ফ্রি লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার | মোবাইল এবং পিসি দিয়ে লোগো ডিজাইন শিখুন

আপনি কি লোগো ডিজাইন সম্পর্কে জানতে ইচ্ছুক? – বাহ! আমি আপনার মতো একজন মানুষ কে খুজছিলাম। যে মানুষটা মন থেকে লোগো ডিজাইন সম্পর্কে জানতে চায়।

ফ্রি লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার | মোবাইল এবং পিসি দিয়ে লোগো ডিজাইন শিখুন
ফ্রি লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার

তো যেহুতু আপনাকে খুজে পেয়েছি। সেহুতু আজকের আলোচনা টি আপনাকে দিয়েই শুরু করা যাক। 

দেখুন আপনি গ্রাফিক ডিজাইন শিখুন আর লোগো ডিজাইন শিখুন। যদি আপনি এই সেক্টর গুলো তে ভালোভাবে দক্ষতা অর্জন করতে পারেন ৷

তাহলে কিন্তুু আপনি অনেক দুর পর্যন্ত যেতে পারবেন।

কেননা, আমরা তো সবাই জানি যে আজকের দিনে অনলাইন থেকে প্রচুর পরিমান টাকা আয় করা যায়। আর এই অনলাইন থেকে টাকা আয় করার বিশেষ একটি উপায় হলো Logo Design করা।

যেখানে আপনি লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার দিয়ে মানসম্মত লোগো ডিজাইনিং সার্ভিস প্রদান করে। প্রচুর পরিমান টাকা অনলাইন থেকে আয় করে নিতে পারবেন।

তো ইনকাম করার বিষয়ে না হয় অন্য কোনো দিন জানবো৷ তবে সবার আগে আপনাকে জানতে হবে যে, লোগো ডিজাইন কাকে বলে

চলুন এবার Logo Design নিয়ে বিস্তারিত আলোচনায় ফিরে যাওয়া যাক। 

লোগো মানে কি? What is Logo?

গ্রাফিক ডিজাইন এর বিশেষ একটি অংশ হলো লোগো ডিজাইন। কেননা, Graphic Design যদি একটি প্লাটফর্ম হয়।

তাহলে লোগো ডিজাইন কে বলা হবে তার একটি বিশেষ সেক্টর। কিন্তুু এই কথায় আপনার ধারনা তেমন একটা ক্লিয়ার নাও হতে পারে।

আপনার জন্য লেখা আর্টিকেল…

সেজন্য এই বিষয়টা কে আরেকটু বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করা যাক।

সাধারন অর্থে Logo হলো কোনো কোনো প্রতিষ্ঠান বা পন্য বা কোনো ব্যক্তির পরিচিতি সংক্ষিপ্ত আকারে প্রকাশ করে থাকে। যেমন, ফেসবুক হলো একটি সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম।

যেখানে, Facebook এর পুরো নামটা কে শুধুমাএ F দ্বারা প্রকাশ করা হয়েছে। এখন পিকচারটি হলো ফেসবুক এর অফিশিয়াল লোগো।

ঠিক একইভাবে আপনি প্রায় প্রত্যেকটা অনলাইন বা অফলাইন কোম্পানি গুলোর নিজস্ব লোগো দেখতে পারবেন ৷ যেমন, Google তাদের লোগো কে শুধুমাএ G দ্বারা প্রকাশ করে।

আবার Twitter তাদের লোগো কে T দ্বারা প্রকাশ করে। 

কেন লোগো তৈরি করতে হয়? Why make Logo?

যাক উপরের আলোচনা থেকে আপনি লোগো ডিজাইন কাকে বলে -এ সম্পর্কে একটা পরিস্কার ধারনা পেয়ে গেছেন।

এখন এই ধারনা পাওয়ার পর আপনার মনে একটি প্রশ্ন জাগতে পারে যে, অনলাইনে এতো পরিমান সেক্টর থাকতে আপনি কি কারনে লোগো তৈরি করবেন? – তো এবার সে বিষয়ে একটা পরিস্কার ধারনা নেয়া যাক।

দেখুন, যাদের ছোটো কিংবা বড় প্রতিষ্ঠান রয়েছে। তাদের সবারই ইচ্ছা থাকে যে, তাদের প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে যেন মানুষ জানতে পারে।

যেন তাদের প্রতিষ্ঠান অনেক মানুষের নিকট পরিচিতি লাভ করতে পারে। আর এই কাজটি খুব সহজভাবে করা যাবে এই Logo এর মাধ্যমে।

এখন আপনার মনে একটা প্রশ্ন কিলবিল করতে পারে ৷ তাহলো, একটি লোগো কিভাবে কোনো প্রতিষ্ঠান এর পরিচয় বহন করবে? – তাহলে শুনুন…

এই মূহুর্তে যদি আপনাকে Facebook এর লোগো টি দেখানো যায়। তাহলে কিন্তুু আপনি অবশ্যই দেখে বুঝতে পারবেন এটা ফেসবুক এর অফিশিয়াল লোগো।

ঠিক একইভাবে আপনাকে যদি বিশ্বের বড় বড় কোম্পানি গুলোর লোগো দেখানো যায়। তাহলে কিন্তুু আপনার লোগো গুলো কে দেখে কোম্পানি চিনতে তেমন কোনো বেগ পেতে হবে না।

এখন আপনি একটা বিষয় চিন্তা করে দেখুন। এই কোম্পানি গুলো কিন্তুু একদিনেই এতো বড় পজিশনে আসতে পারে নি।

বরং তাদের কে প্রচুর পরিমানে স্ট্রাগল করতে হয়েছে। এবং আজকে তারা এমন একটা পজিশনে আসতে পেরেছে। যাদের লোগো দেখলেই মানুষ চিনতে পারে।

আর এভাবেই মূলত একটি লোগো কোনো কোম্পানি বা প্রতিষ্ঠান এর পরিচয় বহন করে ৷

এবং আপনার বা আমার মতো সাধারন মানুষের নিকট পরিচিতি লাভ করে থাকে। এবং এই কারন গুলোর জন্যই মূলত আপনার লোগো তৈরি করা উচিত। 

লোগো ডিজাইন কত প্রকার?

যাক এতক্ষনের আলোচনায় আপনি লোগো ডিজাইন কাকে বলে এবং কেন আপনার Logo Design করা উচিত৷ সে সম্পর্কে একটা পরিস্কার ধারনা পেয়ে গেছেন।

তো এবার আপনাকে লোগো রিলেটেড আরও কিছু অজানা বিষয় জানতে হবে ৷ যে গুলো অতি গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। যেমনঃ লোগো ডিজাইন কত প্রকার এর হয়ে থাকে।

তো ভিন্নতা অনুযায়ী লোগো ডিজাইন কে সাধারন ভাবে ৭ টি ভাগে ভাগ করা হয়ে থাকে। কেননা, যখন আপনি একটু গভীরে যাবেন ৷

তখন আপনিও কাজ এর ক্ষেএ থেকে শুরু করে সুবিধার উপর নির্ভর করে। এই সাত প্রকারের লোগো দেখতে পারবেন ৷  যেমনঃ

০১| Word Mark Logo Design 

সাধারন ভাবে টাইপোগ্রাফি রিলেটেড লোগো গুলো কে বলা হয় Word Mark Logo. এই ধরনের লোগো কে Type Logo বললেও কোনো প্রকারের ভুল হবে না। কেননা, এই ধরনের লোগো তে শুধুমাএ Text থাকে।

তবে সবক্ষেত্রে যে এই ধরনের Type Logo ব্যবহার করতে হবে। বিষয়টা আসলে এমন নয়। বরং যখন কোনো নতুন প্রতিষ্ঠান তাদের পরিচিতি বৃদ্ধি করতে চাইবে ৷

তখন এই ধরনের লোগো কে প্রাধান্য দেয়া হয়ে থাকে। অপরদিকে আপনার প্রতিষ্ঠান এর নাম যদি অলরেডি ব্রান্ড হয়ে থাকে ৷ তাহলেই Word Mark Logo ব্যবহার করা উচিত। 

০২| Letter Mark Logo Design 

সহজ ভাষায় মনোগ্রাম লোগো এর আরেকটি রুপ হলো Letter Mark Logo. এক্ষেএে কোনো কোম্পানি এর প্রথম অক্ষর কে ফোকাস করা হয়।

যেমনটা আপনি ফেসবুক কিংবা গুগল এর লোগো তে দেখে থাকবেন। এই ধরনের লোগো গুলো তে শুধমাএ প্রথম অক্ষর কে ফোকাসে রাখা হয়েছে।

তবে এই ধরনের লোগো আপনার তখনি ব্যবহার করা উচিত। যখন আপনার প্রতিষ্ঠান এর নাম অনেক বেশি বড় হবে।

আবার আপনার কোম্পানির নাম যদি সংক্ষিপ্ত আকারে পরিচিতি পেয়ে থাকে৷ তখন আপনার Letter Mark Logo ব্যবহার করা উচিত। 

০৩| Emblem Logo Design 

যখন আপনি কোনো লোগো তে টেক্সট, আইকন বা সিম্বল এর সমন্বয়ে তৈরি করবেন ৷ তখন সেই লোগো কে বলা হবে Emblem Logo.

এই ধরনের লোগো বেশিরভাগ সময় স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় কিংবা কোনো সংগঠনের ক্ষেএে বেশি পরিমানে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। 

০৪| Mascots Logo Design

যখন আপনি কোনো কার্টুন, কোনো কালার যুক্ত ছবি কিংবা কোনো ব্যাঙ্গচিএ এর সমন্বয়ে লোগো তৈরি করবেন৷ তখন তাকে বলা হবে Mascots Logo.

আর এগুলো সাধারনত ইলাস্ট্রেটর ভিওিক হয়ে থাকে৷ উদাহরন হিসেবে আপনি যদি KFC এর দিকে তাকান ৷

তাহলে কিন্তুু আপনি তাদের কোম্পানির লোগোটি দেখতে পারবেন ৷ যা Mascots Logo এর বাস্তব উদাহরন। 

০৫| Abstract Logo Design 

যখন কোনো কোম্পানির গুনাগুন বা বৈশিষ্ট্য এর উপর নির্ভর করে ডিজাইন করা হয়। তখন তাকে বলা হয় Abstract Logo.

এটা যে কোনো কিছুর হতে পারে। যেমন, কোনো পাখির ছবি, কিংবা কোনো ফুলের ছবির সংমিশ্রনে এই ধরনের লোগো তৈরি করা হয়ে থাকে।

সচারাচর যখন আপনি আপনার কোম্পানির বৈশিষ্ট্য লোগো এর মাধ্যমে প্রকাশ করতে চাইবেন ৷ তখন এই ধরনের Abstract Logo ব্যবহার করা অতি বুদ্ধিমান এর কাজ হবে।

আর সেটা নির্ভর করবে আসলে আপনার কোম্পানির কি ধরনের বৈশিষ্ট্য রয়েছে। 

০৬| Logo Symbol Design 

যখন কোনো ডিজাইনার তার লোগো কে আইকন ভিওিক হিসেবে ডিজাইন করবে। তখন তাকে বলা হবে Logo Symbol Design.

সচারাচর এই ধরনের লোগো তখনি ব্যবহার করা হয়ে থাকে ৷

যখন আপনি আপনার কোম্পানির বৈশিষ্ট্য কে লোগোর মাধ্যমে পরিচিত করতে চাইবেন ৷ যেমন, মেডিকেল এর লোগো তে আপনি যা দেখতে পান ৷

সেটা দেখেই কিন্তুু আপনি বুঝতে পারেন যে এটা মেডিকেল রিলেটেড লোগো। 

০৭| Combination Mark Logo Design 

যখন আপনি নিজেকে ডিজাইন সেক্টর এর সাথে যুক্ত করবেন। তখন একটা বিষয় বেশ ভালোভাবে বুঝতে পারবেন ৷

তাহলো, পৃথিবীর সব ডিজাইন কিন্তুু এক রকমের হয়না। বরং একেকটা লোগো একেক রকমের বৈশিষ্ট্য বহন করে থাকে।

ঠিক এই যুক্তিকে সামনে রেখে যখন আপনি বাকি ৬ প্রকার এর লোগোর মিশ্রনে কোনো লোগো তৈরি করবেন। তখন তাকে বলা হবে কম্বিনেশন মার্ক লোগো

তো উপরের আলোচনা তে আমি ৭ প্রকার এর লোগো কে বিষদভাবে আলোচনা করেছি।

আশা করা যায়, উপরোক্ত আলোচনা গুলি আপনি বেশ ভালো ভাবে বুঝতে পেরেছেন। এবার আপনাকে জানতে হবে যে, লোগো ডিজাইন এর মূল্য কেমন। 

লোগো ডিজাইনার এর মূল্য কেমন?

পৃথিবীর সবকিছু কে মূল্যে দিয়ে মাপা না গেলেও লোগো ডিজাইন এর মূল্য সম্পর্কে ধারনা দেয়া যায়।

আর সেইদিক আমি নিশ্চিত ভাবে বলতে পারি যে, আজকের দিনে লোগো ডিজাইনার এর অনেক বেশি মূল্য রয়েছে। হয়তবা আমার কথা আপনার বিশ্বাস নাও হতে পারে।

তাই বিষয়টা আরেকটু খোলাসা করা উচিত।

দেখুন সহজভাবে যদি বলি, তাহলে এটা আপনিও জেনে থাকবেন যে, আজকের দিনের মানুষ কিন্তুু অনেক বেশি প্রযুক্তি নির্ভর হয়ে পড়েছে।

বর্তমান প্রজন্মে আপনি এমন কোনো মানুষ কে খুজে পাবেন না। যারা অনলাইন সম্পর্কে একেবারে অনভিজ্ঞ।

আর সেই সুবাদে আজকের বড় বড় কোম্পানি গুলো অফলাইন এর পাশাপাশি অনলাইন এর প্রতি ঝুঁকে পড়েছে ৷ আর অনলাইন প্লাটফর্মে পরিচিতি বৃদ্ধি করার একমাত্র উপায় হলো প্রচার করা।

কিন্তুু শুধু প্রচার করলেই হবে না ৷ বরং আপনার কোম্পানি যদি বৈশিষ্ট সম্পন্ন না হয়। তাহলে কিন্তুু আপনি আপনার কোম্পানির জন্য আশানুরুপ কাস্টমার পাবেন না।

আর এই কোম্পানির পরিচিতি বৃদ্ধি করার বিশেষ একটি উপায় হলো আপনার কোম্পানির লোগো।

এখন একটা বিষয় চিন্তা করে দেখুন৷ এইযে লোগো নিয়ে আমাদের এতো জল্পনা কল্পনা। এগুলো কি এমনিতেই তৈরি হয়? – না! এগুলো এমনি এমনি তৈরি হয়না।

বরং আপনার বা আমাদের মতো মানুষ ই এই ধরনের লোগো গুলো তৈরি করে থাকে।

তবে শুধু মানুষের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়, বরং এই ধরনের লোগো গুলো শুধুমাএ তারাই তৈরি করতে পারে ৷ যারা প্রকৃতপক্ষে দক্ষ ডিজাইনার ৷

আপনি আরো দেখুন…

আর এই ডিজাইনার হওয়া কি এতোটাই সহজ?- না! বস ৷ কেননা, একজন দক্ষ ডিজাইনার হতে গেলে আপনাকে অনেক ত্যাগ স্বীকার করতে হবে।

এখন আপনার কাছে একটা প্রশ্ন থাকলো, সবাই কি এই ত্যাগ স্বীকার করতে পারে? – না! শুধুমাএ গুটিকয়েক মানুষ ই এই ধরনের ত্যাগ স্বীকার করতে পারে।

তাহলে এবার আপনিই চিন্তা করে দেখুন যে, একজন দক্ষ লোগো ডিজাইনার এর কি পরিমান মূল্য রয়েছে। 

লোগো ডিজাইন করে কত টাকা আয় করা যায়?

দেখুন আমার এই ওয়েবসাইটে আপনি যতো প্রকার এর অনলাইন ইনকাম রিলেটেড আর্টিকেল দেখবেন।

তার সব গুলো আর্টিকেলে আমি একটা কথা পরিস্কার ভাবে উল্লেখ করেছি যে, আপনি আসলে এই Online সেক্টরে কাজ করে মোট কত টাকা আয় করতে পারবেন।

কেননা, আপনি একটু তাকালেই দেখতে পারবেন যে, এমন অনেক ব্যক্তি আছেন। যারা এভ ডিজাইনিং সার্ভিস প্রদান করে লাখ লাখ টাকা আয় করে আসছেন।

আবার এমন অনেক ব্যক্তি আছেন। যারা এই সেক্টর থেকে দশ টাকাও আয় করতে পারে নি। 

তবে এর প্রধান কারন কি জানেন? – এর প্রধান কারন হলো দক্ষতা এবং অদক্ষতা। যারা মূলত তার নিজস্ব সেক্টরে বেশ অভিজ্ঞ ৷

এবং বেশ দক্ষতার সাথে কাজ করতে পারে ৷ একমাএ তারাই কিন্তুু এই সেক্টর থেকে টাকা ইনকাম করতে পারে। আর যারা অনভিজ্ঞ, তাদেরকে শুধু মরীচিকার পেছনে ছুটতে হয়।

তো ধরে নিলাম যে আপনি এই সেক্টরে বেশ দক্ষ একজন মানুষ। এবং আপনার ডিজাইনিং সার্ভিস অনেক ভালো।

তাহলে কিন্তুু আপনি এই লোগো ডিজাইন করে লাখ টাকা পর্যন্ত অনলাইন ইনকাম করতে পারবেন। আর আপনি যদি অদক্ষ হয়ে থাকেন। তাহলে স্যরি বস! আপনাকে দিয়ে সংসার চলবে না। 

কিভাবে লোগো ডিজাইন শিখা যাবে?

এতোক্ষন ধরে আলোচিত এই লোগো ডিজাইন নিয়ে যে তথ্য গুলো আপনি জানতে পারলেন।

সেগুলো জানার পর আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে, কিভাবে আপনি এই স্বপ্নের লোগো ডিজাইন শিখতে পারবেন।

তো লোগো ডিজাইন শিখুন এই মর্মে আমি আপনকে বেশ কিছু উপায় বলবো। যেগুলো ফলো করতে পারলে আপনিও একজন দক্ষ লোগো ডিজাইনার হয়ে যেতে পারবেন।

এমন অনেক উপায় রয়েছে। যেগুলোর মাধ্যমে আপনি খুব কম সময়ের মধ্যে একজন দক্ষ লোগো ডিজাইনার হয়ে যেতে পারবেন। যেমনঃ 

অনলাইন ফ্রি সোর্সের মাধ্যমে লোগো ডিজাইন শিখুন

যদি আপনি কোনো কিছু বিনামূল্যে শিখতে চান। তাহলে আপনার জন্য একমাএ মাধ্যম হলো অনলাইন।

কারন এটি হলো এমন একটি সোর্স। যেখানে সব ধরনের তথ্য দেয়া আছে। এবং আপনি সেগুলো একেবারে বিনামূল্যে শিখে নিতে পারবেন।

যেমন, আপনি যদি ইউটিউব এ যান। তাহলে আপনি এখানে এমন অনেক ধরনের Logo রিলেটেড ভিডিও পাবেন ৷

যেগুলো আপনার জিরো নলেজ কে একবারে চুড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছে দিতে সহায়তা করবে।

ঠিক একইভাবে আপনি যদি Google এ যান। তাহলেও কিন্তুু আপনি এখানে অনেক অজানা তথ্য সম্পর্কে জেনে নিতে পারবেন।

কারন গুগল যে একটি তথ্য ভান্ডার। এটা তো আমরা সবাই জানি। 

অনলাইন কোর্সের মাধ্যমে লোগো ডিজাইন শিখুন 

অনলাইন এর ফ্রি সোর্স গুলোতে যদি আপনার মন না ভরে ৷ তাহলে আপনার জন্য আরও একটি উপায় আছে ৷ সেটি হলো বর্তমান সময়ে এমন অনেক ব্যক্তি আছেন ৷

যারা মূলত ডিজাইনিং সেক্টরে যথেষ্ট অভিজ্ঞ।

তো এই মানুষ গুলো তাদের অভিজ্ঞতা শেয়ার করার জন্য বিভিন্ন ধরনের কোর্স তৈরি করে থাকে।

যেখানে আপনাকে প্রতিটা বিষয় স্টেপ বাই স্টেপ ভিডিও আকারে দেখানো হবে ৷

আর আপনি সেই ভিডিও গুলো দেখে দেখে লোগো ডিজাইন শিখতে পারবেন।

এখন আপনি লোগো ডিজাইন ভালোভাবে শিখতে চাইলে অনলাইনে থাকা এই কোর্স গুলো করতে পারবেন ৷

তবে এই ধরনের কোর্স নিতে গেলে আপনাকে বেশ ভালো পরিমান টাকা ব্যয় করতে হবে। 

লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার | Logo Design Software 

ভাই আপনি তো শরু থেকে Logo Design নিয়ে অনেক কথা বললেন। কিন্তুু সমস্যা হলো যে এই লোগো ডিজাইন আমি কিভাবে করবো? – হয়তবা আপনার মাথায় এই প্রশ্নটি ঘুরপাক খাচ্ছে,

তাইনা? তাহলে এবার সে বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা যাক।

দেখুন বর্তমান সময়ে মোবাইল কিংবা কম্পিউটার এর জন্য এমন অনেক লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার ডেভলপ করা হয়েছে।

যে Logo Design Software গুলো দিয়ে আপনি আপনার সুবিধা মতো যে কোনো ধরনের লোগো ডিজাইন করতে পারবেন।

তবে প্রশ্ন হলো যে, সেই লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার গুলো কি কি?

দেখুন বর্তমান সময়ে কম্পিউটার ডিভাইস গুলোর পাশাপাশি মোবাইল ফোনের জন্যও বিভিন্ন ধরনের লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার ডেভলপ করা হয়েছে।

যে সফটওয়্যার গুলোর মাধ্যমে আপনি আপনার হাতে থাকা মোবাইল ফোন দিয়েই বেশ মানসম্মত লোগো ডিজাইন করে নিতে পারবেন।

তো আপনার বোঝার সুবিধার্থে আমি মোবাইল এবং পিসির জন্য লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার কে আলাদা আলাদা ভাবে আলোচনা করবো।

তাহলে আপনার বুঝতে অনেক বেশি সুবিধা হবে। তাহলে চলুন এবার সেই লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার গুলোর সাথে পরিচিত হওয়া যাক। 

মোবাইলের জন্য লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার

পূর্বের দিনের মোবাইল ফোন গুলোর তুলনায় আজকের দিনের মোবাইল গুলো অনেক বেশি ফিচার সমৃদ্ধ হয়েছে।

যার ফলে আপনি এখন কার দিনে আপনার হাতে থাকা মোবাইল ফোন দিয়েই অনেক বড় বড় কাজ গুলো করতে পারবেন।

আর সে কারনে মূলত এমন অনেক এপস ডেভলপ করা হয়েছে। যার মাধ্যমে আপনি মোবাইল দিয়ে অনেক উন্নত মানের লোগো ডিজাইন করতে পারবেন।

এবার আমি মূলত সেইসব এপস নিয়েই বিস্তারিত আলোচনা করবো। তো আজকের দিনে এমন অনেক এপস রয়েছে।

যার মাধ্যমে আপনি লোগো ডিজাইন করতে পারবেন। যেমনঃ 

  • PixelLab
  • PicsArt
  • Logo Maker Shop
  • Canva
  • Dotpict
  • Iris Logo Maker
  • Logo Maker by Shopify

উপরোক্ত এই এপস গুলো নিয়ে আমি অন্য একটি আর্টিকেলে বিস্তারিত আলোচনা করেছি।

যদি আপনি উপরে থাকা এই এপস গুলো সম্পর্কে বিষদ ভাবে জানতে চান। তাহলে এখানে লিংকে ক্লিক করুন। 

কম্পিউটারের জন্য লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার

যদি আপনি ডিজাইন রিলেটেড কাজ গুলো একেবারে প্রফেশনালি করতে চান। তাহলে আপনাকে অবশ্যই কম্পিউটার ডিভাইস ব্যবহার করতে হবে।

কেননা, মোবাইলে যেসব লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার রয়েছে। সেগুলোতে বিভিন্ন ধরনের সীমাবদ্ধতা রয়েছে।

অপরদিকে মোবাইল এর তুলনায় কম্পিউটার ডিভাইসে থাকা লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার গুলো অনেক বেশি পরিমানে ফিচার সমৃদ্ধ।

যার ফলে আপনি আপনার কম্পিউটার থেকে অনেক প্রফেশনাল মানের Logo Design করতে পারবেন।

তো কম্পিউটার এর জন্য আপনি অনেক জায়েন্ট টাইপ এর লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার দেখতে পারবেন।

যেগুলো দিয়ে অনেক প্রফেশনাল মানের লোগো তৈরি করা সম্ভব৷ যেমনঃ 

  • এডোবি ইলাস্ট্রেটর(Adobe Illustrator)
  • করেল্ড্র(Coreldraw)
  • এডোবি ফটোশপ(Adobe Photoshop)
  • ইন্ক স্পেস(inkspace)
  • এফিনিটি ডিজাইনার(Affinity Designe
  • AAA logo 
  • Vectr 
  • Inkscape 
  • Hatchful.shopify.com
  • Logomaker.thehoth.com

তো আমার জানামতে লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার হিসেবে উপরোক্ত সফটওয়্যার গুলো অনেক বেশি কার্যকরি।

তো আপনি আপনার পছন্দ এবং সু্বিধা মতো উপরের যে কোনো সফটওয়্যার গুলো ব্যবহার করতে পারবেন।

আর যখন আপনি এগুলো ব্যবহার করবেন। তখন আপনি নিজে থেকে এর সুবিধা অসুবিধা গুলো বুঝতে পারবেন। 

লোগো ডিজাইনের আইডিয়া কিভাবে পাবেন?

দেখুন আর্টিকেল এর মাধ্যমে আমি আপনাকে Graphic Design কি। সে সম্পর্কে বিস্তারিত ধারনা দিতে পারবো।

লোগো কি সেটা আপনাকে ধারনা দিতে পারবো। আর লোগো ডিজাইন আইডিয়া দিতে পারবো না।

এটা কি করে হয়? -তো চলুন এবার জেনে নেয়া যাক। যে কিভাবে আপনি নতুন নতুন ডিজাইন আইডিয়া পাবেন।

তো যদি আপনি নতুন নতুন ডিজাইন আইডিয়া খুজে পেতে চান। তাহলে আপনার প্রথম এবং প্রধান কাজ হবে অন্যের ডিজাইন কে কপি করা।

তবে আপনি অন্যের ডিজাইন কে নিজের বলে চালিয়ে দিবেন। বিষয়টা আসলে এমন নয়।

বরং আপনাকে অন্যের ডিজাইন নিয়ে ভাবতে হবে। যে কিভাবে তিনি এই ধরনের ডিজাইন তৈরি করলো।

সেজন্য আপনাকে বিভিন্ন ডিজাইন রিলেটেড প্লাটফর্ম গুলোতে একটিভ থাকতে হবে।

যেমন, বর্তমানে ফেসবুকে অনেক Group আছে। যেখানে প্রতিনিয়ত ডিজাইন নিয়ে আলোচনা করা হয়ে থাকে।

এছাড়াও যেসব ডিজাইন রিলেটেড মার্কেট প্লেস আছে। সেগুলো তে আপনাকে যথেষ্ট একটিভ থাকতে হবে।

যখন আপনি অন্যের ডিজাইন কপি করার কাজটি বারংবার করবেন।

তখন আপনি নিজে থেকেও একটি বিষয় লক্ষ্যে করতে পারবেন যে, আপনার ভেতরে আলাদা একটা দক্ষতার জন্ম নিয়েছে। এবং এই দক্ষতা আপনাকে অনেক দুর পর্যন্ত নিয়ে যেতে সহায়তা করবে।

এরপর আপনাকে ডিজাইন সম্পর্কে যথেষ্ট ভাবতে হবে।

আপনার ধ্যান ধারনা সবকিছু ডিজাইন এর উপর বিলিয়ে দিতে হবে। আর আপনাকে ঠান্ডা মস্কিস্কে ভাবতে হবে যে, একটি ডিজাইনকে কিভাবে আরও বেশি পরিমানে আর্কষনীয় করা যায়।

যখন আপনি আপনার এই ভাবনা শক্তিকে সুক্ষ করতে পারবেন।

এটা ততোই আপনার জন্য মঙ্গল বয়ে আনবে। কেননা, এই চিন্তা শক্তির বলেই আপনি আপনার ডিজাইন কে একটি নতুন রুপ দিতে পারবেন।

আর কোনো ডিজাইনকে অন্যের কাছে যথেষ্ট আর্কষনীয় করে তুলতে পারবেন। 

লোগো বিক্রয় করে আয় করার সাইট

যাক অবশেষে চলে আসলাম মূল টপিকে। কেননা, আপনি যে সময় ও শ্রম ব্যয় করে লোগো ডিজাইন শিখবেন।

সেটা তো টাকা ইনকাম করার জন্যই শিখবেন, তাইনা?

কিন্তুু কোথায় এই লোগো গুলো বিক্রি করে টাকা আয় করবেন?- চলুন এবার সে নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা যাক।

দেখুন, আপনি যদি লোগো বিক্রি করে টাকা ইনকাম করতে চান। তাহলে কিন্তুু আপনাকে বিভিন্ন অনলাইন মার্কেটপ্লেস গুলোতে যেতে হবে।

এরপর আপনাকে সেই লোগো সার্ভিস প্রদান করে টাকা ইনকাম করতে হবে। এখন বর্তমান সময়ে অনলাইনে এমন অনেক ধরনের মার্কেটপ্লেস আছে। যেমনঃ 

  • Designhill
  • Etsy
  • TemplateMonster Digital Marketplace
  • Art Web
  • Design Cuts
  • Threadless
  • Zazzle
  • Redbubble

তো উপরোক্ত অনলাইন মার্কেট প্লেস গুলোতে লোগো ডিজাইন সার্ভিস প্রদান করে টাকা আয় করতে পারবেন।

তবে এগুলো ছাড়াও আরও অনেক অনলাইন মার্কেটপ্লেস আছে।

আপনি আরো পড়ুন…

যেগুলো তে আপনি লোগো ডিজাইন সার্ভিস প্রদান করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আমি পরবর্তী কোনো আ

লোগো ডিজাইন নিয়ে আমাদের শেষকথা 

আজকের আর্টিকেলে আমি লোগো ডিজাইন রিলেটেড সমস্ত বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি।

বলা যায় যে, লোগো ডিজাইন সম্পর্কে যে আদি থেকে অন্ত রয়েছে। তার সবগুলো বিষয় নিয়ে একেবারে স্টেপ বাই স্টেপ আলোচনা করা হয়েছে।

এছাড়াও বর্তমান সময়ে সবচেয়ে জীবন লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার গুলো কে আপনার সাথে পরিচয় করিয়ে দিয়েছে। লোগো ডিজাইন শিখুন এই সফটওয়্যার গুলোর মাধ্যমে।

তবে এরপরও যদি আপনার মনে কোনো প্রশ্ন থেকে থাকে। তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। আমি যথাসাধ্য চেষ্টা করবো আপনার সমস্যার সমাধান করার।

Bangla It Blog এর সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ

1 thought on “ফ্রি লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার | মোবাইল এবং পিসি দিয়ে লোগো ডিজাইন শিখুন”

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap