ছবি জোড়া লাগানোর সফটওয়্যার | দুই ছবি একসাথে করার সফটওয়্যার ডাউনলোড করুন

ছবি জোড়া লাগানোর সফটওয়্যার কোনটি? দুই ছবি একসাথে করার সফটওয়্যার কোন গুলো?

দুই ছবি একসাথে করার সফটওয়্যার ডাউনলোড করবো কিভাবে?

ছবি জোড়া লাগানোর সফটওয়্যার | দুই ছবি একসাথে করার সফটওয়্যার ডাউনলোড করুন
ছবি জোড়া লাগানোর সফটওয়্যার | দুই ছবি একসাথে করার সফটওয়্যার ডাউনলোড

আপনাদের মধ্যে অনেকেই এই প্রশ্ন গুলো বার বার করে এসেছেন।

কিন্তুু আমার সময় এর ব্যস্ততার জন্য এই টপিক গুলো নিয়ে তেমন কোনো নতুন আর্টিকেল লেখা হয়নি। 

কিন্তুু সেই ব্যস্ততাকে পাশ কাটিয়ে চলে আসলাম আপনাদের সেই প্রশ্নের উওর গুলো নিয়ে।

আজকে আপনি ছবি জোড়া লাগানোর সফটওয়্যার গুলোর সাথে পরিচিত হওয়ার পাশাপাশি দুই ছবি একসাথে করার সফটওয়্যার পর্যন্ত যেসব কাজ করা দরকার।

তার প্রায় সবগুলো বিষয় নিয়ে স্টেপ বাই স্টেপ আলোচনা করবো।

দেখুন, আমাদের মধ্যে এমন অনেক মানুষ আছেন। যারা মূলত ছবি তুলতে অনেক বেশি পছন্দ করে থাকবে।

কেননা, প্রত্যেকটা মানুষের চাহিদা এবং ইচ্ছের মাত্রা একটু ভিন্ন হয়ে থাকে। এখন শখের বশে ছবি তোলা সেই মানুষ গুলোর আরও একটি ইচ্ছে থাকতে পারে।

সেটি হলো, দুটো ছবি কে একসাথে জোড়া দেয়া ৷

কেননা, দুটো ছবি কে একসাথে জোড়া লাগিয়ে যদি উক্ত ছবির মাধুর্যতা বৃদ্ধি পায়। তাহলে অবশ্যই আপনাকে দুটো ছবি কে একসাথে জোড়া লাগানো উচিত।

কিন্তুু এই শখের সমস্যা বাধে তখনি ৷ যখন আপনি অনলাইনে ছবি জোড়া লাগানোর সফটওয়্যার খুজতে যাবেন।

কেননা, আপনি যখন ছবি জোড়া লাগানোর সফটওয়্যার লিখে অনলাইনে সার্চ করবেন ৷ তখন আপনার সামনে এমন ডজন ডজন সফটওয়্যার এর লিষ্ট চলে আসবে।

এখন আপনার সামনে আসা কোন সফটওয়্যার এর কি কি গুনাবলি রয়েছে।

সেটি বোঝার জন্য অবশ্যই আপনাকে সেই ছবি জোড়া লাগানোর সফটওয়্যার গুলোকে ব্যবহার করতে হবে।

কিন্তুু এটা কি করে সম্ভব যে, প্রতিটা সফটওয়্যার কে নিজের ডিভাইসে ব্যবহার করা।

আপনি আরো দেখতে পারেন…

না, আপনি যদি এই কাজটি করতে যান। তাহলে আপনার হাতে থাকা অনেক মূল্যবান সময় নষ্ট করতে হবে।

আর সেইদিক বিবেচনা করে আজকে আমি আপনাকে এমন সব ছবি জোড়া লাগানোর সফটওয়্যার এর সাথে পরিচয় করিয়ে দিবো।

যেগুলোর মাধ্যমে আপনিও আপনার ইচ্ছামতো দুটো ছবি কে জোড়া লাগিয়ে দিতে পারবেন। 

ছবি জোড়া লাগানোর সফটওয়্যার 

এবার আমি আপনাকে এমন সব জনপ্রিয় কিছু ছবি জোড়া লাগানোর সফটওয়্যার এর সাথে পরিচয় করিয়ে দিবো।

যেগুলোর মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই যে কোনো ধরনের ছবি কে জোড়া লাগিয়ে নিতে পারবেন।

এছাড়াও কিভাবে আপনি এই ছবি জোড়া লাগানোর সফটওয়্যার ডাউনলোড করবেন। সে নিয়েও একেবারে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করবো। 

০১| Photo Collage Maker – ছবি জোড়া লাগানোর সফটওয়্যার

আপনি যদি ভালো মানের ছবি জোড়া লাগানোর সফটওয়্যার খুজে থাকেন। তাহলে আপনার জন্য উপযুক্ত একটি সফটওয়্যার হবে Photo College Maker.

কেননা, এই সফটওয়্যার এর বিশেষ গুন হলো এর মাধ্যমে আপনি শুধু দুটো ছবি জোড়া নয়।

বরং আপনি চাইলে একের অধিক ছবি জোড়া লাগিয়ে নিতে পারবেন।

কারনে কিংবা অকারনে আমাদের মধ্যে এমন অনেক মানুষ আছেন। যারা মূলত তাদের মোবাইল কিংবা ক্যামেরা দিয়ে তোলা ছবি জোড়া লাগাতে চান।

মূলত সেইসব মানুষদের জন্য এই Photo College Maker নামক সফটওয়্যার টি অনেক বেশি হেল্পফুল হবে।

সত্যি বলতে ছবি জোড়া লাগানোর সফটওয়্যার হিসেবে Photo Collage Maker এতোটাই জনপ্রিয় হয়ে উঠছে যে।

বর্তমানে শুধুমাএ গুগল প্লে স্টোর থেকে প্রায় ১০০ মিলিয়ন এরও বেশিবার ডাউনলোড করা হয়েছে।

এবং বর্তমান সময়ে জনপ্রিয় এই ছবি জোড়া লাগানোর সফটওয়্যার টি 4.3 Rating এ অবস্থান করে আছে।

💥Quick Feature: এই সফটওয়্যার এ আপনি মোট দুটি অপশন দেখতে পারবেন। একটি হলো Free Mode. যেখানে আপনি বিনামূল্যে অনেক গুলো ফিচার ব্যবহার করতে পারবেন।

এবং আরেক টি পাবেন Premium Mode. যেখানে আপনাকে স্বল্প কিছু অর্থ ব্যয় করে তাদের দেওয়া ফিচার গুলো ব্যবহার করতে হবে। 

০২| Picsart – দুই ছবি একসাথে করার সফটওয়্যার

মোবাইল ডিভাইস এর দিক থেকে যে কোনো ধরনের ফটো এডিটং করার উপযুক্ত একটি অ্যাপস হলো Picsart.

বলা বাহুল্য যে, আপনি Picsart এ যতো গুলো ফিচার দেখতে পারবেন। তা আপনি ফোনের জন্য অন্য কোনো এপসে দেখতে পারবেন না।

মূলত আজকের দিনে এমন অনেক ইউজার রয়েছে। যাদের মধ্যে বেশিরভাগ মানুষ ই এই এপস কে ব্যবহার করে আসছে।

যদি আপনি এই এপস সম্পর্কে জানার জন্য গুগল প্লে স্টোরে সার্চ করেন। তাহলে আপনি দেখতে পারবেন যে।

জনপ্রিয় এই এপসকে প্রায় ৫০০ মিলিয়ন এরও বেশি বার ডাউনলোড করা হয়েছে। এবং প্লে স্টোরে এই অ্যাপস এর রেটিং হলো 4.2.

আমি আমার ফটো এডিটিং রিলেটেড সব গুলো আর্টিকেলে এই এপস কে সবার শীর্ষে রেখেছি।

কেননা, বিনামূল্যে এতো বেশি ফিচার ব্যবহার করার সুবিধা আপনি শুধুমাএ এই Picsart নামক এপস এর মধ্যেই পাবেন।

অপরদিকে আপনি যদি টাকাওয়ালা মানুষ হয়ে থাকেন। তাহলে আপনি এদের প্রিমিয়াম ভার্সন কিনে নিতে পারবেন।

এবং আপনি আরও সব অত্যাধুনিক ফিচার গুলোর সুবিধা ভোগ করতে পারবেন।

এখন হয়তবা আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে, Picsart এর মধ্যে এমন কি আছে? যার কারনে আমি এই এপস এর এতো বেশি গুনগান করছি।

তো চলুন এক নজরে দেখে নেয়া যাক, Picsart এর মধ্যে থাকা ফিচার গুলো সম্পর্কে। 

#Feature Of Picsart Photo Editor 

আমি শুরুতেই একটা কথা বলেছিলাম যে, আপনি এই এপসে যতো বেশি ফিচার দেখতে পারবেন।

তা আর অন্য কোনো মোবাইল এপসে দেখতে পারবেন না।

কেননা, Picsart এ যতবেশি ফিচার যুক্ত করা আছে। সেগুলো মোবাইল দিয়ে ফটো এডিট করার জন্য একেবারে যথোপযুক্ত। যেমনঃ

  1. এখানে আপনি একটা আর্কষনীয় Timeline দেখতে পারবেন। যেখানে আপনি কি কি কাজ করছেন। তা আপনি সেই টাইমলাইন এর মাধ্যমেই দেখে নিতে পারবেন। 
  2. এছাড়াও আপনি এখানে Multiple Layer এর সাহায্য কাজ করতে পারবেন। এতে করে আপনি একটি ছবিতেই প্রায় একসাথে অনেক গুলো কাজকে যুক্ত করে নিতে পারবেন। 
  3. শুধু তাই নয়, কম্পিউটার এর ফটোশপে যেমন বিভিন্ন ধরনের টুলস দেখতে পাওয়া যায়। ঠিক সেরকমই একটা টুলস বক্স দেখতে পারবেন।
  4. যেখানে ভিন্ন ধরনের Tools আছে। যেমন, Cropping, Marking, Selection ইত্যাদি। 
  5. এবং এসব ফিচারের পাশাপাশি আপনি আরও অনেক ধরনের ফিচার দেখতে পারবেন।
  6. যেমন, Photo College, Text, Reply এবং আপনার এডিট করা ছবি কে বিভিন্ন সোশ্যাল প্লাটফর্মে শেয়ার করার জন্য কুইক লিংক।

উপরে আমি শুধুমাএ ৪টি ফিচার এর কথা বলেছি। তবে আপনি আবার ভাইবেন না যে, Picsart এ শুধু এই কয়েকটি ফিচার বিদ্যমান রয়েছে।

কেননা, এগুলো ছাড়াও আরও অনেক ধরনের Feature রয়েছে। যখন আপনি এই অ্যাপসটি ব্যবহার করবেন।

তখন আপনি নিজে থেকেই বুঝতে পারবেন। 

০৩| Collage Maker Pro

জনপ্রিয়তার দিক থেকে কোনো অংশেই কম নয়।

বরং অন্যান্য দুটি ছবি জোড়া লাগানোর এপস গুলোর সাথে বেশ সমানতালে প্রতিযোগীতা করে আসছে Collage Maker Pro নামক মোবাইল এপসটি।

মূলত ফটো এডিট করার বিভিন্ন কাজ গুলো বেশ অনায়াসেই করতে পারবেন এই ফটো এডিটর এর মাধ্যমে।

বলা বাহুল্য যে, আপনি যদি আপনার মোবাইল ডিভাইস এ Collage Maker Pro এপস টি ব্যবহার করেন।

তাহলে আপনি অনেক ভালো ভালো ফিচার গুলো উপভোগ করতে পারবেন।

আপনার জন্য আরো লেখা…

মূলত এই ফিচার গুলোর সাহায্য আপনি ফটো এডিটিং এর বেশ দক্ষতার পরিচয় দিতে পারবেন।

সবচেয়ে বড় কথা হলো, আপনি এই অ্যাপসে দারুন সব রেডিমেট টেমপ্লেট পাবেন। যেগুলো আগে থেকেই সেটআপ করা থাকবে।

আপনি শুধু আপনার পছন্দের ছবি গুলো কে সিলেক্ট করবেন। এবং সাথে সাথে আপনার ছবি জোড়া লাগানোর কাজ হয়ে যাবে।

এবার হয়তবা আপনার মনে দ্বিধা জাগতে পারে যে, অন্যান্য এপস এর তুলনায় Collage Maker Pro কতটুকু কার্যকর হবে। তাহলে শুনুন….

আপনি যদি Google Play Store এ উক্ত এপস এর ডিটেইলস দেখেন। তাহলে আপনি দেখতে পারবেন যে, উক্ত এপসটি মোট ১০ হাজার এরও বেশিবার ডাউনলোড করা হয়েছে।

এবং রেটিংও অনেক ভালো রয়েছে। বর্তমান সময়ে উক্ত এপসের রেটিং হলো 3.4 .

💡Quick Note: উপরে আলোচিত দুই ছবি একসাথে করার সফটওয়্যার টি একেবারে নতুন তৈরি করা হয়েছে। উক্ত এপস টি সর্বপ্রথম Published করা হয় ২০২১ সালের মে মাসে।

আর ভবিষ্যতে এই এপস দিয়ে আপনি আরও ভালো ভালো Camera Feature এর সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। 

০৪| Collage Maker

যদি আপনি মোবাইল ডিভাইস দিয়ে অনেক স্বল্প সময়েই দুই ছবি একসাথে করার সফটওয়্যার খুজে থাকেন ৷

তাহলে আপনার জন্য উপযুক্ত একটি এপস হবে Collage Maker. যার মাধ্যমে আপনি অনেক বেশি পরিমান ছবি কে একসাথে জোড়া লাগিয়ে নিতে পারবেন।

এবং সেই কাজটিও আবার মাএ কয়েকটা ক্লিকের মাধ্যমে করতে পারবেন।

উক্ত অ্যাপস টি আপনি যদি ব্যবহার করতে চান।

তাহলে আপনি দেখতে পারবেন যে, গুগল প্লে স্টোরে Collage Maker এর রেটিং হলো 4.8 আর এই রেটিং দেখে হয়তবা এতোক্ষনে বুঝে গেছেন যে, উক্ত এপস টির জনপ্রিয়তা কোন পর্যায়ে চলে গেছে।

আর এই জনপ্রিয়তার কারনে উক্ত মোবাইল এপসটি মোট ১ মিলিয়ন এরও বেশিবার ডাউনলোড করা হয়েছে।

সবচেয়ে ভালো দিক হলো, এই অ্যাপস এর মাধ্যমে দুটি ছবি জোড়া লাগানোর জন্য আপনাকে তেমন কোনো কাজ করতে হবে না।

আপনাকে শুধু Collage Frame সিলেক্ট করতে হবে।

এবং এরপর আপনার পছন্দের ছবি গুলো কে এড করে নিলেই।

আপনি যেকোনো ছবি কে একসাথে যুক্ত করে নিতে পারবেন ৷

তাই যারা ফটো এডিটিং সম্পর্কে তেমন কিছুই জানেন না। তারাও খুব সহজেই এই মোবাইল এপসটি ব্যবহার করতে পারবেন।

০৫| Mirror Photo Editor

মাত্র ৩৫ এমবি এর অ্যাপসে যে এতো বেশি পরিমান ফিচার থাকে।

সেটা আপনি তখনি বুঝতে পারবেন, যখন আপনি Mirror Photo Editor নামক এই দারুন একটা অ্যাপস কে আপনার মোবাইল ডিভাইসে ব্যবহার করবেন।

কেননা, যেকোনো ধরনের ফটো এডিট করার একটি আর্কষনীয় অ্যাপস হলো Mirror Photo Editor.

যদি আপনার পূর্বে থেকে কোনো প্রকার ফটো এডিট সম্পর্কে ধারনা থাকে।

তাহলে কিন্তুু আপনি এই Mirror Photo Editor এর মাধ্যমে আপনার এডিট করা ছবি কে একেবারে চরম লেভেলে পৌঁছে দিতে পারবেন।

উক্ত এপস টি সর্বপ্রথম লন্চ করা হয়েছিলো ২০১৪ সালে। আর তখন থেকে আজ অবধি বেশ সমানতালে জনপ্রিয়তা বজায় রেখে আসছে।

এর মাধ্যমে আপনি শুধু দুটো ছবি জোড়া লাগানোর কাজ ছাড়াও আরও অনেক কাজ করতে পারবেন।

যেগুলো মূলত ফটো এডিটিং রিলেটেড কাজ। যেমন, এর মধ্যে বিশেষ একটা ফিচার হলো Beauty Camera.

আর এই ফিচার এর মাধ্যমে কোনো একটি ছবিকে কতটা আর্কষনীয় করা যায়। সেটা তো মনে হয় আপনি বেশ ভালো করেই জানেন।

যখন আপনি Mirror Photo Editor ব্যবহার করে আপনার কোনো ছবি জোড়া লাগানোর কাজ করবেন।

তখন আপনি এমন অনেক ধরনের মন কারানো Filter দেখতে পারবেন।

যেগুলো এপ্লাই করে একটি ছবির মাধুর্যতা একেবারে চরম লেভেলে নিয়ে যাওয়া সম্ভব।

💥Quick Note: এখানে আপনি প্রিমিয়াম ফিচার ব্যবহার করতে পারবেন। যেগুলো তে পূর্বের তুলনায় অনেক বেশি পরিমানে ফিচার থাকবে। যা বিনামূল্যের থেকে একটু বেশি আর্কষনীয় হবে। 

০৬| Blend Collage Free

আজকের আর্টিকেল এ আলোচিত সর্বশেষ ছবি জোড়া লাগানোর সফটওয়্যার হলো Blend Collage Free.

মূলত এই অ্যাপসটি আপনি একেবারে বিনামূল্যে ব্যবহার করতে পারবেন।

আর এতে থাকা সব আর্কষনীয় ফিচার গুলো থাকার কারনে। আপনার বা আমার মতো এমন অনেক মানুষ আছেন।

যারা মূলত দীর্ঘদিন থেকেই এই এপসটি কে ব্যবহার করে আসছেন।

মূলত জনপ্রিয়তার শীর্ষে থাকা এই অ্যাপসটি সর্ব প্রথম উন্মুক্ত করা হয়েছিলো ২০১৩ সালে।

এরপর থেকে আমাদের মতো ১০ মিলিয়ন এরও বেশি পরিমান মানুষ Blend Collage Free কে ব্যবহার করে আসছে।

এবং এর পরিমান ক্রমাগত ভাবে বেড়ে চলেছে ৷ তাহলে একবার চিন্তা করে দেখুন উক্ত এপসটি কাজের না হলে। এতো বেশি মানুষ কখনই ব্যবহার করতো না।

Blend Collage Free এর গুগল রেটিং হলো ৪.৪ এবং অন্যান্য এপস গুলোর মতো আপনি দুই ছবি একসাথে করার সফটওয়্যার হিসেবে এখানেও পূর্বে থেকে কিছু টেমপ্লেট পাবেন ৷

যেখানে আপনাকে ছবি এডিট করার জন্য তেমন কোনো কাজ করতে হবে।

বরং আপনি শুধুমাএ কয়েকটা ক্লিক করবেন ৷ আর আপনার বাকি কাজ গুলো তারা অটোমেটিক করে দিবে। 

কিভাবে দুই ছবি একসাথে করার সফটওয়্যার ডাউনলোড করবেন?

ভাই আপনি তো ছবি জোড়া লাগানোর সফটওয়্যার গুলোর সাথে পরিচয় করিয়েন দিলেন।

কিন্তুু ঐ দুই ছবি একসাথে করার সফটওয়্যার গুলো ডাউনলোড কিভাবে করবো।

সেটা নিয়ে তো কিছুই বললেন না। যদি আপনিও এমনটা ভেবে থাকেন। তাহলে শুনুন…

আপনি যদি উপরে আলোচিত সফটওয়্যার গুলো ডাউনলোড করতে যান।

তাহলে আপনার সামনে এমন হাজার হাজার সফটওয়্যার চলে আসবে। মজার বিষয় হলো এগুলোর মধ্যে বেশিরভাগ এপস হলো ভুয়া।

কিন্তুু আপনি যেন কোনো ভাবেই সেই ভুয়া এপস গুলো কে ডাউনলোড করে বিভ্রান্তিতে না পরেন।

সেজন্য আমি আপনাদের সরাসরি ডাউনলোড লিংক দিয়ে দিবো।

আর আপনি শুধুমাএ সেই লিংক গুলোতে ক্লিক করে উক্ত  ছবি জোড়া লাগানোর সফটওয়্যার ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

  1. Picsart 
  2. Blend Collage Free
  3. Mirror Photo Editor
  4. Collage Maker 
  5. Collage Maker Pro

উপরের সফটওয়্যার গুলোর ডাউনলোড লিংক থেকে আপনি আপনার পছন্দের দুই ছবি একসাথে করার সফটওয়্যার ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। 

আপনি কি কি শিখতে পারলেন? 

এমন অনেক ধরনের গুরুত্বপূর্ণ বিষয় আছে। যেগুলো আপনি আজকের আর্টিকেল থেকে শিখে নিতে পেরেছেন।

কিন্তুু আপনি যেন আলোচিত সেই বিষয় গুলো কোনো ভাবে ভুলে না যান। সেজন্য আমি সেই বিষয় গুলো কে পুনরায় আরেকবার রিপিড করবো।

তো আজকের সব আলোচিত বিষয় গুলোর মধ্যে কিছু উল্লেখযোগ্য বিষয় হলোঃ

  1. ছবি কাজ করার সফটওয়্যার
  2. ছবি সাজানো ফাইল
  3. ছবি ডাউনলোড করার অ্যাপস
  4. ফটো গ্যালারি সফটওয়্যার
  5. গানে ছবি লাগানোর সফটওয়ার
  6. ভিডিও জোড়া লাগানো সফটওয়্যার
  7. ছবি সাজানো ক্যামেরা
  8. ছবি সাজানো সফটওয়্যার
  9. দুই ছবি একসাথে করার সফটওয়্যার
  10. ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার
  11. ভিডিও গানে ছবি বসানো apps
  12. ছবি ডিজাইন সফটওয়্যার
  13. গানে ছবি লাগানোর সফটওয়ার
  14. ছবির কাজ করার সফটওয়্যার
  15. ভিডিও বানানোর সফটওয়্যার

তো আশা নয় বরং আমার দীর্ঘ বিশ্বাস যে, আপনি উপরে আলোচিত বিষয় গুলি বেশ ভালো ভাবে বুঝতে পেরেছেন।

তবে এরপরও কোনো সমস্যা থাকলে তা অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। 

আপনার জন্য কিছু কথা 

আজকের আর্টিকেলে আমি যে ছবি জোড়া লাগানোর সফটওয়্যার গুলো নিয়ে আলোচনা করেছি। সেগুলো কোনো প্রকার প্রোমোশনাল নয়।

অর্থ্যাৎ, এর জন্য আমি কারো কাছ থেকে টাকা নেই নি।

বরং আমি সেই ছবি জোড়া লাগানোর সফটওয়্যার গুলো কে ব্যবহার করছি। এবং তারপর সেগুলো নিয়ে আর্টিকেল লিখেছি।

তো আশা করা যায়, আমার ভালো লাগা সেই দুই ছবি একসাথে করার সফটওয়্যার গুলো আপনার অনেক বেশি ভালো লাগবে ৷

আর কোনো সমস্যা হলে তো আমি আছি আপনার জন্য। আর নতুন কিছু জানার জন্য Bangla it blog এর সাথেই থাকবেন। ধন্যবাদ… 

Related article

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই লেখা কপি করবেন না!
Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap