কিওয়ার্ড রিসার্চ কি ? কিভাবে কিওয়ার্ড রিসার্চ করতে হয়

কিওয়ার্ড রিসার্চ কিঃ Keyword Research হলো সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। আপনার ওয়েবসাইট কে Rank করানোর জন্য Keyword research এর কোনো বিকল্প নেই। এছাড়াও অন পেজ এসইও এর মূল কেন্দ্রবিন্দু হলো, কিওয়ার্ড রিসার্চ।

কিন্তুু সমস্যা হলো যারা ব্লগিং সেক্টরে একেবারে নতুন, তারা “কিওয়ার্ড কি” এবং “কিভাবে কি ওয়ার্ড রিসার্চ করতে হয়”- এই বিষয় গুলো নিয়ে তেমন একটা মাথা ঘামায় না।

কিওয়ার্ড রিসার্চ কি
কিওয়ার্ড রিসার্চ কি

তবে আপনি জানলে অবাক হবেন যে, একটি ওয়েবসাইটের প্রাণ হলো এসইও। আর কিওয়ার্ড হলো এসইও এর ফুসফুস।

মনে রাখবেন, আপনার ওয়েবসাইটে যতোই কন্টেন্ট পাবলিশ করেন না কেন। যদি আপনি সঠিকভাবে কি ওয়ার্ড রিসার্চ না করেন। তাহলে কন্টেন্ট পাবলিশ করার পরেও আশানুরূপ ফল পাবেন না।

শুধু ওয়েবসাইট কে Rank করানোর জন্য Keyword Research শিখবেন, বিষয়টা এরকম নয়। বরং ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে কিওয়ার্ড রিসার্চের Service প্রদান করেও প্রচুর পরিমানে ইনকাম করতে পারবেন।

তো সবার আগে আপনাকে জানতে হবে, ” Keyword কি” এবং “কিভাবে কিওয়ার্ড রিসার্চ করতে হয়”।

[NOTE: বাংলা ব্লগের জন্য কিভাবে Keyword research করতে হয়। সে সম্পর্কেও বিস্তারিত জানতে পারবেন ]

কিওয়ার্ড কি? (What is Keyword in bangla)

সবার আগে আপনাকে জানতে হবে, ” কিওয়ার্ড কাকে বলে”?

সাধারনত মানুষ অনলাইন যা কিছু লিখে সার্চ করে। সেগুলো প্রত্যেকটি এক একটি কিওয়ার্ড। অর্থ্যাৎ, আমরা যখন গুগল বা ইউটিউবের সার্চ বক্সে কোনো কিছু লিখে Search করি। আমাদের লেখা সেই শব্দ গুলোকে বলা হয়, Keyword.

keyword example
keywords Example

আপনি উপরের পিকচারে তাকালেই দেখতে পারবেন। সেখানে ” অন পেজ এসইও” লিখে সার্চ করা হয়েছে। এরমানে অন পেজ এসইও হলো একটি কিওয়ার্ড।

কিওয়ার্ড কত প্রকার?

যখন আপনি Keyword কে বিভক্ত করার কথা ভাববেন। তখন আপনি কিওয়ার্ডকে ৩ টি ভাগে ভাগ করতে পারবেন। যথাঃ

  • লং টেইল কিওয়ার্ড 
  • শর্ট টেইল কিওয়ার্ড 
  • এলএসআই কিওয়ার্ড 

কিওয়ার্ডকে কেন ৩ টি ভাগে ভাগ করা হলো। সে বিষয়ে মাথা না ঘামিয়ে, চলুন এবার জেনে নেই, Long tail keyword ও Short tail keyword এবং LSI keyword কাকে বলে। 

লং টেইল কিওয়ার্ড কি?

কিওয়ার্ড নিয়ে তো অনেক কিছুই পড়ে ফেললাম তবে একটা বিষয় অনেকেই জিজ্ঞাসা করে Long tail Keyword কি ?

যদি সোজা ভাবে বলি, কোন কিওয়ার্ড এর ভিতর তিন শব্দের বেশি থাকলে সেই কিওয়ার্ডকে  লং টেইল কীওয়ার্ড বলা হয়। আপনার জানা উচিত লং টেইল কীওয়ার্ড গুলো সাধারণত সার্চ ভুলেম কম থাকে।

তবে লং টেইল কীওয়ার্ড গুলো সাধারণত শর্ট টেইল কিওয়ার্ড থেকে ভালো উপস্থাপন রূপে সাজাতে পারে।

আমার মনে হয় আপনাকে যদি একটি উদাহরণ দেয়া যায় তাহলে বুঝতে সুবিধা হবে,

আমি ধরে নিলাম আপনার কিওয়ার্ডটি হল “অনলাইন ইনকাম” দেখুন এখানে তিন শব্দেরও কম আর কম থাকাই শুধু অনলাইন ইনকাম বোঝিয়েছে।

আপনি যদি এভাবে লিখেন, “অনলাইন থেকে ইনকাম করার সহজ উপায়” লেখার গুলোর ভিতর একটি সুন্দর মাধুর্য ফুটে উঠেছে।

আপনার keyword কিন্তু “অনলাইনে ইনকাম” ঠিক হয়ে রয়েছে কিন্তু তার সাথে যুক্ত রয়েছে যে সহজ উপায়ে ইনকাম করার উপায়।

আপনি যদি বগিং এ নতুন হয়ে থাকেন অথবা আপনার ওয়েবসাইটটি যদি নতুন হয় তাহলে অবশ্যই চেষ্টা করবেন লং টেইল কীওয়ার্ড নিয়ে কাজ করার জন্য। এতে করে খুব সহজে আপনার ওয়েবসাইট র‍্যাংক হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

কোন keyword এর ভিতরে তিন শব্দের বেশি শব্দ যুক্ত keyword কেই লং টেইল কিওয়ার্ড বলা হয়।

আপনার জন্য আরো আর্টিকেল…

শর্ট টেইল কিওয়ার্ড কি?

আমি ইতিমধ্যে লং টেইল কিওয়ার্ড সাথে পার্থক্য উপরে লিখেছি। আমার মনে হয় আপনি বুঝে গেছেন যে শর্ট টেইল কিওয়ার্ড আর লং টেইল কিওয়ার্ড মধ্যে পার্থক্য কি?

মানুষ যখন কোনো ছোট কিওয়ার্ড  লিখে গুগলে করে যেমন ধরেন “রবি অফার” এখানে শুধু ২টা শব্দ ব্যবহার করা হয়েছে। আর এই keyword কে শর্ট  বলা হয় কারণ এখানে শুধুমাত্র দুটি শব্দ ব্যবহার করা হয়েছে। 

মূলত মানুষ বেশিরভাগ শর্ট টেইল কিওয়ার্ড লিখে সার্চ করে থাকে। তবে আপনি যদি ব্লগিংআর্টিকেল র‍্যাংক করাতে চান তাহলে অবশ্যই লং টেইল কীওয়ার্ড নিয়ে কাজ করতে হবে।

উধাহরণঃ

শর্ট টেইল কিওয়ার্ড: “রবি অফার”

লং টেইল কিওয়ার্ড : “২০২১ সালের রবি ডাটা অফার”

এলএসআই কিওয়ার্ড কি?

এলএসআই কিওয়ার্ডের পূর্নরুপ হলো, “Latent Semantic Indexing”. সাধারন ভাষায়, আপনার মূল কিওয়ার্ড এর সাথে সমন্বয় রেখে, যা দেখতে পাওয়া যায়। মূলত তাকে বলা হয়, LSI কিওয়ার্ড।

যেমন, কোনো একজন ব্যক্তি অনলাইনে সার্চ করলো, “Mobile”. এখানে Mobile হলো মূল কিওয়ার্ড।

এবার মূল কিওয়ার্ডকে টার্গেট করে যদি LSI খুজতে যাই। তাহলে আপনার সামনে যে কিওয়ার্ড গুলো আসবে, সেগুলো হলো, Samsung Mobile, Nokia Mobile, Apple Mobile ইত্যাদি।

কিওয়ার্ড রিসার্চ কি? | keyword research in bangla 

আশা করি আর্টিকেলের এই পর্যন্ত আসার পরে, ” কিওয়ার্ড কি”? এবং “কিওয়ার্ড কত প্রকার”?- সে সম্পর্কে ষ্পষ্ঠ ধারনা পেয়ে গেছেন।

এবার আমরা জানবো যে,” Keyword research কি”?

Research কথাটির অর্থ হলো, গবেষনা করা। ঠিক তেমনি যখন আপনি কোনো একটি কিওয়ার্ড নিয়ে যথেষ্ট পর্যালোচনা করবেন। তখন তাকে বলা হবে, কিওয়ার্ড রিসার্চ

যেমন, আপনি যাকে ফোকাস কিওয়ার্ড হিসেবে Selection করেছেন। সেটি লং টেইল নাকি শর্ট টেইল! তার সার্চ ভলিউম কত! তার ডিফিকাল্টি কেমন ইত্যাদি বিষয় গুলো জানার জন্য যেসব কাজ করা হয়।মূলত তাকে বলা হয়, কিওয়ার্ড রিসার্চ। 

কেন কিওয়ার্ড রিসার্চ করবেন?

আমি আর্টিকেলের শুরুতেই বলেছি যে,অন পেজ এসইও এর মূল কেন্দ্রবিন্দু হলো, কিওয়ার্ড রিসার্চ। অর্থ্যাৎ, আপনার ওয়েবসাইটে শত শত কন্টেন্ট পাবলিশ করার পরেও আশানুরূপ ফল পাবেন না।

যদি আপনি সঠিকভাবে keyword research করতে না পারেন।

তবে প্রশ্ন হলো, “কেন আমি কিওয়ার্ড রিসার্চ কে এতোটা গুরুত্ব দিচ্ছি”?

দেখুন, কোনো একটি ওয়েবসাইট জনপ্রিয় করার আগে আপনাকে দুইটি দিক ভাবতে হবে। প্রথমত, আপনি কোন অডিয়্যান্সকে টার্গেট করছেন। এবং দ্বিতীয়ত, আপনার টার্গেটেড অডিয়্যান্স কোন তথ্য জানার জন্য অনলাইনে সার্চ করে।

মনে রাখবেন, ওয়েবসাইটে প্রচুর পরিমাণে ভিজিটর নিয়ে আসতে চাইলে ৷ আপনাকে অবশ্যই এই ২ টি বিষয় খুব গুরুত্বের সাথে দেখতে হবে।

যেমন, আপনার একটি টেকনোলজি রিলেটেড ওয়েবসাইট আছে। অর্থ্যাৎ যে মানুষ গুলো Tech Lover, সেই মানুষ গুলোই হলো আপনার টার্গেটেড অডিয়্যান্স।

এখন আপনাকে Find Out করতে হবে, যে মানুষ গুলো টেকনোলজি ভালোবাসে। তারা মূলত অনলাইনে কি কি লিখে সার্চ করে

[Important] যখন আপনি তাদের সার্চ করা কিওয়ার্ড গুলোকে খুজে পাবেন। এরপর আপনাকে সেই কিওয়ার্ড গুলো নিয়ে রিসার্চ বা গবেষণা করতে হবে।

তবে প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে যে,” কেন আমরা কিওয়ার্ড রিসার্চ করবো “?

ওকে, তো যদি আপনি কিওয়ার্ড রিসার্চ করেন। তাহলে কোনো একটি Keyword লং টেইল নাকি শর্ট টেইল, সেই কিওয়ার্ড এর সার্চ ভলিউম কত, এবং ডিফিকাল্টি কত ইত্যাদি বিষয় গুলো সম্পর্কে জানতে পারবেন। 

কিভাবে কিওয়ার্ড রিসার্চ করবো?

ধীরে ধীরে আমরা মূল পর্বে চলে এসেছি। তাই এখন থেকে যে পয়েন্ট গুলো আলোচনা করবো ৷ সেগুলোর প্রত্যেকটা পয়েন্ট খুব মনোযোগ সহকারে পড়বেন।

তো আপনি দুইটি উপায়ে কিওয়ার্ড রিসার্চ করতে পারবেন। একটি, ম্যানুয়ালি এবং অন্যটি টুলসের মাধ্যমে।

তবে আপনার জেনে রাখা উচিত যে, যখন আপনি Manually কোনো কিওয়ার্ড রিসার্চ করবেন। তখন আপনার কয়েক ঘন্টা পর্যন্ত সময় লাগতে পারে ৷

অপরদিকে যদি আপনি এই কাজটা মাএ কয়েক মিনিটের মধ্যেই টুলসের মাধ্যমে করতে পারবেন। সেজন্য আজকে আমরা জানবো, Tools এর মাধ্যমে কিভাবে keyword research করতে হয়।

আপনি যদি গুগলে ” Keyword research tools”- লিখে সার্চ দেন। তাহলে আপনি ডজন খানেক ওয়েবসাইটের সন্ধান পাবেন। যে সাইট গুলো মূলত এই রিলেটেড কাজ গুলো করে থাকে।

তবে তার আগে আপনাকে জানতে হবে, অনলাইনে কিওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য যেসব Tools পাওয়া যায়। তাদেরকে ২ টি ভাগে ভাগ করা হয়ে থাকে। তো চলুন এবার সেই বিষয়ে মোটামুটি একটা ধারনা নেয়ার চেস্টা করি। 

Kind of keyword research tools

অনলাইনের মাধ্যমে কিওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য আপনি ২ ধরনের Tools পাবেন। যথাঃ-

  1. পেইড টুলস এবং 
  2. ফ্রি টুলস 

যখন আপনি Keyword research করার জন্য টাকা দিয়ে কোনো টুলস ব্যবহার করবেন। তখন সেই টুলসকে বলা হয়, Paid Tools. ঠিক একইভাবে যখন আপনি বিনামূল্যে কোনো টুলসকে ব্যবহার করতে পারবেন তখন সেই টুলসকে বলা হয়, Free Tools.

এখন আপনার আসলে কিওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য কোন টুলস গুলো ব্যবহার করবেন। তা সম্পূর্ন আপনার উপর নির্ভর করবে। যদি আপনার কাছে ব্যয় করার মতো অর্থ থাকে ৷

তাহলে আপনি Paid Tools গুলো ব্যবহার করতে পারবেন। অন্যথায় Free Tools ব্যবহার করাটাই সমীচীন হবে বলে আমি মনে করি।

তো এবার আমরা জানবো যে, অনলাইনে এমন কোন Tools আছে। যার মাধ্যমে ফ্রীতে কিওয়ার্ড রিসার্চ করা সম্ভব। 

কিওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য ফ্রী টুলস 

যদি আপনি মনে করেন যে, আপনি কোনো প্রকার টাকা ব্যয় না করে। একবারে প্রফেশনালি কিওয়ার্ড রিসার্চ করবেন। তাহলে আপনার সামনে অনেক গুলো টুলসের নাম চলে আসবে।

এই Tools গুলো ব্যবহার করার বেশ কিছু সুবিধা রয়েছে। যেমন, এগুলো ব্যবহার করার জন্য আপনাকে কোনো প্রকার অর্থ ব্যয় করতে হবে না। আপনি চাইলে আনলিমিটেড Keyword Research করতে পারবেন।

তো ফ্রীতে কিওয়ার্ড রিসার্চ করা যায়, এমন টুলস সম্পর্কে জানতে চাইলে সবার আগে যেসব টুলসের নাম আগে আসবে ৷ সেগুলো হলো, 

Google Keyword planner

গুগল কিওয়ার্ড প্ল্যানার হলো, গুগলের নিজস্ব একটি প্রোডাক্ট ৷ সত্যি বলতে আমার প্রত্যেকটি আর্টিকেল লেখার আগে আমি এই টুলসটি ব্যবহার করে থাকি।

আমার জানামতে ফ্রীতে কিওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য সবচেয়ে বেস্ট টুলস হলো, Google Keyword Planner.

এই টুলসের মাধ্যমে কিওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য সর্বপ্রথম আপনাকে আপনার Focus Keyword কে পিক করতে হবে। এরপর Keyword Planner এ গিয়ে আপনার পিক করা কিওয়ার্ডটি বসিয়ে দিয়ে সার্চ করতে হবে।

এরপর আপনি সেই কিওয়ার্ড রিলেটেড যাবতীয় তথ্যাদি সম্পর্কে জানতে পারবেন।

google Keyword Planner
google Keyword Planner

উপরের পিকচারে তাকালেই দেখতে পারবেন, সেখানে আমি একটি কিওয়ার্ড লিখে সার্চ করেছি google Keyword Planner.

সার্চ করার পরে এই টুলসটি আমাকে দেখিয়ে দিবে যে, আমার টাইপ করা কিওয়ার্ড সম্পর্কে মোট কতজন মানুষ অনলাইনে সার্চ করে।

সর্বমোট কতজন মানুষ এই কিওয়ার্ডে সম্পর্কে অনলাইনে সার্চ করে। এই তথ্য দেয়ার পাশাপাশি আপনি আরও দেখতে পারবেন যে, এই Keyword এর প্রতিযোগীতা কেমন।

অর্থ্যাৎ, আপনি যে কিওয়ার্ড লিখে সার্চ করবেন। সেই কিওয়ার্ড নিয়ে যদি আগে থেকেই কোনো ওয়েবসাইটে কন্টেন্ট পাবলিশ করা হয়।

তাহলে Serch Engine এ টপ পজিশনে আসার জন্য, তাদের সাথে কিরকম প্রতিযোগীতা করতে হবে ৷ সে সম্পর্কে অনুমান করতে পারবেন।

আরো পড়তে পারেন…

এছাড়াও আপনার সার্চ করা Keyword নিয়ে কোন ভাষার মানুষরা বেশি সার্চ করে। কোন স্থানের মানুষরা এই কিওয়ার্ড লিখে অনলাইনে সার্চ করে ইত্যাদি তথ্যগুলো খুব সহজেই পেয়ে যাবেন এই Google Keyword Planner টুলসের মাধ্যমে।

এছাড়াও এই টুলসের বেশ কিছু বিষেশত্ব রয়েছে। তার মধ্য অন্যতম কিছু গুনাগুন হলো, এই টুলসের মাধ্যমে আপনি যে কোনো ভাষার কিওয়ার্ডকে রিসার্চ করতে পারবেন।

যদি আপনার বাংলা ভাষার ওয়েবসাইট থাকে। তাহলেও আপনি এই টুলসের মাধ্যমে কিওয়ার্ড রিসার্চ করতে পারবেন। আবার যদি আপনার ওয়েবসাইট হিন্দি কিংবা ইংরেজিতে হয়।

তাহলেও আপনি Google Keyword Planner এর মাধ্যমে একদম ফ্রীতেই কিওয়ার্ড রিসার্চ করতে পারবেন। 

Answer The Public

সম্পূর্ন ফ্রীতে কিওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য আরও একটি জনপ্রিয় টুলস হলো,  Answer the public. যার মাধ্যমে আপনি আনলিমিটেড কিওয়ার্ড রিসার্চ করতে পারবেন একদম বিনামূল্যে। 

তো এখন প্রশ্ন হলো যে, “কিভাবে আপনি এই ওয়েবসাইট থেকে ফ্রীতে কিওয়ার্ড রিসার্চ করবেন? “

ফ্রীতে কিওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য সর্বপ্রথম আপনাকে এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে ৷ এবং প্রবেশ করার সাথে সাথে আপনি দেখতে পারবেন ৷ একটি মানুষ নড়াচড়া করছে এবং আপনার দিকে তাকিয়ে আছে।

answer the public
answer the public

তো আপনি সেই মানুষটির দিকে না তাকিয়ে স্ক্রল করে একটু নিচের দিকে আসবেন। নিচের দিকে আসামাএই আপনি ৩ টি বক্স দেখতে পারবেন ৷

প্রথম বক্সে আপনাকে Language Select করতে হবে। অর্থ্যাৎ আপনি আসলে কোন ভাষায় কিওয়ার্ড রিসার্চ করবেন ৷ তা এখানে সিলেক্ট করতে হবে।

তবে দুঃখের বিষয় হলো, এই টুলসের মাধ্যমে আপনি বাংলা ভাষাতে কোনো কিওয়ার্ড রিসার্চ করতে পারবেন না।

এরপরে দ্বিতীয় বক্সে আপনি Region নামের একটি অপশন দেখতে পারবেন। কিন্তুু এই অপশনটি শুধুমাএ তাদের জন্য উন্মুক্ত, যারা মূলত এই টুলসটি ব্যবহার করার জন্য অর্থ প্রদান করবে।

তাই আপনি এই অপশনটি স্কিপ করে যাবেন। এরপর আপনি তৃতীয় বক্সে দেখতে পারবেন, “Enter Your Keyword”. মূলত এই বক্সে আপনার টার্গেটেড কিওয়ার্ডকে বসিয়ে সার্চ করতে হবে।

এবং আপনার সার্চ করা কিওয়ার্ড সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন। Answer the public নামের এই টুলসটি ব্যবহার করলে আপনি বেশ কিছু বেনিফিট পাবেন।

যেমন আপনার Keyword Related আরও যে LSI Keyword গুলো থাকবে। আপনি সেগুলোকে খুব সহজেই খুজে নিতে পারবেন এই টুলসের মাধ্যমে।

উদাহরন হিসেবে যদি আপনি, ” online income”- লিখে সার্চ করেন ৷ তাহলে আপনি এই Online income রিলেটেড আরও অনেক কিওয়ার্ডকে খুজে পাবেন। যেমন,

  • Online income site 
  • Online income app 
  • Online income techniquee
  • Online income tips ইত্যাদি।

[NOTE:- এই টুলসের মাধ্যমে আপনি শুধু আপনার ফোকাস কিওয়ার্ডের প্রাসঙ্গিক যে Keyword রয়েছে। সেগুলোকে সম্পর্কে জানতে পারবেন]

Keyworddit

অন্যান্য টুলসের মতো ফ্রী ইউনিক টুলস হলো, Keyworddit. এই টুলসের মাধ্যমে আপনি নিশ রিলেটেড কিওয়ার্ডকে Find Out করতে পারবেন। 

তবে বলে রাখা ভালো যে, এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনি সেইসব কিওয়ার্ডকে খুজে পাবেন। যেই কিওয়ার্ড গুলো Raddit এ সার্চ করা হয়ে থাকে।

যদি আপনার ওয়েবসাইটের নিশ সম্পর্কে আপনার তেমন কোনো প্রকার ধারনা না থাকে। তাহলে আপনার জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত টুলস হবে Keyworddit.

যেমন ধরুন, আপনি একটি মোবাইল রিভিউ করার একটি নতুন ওয়েবসাইট তৈরি করলেন। কিন্তুু আপনি বুঝতে পারছেন না যে, মোবাইল রিভিউ রিলেটেড কোন কোন বিষয় গুলো নিয়ে মানুষ অনলাইনে সার্চ করে।

তাহলে আপনি Keyworddit নামের এই টুলসটি ব্যবহার করতে পারবেন।

যদি আপনি এই টুলসের মাধ্যমে কিওয়ার্ড রিসার্চ করেন। তাহলে আপনার কিওয়ার্ড রিলেটেড আরও অনেক Relevant Keyword খুজে পাবেন ৷

এছাড়াও Focus Keyword বাদেও এর সাথে যে প্রাসঙ্গিক কিওয়ার্ড গুলোকে খুজে পাবেন ৷ সেই কিওয়ার্ড গুলোর সার্চ ভলিউম সম্পর্কেও জানতে পারবেন।

তো এই টুলসটি আমি আপনাকে রেকমেন্ড করছি, তার কিছু কারন আছে। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য কিছু কারন হলো, যারা ব্লগিং সেক্টরে একেবারেই নতুন ৷ তাদের জন্য কিওয়ার্ড রিসার্চ করার সবচেয়ে Easy Tools হবে Keyworddit.

Google Search Console

আপনি কি জানেন যে, Google Search Console এর মাধ্যমেও কিওয়ার্ড রিসার্চ করা যায়?

আপনি জানলে অবাক হবেন, গুগল সার্চ কনসোল আপনার ওয়েবসাইটের পারফরমেন্স বৃদ্ধি করতে যথেষ্ট ভূমিকা পালন করে থাকে।

যখন আপনি একটা নতুন ওয়েবসাইট তৈরি করবেন। এবং সেই ওয়েবসাইটে বেশ কিছু কন্টেন্ট পাবলিশ করবেন। তখন গুগল সার্চ কনসোল আপনার জন্য অনেক হেল্পফুল হবে।

এই টুলসের মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন, আসলে গুগল আপনাকে কোন কোন কিওয়ার্ডের উপর বেজ করে, আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর নিয়ে আসছে। এবং কোন কোন কিওয়ার্ডে আপনার ওয়েবসাইট ইম্প্রেশন পাচ্ছে।

এছাড়াও আপনি আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় সম্পর্কে জানতে পারবেন। সেটি হলো এমন কোন কিওয়ার্ড আছে, যে Keyword এ আপনার ওয়েবসাইট ভালো পজিশনে আছে।

এখন আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে, “ভাই সবকিছুই তো বুঝলাম। কিন্তুু এই টুলস ব্যবহার করলে আমি কি বেনিফিট পাবো “?

হ্যাঁ! যখন আপনি এই টুলসটি ব্যবহার করবেন ৷ তখন আপনি বিশেষ করে একটি দিক থেকে বেশ উপকৃত হবেন। সেটি হলো, আপনি আপনার ওয়েবসাইটে পরবর্তীতে কোন টপিকে কন্টেন্ট পাবলিশ করবেন। সে সম্পর্কে জানতে পারবেন।

তবে এই টুলসের একটি Disadvantage আছে। সেটি হলো, যখন আপনি Google Search Console এর মাধ্যমে কিওয়ার্ড রিসার্চ করবেন। তখন শুধুমাত্র টার্গেটেড কিওয়ার্ড গুলোকে খুজে পাবেন।

কিন্তুু সেই কিওয়ার্ড গুলোর সার্চ ভলিউম কত, কিওয়ার্ড ডিফিকাল্টি কত। এইসব বিষয়ে তেমন কোনো ধারনা পাবেন না ৷ তাহলে উপায়?

এটা খুব সিম্পল একটা বিষয়। আপনি যে Keyword এ কন্টেন্ট লিখতে চান ৷ সেই কিওয়ার্ডটি সম্পর্কে Google Keyword Planner এ গিয়ে সার্চ করবেন।

তাহলে খুব সহজেই সেই কিওয়ার্ডের সার্চ ভলিউম এবং ডিফিকাল্টি সম্পর্কে জানতে পারবেন। 

Keyword Surfer

কিওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য আরও একটি পপুলার টুলসের নাম হলো, Keyword Surfer.

এই টুলসের মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই কোনো কিওয়ার্ড এর Search Volume কত,  Keyword Difficulty কত ইত্যাদি বিষয়গুলো সম্পর্কে খুব দ্রুত জানতে পারবেন। 

তবে বলে রাখা ভালো, যাদের ডেক্সটপ বা ল্যাপটপ আছে ৷ তারা এই টুলসটি ব্যবহারে বিশেষ বেনিফিট পাবেন। কেননা, Keyword Surfer এ হলো একটি এক্সটেনশন। এবং এই এক্সটেনশ এর মাধ্যমে কিওয়ার্ড রিসার্চ করা হয়ে থাকে।

তো আপনি যদি আপনি এই টুলসটি ব্যবহার করেন। তাহলে বেশ কিছু সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। যেমন, আমরা যখন গুগলে কোনো কিছু সার্চ করি ৷

তখন গুগল সার্চ বক্সের ঠিক নিচের দিকে সেই টপিক রিলেটেড আরও কিছু কিওয়ার্ড শো করে। 

Keyword Surfer
Keyword Surfer

তো Keyword Surfer এর মাধ্যমে আপনি যে টপিকে লিখে সার্চ করবেন। সেই টপিকের সার্চ ভলিউম দেখানোর পাশাপাশি, সেই টপিক রিলেটেড আরও যে কিওয়ার্ড গুলো থাকবে।

সেই সবগুলোর সার্চ ভলিউম সম্পর্কে জানতে পারবেন এই Keyword Surfer এর মাধ্যমে। 

Google Auto Suggest

সম্পূর্ন বিনামূল্যে কিওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য, সবচেয়ে বেস্ট হলো, Google Auto Suggest.

এর মাধ্যমে মানুষ আসলে কোন টপিকের জন্য গুগলে কি কি লিখে সার্চ করে। সে সম্পর্কে একবারে সঠিক তথ্য পাওয়া যায়।

মনে রাখবেন, গুগলে কোনো কিছু সার্চ করার সময়। গুগল যে Relevant Keyword গুলো কে শো করে। আপনি যদি আপনার ওয়েবসাইটে সেই কিওয়ার্ড গুলোকে টার্গেট করে কন্টেন্ট পাবলিশ করেন।

তাহলে আপনার ওয়েবসাইটে প্রচুর পরিমানে ভিজিটর আসার সম্ভাবনা থাকবে।

কারন, গুগল Auto Suggest এ সেই কিওয়ার্ড গুলো তখনি দেখাবে। যখন সেই টপিক গুলো লিখে মানুষ প্রচুর পরিমানে সার্চ করবে।

এখন আপনি যদি এই Auto Suggest এ দেখানো কিওয়ার্ড গুলোকে ফোকাস কিওয়ার্ড হিসেবে ব্যবহার করেন। এবং সেই কিওয়ার্ডের উপর ভিওি করে আপনার ওয়েবসাইটে কন্টেন্ট পাবলিশ করেন ৷

তাহলে আপনি যে প্রচুর পরিমানে ভিজিটর পাবেন। সে বিষয়ে একবারে নিশ্চিত থাকবেন।

তাই কিওয়ার্ড রিসার্চ করার সময় Google Auto Suggest কে যথেষ্ট গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করবেন। 

কিওয়ার্ড রিসার্চ করার পেইড টুলস

আপনি এতোক্ষন ধরে কিওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য যেসব Free Tools আছে৷ সেই টুলস গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন।

এবার আমরা কিছু পেইড টুলস সম্পর্কে জানবো। যেগুলোর মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই যেকোনো কিওয়ার্ডকে রিসার্চ করতে পারবেন।

তো অনলাইনে এমন অনেক Paid Tools আছে। যার মাধ্যমে কিওযার্ড রিসার্চ করা সম্ভব। আপনি যদি গুগলে গিয়ে ” Best tools for keyword search”- লিখে সার্চ করেন ৷ তাহলে এমন ডজন খানেক টুলসের লিষ্ট দেখবেন পারবেন।

তবে একটি আর্টিকেলে প্রত্যেকটি টুলস সম্পর্কে আলোচনা করা আমার পক্ষে সম্ভব না। আর যদি আলোচনা করেও থাকি। তাহলে আপনি এই আর্টিকেলটি পড়ার আগ্রহ হারিয়ে ফেলবেন।

তাই আমি একটা List তৈরি করেছি। যেখানে আপনি কিওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য যেসব পেইড টুলস আছে৷ সেগুলো সম্পর্কে জানতে পারবেন। তো চলুন এবার সেই লিষ্টটি দেখে নেয়া যাক। 

Paid Tools List for Keyword Research

যদি আপনি নিচে উল্লেখ করা এই টুলস গুলো ব্যবহার করতে চান ৷ তাহলে আপনাকে শুরুতেই মোটা অংকের টাকা গুনতে হবে।

অন্যথায়, আপনি কিওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য যেসব Free Tools আছে ৷ সেগুলো ব্যবহার করতে পারেন।

অনলাইনে টাকার বিনিময়ে কিওযার্ড রিসার্চ করার জন্য অনেক টুলস আছে ৷ তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য কিছু টুলস হলো, 

  • Ahrefs
  • SEMrush
  • WebCEO
  • Ubersuggest
  • Serpstat
  • Mangools KWFinder
  • Moz
  • Keyword Everywhere 
  • BuzzSumo
  • SpyFu

তবে এগুলো ছাড়াও আরও অনেক টুলস আছে। আপনার বাজেট অনুযায়ী যে Tools গুলো সাধ্যের মধ্যে থাকবে ৷ আপনি সেই টুলস গুলোকে ব্যবহার করতে পারবেন।

কোন কিওয়ার্ড গুলোকে নির্বাচন করবেন?

আপনি এতোক্ষন ধরে জানলেন যে, “কিওয়ার্ড রিসার্চ কি” এবং “কিভাবে কিওয়ার্ড রিসার্চ করতে হয়”? এছাড়াও কিওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য কিছু Paid Tools এবং Free Tools সম্পর্কেও জানতে পেরেছেন।

তো এবার মূল বিষয় হলো, যখন আপনি কিওয়ার্ড রিসার্চ করবেন ৷ তখন আপনি আসলে কোন ধরনের কিওয়ার্ড গুলোকে নির্বাচন করবেন।

কেননা, আপনি যদি আপনার ইচ্ছামতো কোনো কিওয়ার্ডের উপর কন্টেন্ট পাবলিশ করেন। তাহলে কিন্তুু আপনার ওয়েবসাইটকে সার্চ ইঞ্জিনে Rank করাটা বেশ কষ্টসাধ্য হয়ে পড়বে।

তো আপনাকে এমন কিওয়ার্ডকে Catch করতে হবে। যে কিওয়ার্ডে যথেষ্ট সার্চ ভলিউম আছে। এবং এর পাশাপাশি সেই কিওয়ার্ডের Difficulty ও অনেক কম থাকবে।

মনে করুন আপনি এমন একটা কিওয়ার্ড খুজে পেলেন। যার Difficulty একবারে ০ (শূন্য), কিন্তুু সেই কিওয়ার্ডের Search Volume ও 1%. 

এখন যদি আপনি সেই কিওয়ার্ডের উপর বেজ করে আপনার ওয়েবসাইটে কন্টেন্ট পাবলিশ করেন। তাহলে কিন্তুু আপনি কোনো প্রকার বেনিফিট পাবেন না। কারন সেটি এমন একটি কিওয়ার্ড যা নিয়ে মানুষ সার্চ করেনা।

তাই আপনাকে এমন কিওয়ার্ডকে খুজে নিতে হবে। যে কিওয়ার্ড গুলোর Search Volume যথেষ্ট থাকবে। এবং সেই কিওয়ার্ডের কম্পিটিশনও তুলনামূলক ভাবে কম থাকবে।

যেমন, রিসার্চ করার পর আপনি জানতে পারলেন, ” Make Money Online ” এই কিওয়ার্ডে প্রচুর পরিমানে Search Volume আছে। তাই বলে কি আপনি সেই কিওয়ার্ড নিয়ে কন্টেন্ট পাবলিশ করবেন?

না! কখনই না, এর কারন Make Money Online এই কিওয়ার্ডে যেমন প্রচুর সার্চ ভলিউম আছে। ঠিক তেমনি এই কিওয়ার্ডের কম্পিটিশনও খুব বেশি হবে, এটাই স্বাভাবিক।

ঠিক এই সময়ে আপনাকে মূল কিওয়ার্ডকে আরেক রিসার্চ করে Relevant Keyword গুলোকে খুজে নিতে হবে।

যেমন, আপনি যদি “Make Money Online”- এই কিওয়ার্ডের প্রাসঙ্গিক (Relevant) Keyword হবে, Make Money Online website, অথবা Make Money Online Apps ইত্যাদি।

আপনাকে মূলত সেরকম Keyword কে খুজে নিতে হবে। এবং সেই কিওয়ার্ড রিলেটেড আর্টিকেল পাবলিশ করতে হবে। তাহলে আপনি আপনার ওয়েবসাইটে আশানুরূপ ভিজিটর পাবেন।

আমরা কি কি শিখলাম?

আচ্ছা বলুন তো, আজকের আর্টিকেল থেকে আমরা কি কি শিখলাম?  বলতে পারবেন?

ওকে আমি বলছি, আজকের আর্টিকেলে আমরা জেনেছি, কিওয়ার্ড কি?  কিওয়ার্ড কত প্রকারের হয়ে থাকে। এবং সেই প্রকারভেদ গুলো কি কি।

আরো দেখুন…

এছাড়াও আমরা জেনেছি, কিওয়ার্ড রিসার্চ কি?  কিভাবে Keyword Research করতে হয়?

এর পাশাপাশি আমরা আরও জেনেছি যে, কিভাবে Free Tools এর মাধ্যমে কিওয়ার্ড রিসার্চ করা যায়। এবং কিওয়ার্ড রিসার্চের জন্য কি কি Paid Tools রয়েছে।

এবং সবশেষে আমরা জেনেছি যে, সঠিকভাবে কিওয়ার্ড রিসার্চ করার পর। আপনি আসলে কোন ধরনের কিওয়ার্ড গুলোকে নির্বাচন করবেন। 

আমাদের শেষকথাঃ

মনে রাখবেন, অন পেজ এসইও করার জন্য কিওয়ার্ড রিসার্চ ভীষন গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। কোনো ওয়েবসাইটে কি পরিমান ভিজিটর আসবে।

তা অনেকটাই নির্ভর করে আসলে আপনি কিভাবে কিওয়ার্ড রিসার্চ করছেন তার উপর।

সবশেষে এটাই বলবো যে, ব্লগিং সেক্টরে টিকে থাকতে হলে, “কিওয়ার্ড রিসার্চ”-কে কখনই অবহেলা করবেন না। চেস্ট করবেন এই কাজটি করার জন্য যথেষ্ট সময় ব্যয় করার।

বাংলা আইটি ব্লগের সাথেই থাকবেন। আর কোনো প্রকার সমস্যা হলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। আমি যথাসাধ্য চেস্টা করবো আপনাদের হেল্প করার জন্য।

ভালো থাকবেন,  সুস্থ থাকবেন, ধন্যবাদ!

Related article

5 thoughts on “কিওয়ার্ড রিসার্চ কি ? কিভাবে কিওয়ার্ড রিসার্চ করতে হয়”

  1. অসাধারণ পোস্ট ভাই। কিওয়ার্ড রিসার্চ নিয়ে এত সুন্দর করে বুঝিয়ে লিখেছেন যা আসলেই প্রশংসার দাবিদার। ধন্যবাদ আপনাকে ভাই।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই লেখা কপি করবেন না!
Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap