ডিপ ওয়েব কি | Deep web এ কি কি কাজ করা হয় | What is Deep web in bengali

ডিপ ওয়েব কি :  What is Deep  Web in bangla? মনে করুন, আপনি গুগলে কোন কিছু জানার জন্য সার্চ করলেন। কিন্তু যখন আপনি গুগল এ সার্চ করলেন। তখন আপনি আপনার চাহিদা অনুযায়ী তথ্য খুঁজে পেলেন না।

ডিপ ওয়েব কি | Deep web এ কি কি কাজ করা হয় | What is Deep web in bengali
ডিপ ওয়েব কি

এখন হয়তবা আপনি ভেবে থাকবেন যে, আপনার সার্চ করা ঐ তথ্য গুলো গুগলে সঠিকভাবে দেওয়া নেই। তো আপনি যদি এই বিষয়টি ভেবে থাকেন, তাহলে আপনার ধারণা সম্পূর্ণ ভুল।

কারণ গুগল আপনাকে ইন্টারনেট এর মধ্যে থাকা শুধু মাত্র কয়েক % তথ্য আপনাকে প্রদান করেছে।

আর এর বাইরেও কিন্তু আরো বিরাট একটা অংশ রয়েছে। যে অংশটির মধ্যে গুগল পৌঁছাতে পারেনি।

আর সে কারনেই আপনি আপনার সার্চ করা তথ্য গুলো সম্পর্কে জানতে পারেননি। আর আপনি যদি আপনার সার্চ করা হয় তথ্য কে আরো পূর্ণাঙ্গভাবে জেনে নিতে চান।

তাহলে অবশ্যই আপনাকে ইন্টারনেট এর আরো গভীরে প্রবেশ করতে হবে। যখন আপনি ইন্টারনেট এর গভীরে প্রবেশ করবেন। মূলত ইন্টারনেট এর সেই অংশকে বলা হয়ে থাকে, ডিপ ওয়েব।

আপনি যদি বর্তমান সময়ে একটি রাস্তা দিয়ে হাঁটেন। তখন আপনাকে যদি বলা হয় যে, আপনি এই মুহূর্তে যে রাস্তায় হাঁটছেন।

সেই রাস্তার নিচে আরো শত শত রাস্তাটা হয়েছে। তাহলে কিন্তু আপনি স্বাভাবিক ভাবে এই কথাটি শোনার পর বেশ অবাক হয়ে যাবেন।

কিন্তু এই রাস্তার সাথে যদি এখন সারফেস ওয়েব এর তুলনা করা হয়ে থাকে। তাহলে কিন্তু আপনি এর মধ্যে বিশেষ একটা মিল খুঁজে পাবেন।

কারণ আমরা দৈনন্দিন জীবনে যে ইন্টারনেট ব্যবহার করি। সেটি মূলত সার্ফেস ওয়েব এর সাথে সম্পর্কযুক্ত। তবে ইন্টারনেট এর এই অংশটুকু বাদেও আরো একটা অংশ রয়েছে।

যা আমাদের কাছে কখনোই প্রকাশ করা হয় না। এখন হয়তো আপনার মনে এত প্রশ্ন জেগে থাকতে পারে যে, এই অজানা ইন্টারনেট এর অংশটুকু আসলে কত বড়।

তো যদি আপনার মনে এই প্রশ্নটি জেগে থাকে। তাহলে আমিও আপনাকে এই বিষয়ে কোনো সুনির্দিষ্ট ধারনা দিতে পারব না।

কারণ এই সারফেস ওয়েব এর বাইরে ইন্টারনেট আসলে কতটা বৃহৎ। সে সম্পর্কে এখন পর্যন্ত কোনো সুনির্দিষ্ট ধারণা পাওয়া যায়নি।

হতে পারে সেটি হাজার হাজার গুণ বড়, আবার সেটি হতে পারে কয়েক লক্ষ গুণ বড়। তবে এখন অব্দি এই অংশটি কত বৃহৎ সে সম্পর্কে কেউ পরিষ্কার ধারণা দিতে পারেনি।

তবে এই ডিপ ওয়েব আসলে কত বড় সে সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা দিতে না পারলেও। আজকের এই আর্টিকেলে আমি আপনাকে ডিপ ওয়েব কি (What is deep web?) এবং কিভাবে একজন মানুষ ডিপ ওয়েব এর মধ্যে প্রবেশ করতে পারবে।

সে সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করব।

আপনার জন্য আরোও লেখা আছে …

যদি আপনি জানতে চান যে ডিপ ওয়েব কি (Deep web কি)। তাহলে আজকের এই আর্টিকেল টি আপনার জন্য অনেক বেশি হেল্পফুল হবে।

কারণ আজকের এই আর্টিকেলে আমি ডিপ ওয়েব সম্পর্কিত অনেক অজানা বিষয় নিয়ে আলোচনা করব।

এবং চেষ্টা করব ডিপ ওয়েব সম্পর্কিত আমাদের মনে যে ধারণা গুলো আছে। সেই ধারণা গুলো কে একেবারে পাল্টে দেয়ার।

তাই অবশ্যই আপনি আজকের এই আর্টিকেল টি মনোযোগ দিয়ে পড়ার চেষ্টা করবেন। যদি আপনি আজকের এই আর্টিকেল টি পড়ে থাকেন।

তাহলে আপনার মনে থাকার ডিপ ওয়েব সম্পর্কিত অনেক ধারণা পাল্টে দিতে সহায়তা করবে। তাহলে চলুন দেরি না করে সরাসরি মূল আলোচনায় ফিরে যাওয়া যাক।

ডিপ ওয়েব কি ? (What is deep web in Bengali)

আমরা সচরাচর যে ইন্টারনেট ব্যবহার করি। সেটি শুধুমাত্র এক পার্সেন্ট এর সাথে তুলনা করা হয়। যেমন, আমরা যখন কোন কিছু জানার জন্য গুগলে সার্চ করি। তখন গুগল থেকে কিন্তু ইন্টারনেট এর মধ্যে থাকা কয়েক % তথ্য প্রদান করা হয়।

তবে এর বাইরে কিন্তু ইন্টারনেট এর আরও একটা বৃহৎ অংশ রয়েছে। যে অংশটি তে আমরা কখনই পৌঁছাতে পারি না।

আর আমরা ইন্টারনেটের যে অংশে পৌঁছাতে ব্যর্থ হই। মূলত সেই অংশকে বলা হয়ে থাকে ডিপ ওয়েব। আর এই ডিপ ওয়েব এর পরবর্তী যে অংশটি রয়েছে। সেটিকে বলা হয়ে থাকে ডার্ক ওয়েব।

আপনি যদি সমুদ্রের মধ্যে ভেসে থাকা একটি বড় বরফ খন্ডের কথা বিবেচনা করেন। তাহলে বলতে হবে যে সেই বরফ খন্ডের 70-80% জলের মধ্যে ডুবে থাকা অংশের মধ্যে রয়েছে ডিপ ওয়েব এবং ডার্ক ওয়েব।

কিন্তু আমরা সেই জলের মধ্যে ভেসে থাকা সামান্য বরফ খণ্ড দেখতে পাই। সেটি হল ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব (World Wide Web).

অর্থাৎ আমরা আমাদের দৈনন্দিন জীবনে যে সারফেস ওয়েব ব্যবহার করি। তার আকার খুবই নগণ্য। তবে এর বাইরেও যে অংশটি রয়েছে, তার পরিমাণ সম্পর্কে আমরা কেউ ধারণা করতে পারিনা।

আর এই ধারণার বাইরে ইন্টারনেটের যে অংশ রয়েছে, সেটি হল ডিপ ওয়েব।

আমরা কেন ডিপ ওয়েব এর মধ্যে প্রবেশ করতে পারিনা?

ডিপ ওয়েব কি (Deep Web ki) সে সম্পর্কে আপনি উপরের আলোচনা থেকে জানতে পেরেছেন। তো এখন আপনার মনে একটি প্রশ্ন জেগে থাকতে পারে যে।

আমরা সাধারন মানুষ কেন ডিপ ওয়েব এর মধ্যে প্রবেশ করতে পারিনা। তো আপনার মনে যদি এ ধরনের প্রশ্ন জেগে থাকে। তাহলে আমি আপনাকে বিষয়টি আরও বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করে বুঝিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করব।

এবং সেজন্য আপনাকে নিজের আলোচিত আলোচনায় একটু নজর রাখতে হবে। তাহলেই আপনি বুঝতে পারবেন যে, আমরা সাধারন মানুষ হিসেবে কি কারনে ডিপ ওয়েব এর মধ্যে প্রবেশ করতে পারি না।

তো চলুন এবার সেই বিষয় টি নিয়ে আলোচনা করা যাক।

দেখুন আমরা গুগল এর মত সার্চ ইঞ্জিন গুলোতে যখন কোন কিছু সার্চ করি। তখন এই ধরনের সার্চ ইঞ্জিন গুলো ইন্টারনেটের মধ্যে থাকা বিভিন্ন ধরনের তথ্য খোঁজার পরে আমাদের সামনে হাজির করেন।

এবং আমরা তাৎক্ষণিক ভাবে আমাদের সার্চ করা তথ্য গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারি। কিন্তু ইন্টারনেট এর মধ্যে এমন অনেক ধরনের তথ্য লুকায়িত থাকে।

যে গুলো সার্চ ইঞ্জিন গুলোর মধ্যে ইনডেক্স করা হয় না। হয়তোবা এই ওয়েবসাইট গুলো তে পৌঁছাতে পারে না, কিংবা ওয়েবসাইট গুলো তাদের সাইটে প্রকাশ করা তথ্য গুলো কে ইনডেক্স করার জন্য বাধা প্রদান করে থাকে।

আর সে কারণে গুগল সার্চ ইঞ্জিন গুলো এই ধরনের তথ্য গুলো কে তাদের নিজের মধ্যে ইন্ডেক্স করতে ব্যর্থ হয়।

তবে এখন হয়তোবা আপনার মনে একটি প্রশ্ন জেগে থাকতে পারে যে। আমরা কি তাহলে কোন ভাবেই সেই ডিপ ওয়েব এর মধ্যে প্রবেশ করতে পারবো না।

তো এই প্রশ্নের উত্তরে আমি আপনাকে বলবো যে, হ্যাঁ! অবশ্যই আপনি সেই ডিপ ওয়েব এর মধ্যে প্রবেশ করতে পারবেন।

তবে আপনাকে সেই ডিপ ওয়েব এর প্রবেশ করার জন্য সঠিক লিংক জানা থাকতে হবে। যখন আপনি সেই ডীপ ওয়েবে প্রবেশ করার জন্য ওয়েবসাইট এর সঠিক লিংক জানতে পারবেন।

ঠিক তখনই আপনি ডীপ ওয়েবে থাকা ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে পারবেন। তবে বিষয়টা এরকম না যে, আপনি একটা ওয়েবসাইটের লিংক দিলেন।

এবং পুরো ডিপ ওয়েব এর মধ্যে প্রবেশ করতে পারবেন। বরং আপনি শুধুমাত্র হবে যে ওয়েবসাইটের লিংক জানতে পারবেন।

আপনি শুধু সেই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে পারবেন। এর বাইরে আপনি আলাদা কোন ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে পারবেন না।

আপনি আরোও পড়তে পারেন…

ডিপ ওয়েব এর মধ্যে কি কি থা

কে ?

যেহেতু সাধারণ মানুষ ডিপ ওয়েব এর মধ্যে প্রবেশ করতে পারে না। সেহেতু এটা অনুমান করে নেয়া যায় যে, এই ডিপ ওয়েব এর মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় গুলো সংরক্ষণ করে রাখা হয়।

যাতে করে সেই সংরক্ষিত তথ্য গুলো সম্পর্কে কোন মানুষ জানতে না পারে। তবে এখন মনে একটি প্রশ্ন বারবার ঘুরপাক খেতে পারে যে, কি এমন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য রয়েছে।

যেগুলো এই ডিপ ওয়েব এর মধ্যে সংরক্ষণ করে রাখা হয়! তবে এই প্রশ্নের উত্তরে আমি আপনাকে বলবো যে। এই ডিপ ওয়েব এর মধ্যে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সংরক্ষণ করে রাখা হয়।

যেমন, কোন দেশের সরকারি নথিপত্র, কোন বড় বড় সায়েন্টিস্ট রিসার্চ করে পাওয়া তথ্য, কোন স্বনামধন্য হাসপাতালে গুরুত্বপূর্ণ ডেটাবেজ সহ আরো বিভিন্ন ধরনের প্রাইভেট বিষয় গুলো কে এর মধ্যে সংরক্ষণ করে রাখা হয়।

আর সে কারণেই এই তথ্য গুলো গুগল, ইয়াহু এর মত সার্চ ইঞ্জিন গুলোতে সার্চ করার সাথে সাথেই পাওয়া যায় না।

বরং আপনি যদি সেই তথ্য গুলো সম্পর্কে জানতে চান। তাহলে অবশ্যই আপনাকে পারমিশন নিতে হবে। আর যখন আপনি সেই তথ্য গুলো দেখার জন্য পারমিশন পাবেন।

ঠিক তখনই আপনি এই ডিপ ওয়েব এর মধ্যে থাকা তথ্য গুলো কে জানতে পারবেন। এবং আপনার কাঙ্খিত ওয়েবসাইটে পৌঁছাতে পারবেন।

ডিপ ওয়েব সম্পর্কে অজানা কিছু তথ্য

উপরের আলোচনা থেকে আপনি ডিপ ওয়েব কি এবং ডিপ ওয়েব সম্পর্কে বেশ কিছু বিষয় জেনেছেন।

এবার আমি আপনাকে এই ডিপ ওয়েব সম্পর্কে অজানা কিছু তথ্য শেয়ার করব। যে তথ্য গুলো এখন পর্যন্ত বাংলা ব্লগ অথবা ওয়েব সাইট গুলো তে পাবলিশ করা হয়নি।

আর আপনি যখন এই ডিপ ওয়েব সম্পর্কে অজানা তথ্য গুলো সম্পর্কে জানবেন। তখন আপনি রীতিমত অবাক হয়ে যাবেন। তাহলে চলুন এবার সেই অজানা তথ্য গুলো সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

 Deep  Web কি ?

সহজ কথায় বলতে গেলে ডিপ ওয়েব হল ইন্টারনেটের মধ্যে থাকা লুকায়িত অংশ। যে অংশ গুলো তে আপনি সাধারণ ভাবে প্রবেশ করতে পারবেন না।

এবং গুগল, ইয়াহু এর মত সার্চ ইঞ্জিন গুলোতে সেই তথ্য জানার জন্য সার্চ করলে আপনি কোনো ভাবেই খুঁজে পাবেন না।

বরং আপনি যদি এই ওয়েব এর মধ্যে প্রবেশ করতে চান। তাহলে অবশ্যই আপনাকে পারমিশন নিতে হবে।

ডিপ ওয়েব এর কি নিরাপত্তা আছে ?

সত্যি বলতে ডিপ ওয়েব এর আয়তন এত বড় যে। সেই ডিপ ওয়েব এর মধ্যে যদি কোন মানুষ পৌঁছাতে পারে। তাহলে সেই মানুষটি অনেক কিছু জানতে পারবেন।

তবে দুঃখজনক হলেও সত্য যে, এই ডিপ ওয়েব এর মধ্যে কোন প্রকার নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেই।

ডিপ ওয়েব এর এক্সেস নেওয়া সম্ভব ?

হ্যাঁ! অবশ্যই আপনি চাইলে ডিপ ওয়েবে এক্সেস নিতে পারবেন। তবে আপনি ডিপ ওয়েব এর মধ্যে থাকা যে অংশে এক্সেস নিতে চান।

সেই অংশের পারমিশন থাকতে হবে। আর আপনি যদি পারমিশন না নিতে পারেন। তাহলে আপনি কোনো ভাবেই ডিপ ওয়েবের কোন অংশে প্রবেশ করতে পারবেন না।

ডিপ ওয়েব কত বড় ?

আমরা সচরাচর যে ইন্টারনেট ব্যবহার করি। সেই ইন্টারনেট এর থেকে প্রায় পাঁচশ গুণ বড় ডিপ ওয়েব।

আবার কিছু কিছু ক্ষেত্রে আপনি এই ডিপ ওয়েব সাধারণ ইন্টারনেট এর থেকে 5 লক্ষ গুণ বড় হতে পারে।

ডিপ ওয়েব থেকে কি হ্যাকিং সমস্যা রয়েছে?

আপনি জানলে অবাক হয়ে যাবেন যে, ডিপ ওয়েব এর মধ্যে আমরা সাধারন মানুষ কোন ভাবে প্রবেশ করতে পারিনা। কিন্তু তারপরেও এই ডিপ ওয়েব এর মধ্যে থাকা ওয়েবসাইট গুলো প্রতিনিয়ত হ্যাক হয়ে থাকে।

বিশেষ এক পরিসংখ্যানে জানা গেছে যে, এই ডিপ ওয়েব এর মধ্যে প্রতিদিন 30 হাজারেরও বেশি ওয়েবসাইট হ্যাক হয়ে থাকে।

ডীপ ওয়েবে কোন ধরনের ওয়েবসাইটে বেশি ট্রাফিক থাকে?

যদি আপনার মনে প্রশ্ন জেগে থাকে যে, ডিপ ওয়েব এর মধ্যে কোন ধরনের ওয়েবসাইট গুলো তে বেশিসংখ্যক ট্রাফিক পাওয়া যায়।

আর এই প্রশ্নের উত্তর আমি বলব যে, ডিপ ওয়েব এর মধ্যে যেসব ওয়েবসাইটে চাইল্ড পর্নোগ্রাফি ভিডিও পাবলিশ করা হয়। সেই ওয়েবসাইট গুলো তে সবচেয়ে বেশি ট্রাফিক পাওয়া যায়।

ডিপ ওয়েব এর জনপ্রিয়তা কেমন ?

অবাক করার মত বিষয় হলো সারফেস ওয়েব এর যে জনপ্রিয়তা রয়েছে। তার থেকে অধিক জনপ্রিয়তা রয়েছে এই ডিপ ওয়েব এর ক্ষেত্রে।

কেননা তরুণ প্রজন্ম সর্বদাই নতুন নতুন কিছু জানার আগ্রহ প্রকাশ করে। আর এই আগ্রহ থেকেই মূলত ডিপ ওয়েব এর জনপ্রিয়তা ক্রমাগত ভাবে বেড়ে উঠছে।

ডিপ ওয়েব এর মধ্যে থাকা ওয়েবসাইট এর ডোমেইন কেমন হয়?

একটি পেঁয়াজ যেমন খোলসের আবরণে উপরে আরো আবরণ থাকে। ঠিক তেমনি ভাবে ডিপ ওয়েব কিন্তু বিভিন্ন রকম আবরণে পরিপূর্ণ।

আর এই ডিপ ওয়েব এর মধ্যে থাকা ওয়েবসাইট গুলোতে যে ডোমেইন ব্যবহার করা হয়। সেই ডোমেইন এর এক্সটেনশন হিসেবে (.onion) ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

ডিপ ওয়েব সম্পর্কিত কিছু কথা

প্রিয় পাঠক, আজকের এই আর্টিকেলে আমি ডিপ ওয়েব কি সে সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করেছি। এর পাশাপাশি আমাদের মনে ডিপ ওয়েব সম্পর্কিত যেসব ভুল ধারণা রয়েছে।

সেই ধারণা গুলো সম্পর্কে পরিস্কার ভাবে আলোচনা করেছি। আশা করি আজকের এই আর্টিকেল থেকে আপনি ডিপ ওয়েব এর অনেক অজানা বিষয় সম্পর্কে জানতে পেরেছেন।

আর আপনি যদি এমন অজানা বিষয়কে সহজ ভাষায় জেনে নিতে চান। তাহলে অবশ্যই আমাদের সাথে থাকবেন। আর্টিকেলের এই পর্যন্ত আসার জন্য আপনাকে জানাচ্ছি অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

HandsUp! কপি করা যাবে না বস!

Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap