ফ্রি টাকা ইনকাম apps | দিনে ৫০০ টাকা ইনকাম Apps | kon app diye taka income kora jai

ফ্রি টাকা ইনকাম apps : বর্তমান সময়ে অনলাইন ইনকাম করার অনেক পথ উন্মুক্ত হয়ে গিয়েছে। যেমন, আপনি চাইলে এখন আপনার হাতে থাকা মোবাইল দিয়েও টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

ফ্রি টাকা ইনকাম apps | দিনে ৫০০ টাকা ইনকাম Apps | kon app diye taka income kora jai
দিনে ৫০০ টাকা ইনকাম Apps

কেননা, আপনি এমন অনেক ধরনের ফ্রি টাকা ইনকাম apps দেখতে পারবেন। যে গুলো থেকে ছোটো খাটো কিছু কাজ করে প্রতিদিন ৫০০ টাকা বা তারও বেশি টাকা আয় করা সম্ভব।

আর আজকে আমি আপনাকে সেরকম কিছু অ্যাপস সম্পর্কে বিস্তারিত বলবো। তো আপনি যদি সেই দিনে ৫০০ টাকা ইনকাম করার apps গুলো সম্পর্কে জানতে চান।

তাহলে আপনাকে আজকের পুরো লেখাটি মন দিয়ে পড়তে হবে। এবং কিভাবে উক্ত অ্যাপস গুলোতে কাজ করতে হবে। সে সম্পর্কেও আজকে বিস্তারিত বলা হবে।

অ্যাপ দিয়ে টাকা আয় করে বিকাশে নেওয়া যাবে?

দেখুন, আপনি যখন অনলাইন থেকে টাকা আয় করতে চাইবেন। তখন আপনার জন্য প্রথম ও প্রধান যে বাধাটি আসবে।

সেটি হলো, আপনার পেমেন্ট মেথডে সমস্যা হবে। কেননা, আমাদের বাংলাদেশ এর মধ্যে বিকাশ কিংবা নগদ এর ব্যবহার অন্যান্য দেশে নাই।

আপনি আরোও দেখতে পারেন…

আর সে কারণে অনলাইন ইনকাম এর টাকা গুলো পেপাল কিংবা পেওনিয়ার এর মাধ্যমে নিতে হয়। কিন্তুু আমাদের দেশে পেপাল ব্যবহার করা সম্পূর্ণ ভাবে নিষিদ্ধ।

এর পাশাপাশি একটি পেওনিয়ার একাউন্ট করতে অনেক ঝামেলা করতে হয়। আর সে কারণে আমরা অধিক সময় অনলাইন এর মধ্যে ইনকাম করার টাকা গুলো উইথড্র করার সময় ঝামেলায় পড়ি।

তবে আজকে আমি আপনাকে যে সকল ফ্রি টাকা ইনকাম apps গুলো সম্পর্কে বলবো। সেই অ্যাপস গুলোতে আপনি কাজ করে যে পরিমান টাকা আয় করতে পারবেন।

সেই টাকা গুলো আপনি খুব সহজে আপনার বিকাশ কিংবা নগদ একাউন্ট এর মধ্যে নিতে পারবেন। সেজন্য আশা করা যায়, আপনার পেমেন্ট মেথড নিয়ে তেমন কোনো ধরনের সমস্যা হবেনা। 

দিনে ৫০০ টাকা ইনকাম Apps নিয়ে বিস্তারিতসহ kon app diye taka income kora jai তা নিয়ে জানতে পারবেন।

Admob অ্যাপ থেকে টাকা ইনকাম করুন

সবার শুরুতে আমি আপনাকে চমৎকার একটি টাকা আয় করার apps সম্পর্কে বলবো। যেখানে আপনি সঠিক ভাবে কাজ করতে পারলে।

প্রতিদিন হাজার হাজার টাকা আয় করে নিতে পারবেন। আর এখান থেকে আপনি যে পরিমান টাকা আয় করতে পারবেন। সেগুলো আপনি নিশ্চিন্তে উইথড্র করতে পারবেন।

কেননা, এটি হলো গুগলের নিজস্ব একটি প্রোডাক্ট। তবে আপনি যদি এডমোব থেকে আয় করতে চান। তাহলে আপনার নিজের তৈরি করা একটি অ্যাপস থাকতে হবে।

যে অ্যাপস এর মধ্যে গুগল কর্তৃক বিভিন্ন কোম্পানি থেকে বিজ্ঞাপন দেখানো হবে। আর আপনি আপনার অ্যাপস এর মধ্যে যতো বেশি মানুষ কে সেই বিজ্ঞাপন গুলো দেখাতে পারবেন।

আপনি ঠিক ততোবেশি টাকা আয় করে নিতে পারবেন। আর আপনি যদি গুগলের এই জনপ্রিয় প্রোডাক্ট থেকে প্রতিদিন হাজার হাজার টাকা আয় করতে চান।

তাহলে আপনি এখানে ক্লিক করুন। তারপর আরো বিস্তারিত তথ্য জেনে নিন।  

Daraz Online Shopping App

আপনি হয়তবা বেশ ভালো করেই জানবেন যে, বর্তমানে দারাজ হলো অন্যতম একটি অনলাইন শপ। যার মাধ্যমে আপনি আপনার প্রয়োজনীয় পন্য গুলো অনলাইন থেকে ক্রয় করে নিতে পারবেন।

তবে এখানে পন্য ক্রয় করার পাশাপাশি আরো একটি বিশেষ পদ্ধতির মাধ্যমে টাকা আয় করা যায়। সেই পদ্ধতির নাম হলো, এফিলিয়েট মার্কেটিং করে।

যেখানে আপনি একজন সেলার হয়ে দারাজের বিভিন্ন পন্য মানুষের কাছে বিক্রি করে দিবেন। আর তার বিনিময়ে আপনি দারাজ থেকে নির্দিষ্ট পরিমান অর্থ কমিশন হিসেবে পাবেন।

আর যখন আপনি এই কাজটি করে টাকা আয় করবেন। তারপর সেই টাকা গুলো আপনি আপনার বিকাশ কিংবা নগদ একাউন্ট এর মাধ্যমে উইথড্র করে নিতে পারবেন।

তো যদি আপনি তাদের পন্য সেল করে দেয়ার কাজটি করতে পারেন। তাহলে এখানে ক্লিক করে তাদের অফিশিয়ার অ্যাপস টি ডাউনলোড করে নিন।

তারপর তাদের পন্য সেল করার কাজ শুরু করে দিন। আর এই কাজটি সঠিক ভাবে করার মাধ্যমে আপনি প্রতিদিন হাজার হাজার টাকা আয় করে নিতে পারবেন। 

Bkash App থেকে আয় করুন

সত্যি বলতে বিকাশ অ্যাপস সম্পর্কে আর নতুন করে কিছু বলার নেই। কেননা, বর্তমান সময়ে আমাদের বাংলাদেশ এর অন্যতম একটি মোবাইল ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠান এর নাম হলো, বিকাশ।

তো এই বিকাশ অ্যাপ দিয়ে টাকা লেনদেন করার পাশাপাশি আপনি বিভিন্ন উপায়ে টাকা আয় করে নিতে পারবেন। যেমন,

  1. রেফার করে আয়,
  2. কুইজ খেলে আয়,
  3.  গেম খেলে টাকা আয়,

দেখুন, বর্তমান সময়ে বিকাশের একটি অফিশিয়াল অ্যাপস আছে। আর আপনি যদি নতুন নতুন বিকাশ ব্যবহারকারী কে আপনার রেফার এর মাধ্যমে তাদের বিকাশ অ্যাপস ইন্সস্টল করে দিতে পারেন।

তাহলে কিন্তুু বিকাশ কোম্পানি থেকে আপনাকে নির্দিষ্ট পরিমান অর্থ প্রদান করা হবে।কেননা, বিকাশ প্রতিটা রেফার এর বিনিময়ে প্রায় ৫০ থেকে ১৫০ টাকা পর্যন্ত দিয়ে থাকে।

এছাড়াও বিকাশে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ধরনের কুইজ প্রতিযোগীতা, গেম খেলার আয়োজন করে থাকে। আর আপনি যদি সেই প্রতিযোগীতা গুলো তে অংশগ্রন করেন।

তাহলে আপনি প্রতিদিন হাজার হাজার টাকা এই বিকাশ অ্যাপস থেকে ইনকাম করতে পারবেন। আর সেজন্য আপনাকে এখানে ক্লিক করে বিকাশ অ্যাপস ইনস্টল করে নিতে হবে। 

পাঠাও অ্যাপস থেকে প্রতিদিন হাজার হাজার টাকা আয় করুন

যদি আপনি খুব দ্রুত এক স্থান থেকে অন্য স্থানে যেতে চান। তাহলে আপনাকে পাঠাও অ্যাপস ব্যবহার করতে হবে।

কেননা, এর মাধ্যমে আপনি বাইকে করে আপনার কাঙ্খিত স্থানে যেতে পারবেন। তো যদি আপনিও অন্যান্য মানুষের মতো পাঠাও অ্যাপস থেকে টাকা আয় করতে চান।

তাহলে আপনার একটি নিজস্ব বাইক থাকতে হবে। যে বাইক দিয়ে আপনি পাঠাও এর গ্রাহকদের নির্দিষ্ট স্থানে পৌছে দিবেন। আর এর বিনিময়ে আপনি প্রতিদিন হাজার হাজার টাকা আয় করতে পারবেন।

কেননা, বর্তমানে আমি আপনাকে এমন অনেক মানুষের উদাহরন দিতে পারবো। যারা মূলত এই পাঠাও অ্যাপে কাজ করে মাস শেষে ৩০ থেকে ৪০ হাজার টাকা ইনকাম করছে। 

আর যদি আপনি পাঠাও অ্যাপসে কাজ করতে চান। তাহলে আপনাকে এখানে ক্লিক করতে হবে। তারপর তাদের অফিশিয়ার অ্যাপস টি ডাউনলোড করে নিতে হবে।

তারপর আপনি উক্ত অ্যাপসে কাজ করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।   

নগদ অ্যাপস থেকে ইনকাম করুন

উপরের আলোচনা তে আমি আপনাকে বিকাশ থেকে টাকা আয় করার উপায় গুলো সম্পর্কে বলেছি। তো একইভাবে আপনি নগদ অ্যাপস থেকেও টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

যেমন, আপনি যদি নগদ অ্যাপস থেকে রেফার করতে পারেন।

তাহলে আপনি প্রতি রেফার এর বিনিময়ে নির্দিষ্ট পরিমান অর্থ ইনকাম করতে পারবেন। কেননা, নগদ থেকে রেফার করার বিনিময়ে ১০০ থেকে ২০০ টাকা পর্যন্ত প্রদান করা হয়।

আপনি আরোও পড়তে পারেন…

তবে শুধুমাত্র রেফার নয়, বরং আপনি চাইলে গেম খেলে, কুইজে অংশগ্রহন করেও নগদ অ্যাপস থেকে টাকা আয় করতে পারবেন।

তো যদি আপনি এই নগদ অ্যাপস থেকে টাকা আয় করতে চান। তাহলে আপনাকে এখানে ক্লিক করে উক্ত অ্যাপসটি ডাউনলোড করতে হবে।

তারপর আপনাকে উপরে উল্লেখ করা পদ্ধতি গুলো ফলো করতে হবে। তাহলেই আপনি নগদ অ্যাপস থেকে অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন।  

উবার অ্যাপস থেকে আয় 

অনলাইন অ্যাপস থেকে আয় করার আরো একটি অন্যতম জনপ্রিয় অ্যাপস এর নাম হলো, উবার। যার মাধ্যমে আপনি গ্রাহকদের এক স্থান থেকে অন্য স্থানে নিয়ে গিয়ে টাকা আয় করতে পারবেন।

আর অবাক করার মতো বিষয় হলো, আপনার নিকট যদি বাইক, মাইক্রো কিংবা অন্য কোনো যানবাহন থাকে। তাহলে আপনি তার মাধ্যমে প্রতি মাসে ২০ থেকে ৩০ হাজার টাকা আয় করতে পারবেন।

তবে আপনি যদি উবার অ্যাপস থেকে আয় করতে চান। তাহলে অবশ্যই আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স এর দরকার হবে। এর পাশাপাশি আপনার দক্ষতা ও অভিজ্ঞতার দরকার হবে।

তারপর আপনাকে এখানে ক্লিক করে উবার অ্যাপস ডাউনলোড করতে হবে। এবং নিবন্ধন শেষে আপনি উবার এর সাথে কাজ করতে পারবেন। 

Foodpanda অ্যাপস থেকে ইনকাম করুন

আমরা সকলেই জানি যে, আমাদের বাংলাদেশ এর মধ্যে খাবার ডেলিভারি দেওয়ার অন্যতম একটি প্রতিষ্ঠান হলো, ফুডপান্ডা।

যার মাধ্যমে আপনি নিজের ঘরে বসে আপনার পছন্দের খাবার গুলো অর্ডার করতে পারবেন। এবার একটা বিষয় ভেবে দেখুন, আমরা যখন ফুডপান্ডা তে কোনো খাবার অর্ডার করি।

তখন কিন্তুু আমাদের মতো কোনো না কোনো মানুষ সেই খাবার গুলো পৌঁছে দিয়ে যায়।

তো এই খাবার পৌঁছে দেওয়ার বিনিময়ে সেই মানুষ গুলো প্রতি মাসে বেশ ভালো পরিমান টাকা আয় করতে পারে। আর যদি আপনিও এই খাবার ডেলিভারি দেওয়ার কাজ করতে পারেন।

তাহলে তাদের মতো আপনিও প্রতি মাসে বেশ ভালো পরিমান টাকা আয় করতে পারবেন। এগুলোর পাশাপাশি আপনি এই অ্যাপসে পার্ট টাইম কিংবা ফুল টাইম দুইভাবে কাজ করতে পারবেন।

আর যদি আপনি ফুটপান্ডা অ্যাপস থেকে টাকা আয় করতে চান। তাহলে আপনাকে এখানে ক্লিক করে উক্ত অ্যাপসটি ডাউনলোড করে নিতে হবে।

তারপর আপনাকে আপনার প্রয়োজনীয় তথ্য গুলো দিয়ে নতুন করে রেজিষ্ট্রেমন করতে হবে। আর রেজিষ্ট্রেশন শেষে আপনি ফুডপান্ডাতে কাজ করে উক্ত অ্যাপস থেকে টাকা আয় করতে পারবেন। 

অ্যাপস থেকে টাকা আয় করা নিয়ে কিছু সতর্কতা জেনে নিন

দেখুন, বর্তমানে আপনি যদি গুগলে গিয়ে ”Online Income Apps” লিখে সার্চ করেন। তাহলে আপনি এমন হাজার হাজার অ্যাপস এর তালিকা দেখতে পারবেন।

তবে সে গুলো তে কাজ করে আসলে তেমন একটা প্রফিট আসেনা। কেননা, তারা আপনাকে কাজ করিয়ে যে পরিমান অর্থ প্রদান করবে। তা দিয়ে আপনার পকেট খরচের চাহিদাও মিটবে না।

আবার অধিকাংশ সময় দেখা যায় যে, এমন অনেক ধরনের অ্যাপস আছে। যেগুলো থেকে ভালোভাবে কাজ তো করবেন। কিন্তুু যখন আপনি তাদের কাছে পেমেন্ট নিতে যাবেন।

তখন তারা হাওয়া হয়ে যাবে। যারফলে আপনি সেই অ্যাপসে কাজ করে আপনার যতটুকু মূল্যবান সময় নষ্ট করবেন।তার সবগুলো বৃথা যাবে।

আপনি আরোও জানতে পারেন…

কিন্তুু আজকে আমি আপনাকে যে অ্যাপস গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত বলেছি। সেগুলোতে কোনো ধরনের সমস্যা হবেনা। বরং আপনি যদি উক্ত অ্যাপস গুলোতে সঠিক ভাবে কাজ করতে পারেন।

তাহলে আপনি আপনার পকেট খরচ চালানোর পাশাপাশি। আপন আপনার পরিবারকেও অর্থ দিয়ে সহায়তা করতে পারবেন।

তবে আপনি যদি শুধুমাত্র আপনার মোবাইল খরচ বা ইন্টারনেট বিল দেওয়ার মতো ইনকাম করতে চান। তাহলে আপনি নিচের অ্যাপস গুলোতে কাজ করা শুরু করুন।

যেগুলো তে আপনি সামান্য কিছু কাজ এর বিনিময়ে অল্প কিছু টাকা আয় করতে পারবেন। 

Best Mobile Online Income Apps in 2023   

  1. Rakuten,
  2. Trim Apps,
  3. Foap app,
  4. Karmo Job,
  5. iFarmer (Investment App),
  6. Inbox Dollars,
  7. Pocket Money,
  8. Cointiply,

উপরের তালিকা তে আপনি বেশ কিছু মাইক্রোজব এর ওয়েবসাইট দেখতে পাচ্ছেন। আপনি চাইলে এই অ্যাপস গুলোতে কাজ করে কিছু টাকা ইনকাম করে নিতে পারবেন। 

আপনার জন্য কিছুকথা

প্রিয় পাঠক, আপনারা যারা ফ্রি টাকা ইনকাম করার apps এর খোজ করছিলেন। তাদের জন্য আজকে বেশ কিছু অ্যাপস নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

যেগুলো থেকে আপনি প্রতি মাসে হাজার হাজার টাকা আয় করতে পারবেন। তো যদি আপনি এমন আরো টাকা আয় করার অ্যাপস সম্পর্কে জানতে চান।

তাহলে আমাদের সাথে থাকার চেস্টা করবেন। এবং আপনার যদি কোনো মতামত কিংবা অভিযোগ থাকে।

তাহলে নিচে কমেন্ট করে জানিয়ে দিবেন। ধন্যবাদ, ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন। 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top
Share via
Copy link