ন হলো, “কেন আপনার ইউটিউব ভিডিওতে ভিউ আসছে না “? এবং এর সমাধান কি?

তো আমার দীর্ঘদিনের এসইও অভিজ্ঞতা থেকে মনে হয়। একটি YouTube Video তে ভিউ না আসার বেশ কিছু কারন রয়েছে। আমি এখন সেই কারন গুলো পর্যায়ক্রমে উল্লেখ করবো।

আপনাকে খুজে নিতে হবে আসলে কোন কারনে আপনার ভিডিওতে ভিউ আসছে না। তো প্রথম কারন হলো, 

ভুল নিশ সিলেকশন করা 

একটা চ্যানেলে যখন নির্দিষ্ট কোনো বিষয়কে কেন্দ্র করে ভিডিও আপলোড করা হয় ৷ তখন সেই বিষয়কে বলা হয়, নিশ। কিন্তুু দুঃখজনক হলেও সত্য যে, বেশিরভাগ নতুন ইউটিউবার এই নিশ সিলেকশন কে তেমন একটা গুরুত্ব দেয় না।

এখন আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে, কেন আমি নিশ সিলেকশন কে এতোটা গুরুত্ব দিচ্ছি? তাহলে শুনুন,

নিশ সিলেকশন এমন একটি টেকনিক। যার মাধ্যমে আপনি দুইটি বিষয় সম্পর্কে জানতে পারবেন। যথাঃ 

  1. আপনি কোন বিষয়ে ভিডিও তৈরি করবেন? 
  2. কোন মানুষ গুলো আপনার ভিডিও দেখবে?

যেমন, আপনি জমির চাষাবাদ নিয়ে ভিডিও তৈরি করেন। তাহলে যারা কৃষিকাজ করে কিংবা করতে ইচ্ছুক। শুধুমাএ সেইসব মানুষরা আপনার ভিডিও গুলো দেখবে।

এখানে একটা বিষয় চিন্তা করে দেখতে হবে যে, যারা কৃষিকাজ করে। তাদের হাতে বসে বসে Youtube Video দেখার মতো কিন্তুু সময় থাকে না। তাছাড়া বর্তমানে যারা কৃষিকাজ করে তারা খুব কম সংখ্যক স্মার্টফোন ব্যবহার করে।

এখন আপনি যদি তাদেরকে টার্গেট করে ভিডিও তৈরি করেন। তাহলে আপনার ভিডিওতে কম ভিউ আসবে, এটাই স্বাভাবিক। তাই আপনাকে নিশ সিলেকশনে যথেষ্ট গুরুত্ব দিতে হবে। 

দর্শকদের আগ্রহ নেই

একটি ইউটিউব ভিডিওতে ভিউ না হওয়ার আরেকটি কারন হলো, দর্শকদের অনাগ্রহ। অর্থ্যাৎ, আপনি এমন বিষয় নিয়ে ভিডিও তৈরি করছেন। যা দর্শকরা দেখতে চায় না।

যেমন, আপনি যদি Funny Video তৈরি করেন। তাহলে প্রচুর পরিমানে আপনার ভিডিওতে ভিউ আসবে। কারন ফানি ভিডিও সবাই দেখতে পছন্দ করে।

অন্যদিকে আপনি যদি শিক্ষা বিষয়ক ভিডিও তৈরি করেন। তাহলে শুধুমাএ শিক্ষার্থীরা আপনার ভিডিও দেখবে। সেটিও আবার শুধুমাত্র পরীক্ষার সময়। সেক্ষেএে আপনার ভিডিওতে কম ভিউ আসবে, এটাই স্বাভাবিক। 

ভিডিও পারফরম্যান্স খারাপ থাকা

আপনার ভিডিওতে ভিউ না আসার অন্যতম একটি কারন হলো, Video Performance খারাপ থাকা। সাধারনত লো কোয়ালিটি কন্টেন্টে এই ধরনের সমস্যা হয়ে থাকে।

এখানে একটা বিষয় ভেবে দেখুন, আপনি কোনো ভিডিও আপলোড করলেন। এবার ইউটিউব তার বিভিন্ন Feature এর মাধ্যমে আপনার ভিডিওতে ভিউ নিয়ে আসার চিন্তা করলো। যেমন, YouTube Search, Suggested Video, Browser Feature ইত্যাদি।

এখন এই সময়ে যদি আপনার ভিডিও থেকে তেমন রেসপন্স না আসে। অর্থ্যাৎ, আপনার ভিডিওর CTR অনেক কম থাকে। পাশাপাশি Watch Time আশানুরূপ না আসে। তাহলে ইউটিউব মনে করবে, আপনার ভিডিওতে তেমন কিছুই নেই।

সবশেষে ইউটিউব আপনার ভিডিও এর Rank Down করতে থাকবে। একটা সময় আপনার ভিডিওটি ফ্রিজ হয়ে যাবে। 

ক্যাটগরি পরিবর্তন করা

আমরা অনেক সময় বেশি ভিউ পাওয়ার লোভে চ্যানেলের ক্যাটগরি পরিবর্তন করে ফেলি। কিন্তুু একটা কথা মাথায় রাখুন, YouTube সেক্টরে কখনও ক্যাটাগরি পরিবর্তন করা উচিত নয়।

কারন যখন আপনি চ্যানেলের Category পরিবর্তন করবেন। তখন আপনার পূর্বের সাবস্ক্রাইবার গুলো আর কোনো কাজে আসবে না। তাছাড়া ইউটিউব এসইওতে বেশ নেগেটিভ ইফেক্ট ফেলবে।

মনে করুন, আপনি ক্রিকেট রিভিউ নিয়ে একটি YT Channel আছে। এখন আপনি হঠাৎ করে যদি ক্যাটাগরি পরিবর্তন করে Funny Video নিয়ে কাজ করেন। তাহলে আপনার ভিউ অটোমেটিক কমতে শুরু করবে।

আপনি আরো পড়ুন…

কারন আপনার চ্যানেলে যতগুলো সাবস্ক্রাইবার আছে। তারা কিন্তুু ফানি ভিডিও দেখার জন্য আপনার চ্যানেলকে Subscribe করেনি। ইউটিউব ভিডিওতে ভিউ বাড়ানোর ভিতরে এই বিষয়টি বড় ভুমিকা রাখে।

এখন আপনি যদি টপিক চেন্জ করে দর্শকদের কাছে ভিডিও পৌঁছানোর চেস্টা করেন। তাহলে আপনার ভিডিওতে ভিউ কম হবেই।

তো কোন কোন কারনে আপনার ভিডিওতে ভিউ আসছে না৷ আশা করি সে সম্পর্কে ক্লিয়ার একটা ধারনা পেয়ে গেছেন। এবার আমরা জানবে, কিভাবে আপনার YouTube Video তে প্রচুর পরিমানে ভিউ নিয়ে আসবেন।  

কিভাবে আপনার ভিডিওতে ভিউ বাড়াবেন?

যখন আপনি একটি নতুন চ্যানেল তৈরি করবেন। তখন আপনার সেই চ্যানেলকে Grow করার জন্য অবশ্যই সেই চ্যানেলের ভিডিওতে যথেষ্ট ভিউ থাকতে হবে। এখানে আপনি জানতে পারবেন কিভাবে ইউটিউব ভিডিওতে ভিউ বাড়ানো যায়।

কারন, ইউটিউব ভিডিওতে ভিউ না থাকা হলো লবনবিহীন তরকারির মতো। সেজন্য আপনার চ্যানেল নতুন হোক কিংবা পুরাতন। আপনার প্রধান টার্গেট হতে হবে, ভিডিওতে বেশি করে View নিয়ে আসা।

কোনো ইউটিউব ভিডিওতে ভিউ বাড়ানোর যে কৌশল গুলো আছে। সেই কৌশল গুলো শেখার আগে আপনাকে জানতে হবে যে, কোন মাধ্যমে ইউটিউব ভিডিওতে ভিউ আসে।

একটি ইউটিউব ভিডিওতে ভিউ আসার জন্য বেশ কয়েকটি মাধ্যম আছে। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো, 

1. YouTube Search কি?

ইউটিউবে যাওয়ার পর কোন কিছু লিখে সার্চ দেওয়ার যে খালি যাইগা থাকে সেই অপশনকে বলা হয়, YouTube search box. ইউটিউব ভিডিওতে ভিউ নিয়ে আসার জন্য এই Search Box সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।

YouTube Search থেকে ভিউ বাড়ানোর উপায়

যদি আপনি ইউটিউব ইউটিউব ভিডিওতে প্রচুর পরিমানে ভিউ নিয়ে আসতে চান। তাহলে আপনাকে YouTube Search কে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে।

কারন মানুষ যখন ইউটিউবে কোনো বিষয়ে ভিডিও দেখতে চায়। তখন সবার আগে সেই Search Box এ গিয়ে তা লিখে দেয়। এর তার কাঙ্খিত ভিডিওটি খুজে নেয়।

তো এখানে আপনাকে খুজে নিতে হবে যে, আসলে মানুষ ঐ সার্চ বক্সে কোন কোন কথাগুলো সবচেয়ে বেশি সার্চ করে। যাকে বলা হয় “কিওয়ার্ড রিসার্চ”।

হুমমম, আপনি যদি Youtube SEO করেন। তাহলে আপনাকে অবশ্যই কিওয়ার্ড রিসার্চ কি, সেটি জানতে হবে। keyword research এমন একটা এসইও টেকনিক। যার মাধ্যমে আপনার ভিডিওতে মিলিয়ন মিলিয়ন View নিয়ে আসতে পারবেন।

[💡PRO Tips: কিওয়ার্ড রিসার্চ নিয়ে একটি আর্টিকেল পাবলিশ করা আছে। অবশ্যই এই Article টি পড়বেন]

বর্তমানে অনলাইনে কিওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য অনেক Free & Paid Tools আছে। যেমনঃ 

  • SEMrush
  • KWFinder
  • Ahrefs Keyword Explorer
  • Google Keyword Planner
  • GrowthBar
  • Long Tail Pro

উপরের টুলসের মধ্যে ফ্রি এবং পেইড দুটোই আছে। কিন্তুু আপনি যদি বিনা টাকায় ভালোভাবে কিওয়ার্ড রিসার্চ করতে চান। তাহলে নিচের Tools গুলো ব্যবহার করিয়েন। যেমন,

আশা করি, কিভাবে Youtube search থেকে ভিউ আনা যায়। সে সম্পর্কে ক্লিয়ার ধারনা পেয়ে গেছেন। এবার আমরা জানবো, Suggested Video কি এবং কিভাবে এর মাধ্যমে ভিডিওতে ভিউ নিয়ে আসবেন। 

2. Suggested Video কি?

যখন আপনি Youtube এ কোনো ভিডিও দেখবেন। তখন সেই ভিডিওর নিচে আরও যে ভিডিও গুলো দেখা যায়। মূলত তাকেই বলা হয়, Suggested Video.

যখন আপনি কোনো ভিডিওকে Suggested List এ আনতে পারবেন। তখন সেই ভিডিওতে হু হু করে ভিউ বাড়বে। যা আপনি কল্পনাও করতে পারবেন না।

ইউটিউব সেক্টরে যারা সফল, তারা সবাই এই টেকনিক ফলো করে। এর ফলে তাদের ভিডিওতে হিউজ পরিমানে ভিউ আসবে যা সত্যিই অবাক করার মতো।

যদি আপনিও এই টেকনিক ফলো করে আপনার ভিডিওতে ভিউ বাড়াতে চান। তাহলে আপনাকে YouTube Tag সম্পর্কে জানতে হবে। কারন এই ট্যাগ এর মাধ্যমে ইউটিউব আপনার ভিডিওকে Suggest করবে। 

কিভাবে YouTube Suggest থেকে ভিউ আনবেন?

যখন আপনি এই টেকনিক ফলো করে আপনার ভিডিওতে ভিউ বাড়ানোর চেষ্টা করবেন। তখন আপনাকে কিছু পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে।

এজন্য আপনার নিশ রিলেটেড এমন চ্যানেল গুলোকে খুজে নিতে হবে। যে চ্যানেলের ভিডিও গুলোতে লক্ষ লক্ষ ভিউ আছে। মনে করুন আপনি Job Circular নিয়ে ইউটিউবে ভিডিও তৈরি করেন। এখন আপনাকে জব রিলেটেড চ্যানেল গুলোকে খুজে নিতে হবে।

আপনার জন্য আরো পোস্ট…

এরপর সেই চ্যানেলের যে ভিডিও গুলোতে লক্ষ লক্ষধদধ করা হয়েছে। সেগুলোকে খুজে বের করতে হবে। এবং উক্ত ট্যাগ গুলোকে আপনার ভিডিওতে বসিয়ে দিতে হবে।

কাজটা কত সহজ, তাইনা?

[⚠️ Warning: অন্যের Tag কপি করার পর, সরাসরি আপনার ভিডিওতে ব্যবহার করবেন না। যদি এমনটা করেন, তাহলে আপনার ভিডিও Misleading Metadata এর আওতায় পড়বে]

তো কোন ভিডিও থেকে Tag বের করার জন্য বেশ কিছু অনলাইন টুলস আছে। আপনি সেই টুলস ঢ়গুলো ব্যবহার করতে পারবেন। যেমন, 

এবার আমরা আলোচনা করবো Browser Feature নিয়ে। 

3.Browser Feature কি? 

যখন আপনার চ্যানেলে ভিডিও আপলোড করবেন। তখন ইউটিউব আপনার ভিডিওতে ভিউ নিয়ে আসার চেস্টা করবে। সেজন্য আপনার ভিডিওকে বিভিন্ন দর্শকের সামনে তুলে ধরবে। এই পদ্ধতিকে বলা হয়, Browser Feature. 

যখন আপনার চ্যানেলে কিছু পরিমান সাবস্ক্রাইবার থাকবে। তখন আপনি এই ফিচার এর সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। যেমন, মনে করুন আপনার চ্যানেলে ১ হাজার Subscribers আছে।

এখন আপনি যখন একটি ভিডিও আপলোড করবেন। তখন ইউটিউব আপনার ভিডিওকে সেই ১ হাজার মানুষের কাছে পৌঁছে দেয়ার চেস্টা করবে।

কিন্তু আপনার চ্যানেল এর Subscribers যদি ১০০ জন হয়। তাহলে এই ইউটিউব ফিচারটি তেমন কোনো কাজে আসবে না। আর এই ফিচারটি অটোমেটিক কাজ করে। সো এটা নিয়ে কোনো মাথা ঘামানোর দরকার নেই। 

ইউটিউব ভিডিওতে ভিউ বাড়ানোর শর্টকার্ট টেকনিক

আমি আমার ব্লগে আসবেন, অথচ শটকার্ট টেকনিক শিখবেন না, তা কিভাবে সম্ভব। এবার আমি আপনাকে এমন কিছু টিপস সম্পর্কে জানাবো। যে টিপস গুলো ফলো করলে, খুব দ্রুত আপনার ভিডিওতে ভিউ বেড়ে যাবে।

উপরের যতগুলো আলোচনা করেছি, তা সবগুলো উড়িয়ে যাবে। যদি আপনি শুধুমাএ ৪ টি টেকনিক আপনার ভিডিওতে প্রয়োগ করেন। তবে জানার বিষয় হলো সেই ৪ টি টেকনিক কি? 

1.Make A Eye Catching Thumbnail 

যখন আমরা ইউটিউব এর নিউজফিড স্ক্রল করি। তখন পর্যায়ক্রমে একটার পর একটা ভিডিও আসতে থাকে ৷ এভাবে স্ক্রল করতে করতে কোনো একটা Thumbnail যখন আমাদের ভালো লাগে, তখন আমরা সেখানে থেমে যাই। এবং সেই থাম্বনেইলটি যদি আর্কষনীয় হয়, তখন সেই ভিডিওতে ক্লিক করি।

তো এই পদ্ধতিকে বলা হয়, CTR= Click Through Rate. অর্থ্যাৎ, আপনার ভিডিওটি মোট ১০০ জনের কাছে পৌঁছানোর পর যদি ৫০ জন ক্লিক করে। তাহলে আপনার ভিডিওতে CTR হবে 50%.

সত্যি বলতে আপনার যে ভিডিওর CTR যতো বেশি হবে। সেই ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার সম্ভাবনা ততো বেশি থাকবে। আর এই CTR কে বৃদ্ধি করার জন্য Thumbnail অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। তাই একটি ভিডিও আপলোড করার আগে আপনাকে Thumbnail কে ইমপ্রুভ করতে হবে।

তাহলে প্রশ্ন হলো, “কিভাবে থাম্বনেইলকে আর্কষনীয় করতে হয়”?

থাম্বনেইলকে Clicky করার উপায় গুলো নিয়ে আমি আলাদা একটা আর্টিকেল পাবলিশ করবো। আজকে শুধুমাত্র Thumbnail কে আর্কষনীয় করার মেইন পয়েন্ট গুলো সংক্ষেপে আলোচনা করবো। 

  • ইউটিউব থাম্বনেইল তৈরি করার সময় মনে রাখবেন, সেটি যেন সিম্পলের মধ্যে গর্জিয়াস হয়। 
  • আমরা অনেকেই আছি যারা Thumbnail এ প্রচুর পরিমানে Text ব্যবহার করে থাকি৷ কিন্তুু এটা আমাদের জানা উচিত যে, ইউটিউবে প্রচুর পরিমানে দর্শক থাকলেও, তাদের হাতে সমস্যা অনেক কম থাকে।
  • এখন আপনার থাম্বনেইলে বেশি Text থাকলে দর্শকরা সেটি ইগনোর করে চলে যাবে। 
  • এমন অনেক ইউটিউবার আছে যারা থাম্বনেইলে ভিডিওর মূল বিষয় গুলো লিখে দেয়। কিন্তুু থাম্বনেইলে যদি সবকিছু বলে দেন, তাহলে দর্শকরা তো আর ভিডিওতে ক্লিক করবে না।
  • তাই আপনার ভিডিওর Thumbnail কে এমনভাবে তৈরি করুন, যেন সেটি দেখার পর দর্শকদের মনে আপনার ভিডিও সম্পর্কে প্রশ্ন জাগে। এবং সেই প্রশ্নের উওরের জন্য ভিডিওতে ক্লিক করে। 
  • একটি ভালো Thumbnail তৈরি করার জন্য অবশ্যই আপনাকে Colour Combination সম্পর্কে ধারনা রাখতে হবে। ফটো ব্যাকগ্রাউন্ডের কালারের সাথে বাকি এলিমেন্টের কালার এর সাথে ম্যাচিং করার মতো দক্ষতা থাকতে হবে৷ 

আপাততো এই কয়েকটি টেকনিকের দিকে খেয়াল রাখলে, আপনিও খুব সহজেই একটি Eye Catching Thumbnail তৈরি করতে পারবেন। 

2.Make A Attractive Video Title

ইউটিউব ভিডিওর থাম্বনেইল এর পরে যার কথা আসে, সেটি হলো Video Title. কেননা আমরা যখন ইউটিউবের নিউজফিড স্ক্রল করি, তখন সবার আগে আমরা Thumbnail এর দিকে লক্ষ্য করি। এরপর সেই ভিডিওর টাইটেলে কি লেখা আছে, তা পড়ি। 

এরপর থাম্বনেইল এবং টাইটেল দেখার পর যখন ভালো লাগবে ৷ ঠিক তখনি আপনি সেই ভিডিওতে ক্লিক করবেন, তাইনা?  সেজন্য একটি আর্কষনীয় Thumbnail তৈরি করার পাশাপাশি আপনাকে একটি মানসম্মত Title তৈরি করতে হবে।

একটি মানসম্মত ভিডিও টাইটেল তৈরি করার সময় আপনাকে বেশ কিছু বিষয়ের দিকে খেয়াল রাখতে হবে। যেমন,

  • Thumbnail এর সাথে সামন্জ্যসতা রেখে টাইটেল তৈরি করতে হবে। 
  • Video Title এ বেশি শব্দ ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকবেন। চেস্টা করবেন আপনার টাইটেল যেন ৫০-৬০ শব্দের মধ্যে হয়।
  • টাইটেলে অবশ্যই আপনার মেইন কিওয়ার্ড থাকতে হবে। এবং আপনার Focus Keyword একবারের বেশি ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকবেন। 
  • যদি আপনার কন্টেন্ট বাংলা হয়ে থাকে৷ তাহলে চেস্টা করবেন যেন আপনার টাইটেল Bangla + English একসাথে Mix থাকে৷ 

3.Improve Your Video Starting Time

যখন আপনি থাম্বনেইল এবং টাইটেল এর মাধ্যমে আপনার ভিডিওতে দর্শকদের নিয়ে আসবেন। তখন আপনার প্রধান টার্গেট হলো, আপনার ভিডিওতে আসা দর্শকদের ধরে রাখা। 

যেমন, আপনার ভিডিওটি যদি ৬ মিনিট দৈর্ঘ্যের হয়ে থাকে। তাহলে আপনাকে প্রানপন চেস্টা করতে হবে যেন দর্শকরা আপনার পুরো ভিডিওটি দেখার পরে চলে যায়। আর এজন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো, Video Starting Point.

হুমমম, ধরুন আপনার ভিডিওটি ৩ মিনিট দৈর্ঘ্যের। এখন যদি দর্শকরা আপনার ভিডিওতে ক্লিক করার পর ৩ সেকেন্ড কিংবা ১০ সেকেন্ড দেখার পরে চলে যায়। তাহলে ইউটিউব মনে করবে আপনার ভিডিওতে তেমন কিছুই নেয়, যার কারনে দর্শকরা এসেই চলে যাচ্ছে।

সেজন্য আপনার ভিডিওর প্রথম ৩০ সেকেন্ড এমনভাবে তৈরি করুন। যেন শুরু থেকেই দর্শকরা আপনার ভিডিও দেখতে আগ্রহ প্রকাশ করে।

[💡PRO Tips: আপনার ভিডিওর মূল অংশ গুলোকে একসাথে করে তা ভিডিওর প্রথম ৩০ সেকেন্ডে যুক্ত করতে পারবেন। তাহলে আপনার ভিডিওতে দর্শকদের ধরে রাখা যাবে]

4.Make A Good Content

উপরের সবগুলো আলোচনা বৃথা যাবে, যদি আপনার ভিডিওটি মানসম্মত না হয়। আপনি যতোই এসইও করুন না কেন, আপনার কন্টেন্ট এর মান ভালো না হলে, কোনো টেকনিক কাজে আসবে না।

মনে করুন আপনি আর্কষনীয় থাম্বানাইল এবং নজর কাড়ানো টাইটেল দিয়ে আপনার ভিডিওতে দর্শকদের নিয়ে আসলেন ৷ কিন্তুু দর্শক আসার পর দেখলো আপনার ভিডিও কোয়ালিটি একদমই বাজে  তাহলে কিন্তুু দর্শকরা আপনার ভিডিওটি দেখতে চাইবে না।

আর এর ফলে আপনার ভিডিও এর Watch Time এর পরিমান অনেক অংশে কমে যাবে। আর যখন Watch Time কমে যাবে। তখন আপনার ভিডিওটি ধীরে ধীরে Rank Down হতে শুরু করবে। এভাবে চলতে চলতে আপনার ভিডিওটি একেবারে Freeze হয়ে যাবে।

যদি আপনি উপরে আলোচিত এই টেকনিক গুলো প্রয়োগ করেন ৷ তাহলে খুব সহজেই আপনান ইউটিউব ভিডিওতে ভিউ বেড়ে যাবে। 

আমাদের শেষকথা

ইউটিউব সেক্টরে যদি কন্টেন্ট ক্রিয়েটর হিসেবে কাজ করতে চান ৷ তাহলে আপনার মধ্যে প্রচুর পরিমানে ধৈর্য থাকতে হবে ৷ তাহলেই আপনি এই সেক্টরে সফলতা অর্জন করতে পারবেন।

আর এই আর্টিকেলে ইউটিউব ভিডিওতে ভিউ বাড়ানোর যেসব টেকনিক আলোচনা করা হয়েছে। আপনি যদি সেই টেকনিক গুলো ফলো করেন ৷ তাহলে খুব সহজেই আপনার ভিডিওতে ভিউ বেড়ে যাবে।

এরপরও যদি আপনার মনে কোনো প্রশ্ন থাকে৷ তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। 

Related article

1 thought on “ইউটিউব চ্যানেলের ভিডিওতে ভিউ বাড়ানোর উপায়”

  1. কিভাবে ইউটিউব এর ভিডিও এর ভিউ বাড়াতে হয় এই আর্টিকেল পড়ে অনেক কিছু জানতে পারলাম।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই লেখা কপি করবেন না!
Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap