ফেসবুক থেকে আয় ২০২১ | ফেসবুক থেকে আয় করার উপায়

ফেসবুক থেকে আয় ২০২১ঃ শুনে অবাক হওয়ার মতো কিছু নেই এখন আপনি ইচ্ছা করলে ফেসবুক থেকে আয় করতে পারবেন । আমি জানি আপনিও ফেসবুক থেকে আয় করার জন্যই এই আর্টিকেলটি পড়তেছেন।

আপনি হয়তবা ফেসবুক থেকে আমাদের ওয়েবসাইটের লিংক পেয়েছেন অথবা গুগল থেকে সার্চ করে পেয়েছেন কিভাবে ফেসবুক থেকে আয় করা যায়।

তবে কিভাবে ফেসবুক থেকে আয় করা যায় এ বিষয়ে আপনি যদি  একটুও না জেনে থাকেন তাহলে এই পোস্টের মাধ্যমে আপনি ফেসবুক থেকে আয় করার বিষয়ে সম্পূর্ণ ধারণা পেয়ে যাবেন।

ফেসবুক থেকে আয় করার উপায়
ফেসবুক থেকে আয় করার উপায় ২০২১

যারা কিনা অনলাইন আয় সম্পর্কে একেবারেই নতুন তাদের জন্য খুব সহজ ভাবে গুছিয়ে আমরা ফেসবুক থেকে আয় করার উপর পূর্ণাঙ্গ গাইডলাইন ২০২১ প্রকাশ করেছি।

ফেসবুক থেকে আয় করার সহজ উপায় ২০২১ (পূর্ণাঙ্গ গাইডলাইন ২০২১)

একটা সময় ছিল যখন ফেসবুক দিয়ে শুধুমাত্র চ্যাটিং এবং ছবি আপলোড দেয়ার বিষয়ে সীমাবদ্ধ ছিল। কিন্তু দিনের সাথে তাল মিলিয়ে ফেসবুক এবং মানুষ অনেক আপডেট হয়ে গেছে এখন ফেসবুক শুধুমাত্র চ্যাটিং এবং ছবি আপলোডের উপর সীমাবদ্ধ নেই।

আমাদের দেশে এখনও অনেক মানুষ রয়েছে যারা ফেসবুকে শুধুমাত্র মেসেজে কথা বলা বিষয়টিকে বোঝায় কিন্তু এর বাহিরে অনেক কিছু করা যায় যা তাদের ধারণার বাইরে।

আজকাল অনেক বড় বড় কোম্পানি ফেসবুকের মাধ্যমে এডভান্সমেন্ট করে তাদের সামগ্রী মানুষের মাঝে তুলে ধরছে। বিশেষ করে বাংলাদেশের বেশিরভাগ মানুষ আজকাল ফেসবুকের উপর নির্ভরশীল হয়ে গেছে । কেননা দেশ এবং এ দেশের প্রত্যেকটি খবরাখবর খুব সহজে ফেসবুকের মাধ্যমে নিজেদের মোবাইলের দেখতে পাচ্ছে।

ফেসবুক থেকে আয় করার মাধ্যম ইতিপূর্বে অনেক আগেই শুরু করে দিয়েছে আপনি যদি ফেসবুক থেকে আয় করতে চান তাহলে অবশ্যই ধৈর্যের সাথে আমাদের পুরো পোস্টটি পড়তে হবে তাহলে বুঝতে পারবেন সম্পূর্ণ বিষয়টি কিভাবে করতে হয়।

ফেসবুক থেকে আয় ২০২১

আমরা অনেকেই আছি যারা ফেসবুকে সব সময় ভিডিও দেখি আর লাইক কমেন্ট করে বেড়াই। আপনি কি যানে এই ফেসবুক থেকে অনেকেই হাজার হাজার টাকা ইনকাম করতেছে?

অবাক হওয়ার কিছু নাই। ফেসবুক দিন দিন ফেসবুক অনেক নতুন সুযোগ-সুবিধা বের করছে যার কারণে ফেসবুক দিনে দিনে অনলাইনের বিরাট অংশ দখল করে নিয়েছে।

ফেসবুক থেকে আয় করার জন্য অনেক মাধ্যম রয়েছে তার মধ্যে বড় অংশ হলো ফেসবুক একাউন্ট, ফেসবুক পেজ, ফেসবুক গ্রপ । আপনার যদি নিজস্ব একটি ফেসবুক একাউন্ট ফেসবুক পেজে গ্রুপ থাকে খুব সহজেই আপনি ফেসবুক থেকে আয় করতে পারবেন।

তবে এর জন্য আপনার যথেষ্ট ধৈর্য এবং প্রবল ইচ্ছা থাকতে হবে। তা না হলে অনলাইন থেকে আয় করার স্বপ্ন ধূলিসাৎ হয়ে যাবে কারণ এটি এক থেকে দুই দিনের কাজ নয় আপনাকে সময় ধরে অপেক্ষা করতে হবে এবং সঠিক উপায়ে এগোতে হবে।

আমি আশা করি আপনি যদি পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ে ফেলেন তাহলে ফেসবুক থেকে আয় করার সম্পর্কে পূর্ণাঙ্গ গাইডলাইন পেয়ে যাবেন।

এবং সে অনুযায়ী আপনি যদি কাজ করতে থাকেন অবশ্যই আপনি একদিন সফল ফেসবুক থেকে আয় করার একজন হয়ে যাবেন।

ফেসবুক থেকে আয় করার সকল উপায় (Earn Money from Facebook)

আমাদের এই পোস্ট থেকে আপনি খুব সহজেই বুঝতে পারবেন ফেসবুক থেকে আয় করার সহজ উপায়।

আপনি যদি অনলাইনে নতুন হয়ে থাকেন এবং আপনি যদি আমাদের এই পোস্টটি সম্পূর্ণ পারেন তাহলে খুব সহজেই বুঝতে পারবেন যে কি কি উপায়ে ফেসবুক থেকে আয় করা যায়।

ফেসবুক থেকে আয় করা  খুব একটা কঠিন নয় আবার এতটা সহজ বিষয় নয়। এর জন্য কঠোর পরিশ্রম করতে হবে এবং ফেসবুকের নতুন টার্মস এন্ড কন্ডিশন গুলো ফলো করতে হবে।

আপনি কখনোই অনলাইনে খুব দ্রুত সময়ে ভাল আয় করতে পারবেন না যদি না সঠিক পদ্ধতি অবলম্বন না করে থাকেন।

আমাদের পোস্টের মাধ্যমে step-by-step আপনাদেরকে বুঝিয়ে দেবো ফেসবুক আয় করার সকল গাইডলাইনস ২০২১। চলুন দেখা যাক কি কি উপায়ে ফেসবুক থেকে আপনি আয় করতে পারবেন।

ফেসবুক পেজ থেকে আয় করার উপায় ২০২১

ফেসবুক পেজ থেকে আয় করা যাবে এটা নতুন কিছু নয়। তবে আপনি যদি না জেনে থাকেন তাহলে অবশ্যই এটা আপনার জন্য নতুন বিষয় হয়ে থাকবে। বিভিন্ন উপায়ে ফেসবুক পেজ থেকে আপনি আয় করতে পারবেন তার মধ্যে ফেসবুক মনিটাইজেশন অন্যতম।

এইতো বছর কয়েক হবে ফেসবুক তাদের মনিটাইজেশন সিস্টেম চালু করেছে এর মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই ফেসবুক পেজে ভিডিও আপলোড করে ইউটিউব এর মত ফেসবুক পেজ থেকে আয় করতে পারবেন।

ফেসবুক এবং গুগোল দুটি আলাদা প্ল্যাটফর্ম আর আয় করার ধরন ও আলাদা ভাবে দিয়ে থাকে। তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে ইউটিউব ফেসবুক প্রায় একই।

 কিভাবে ফেসবুক পেজ থেকে আয় করা যায়?

আপনি খেয়াল করলে বুঝতে পারবেন যে ফেসবুকে যখন ভিডিও দেখবেন তখন মাঝে মাঝে কিছু বিজ্ঞাপন প্রদর্শিত হয়।

আর এই বিজ্ঞাপনগুলো এমনি এমনি ফেসবুক প্রদান করেনা। এই বিজ্ঞাপনগুলো দেখানুর জন্য বিজ্ঞাপনদাতাকে ফেসবুকে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ প্রদান করতে হয়।

আর যারা এই বিজ্ঞাপনগুলো প্রদান করে তাদেরকে বিজ্ঞাপনদাতা বলা হয়।

আর যারা এই বিজ্ঞাপনগুলো তাদের পেজের মাধ্যমে দেখায় তাদেরকে পাবলিশার বলা হয়। আপনি যদি সেই বিজ্ঞাপন গুলো আপনার পেজের ভিডিওর মাধ্যমে দেখাতে চান অবশ্যই ফেসবুকের নিয়ম অনুযায়ী আপনার একটি ফেসবুক পেজ থাকতে হবে এবং নির্দিষ্ট পরিমাণের ভিউ ওয়াচ টাইম এবং ফলোয়ার থাকতে হবে।

সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আপনাকে ফেসবুকের নিকট আপনার পেজে বিজ্ঞাপন দেয়ার জন্য এ্যাপ্রুভাল করে নিতে হবে। পর আপনার ফেসবুক পেজ থেকে ভিডিওর মাধ্যমে মনিটাইজ করে আয় করতে পারবেন।

[youtube url=” https://www.youtube.com/watch?v=MdPWuXjIUPs” width=”600″ height=”400″ responsive=”yes” autoplay=”no” mute=”no”]

In Stream ads এর মাধ্যমে ফেসবুক থেকে আয়

ফেসবুকের প্রত্যেকটি ভিডিও দেখার সময় আপনি কোন বিজ্ঞাপন দেখতে পান না। কারণ তারা ফেসবুক থেকে In Stream ads বা বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের জন্য অফিশিয়াল ভাবে বিজ্ঞাপন দেখানোর জন্য অ্যাপ্রভাল করে নেয়নি সেজন্য আপনি সকল ভিডিওতে বিজ্ঞাপন দেখতে পান না।

যে সকল ফেসবুক পেজের মালিক কোন ফেসবুক থেকে বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের জন্য সকল নিয়ম কানুন মেনে অ্যাপ্রভাল করে নেয় তাদের ফেসবুক পেজের ভিডিওর প্রথমে অথবা মাঝখানে অথবা ভিডিও শেষে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করতে পারে। আর এই সকল বিজ্ঞাপন গুলোকেই In Stream ads বলা হয়ে থাকে।

বর্তমান সময়ে যারা ফেসবুক থেকে ভিডিওর মাধ্যমে আয় করতে চায় তাদের মূল টার্গেটই থাকে ফেসবুকের In Stream ads . ফেসবুকের দেওয়া সকল নির্দেশনা পূরণ করার পর ফেসবুকের থেকে In Stream ads এর অ্যাপ্রভাল নিয়ে আয় করা শুরু করে দেয়।

In stream ads প্রোগ্রামের মাধ্যমে ফেসবুক থেকে আয় করার উপায়

In-Stream ads বা বিজ্ঞাপন দিয়ে আয় করতে হলে আপনাকে কিছু রুলস এবং রেগুলেশন মানতে হবে যেগুলো ফেসবুক থেকে বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের জন্য অ্যাপ্রভাল নিয়েছিলেন।

In-Stream ads দ্বারা আয় করতে হলে আপনার নিজের একটি ফেসবুক পেজ থাকতে হবে এবং সেই ফেসবুক পেজে আপনার নিজের বানানো কনটেন্ট ভিডিও আপলোড করতে হবে। অন্যের ভিডিও অথবা ইউটিউব থেকে ভিডিও ডাউনলোড করে এডিট করে যদি আপনি সেসকল ভিডিও পেজে আপলোড করেন তাহলে আপনি কখনোই মনিটাইজেশন পাবেন না।

ফেসবুক প্রথমে বুঝতে পারবে না কিন্তু পরবর্তীতে যখন ফেসবুক বুঝতে পারবে যে ভিডিও কনটেন্ট গুলো আপনার নয় সে সময় আপনার আয় করা অ্যাকাউন্ট সহ আপনার পেজ কে ব্যান করে দিতে পারে।

সেজন্য ফেসবুক থেকে আয় করার জন্য অবশ্যই আপনার নিজের বানানো ভিডিও আপলোড করতে হবে এবং ফেসবুকের দেওয়া সকল ধরনের নির্দেশনা ফলো করতে হবে।

In stream ads  দ্বারা ফেসবুক মনিটাইজেশন করার শর্তসমূহ

ফেসবুক পেজ In-Stream ads মনিটাইজেশন করার জন্য অবশ্যই কিছু শর্ত সমূহ পালন করতে হবে। আপনি কি মনে করেছেন যে একটি ফেসবুক পেজ খুলে তাতে যা খুশি তাই ভিডিও আপলোড দেয়ার পর আপনার ভিডিওতে মনিটাইজেশন চালু করতে পারবেন।

এই ধরনের কোন চিন্তা থাকে তাহলে আপনি কখনোই ফেসবুক থেকে আয় করতে পারবেন না আর ফেসবুক মনিটাইজেশন তো দূরের কথা। গুগল এডসেন্স এর মত প্রতিনিয়ত ফেসবুক তাদের পেজ মনিটাইজেশন এর শর্তসমূহ পরিবর্তন পরিবর্ধন করতে পারে যেকোন সময়।

 

আরো পড়ুন…

  1. মোবাইল দিয়ে অনলাইনে আয় করার উপায় ২০২১
  2. ব্লগিং মানে কি? ব্লগ সাইট থেকে কিভাবে অনলাইনে আয় করা যায়?
  3. কিভাবে ব্লগের জন্য উপযুক্ত Domain Name নির্বাচন করতে হয়?

ফেসবুক পেজ থেকে In-Stream ads এর  মনিটাইজেশন এর মাধ্যমে আয় করার জন্য ফেসবুকের পক্ষ থেকে কিছু শর্তসমূহ পূরিণের মাধ্যমে আপনার পেজ মনিটাইজেশন জন্য এ্যাপ্রুভাল করে নিতে হবে।

ফেসবুক পেজ In-Stream ads মনিটাইজেশন করে আয় করার জন্য আপনাকে যে বিষয়গুলো খেয়াল রাখতে হবেঃ

  • আপনার নিজের একটি ফেসবুক পেজ থাকতে হবে।
  • আপনার ফেসবুক পেজটির অ্যাক্টিভিটি ভালো হতে হবে।
  • নিজের বানানো ভিডিও থাকাটা লাগবে।
  • কপিরাইট ফ্রি ভিডিও আপলোড করা।
  • আপনার ফেসবুক পেজে ১০,০০০ হাজার অথবা তার বেশি লাইক এবং ফলোয়ারস থাকা।
  • ভিডিওর সময় তিন মিনিটের উপরে রাখার চেষ্টা করা।
  • ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন এর জন্য  লাস্ট ২ মাসে ৩০,০০০ হাজারের উপরে ভিউ থাকা।
  • আপনার পেজের যে ভিডিওগুলো তিন মিনিটের উপরে এবং কমপক্ষে ১ মিনিট ধরে দেখা হয়েছে সেই ভিডিওগুলো ৩০,০০০ হাজার ভিউ কাউন্ট করা হবে।

আপনার হয়তো মনে হতে পারে যে এই সকল শর্ত সাপেক্ষে কি আদতেই পূরণ করা সম্ভব অথবা কখনো কি হবে?

অবশ্যই শর্তসাপেক্ষ গুলো পূরণ করার সহজ কেননা এই শর্তসাপেক্ষ গুলো পূরণ করে অনেকেই ফেসবুক পেজ In-Stream ads মনিটাইজেশন চালু করে হাজার হাজার টাকা আয় করা শুরু করে দিয়েছে।

ফেসবুক পেজ In-Stream ads মনিটাইজেশন এর শর্তগুলো কঠিন মনে হলেও কিন্তু মোটেও কঠিন নয়। প্রথমে আপনাকে পেজ  খুলার করার পর অবশ্যই  সেই ফেসবুক পেজ সুন্দর করে কাস্টমাইজেশন করতে হবেএবং বিভিন্ন গ্রুপে যেয়ে মার্কেটিং করে বেড়াতে হবে। যাতে  লোকজন আপনার পেজে লাইক এবং ফলো করে

তারপর নিয়মিতভাবে ভিডিও কনটেন্ট আপলোড দিতে হবে। ভিডিও যাতে মানসম্মত ও কোয়ালিটি হয় সেদিকে খেয়াল রেখে আপনার ভিডিও কনটেন্ট বানাতে হবে।

কখনো চেষ্টা করবেন না অন্যের ভিডিও কপি অথবা কাটছাঁট করে ভিডিও বানিয়ে সেই ভিডিও কনটেন্ট আপনার ফেসবুক পেজে আপলোড দেয়ার জন্য।

হয়তোবা এখন ফেসবুক সে বিষয়টি বুঝতে পারতেছেনা যখন ভিডিওর প্রকৃত মালিক ফেসবুকে এ বিষয়ে রিপোর্ট করবে সে রিপোর্টের জন্য আপনার ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন এবং ফেসবুক থেকে আয় করা দুইটাই হারাতে পারেন।

Ads প্রদর্শনের জন্য আপনার পেজটি উপযুক্ত কিনা জানার উপায়

ফেসবুক পেজ In-Stream ads বা বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের জন্য আপনার পেজটি উপযুক্ত কিনা এটা যাচাই করা অবশ্যই প্রয়োজন। আপনার ফেসবুক পেজটি In-Stream ads বা বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের জন্য উপযুক্ত কিনা এটা দেখার জন্য নিচের নির্দেশনা গুলো দেখতে পারেন।

প্রথমে আপনার যে ফেসবুক আইডি দ্বারা পেজের Admin  করা আছে সেই ফেসবুক আইডি আপনার ব্রাউজারে লগইন করতে হবে। ফেসবুক একাউন্টে লগইন করার পর এই In-stream ads check   লিঙ্কটিতে ক্লিক করলে নিচের ছবির মত একটি পেজ দেখতে পারবেন।

এখান থেকে আপনি Go to Creator Studio তে ক্লিক করবেন।

In-stream ads এর উপযুক্ত কিনা দেখার উপায়
In-stream ads এর উপযুক্ত কিনা দেখার উপায়

এখানে ক্লিক করার পর আপনার পেজ দেখতে পারবেন যে কিছু কথা দেখাচ্ছে আপনি সে কথা গুলা শুধু Next দিবেন। তার পর আপনার সব গুলা পেজ দেখতে পারবেন।

আপনার পেজ যদি In-stream ads এর উপযুক্ত হয় হয় থেকে তাহলে সবুজ কালালের লেখা দেখতে পারবেন।

ফেসবুকে আয় করার সহজ উপায়
ফেসবুকে আয় করার সহজ উপায়

আপনি যদি ফেসবুক In-Stream ads এর জন্য সকল নির্দেশনা পূরণ করে ফেলেন তাহলে ফেসবুক আপনার পেজ কে “Eligible” লেখা প্রদর্শিত হবে, তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে ১০ হাজার ফলোয়ার এবং ওয়াচ টাইম পূরণ হওয়ার আগেও আপনার পেজে “Eligible” লেখাটির প্রদর্শিত হতে পারে কিন্তু পরও আপনি ফেসবুকে ভিডিওতে বিজ্ঞাপন প্রধান করতে পারবেন না।

আপনি তখনই ফেসবুকে ভিডিওতে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে আয় করতে পারবেন যখন ফেসবুকে দেয়া সকল নির্দেশনা গুলো পূরণ করে ফেলবেন।

ফেসবুক তাদের In-Stream ads  বিজ্ঞাপন দেয়ার মাধ্যমে কে তিনটি ভাগে ভাগ করেছে। আপনাদের বোঝার সুবিধার্থে বিজ্ঞাপন দেয়ার মাধ্যমগুলোর নিচে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

  • Pre-roll ads
  • Mid-roll ads
  • Image ads

উপরের বিজ্ঞাপন গুলোর ভিতরে কোন  বিজ্ঞাপন কিভাবে কাজ করে কখন প্রদর্শিত হয় এবং আপনার ভিডিওর জন্য  কোন বিজ্ঞাপন ভালো । সঠিকভাবে সকল কিছু সেটআপ করতে পারলে আপনারা একসাথে বেড়ে যাবে।

  • Pre-roll ads: ফেসবুকে ভিডিও দেখার সময় যখন ভিডিওটি আরম্ভ হবে ঠিক আগ মুহূর্তে যে বিজ্ঞাপনটি প্রকাশ পায় অথবা বিজ্ঞাপনটি ফেসবুক কর্তৃপক্ষ থেকে প্রদর্শন করে তাকেই Pre-roll ads বলে।
  • এক্ষেত্রে আপনার ফেসবুক পেজটি যদি নতুন হয়ে থাকে অথবা পপুলার কম থাকে তাহলে Pre-roll ads বিজ্ঞাপনটি  ব্যবহার না করাই করাই ভালো।

এবার বলি ব্যবহার না করার কারণঃ

  • কেননা ভিডিওর শুরুতে যদি আপনি এরকম ভিডিও বা বিজ্ঞাপনটি দেন তাহলে অনেক ভিউয়ার্স আপনার ভিডিওটি থেকে চলে যাবে।
  • কেননা এমনিতেই আপনার পেজ টি খুব একটা বেশি পপুলার নয় তার ওপর আবার বিজ্ঞাপন প্রদর্শন। অনেক সময় ফেসবুকের ভিউয়ার্স গুলো আপনার সেই ভিডিও থেকে চলে যাবে যার কারণে আপনি একটি ভিউয়ার্স হারিয়ে ফেলবেন।
  • আর এরকম ভাবে আপনি যদি ভিউয়ার্স হারাতে থাকেন তাহলে আপনারা  ফেসবুক থেকে আয় এবং দ্রুত পপুলার হতে একটু কঠিন হয়ে পড়বে
  • Mid-roll ads: ভিডিও চলাকালীন যে বিজ্ঞাপনটি ভিডিওর মাঝখানে অথবা শেষের আগের দিকে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করে তাকেই Mid-roll ads বলে।
  • এতে করে আপনার ভিডিওটি চলা অবস্থায় যদিও বিজ্ঞাপনটি প্রদর্শন হয় আপনার ভিজিটর আপনার ভিডিওটি থেকে ছেড়ে চলে যাবে না।
  • কারণ এই বিজ্ঞাপনটি ভিডিও যেকোনো প্রান্তে এসে প্রদর্শিত হতে পারে। আর এ বিজ্ঞাপনের জন্য আপনার ফেসবুক থেকে আয় করার পরিমাণ বেড়ে যাবে। আপনার ফেসবুক পেজে আয় করার পাশাপাশি আপনার ভিউয়ার্সদের প্রতি লক্ষ্য রাখতে হবে ।
  • Image ads: আপনি যদি ফেসবুক ভিডিওর প্রথমে মাঝখানে অথবা শেষের দিকে কোনো ধরনের বিজ্ঞাপন দিতে না চান তাহলে আপনি ইমেজ বিজ্ঞাপনটি খুব সহজেই ভিডিওটি নিচে প্রদর্শন করাতে পারবেন।
  • ভিডিওর মাঝখানে যদি বিজ্ঞাপন দেয়ার মতো তেমন কোনো ভালো জায়গা না পান সেক্ষেত্রে আপনি ইমেজ বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করাতে পারেন।
  • ভিডিওর নিচে আর এই ধরনের ইমেজ বিজ্ঞাপন থেকে আপনি একটি ভাল পরিমানে আয় করতে পারবেন।

In Stream ads  এর মাধ্যমে কত টাকা আয় করা যাবে?

ফেসবুক থেকে আপনি যদি টাকা ব্যাংকের মাধ্যমে আনতে চান তাহলে আপনার ফেসবুক মনিটাইজেশন একাউন্টে কমপক্ষে  ১০০ ডলার হতে হবে।

মত আপনি ফেসবুক থেকে ১০০ ডলারের কম পেমেন্ট নিতে পারবেন না। এজন্য আপনাকে প্রত্যেক মাসে কমপক্ষে ১০০ ডলার প্লাস ফেসবুক থেকে আয় করতে হবে তা না হলে আপনি ফেসবুক থেকে প্রত্যেক মাসে পেমেন্ট পাবেন না।

ঠিক যেমনটা গুগল এডসেন্সের থেকে পেমেন্ট নেয়া হয়। যখন ফেসবুক ফেসবুকে একটা নির্দিষ্ট সময়ে রয়েছে যে সময়ের মধ্যে আপনি যদি ১০০ ডলারের উপরে আয় করতে পারেন।

সেই অনুযায়ী আপনাকে সে মাসে নির্দিষ্ট সময়ে আপনার পকেটের টাকা পাঠিয়ে দিবে। ব্যাংক বা অন্যান্য উপায়ে আপনার অর্জিত আয় নিতে পারবেন।

ফেসবুক থেকে আপনি সর্বনিম্ন ১০০ ডলার থেকে আনলিমিটেড পরিমানের অর্থ আয় করতে পারবেন ভিডিও পপুলার এবং আপনার পেজটি পপুলার হয়ে থাকে।

আরো পড়ুন…

  1. মোবাইল দিয়ে অনলাইনে আয় করার উপায় ২০২১
  2. ব্লগিং মানে কি? ব্লগ সাইট থেকে কিভাবে অনলাইনে আয় করা যায়?
  3. কিভাবে ব্লগের জন্য উপযুক্ত Domain Name নির্বাচন করতে হয়?

 Brand Collabs Manager এর মাধ্যমে ফেসবুক থেকে আয়

Brand Collabs Manager এর মাধ্যমে ফেসবুক থেকে আয় একটি জনপ্রিয় মাধ্যম। অনেকেই ফেসবুকের Brand Collabs Manager এর মাধ্যমে অনেক বড় পরিমাণের আয় করা শুরু করে দিয়েছে।

এ প্রক্রিয়াটা মূলত  স্পনসরশীপ প্রোগ্রামের মতই কেননা বড় বড় প্রতিষ্টান ফেসবুকের সাথে চুক্তি করে তাদের পণ্যের প্রমোশন প্রোডাক্ট আপনার পেজের মাধ্যমে শেয়ার করবে।

আর যে সকল প্রতিষ্ঠানগুলো আপনার ফেসবুকের মাধ্যমে তাদের কোম্পানির প্রোডাক্ট বা অন্যান্য বিষয় শেয়ার করবে সকল কিছুর Deal ফেসবুক কর্তৃপক্ষের সাথে করবে।

বড় বড় কোম্পানি বা প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের ক্যাটাগরি অনুযায়ী ফেসবুক থেকে তাদের নিজ অনুযায়ী ফেসবুক পেজ বাছাই করে নেবে।

Brand Collabs Manager প্রোগ্রামের মাধ্যমে ফেসবুক থেকে আয় করার উপায়

ইতিপূর্বে আমরা আলোচনা করেছি যে Brand Collabs Manager এর আয় করার মাধ্যম গুলো হল বিভিন্ন বড় বড় প্রতিষ্ঠান বা কোম্পানির মাধ্যমে প্রোডাক্টের রিভিউ বা বিভিন্ন অফার প্রমোশন করার মাধ্যমে আয় করা যায়।

আর এটা মূলত ফেসবুক নিজেরাই আপনার পেজ বাছাই করে নিয়ে তাদের সাথে চুক্তির মাধ্যমে আপনার ফেসবুক পেজে বিভিন্ন প্রকার বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করবে।

ফেসবুক আপনা আপনি আপনার ফেসবুক পেজ বাছাই করে নিয়ে Brand Collabs Manager এর মাধ্যমে আয় করার সুযোগ করে দিবে না।

সেই প্রতিষ্ঠান বা কোম্পানির মালিক চাচ্ছে যে ফেসবুকের ভিতরে যারা বিভিন্ন ধরনের ইলেকট্রনিক প্রোডাক্ট রিভিউ করে। এবং ফেসবুকে পেজ এ ভিডিও আপলোড করে তাদের পেজ থেকে সেই প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন ধরনের প্রমোশন এবং রিভিউ প্রদান করবে যাতে করে তাদের প্রতিষ্ঠিত কোম্পানিতে পপুলারিটি বেড়ে যায়।

সেই কোম্পানির মালিকরা চাইবে যে ফেসবুকের মাধ্যমে ঠিক একই টপিকের পেজ গুলো সিলেক্ট করতে। আপনার যদি নিজের সেই টপিকের একটি ফেসবুক পেজ থাকে এবং ফেসবুকের নির্দেশ অনুযায়ী সকল কিছু পূরণ করেন তাহলে ফেসবুকের কর্তৃপক্ষ থেকে আপনার পেজটি Brand Collabs Manager এর  জন্য এপ্লাই করে অ্যাপ্রভাল করে নিতে হবে।

ফেসবুক আপনার পেজের মাধ্যমে সেই ইলেকট্রনিক দোকানের বিজ্ঞাপন আপনার পেজের ভিতর বিভিন্ন ধরনের প্রমোশন এবং রিভিউ বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করবে। ফেসবুকের সাথে সেই প্রতিষ্ঠানটি Deal  করার কারণে ফেসবুক কে টাকা দিতে হবে। এই টাকা নির্দিষ্ট হারে বিভিন্ন এ বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে আপনার একাউন্টে জমা হতে থাকবে।

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ থেকে এখনও বাংলাদেশের জন্য অথবা বাংলা ভাষার জন্য এরকম ব্রাঞ্চ ম্যানেজার থেকে আয় করার সিস্টেম এখনো চালু করেনি।

তবে আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত এবং চায়না বিভিন্ন দেশে একলব্যের ম্যানেজার এর মাধ্যমে আয় করা যাচ্ছে। তবে কখন কীভাবে বাংলাদেশ এবং বাংলা ভাষাভাষীদের জন্য এই সার্ভিসটি চালু করে দে তা বলা মুশকিল।

আপনি যদি ভবিষ্যতে ফেসবুক  থেকে আয় করার ইচ্ছা থাকে তাহলে অবশ্যই একটি ভালো টপিক বেছে নিয়ে আপনার ফেসবুক পেজের পপুলারিটি বাড়াতে পারেন।

আপনার যদি একটি পপুলার ফেসবুক পেজ থাকে সেই পেজ থেকে আইটি ফার্ম, টেকনোলজি রিলেটেড রিভিও, বা কোন হোটেলের বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের মাধ্যমে খুব সহজেই আয় করতেফেসবুকের অ্যাপ্রভাল ছাড়াই। আইটি ফার্ম অথবা হোটেল ম্যানেজমেন্টের কর্তৃপক্ষ আপনার সাথে যোগাযোগ করে আপনার সাথে ডিল করে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করবে।

আর এইভাবে ফেসবুক ব্র্যান্ড কলাবস ম্যানাজার থেকে আয় করতে পারবেন।

Brand Collabs Manager এর মাধ্যমে আয় করার শর্তসমূহ

ফেসবুক থেকে আয় করার উপায় অনেক উপায় রয়েছে তার মধ্যে এটিও অনেক কার্যকরী পদ্ধতি। তবে In stream Ads  এর থেকে সম্পূর্ণ আলাদা শর্তসাপেক্ষে আপনি এখান থেকে আয় করতে পারবেন।

থেকে অ্যাপ্রভাল নেয়ার জন্য আপনার ফেসবুক পেজের জন্য ১০ হাজার ফলোয়ার লাগবে না। আপনার ফেসবুক পেজে ১০০০ হাজার ফলোয়ার হলেই আপনি ফেসবুক থেকে অ্যাপ্রভাল করে নিতে পারবেন।

কিন্তু এর সাথে আরও কিছু শর্তসাপেক্ষে রয়েছে যেগুলো পূরণ করার আগে কখনো অ্যাপ্রভাল পাবেন না

  • আপনার ফেসবুক পেজে কম পক্ষে ১০০০ হাজার ফলোয়ার থাকা লাগবে।
  • এখান থেকে অ্যাপ্রভাল নেয়ার জন্য অবশ্যই ফেসবুক মনিটাইজেশন এর জন্য যেসকল নিদর্শনা রয়েছে সে সকল নির্দেশনাগুলো অবশ্যই আপনাকে ফলো করতে হবে।
  • আপনাকে সেই পেজের Admin হতে হবে।
  • Brand Collabs Manager ফেসবুক এর কাছ থেকে অ্যাপ্রভাল নেয়ার জন্য আপনাকে নিশ্চিত হতে হবে যে আপনি যে দেশ থেকে এপ্লাই করবেন সে দেশে Brand Collabs Manager সার্ভিসটি ফেসবুক থেকে চালু রেখেছে কিনা। আর আমাদের বাংলাদেশ বা বাংলা ভাষার জন্য এই সার্ভিসটি ফেসবুক এখন উন্মুক্ত করে নাই।

উপরের সকল শর্ত পূরণ করার পর নিচের এই তিনটি শর্তের ভিতরে যে কোন একটি শর্ত অবশ্যই পূরণ করতে হবে তা না হলে আপনি ফেসবুক থেকে অ্যাপ্রভাল নিতে পারবেন না।

  • ১৫০০০ হাজার পোস্ট এনগেজমেন্ট থাকতে হবে (৬০ দিনের ভিতরে আপনার পেজের Engagements অনুযায়ী লাইক কমেন্ট শেয়ার ভিউস  সর্বমোট  ১৫০০০ থাকতে হবে)
  • আপনার পেজে লাস্ট ৬০ দিনের ভিতরে ১৮০,০০০ মিনিট ওয়াচ টাইম থাকতে হবে।
  • লাস্ট ৬০ দিনের ভিতরে আপনার যেসকল ভিডিও ৩ মিনিটের উপরে রয়েছে সে সকল ভিডিওর কম পক্ষে ১ মিনিটের ওয়াচ টাইম এবং ৩০ হাজার ভিউ থাকতে হবে।

আপনি হয়তবা ভাবতেছেন এনগেজমেন্ট (Engagements) আসলে কি? এনগেজমেন্ট বলতে বোঝায় যে আপনার ফেসবুক পেজের অ্যাক্টিভিটি কিরকম অর্থাৎ আপনার ফেসবুকে পোস্ট দেয়া অথবা কনটেন্ট আপলোড দেয়ার পর যখন কেউ লাইক কমেন্ট শেয়ার দেয় অথবা ভিডিও গুলো দেখে এগুলো এনগেজমেন্ট বলে।

মানে আপনার ভিডিওটি কেউ যদি কমেন্ট অথবা লাইক করে তাহলে একটি Engagements হয়ে যাবে আর এইভাবে এনগেজমেন্ট হিসাব করা হবে।

আবার বলে রাখা ভালো যে উপরের ১০০০ হাজার ফলোয়ার এবং অন্য সাধারণ শর্ত মানার পর শেষে যে তিনটি শর্ত রয়েছে সে শর্তগুলোর যেকোনো একটি শর্ত পূরণ করলেআপনার ফেসবুক পেজটি Brand Collabs Manager প্রোগ্রামের এপ্রোবের জন্য প্রস্তুত হয়ে যাবে।

Brand Collabs Manager এর মাধ্যমে আয় করার উপযুক্ত কিনা জানার উপায়

আপনার ফেসবুক পেজটি ব্র্যান্ড কলবস ম্যানেজার এর জন্য উপযুক্ত কিনা তা যাচাই-বাছাই করার জন্য আপনার ফেসবুক আইডিতে লগিন করতে হবে যে আইডি দিয়ে আপনার ফেসবুক পেজের এডমিন।

আপনার ফেসবুক আইডিতে লগিন করার পর এখানে ক্লিক দেয়ার মাধ্যমে আপনি একটি নতুন পেজ দেখতে পারবেন সেখান থেকে Go to Creator Studio ক্লিক করবেন।

ফেসবুক পেজ ব্র্যান্ড কলবস ম্যানেজার
ফেসবুক পেজ ব্র্যান্ড কলবস ম্যানেজার উপযুক্ত কিনা জানার উপায়

আপনার ফেসবুক পেজটি ব্র্যান্ড কলবস ম্যানেজার উপযুক্ত কিনা জানার তা জানার জন্য স্ক্রিনশটের উপরে দেয়া একটি লিংক শেয়ার করা হয়েছে। সেখান থেকে  ক্লিক করার পর Go to Studio  আপনার ফেসবুক পেজ সম্পর্কে যাবতীয় তথ্যাবলী পেয়ে যাবেন।

Brand Collabs Manager এর মাধ্যমে কত টাকা আয় করা যাবে?

ফেসবুক পেজ ব্র্যান্ড কলবস ম্যানেজার   In-Stream Ads মত আপনার একাউন্টে মিনিমাম ১০০ ডলার আয় থাকতে হবে তাহলে আপনি পরবর্তী মাসে নির্দিষ্ট টাইমে আপনার Bank Account অথবা অন্যান্য পদ্ধতির মাধ্যমে টাকা উইথড্র করতে পারবেন ।

ফেসবুক মাধ্যম গুলো ফেসবুক সাপোর্ট করে সে অনুযায়ী আপনার একাউন্টে ফেসবুক থেকে আয় করার টাকাগুলো আপনার অ্যাকাউন্টে জমা করতে পারবেন।

আপনি ফেসবুক থেকে ১০০ ডলার থেকে শুরু করে আনলিমিটেড ডলার পর্যন্ত আয় করতে পারবেন সেটা সম্পূর্ণ নির্ভর করে আমার আপনার ফেসবুক পেজের পপুলারিটি এবং ভিউয়ার্স এর উপর।

আরো পড়ুন…

  1. মোবাইল দিয়ে অনলাইনে আয় করার উপায় ২০২১
  2. ব্লগিং মানে কি? ব্লগ সাইট থেকে কিভাবে অনলাইনে আয় করা যায়?
  3. কিভাবে ব্লগের জন্য উপযুক্ত Domain Name নির্বাচন করতে হয়?

Fan subscriptions এর মাধ্যমে ফেসবুক থেকে আয়

Fan subscriptions এর মাধ্যমে ফেসবুক থেকে আয় করা যায় তবে আমাদের দেশ সহ আরো কয়েকটি দেশে এখনও এই ফ্যান সাবস্ক্রিপশন এর মাধ্যমে আয় করা শুরু হয়নি ।

তবে আশা রাখা যায় ফেসবুক খুব শীঘ্রই ফ্যান সাবস্ক্রিপশনের মাধ্যমে বাংলাদেশ সহ আরো বিভিন্ন দেশে আয় করার সুযোগ করে দিবে যে সকল দেশে এখনও চালু হয়নি।

আর পরবর্তী পোষ্টের মাধ্যমে ফ্যান সাবস্ক্রিপশন নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব যে কিভাবে ফ্যান সাবস্ক্রিপশন দিয়ে ফেসবুক থেকে আয় করা যায়। যদিও আমাদের দেশে এখনো এটি চালু হয়নি তবুও এ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব।

Monetization tools application এর মাধ্যমে ফেসবুক থেকে আয়

ফেসবুকে মনিটাইজেশন চালু করে এখন আপনি ফেসবুক পেজ গ্রুপসহ বিজ্ঞাপন পাবলিশ করার মাধ্যমে খুব সহজেই ফেসবুক থেকে আয় করতে পারবেন।

আগের দিনে ফেইসবুক ছিল শুধুমাত্র কথা বলা বা চ্যাটিং করা মধ্যম কিন্তু বর্তমানে এই ফেসবুকে অনেকেই বিজনেসের একটি অংশ করে বানিয়েছে। প্রতিদিন লক্ষ লক্ষ টাকা ফেসবুকের মাধ্যমে বিজ্ঞাপন প্রদান করে ব্যবসা প্রসারিত করেছে।

আর ফেসবুকের সকল শর্ত পূরণ করে যারা ফেসবুকের কাছ থেকে মনিটাইজেশন এপ্রুভ করে নিয়েছে তাদের ফেসবুক পেজের মাধ্যমে বিজ্ঞাপন পাবলিশ করে একটি বড় অ্যামাউন্ট ফেসবুক পেজ ক্রিয়েটর কে প্রদান করে যাচ্ছে।

তবে এর জন্য আপনাকে অবশ্যই ইউনিক টাইপের ভিডিও কনটেন্ট তৈরির মাধ্যমে আপনার পেজকে সকল শর্ত পূরণ করতে হবে।

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল প্রোগ্রামের মাধ্যমে আয় ২০২১

আমরা অনেকেই দেখতে পারি যে ফেসবুক পেজ গ্রুপ থেকে অনেকেই তাদের ওয়েবসাইটের লিংক শেয়ার করার মাধ্যমে তাদের ওয়েবসাইটে একটি বড় ধরনের ট্রাফিক ফেসবুক থেকে নিয়ে যাচ্ছে।

তবে ফেসবুক চাচ্ছে যে তাদের ইউজার সবসময় যেন তাদের ফেসবুকের ভিতরে থাকে বাইরে যেন না যায় সেই চিন্তা করে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল প্রোগ্রামের মাধ্যমে আয় করার একটি সুযোগ সৃষ্টি করে দিয়েছে ।

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল প্রোগ্রাম প্রথমত ২০১৫ সালে শুরু করে এবং আস্তে আস্তে প্রায় সকল দেশের জন্য অ্যাভেলেবল করে দেয়।

বিশেষ করে সংবাদ মাধ্যম ওয়েবসাইট খোলা বেশিরভাগ ওয়েবসাইটের কনটেন্ট গুলো ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল প্রোগ্রামের আওতায় এনে ফেসবুকের মাধ্যমে আয় করতেছে।

এতে করে সে সকল সহজ মাধ্যম গুলো যেমন ফেসবুক থেকে আয় করতে পারছে ঠিক তেমনি ফেসবুক তাদের সদস্যদের ফেসবুক মুখি বেশি করার জন্য এ ব্যবস্থা।

বাংলাদেশের শীর্ষ স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম গুলোর ওয়েবসাইট ইতিমধ্যে ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল প্রোগ্রাম এর সাথে যুক্ত হয়েছে এবং যে কেউ এই প্রোগ্রামের মাধ্যমে যুক্ত হতে পারবে যদি ফেসবুক আর্টিকেল এর সকল নির্দেশনা গুলো পূরণ করে।

আর ১০০ ডলার আয় করার পরে আপনি আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে খুব সহজেই তুলে নিতে পারবেন। ফেসবুক কর্তৃপক্ষ থেকে দেয়া যে সকল শর্ত সমূহ রয়েছে সেগুলো যদি আপনি পূরণ করতে না পারেন।

ফেসবুকে ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল অ্যাপ্রভাল করার পর আপনি যদি ফেসবুকের দেয়া সকল শর্ত সমূহ মেনে না চলেন তাহলে আপনার অ্যাকাউন্টটি যেকোনো সময় তাদের প্রোগ্রাম থেকে বাদ করে দিতে পারে।

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল কি

ফেসবুক এখন আর আগের মত বন্ধু-বান্ধবের সাথে আড্ডা সময় কাটানোর মধ্যেই সীমাবদ্ধ নেই। ফেসবুক দিনের সাথে তাল মিলিয়ে নতুন নতুন সুবিধা সংযুক্ত করতে ইতিমধ্যে অনেক কাজ করে যাচ্ছে ফেসবুক।

ফেসবুক এখন শুধু সামাজিক যোগাযোগের একটি মাধ্যম এর ভিতরে নয়, দেশ ও দেশের বাইরে নানা সংবাদ মিলে এই ফেসবুকের মাধ্যমে।

ফেসবুক ব্যবহার করার সময় আপনার নিউজ ফিডে দেখবেন হাজার হাজার সংবাদের লিংক অথবা শিরোনামের অহরহ লিংক শেয়ার করা হয়েছে।

আর আপনি যদি সেই সংবাদ বা খবরটি পড়তে চান তাহলে সেই লিঙ্কে ক্লিক করতে হবে এবং একটি ব্রাউজারে সেই লিংকটি ওপেন করার জন্য অপেক্ষা করতে হবে তারপরই আপনি সে সংখ্যাটি পড়তে পারবেন।

আর এই সিস্টেম টা যেন ফেসবুক ব্যবহারকারীদের জন্য বিরক্তের এর একটি কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে কেননা তাদের সংবাদপত্রটি পড়ার জন্য কিছু সময় অপেক্ষা করতে হয়।

আর এই বিরক্তিকর পরিস্থিতি থেকে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের সুবিধার্থে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ চালু করেছে ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল প্রোগ্রাম। এবং এই ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল প্রোগ্রাম  পাবলিশার ফেসবুক থেকে খুব সহজেই  আয় করতে পারবে।

ফেসবুকে শেয়ার করা বিভিন্ন লিঙ্ক অথবা শিরোনামে ক্লিক দেয়ার সাথে সাথে ফেসবুকে লোড হওয়ার পর যে সংবাদ বা খবরটি পড়তে পারেন তাকেই ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল বলা হয়।

ফেসবুকে ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল চেনার উপায়

ফেসবুকে অনেক ধরনের লিংক শেয়ার করা হয়ে থাকে তাদের মাঝে কোনটি ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল লিংক আর কোনটি ওয়েবসাইট লিঙ্ক তা অনেকেই বোঝতে পারে না। ছবির মার্ক করার মুত দেখতে পেলে বুঝবেন এটা ফেসবুক ইনস্টান্ট আর্টিকেল।

ফেসবুকে ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলর লিংক চেনার উপায়
ফেসবুকে ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলর লিংক

এখন অনেক বড় বড় নিউজপেপার অথবা খবরের অনলাইন পত্রিকার মালিকরা ফেসবুক  ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল প্রোগ্রামের উপর টার্গেট করে অনেকেই ওয়েবসাইট তৈরি করে।

অ্যাপ্রভাল নেয়ার পর ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এর মাধ্যমে অনেক বেশিই আয় করে করে। যা দিয়ে অফিসের লোকজন থেকে শুরু করে বাকি খরচ এই প্রোগ্রাম থেকে হয়ে যায়।

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল সুবিধা

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আটিকেলের অনেকগুলো সুবিধা রয়েছে তার ভিতরে কিছু সুবিধা নিম্নে তুলে ধরা হলো।

  • ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এ পড়ার সময় খুব তাড়াতাড়ি সেই পেজটি লোড হয়ে যাবে।
  • ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এর আরেকটি সুবিধা হল যখন একবার সেই আর্টিকেলটি পড়বেন এবং পুনরায় যখন ফিরে আসবেন কোন প্রকার পেজ লোড ছাড়াই সে আর্টিকেলটি পড়তে পারবেন।
  • আপনি যখন ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল প্রোগ্রাম থেকে অ্যাপ্রভাল করে নিবেন তখন ফেসবুক নিজে থেকেই বিভিন্ন ধরনের বিজ্ঞাপন আপনার আর্টিকেল ভিতর প্রদর্শন করাবে।
  • আপনাকে কোন ধরনের বিজ্ঞাপনের জন্য কোড বা অন্যান্য কোন কিছু প্লেসমেন্ট করা লাগবে না।

ফেসবুক  ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল অসুবিধা

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলের সুবিধার পাশাপাশি কিছু অসুবিধাও রয়েছে যেগুলো না বললে না।

  • আপনার ওয়েবসাইট যখন ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল প্রোগ্রামের থেকে অ্যাপ্রভাল নিবেন  সেই সময় আপনার মেনু ওয়েবসাইটের ট্রাফিক অনেকাংশে কমে যাবে।
  • তবে এতে করে আপনার ওয়েবসাইটের রেংকিং এর কোনো প্রভাব ফেলবে না।
  • ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল প্রোগ্রাম থেকে আপনার ওয়েবসাইটের জন্য অ্যাপ্রভাল নেওয়া কিছুটা কঠিন বিষয়।

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলের মাধ্যমে আয় করার শর্তসমূহ

ফেসবুক থেকে আয় করার জন্য অন্যান্য প্রোগ্রামের মতো ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এর মাধ্যমে আয় করার কিছু শর্ত রয়েছে। তবে আপনার যদি কন্টেন কোয়ালিটি ভালো থাকে এবং আপনার পেজটি সুন্দরভাবে কাস্টমাইজ করতে পারেন তাহলে ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এর অ্যাপ্রভাল নিতে অনেকটা সহজ হয়ে যায়।

  • সর্বপ্রথম আপনার একটি ফেসবুক পেজ থাকতে হবে এবং সে  ফেসবুক পেজটি কাস্টমাইজ করে ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল প্রোগ্রামের উপযুক্ত করতে হবে।
  • আপনার ওয়েবসাইটের নিয়মিত আর্টিকেল পাবলিশ করতে হবে।
  • আপনার ফেসবুক পেজে লাইক ফলোয়ার বেশি থাকলে ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল প্রোগ্রামের অ্যাপ্রভাল নিতে সুবিধা হবে।
  • আপনার ওয়েবসাইটটি ওয়াডপ্রেস থেকে তৈরি করলে ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল প্রোগ্রাম থেকে অ্যাপ্রভাল নিতে সুবিধা হবে।
  • Instant Articles for WP প্লাগিন ব্যবহার করতে হবে।
  • আপনার ওয়েবসাইটের জন্যে অবশ্যই ইউনিক আর্টিকেল পাবলিশ করতে হবে।
  • আপনার নিজের একটি ব্যাংক একাউন্ট লাগবে।

সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আপনি নিয়ে এই লিঙ্ক থেকে ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এর জন্য আপনার ওয়েবসাইটকে আবেদন করতে পারেন। এই লিংকে যাওয়ার পর সিঙ্গাপুর ক্লিক করে পরবর্তী নির্দেশনা গুলো ফলো করলে আপনি সবকিছু বুঝতে পারবেন।

ফেসবুক গ্রপ থেকে আয় ২০২১

ফেসবুক গ্রুপ থেকেও আপনি আয় করতে পারবেন যদি বুদ্ধি খাটিয়ে কিছু কৌশলে কাজগুলা করেন। আপনি ফেসবুকের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রকার ইলেকট্রনিক্স দ্রব্য সামগ্রিক কাপড় এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিস খুব সহজেই প্রমোট এর মাধ্যমে বিক্রি করতে পারবেন।

তবে এর জন্য আপনাকে গ্রুপে মেম্বার এড করতে হবে এবং গ্রুপের মাধ্যমে সবার সাথে বিশ্বস্ত হতে হবে যাতে করে সকলে আপনার উপর একটি আস্থা রাখতে পারে।

ইতিমধ্যে ফেসবুক ঘোষণা দিয়েছে যে বড় বড় গ্রুপের মাধ্যমে গ্রুপ এডমিন দের একটি  আয়ের ব্যবস্থা করে দেয়ার জন্য ঘোষণা করেছে।

গ্রুপে অ্যাডমিন রা চাইলে তাদের গ্রুপের একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থের বিনিময়ে গ্রুপে মেম্বার অ্যাড করবে তাহলে সেই ব্যবস্থা করতে পারবে এজন্য ফেসবুক কাজ করে যাচ্ছে।

কারণ একটি ফেসবুক গ্রুপ কে জনপ্রিয় করার জন্য গ্রুপ এডমিন দের অনেক সময় ব্যয় করতে হয় যা দাম অবশ্যই ফেসবুক কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা করতে চাচ্ছে।

ফেসবুক গ্রুপ মনিটাইজেশন করা যায়

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ ইতিমধ্যে কিছু কিছু বড় গ্রুপে এডমিন দেরকে নোটিফিকেশন করেছে যে তারা চাইলে গ্রুপে মনিটাইজেশন সিস্টেম চালু করতে পারে। গ্রুপের মনিটাইজেশন সিস্টেম এখনো পুরোপুরি কাজ শেষ করে নেই।

তবে খুব শীঘ্রই পুরোপুরি ঘোষণা দিবে কিভাবে ফেসবুক গ্রুপ থেকে আয় করতে পারবেন। তবে তাদের ছোট্ট একটি ঘোষণা থেকে বলা হয়েছে যে গ্রুপে ১০০০ ম্যাম্বার থাকতে হবে এবং গ্রুপটি অবশ্যই পাবলিক গ্রুপ হতে হবে।

তারপর আরো কিছু নির্দেশনা পূরণ করার পর গ্রুপ মনিটাইজেশন সিস্টেম চালু করা যাবে। ফেসবুক যদি নতুন করে কোনো ঘোষণা দেয় অবশ্যই আমাদের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনাদেরকে জানিয়ে দেয়া হবে।  তার জন্য আমাদের ওয়েবসাইটে নিয়মিত ভিজিট করতে হবে।

ফেসবুক গ্রুপে লিংক শেয়ার করে আয়

আপনি চাইলে আপনার গ্রুপে এবং অন্যান্য যেসকল পাবলিক গ্রুপ আছে সেসকল গ্রুপে বিভিন্ন প্রকার মার্কেটিং এবং শর্ট লিংকের মাধ্যমে খুব সহজে আয় করতে পারবেন।

এরকম অনেক ওয়েবসাইট রয়েছে যেগুলোতে খুব সহজেই আপনি একটি ফ্রি একাউন্ট খুলে বিভিন্ন প্রকার ইমেজ সফটওয়্যার গেমসের লিনক শর্ট করে আপনার ফ্রেন্ডস এবং অন্যান্য গ্রুপ গুলোতে শেয়ার করার মাধ্যমে আয় করতে পারবেন।

আপনার শেয়ার করা লিঙ্ক এ ক্লিক করে কোন কিছু ডাউনলোড করতে যাবে সে সময়  বিভিন্ন প্রকার বিজ্ঞাপন প্রদর্শন হবে।

আপনি হয়তো ভাবতেছেন যে ঐ সকল বিজ্ঞাপন গুলো কিভাবে হবে। যখন সে সকল ওয়েবসাইট থেকে লিংক শর্ট করেছিলেন সেই সকল ওয়েবসাইট আপনা আপনি আপনার লিঙ্ক এ ক্লিক দেওয়ার পর বিভিন্ন প্রকার বিজ্ঞাপন প্রদর্শিত হবে ।

আর সেই বিজ্ঞাপনে ক্লিক দিলে আপনার একাউন্টে একটা নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ হয়ে যাবে।

আরো পড়ুন…

  1. মোবাইল দিয়ে অনলাইনে আয় করার উপায় ২০২১
  2. ব্লগিং মানে কি? ব্লগ সাইট থেকে কিভাবে অনলাইনে আয় করা যায়?
  3. কিভাবে ব্লগের জন্য উপযুক্ত Domain Name নির্বাচন করতে হয়?

ফেসবুক গ্রুপের মাধ্যমে ক্রয় বিক্রয় করে আয়

আমরা অনেকেই জানি যে অনলাইনে ক্রয় বিক্রয়ের মাধ্যমে ব্যবহার করে যে ব্যবসা করা হয় তাকেই কমার্স ব্যবসা বলা হয়। ফেসবুকের মাধ্যমে ক্রয় করা কে এফ কমার্স  বলা হয়।

ফেসবুক গ্রুপের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রকার ক্রয় বিক্রয়ের ব্যবসা করে আপনি খুব সহজে আয় করতে পারবেন। মনে করুন আপনার একটি দোকান রয়েছে এবং সেই দোকানে বিভিন্ন প্রকার দ্রব্য সামগ্রী রয়েছে।

আপনি চাইলে সকল দ্রব্যসামগ্রীর ছবি তুলে ফেসবুকে গ্রুপে প্রমোট করতে পারেন এবং কেউ যদি সেই দ্রব্যসামগ্রীর পছন্দ করে আপনি কুরিয়ার এবং অন্যান্য মাধ্যমে খুব সহজেই তাদের ঠিকানায় পৌঁছে দিতে পারবেন।

এবং বিভিন্ন প্রকার পেইড সফটওয়্যার অ্যাপস এবং গেমস আপনি খুব সহজে গ্রুপের মাধ্যমে বিক্রি করতে পারবেন।

ফেসবুক মার্কেটিং করে আয় ২০২১

ফেসবুক মার্কেটিং দিনে দিনে অনেক উন্নতির দিকে প্রবাহিত হচ্ছে এখন অনেকেই ফেসবুক থেকে ক্লায়েন্ট সংগ্রহ করে একটা মোটা অঙ্কের অর্থ আয় করতে পারছে প্রতিমাসে।

ফেসবুকের ফিতর মার্কেটিং করে অনেকেই অনেক লাইন সংগ্রহ করে এবং বিভিন্ন প্রকার সমস্যার সমাধান ফেসবুকের গ্রুপ থেকে পেয়ে থাকে।

মার্কেটিং করার জন্য ফেসবুক এখন বহুলাংশে ব্যবহার করা হচ্ছে।বিশ্বব্যাপী অনেক মানুষই এখন ফেসবুকের উপর বিভিন্নভাবে মার্কেটিং করে যাচ্ছে।

কারণ আপনি যদি ওয়েব ডিজাইনার বা ডেভলপ সম্পর্কে ভাল আইডিয়া থাকে অথবা এসইও সম্পর্কে ভালো এক্সপেরিয়েন্স থাকে তাহলে খুব সহজে ফেসবুক মার্কেটিং এর মাধ্যমে ক্লাইন্ট সংগ্রহ করতে পারবেন।

ক্লায়েন্ট সংগ্রহ করার জন্য অবশ্যই আপনার সেই ধরণের গ্রুপে জয়েন করতে হবে যে গ্রুপ গুলোতে প্রতিনিয়ত কাজের স্যাম্পল এবং বিভিন্ন প্রকার কাজের অফার করে থাকে।

আমাদের বাংলাদেশের জন্য বিভিন্ন ধরনের ফ্রিল্যান্সিং রিলেটেড গ্রুপ রয়েছে যে গ্রুপের মাধ্যমে খুব সহজেই বিভিন্ন প্রকার সাহায্য সমাধান পেয়ে যাবেন। এমনকি বিভিন্ন প্রকার অফার আদান প্রদান করা হয় সেসব গ্রুপে।

আপনি যদি ভাল কনটেন্ট রাইটার হয়ে থাকেন আর ফ্রিল্যান্সিং রিলেটেড গ্রুপে যদি জেনে থাকেন তাহলে আপনি প্রতিনিয়ত দেখতে পারবেন যে অনেকেই পোস্ট করবে যে তার ওয়েবসাইটের জন্য কনটেন্ট রাইটার লাগবে।

আর আপনি খুব সহজেই সেসকল গ্রুপের মাধ্যমে অফারগুলো একসেপ্ট করতে পারবেন।

এছাড়াও আপনার যে বিষয়ে এক্সপিরিয়েন্স আছে সেইসকল রিলেটেড গ্রুপে জয়েন করে ফেসবুক মার্কেটিং এর মাধ্যমে খুব সহজেই সংগ্রহ করার মাধ্যমে আয় করতে পারবেন।

এখানে আমি কিছু বাংলাদেশী ফ্রীলান্সিং গ্রুপের নাম বলব আপনি ইচ্ছা করলে সে সকল গ্রুপে জয়েন করতে পারেন এবং বিভিন্ন প্রকার অফার এবং সমস্যার সমাধান গ্রুপে পোস্ট এবং কমেন্টের মাধ্যমে পেয়ে যাবেন।

  • Fiverr Help Bangladesh

  • Freelancer community in Bangladesh

  • Freelancer Bangladesh Helpline

  • Sofol Freelancer – সফল ফ্রিলান্সার

  • Seo Mastersmind Bangladesh

  • Seo Helpline Bangladesh
  • Contents Writer Bangladesh

এছাড়াও বাংলাদেশ অনেক গ্রুপ রয়েছে যেখান থেকে খুব সহজে আপনি বিভিন্ন প্রকার কাজের পেয়ে যাবেন এবং সে সকল গ্রুপে আপনাকে অবশ্যই একটিভ থাকতে হবে উপরের গ্রুপ গুলোতে আপনি জয়েন হতে পারেন।

ফেসবুক একাউন্ট বিক্রি করে আয়

আপনি হয়তো দেখেছেন যে বিভিন্ন গ্রুপে অথবা পেজে অনেকেই ফেসবুক আইডি কেনাবেচার জন্য পোষ্ট করে থাকে। আপনি কি কখনো ভেবে দেখেছেন যে কি জন্য এই আইডিগুলো কেনাবেচা করে অথবা কিবা হবে এসকল আইডি দিয়ে।

ফেসবুক ক্রয় বিক্রয় করা হয় মূলত কুপন সংগ্রহ করার জন্য কেননা একটি ফেসবুক একাউন্টে ৫ ডলার থেকে৩০ ডলার পর্যন্ত কুপন সংগ্রহ করা যায় যা ফেসবুক থেকে সম্পূর্ণ ফ্রি।

তবে কুপন সংগ্রহ করার জন্য কিছু টেকনিক এবং পদ্ধতি অবলম্বন করতে হয় যা সকলে জানে না। তবে আপনি যদি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট তৈরি করাতে পারেন এবং সে অনুযায়ী আপনি বিক্রয় করতে পারেন তাহলে ফেসবুক আইডি বিক্রয় করে একটি বড় পরিমাণ আয় করতে পারেন।

আর ফেসবুকে বিক্রয়ের জন্য ফেসবুকে সার্চ দিলে অনেক গ্রুপ পেয়ে যাবেন সেখান থেকে বাছাই করে কিছু ভালো গ্রুপে জয়েন হয়ে নিবেন।

ফেসবুক পেজ বিক্রি করে আয়

আপনি ইচ্ছা করলে ফেসবুক পেজ তৈরি করে সেখানে লাইক এবং ভালো পরিমাণে ফলোয়ার সংগ্রহ করে বিক্রি করতে পারেন।

তবে এর জন্য আপনাকে কিছু সময় অপেক্ষা করতে হবে কেননা একটি ফেসবুক পেজকে পপুলারিটি অথবা লাইক-কমেন্ট-ফলো আর পেতে কিছুটা সময় দিতে হবে।

ফেসবুক পেজ খোলার পর আপনি কিছু বিনোদনমূলক ভিডিও তৈরি করে পেজে আপলোড দিতে পারেন এতে করে আপনার লাইক কমেন্ট অনেকাংশে বেড়ে যাবে এবং একটা সময় ভালো পরিমাণে ফলোয়ার পেয়ে যাবেন।

আপনার  পেজ যত পপুলারিটি হবে আপনি তত বেশি দামে বিক্রি করতে পারবেন।

শেষ কথা: আমাদের ওয়েবসাইটের  ফেসবুক থেকে আয় আর্টিকেলটি যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট এর মাধ্যমে আমাদেরকে জানাবেন।

আপনি যদি আমাদের এই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়েন এবং Step-By-Step এই পদক্ষেপ গুলো ফলো করেন তাহলে অল্প কিছুদিনের মধ্যেই আপনি ফেসবুক থেকে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ আয় করতে সক্ষম হবেন।

আমাদের ব্লগ সাইটটি উদ্দেশ্য হলো যারা অনলাইনে আয় করার আগ্রহি এবং অনলাইন আয় সম্পর্কে নতুন তাদেরকে সকল গাইডলাইন দেওয়ার জন্য বাংলাভাষায় আমাদের ওয়েবসাইটটি চালু করেছে।

আমি নিলয় হাসান-এই ব্লগের প্রতিষ্ঠাতা পাশাপাশি লেখালেখির কাজটাও করি। অনলাইনে প্রযুক্তির বিষয় নিয়ে যা জানি তা মানুষের মাঝে শেয়ার করার ইচ্ছায় এ ব্লগ টি তৈরি করা।

2 thoughts on “ফেসবুক থেকে আয় ২০২১ | ফেসবুক থেকে আয় করার উপায়”

  1. It’s in reality a great and helpful piece of information. I’m happy that you just shared this useful info with
    us. Please keep us up to date like this. Thank you for sharing.

  2. আমার গ্রুপে কলম্বাস পাইছি, এখন কিভাবে কাজ করবো। কি কি পোষ্ট দিবো হেল্প চাই।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: কপি করা যাবে না !!
Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap