কিভাবে ফেসবুক আইডি খুলতে হয় | নতুন ফেসবুক আইডি খোলার নিয়ম

কিভাবে ফেসবুক আইডি খুলতে হয় : বর্তমান সময়ে ফেসবুক ব্যবহার করেনা, এমন মানুষ এর সংখ্যা খুবই কম।

কিভাবে ফেসবুক আইডি খুলতে হয় - নতুন ফেসবুক আইডি খোলার নিয়ম
কিভাবে ফেসবুক আইডি খুলতে হয়

কেননা, আমরা অধিকাংশ মানুষ এখন দ্রুততার সাথে নিজেদের তথ্য আদান প্রদান করার জন্য ফেসবুক ব্যবহার করে থাকি।

কিন্তুু আজকের দিনে এসেও এমন অনেক মানুষ আছেন। যারা এখনও জানেনা যে, আসলে কিভাবে ফেসবুক আইডি খুলতে হয়।

কিন্তুু আপনি যদি নতুন ফেসবুক আইডি খোলার নিয়ম গুলো না জানেন। তাহলে আপনি সঠিক উপায়ে কোনো Facebook Account Create করতে পারবেন না।

যার কারনে ভুলভাবে একটি ফেসবুক আইডি তৈরি করার পর। আপনার সেই আইডিটি নানা কারনে ব্লক হয়ে যায়।

তো যদি আপনি জানতে চান যে, কিভাবে ফেসবুক আইডি খুলতে হয়। এর পাশাপাশি আপনি যদি নতুন ফেসবুক আইডি খোলার নিয়ম গুলো জেনে নিতে চান।

আপনি আরোও দেখতে পারেন…

তাহলে আজকের আর্টিকেল টি আপনার জন্য অনেক বেশি হেল্পফুল হবে। কেননা, আজকে আমি এই বিষয় গুলো নিয়ে স্টেপ বাই স্টেপ আলোচনা করবো।

আর এই আর্টিকেল থেকে আপনি কিভাবে ফেসবুক আইডি খুলতে হয়। এ বিষয়ে বিস্তারিত জানার পাশাপাশি আপনি আরও কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে ধারনা পাবেন। যেমনঃ

  • ফেসবুক একাউন্ট খোলার নিয়ম কি? 
  • নতুন ফেসবুক একাউন্ট খোলার নিয়ম
  • ফেসবুক ইমেইল আইডি খোলার নিয়ম
  • হারানো ফেসবুক আইডি ফিরে পাওয়ার উপায়
  • নতুন ইমেইল আইডি খোলার নিয়ম
  • ফেসবুক পেজ খোলার নিয়ম
  • নাম্বার ছাড়া ফেসবুক আইডি খোলা
  • কিভাবে ফেসবুক আইডি ফিরে পাব
  • কিভাবে ফেসবুক পেজ খুলতে হয়
  • ফেসবুক ইমেইল আইডি খোলার নিয়ম

আর যেহুতু আপনি এখন রেগুলার ফেসবুক ব্যবহার করেন৷ সেহুতু উপরের বিষয় গুলো জেনে নেয়াটা আপনার জন্য ভীষন গুরুত্বপূর্ণ।

তবে একটা বিষয় না বললেই নয়, সেটি হলো আজ আমি নতুন ফেসবুক আইডি খোলার নিয়ম গুলো কে ধাপে ধাপে আলোচনা করার চেস্টা করবো ৷

আর সে কারনে পুরো আর্টিকেলটি একটু মন দিয়ে পড়বেন ৷ নাহলে ফেসবুক আইডি খোলার সময় আপনি নানা রকম সমস্যার সম্মুখীন হবেন। 

ফেসবুক আইডি কি? | What is Facebook id

আমরা সবাই জানি যে, আজকের দিনে বিশ্বের বড় এবং জনপ্রিয় একটি সোশ্যাল মিডিয়া হলো ফেসবুক। যেখানে প্রতিনিয়ত বিলিয়ন বিলিয়ন ইউজার এই ফেসবুকে একটিভ থাকছে।

তো এই ফেসবুক ব্যবহার করার সময় হঠাৎ আপনার মাথায় প্রশ্ন আসতে পারে যে, এই ফেসবুক আইডি আসলে কাকে বলে।

তো Facebook যদি একটি বৃহৎ সোশ্যাল মিডিয়া হয়ে থাকে। তাহলে আপনার তৈরি করা Facebook Id টি হলো ফেসবুক এর ক্ষুদ্র একটা অংশ।

যেখানে আপনার পরিচয় প্রদান করার জন্য বিভিন্ন রকমের ইনফরমেশন দেওয়া থাকবে।

আর কোনো নির্দিষ্ট ব্যক্তির ব্যক্তিগত বিষয় গুলোকে সংগ্রহ করে অন্য মানুষের নিকট পরিচিতি পাওয়ার উপায় কে বলা হয় ফেসবুক আইডি।

যেমন, আপনি যদি আমার ফেসবুক আইডিতে প্রবেশ করেন। তাহলে আপনি শুধু আমার ব্যক্তিগত বিষয় গুলোকে জানতে পারবো।

অপরদিকে আমি যদি আপনার Facebook ID তে প্রবেশ করি। তাহলেও আমি ঠিক আপনার দেওয়া ইনফরমেশন গুলো সম্পর্কে জানতে পারবো। 

ফেসবুক আইডি দিয়ে কি কি করা যায়?

আমরা সবাই মনে করি যে, ফেসবুক আইডি গুলো শুধমাত্র মেসেজ আদান প্রদান করার জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

কিন্তুু আপনি জানলে অবাক হয়ে যাবেন, কারন মেসেজ ছাড়াও আপনি আরও অনেক কাজ ফেসবুক আইডির মাধ্যমে করতে পারবেন।

চলুন এবার সেই বিষয় গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক। 

০১| মেসেজ আদান প্রদান করা যায়

আমরা সবাই মনে করি যে, একটি ফেসবুক আইডি দিয়ে শুধুমাএ মেসেজ দেওয়া যায়। তবে এটা সত্যে যে, ফেসবুক কে তৈরি করার মূল কারন হলো এটি।

মানুষ যেন খুব সহজেই একে অন্যের সাথে খুব কম সময়ের মধ্যে তথ্য আদান প্রদান করতে পারে। সেই কারনেই মূলত এই ফেসবুক এর সূচনা হয়েছে।

যদিও এটি ছাড়াও ফেসবুক আবিস্কার করার আরও অনেক গুলো কারন রয়েছে। তবে এটি হলো সবচেয়ে উৎকৃষ্ট কারন।

যা আপনি একটি ফেসবুক আইডি থেকে করতে পারবেন। 

০২| পোষ্ট (FB Post) করতে পারবেন 

আমরা সবাই নিজেকে প্রকাশ করতে পছন্দ করি। নিজের মনে থাকা আবেগ, জ্ঞান অথবা রাগ গুলো অন্যদের মাঝে শেয়ার করতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করি ৷

আর আপনি সেই সুযোগটা পাবেন Facebook Post এর মাধ্যমে। যেখানে থাকবে না কোনো বাধাধরা নিয়ম।

বরং আপনার মনে যাই আসে, আপনি তাই নিয়ে ফেসবুক পোষ্টে লেখালেখি করতে পারবেন।

এবং নিজের মনের ভাব অন্যান্য মানুষ এর সাথে শেয়ার করতে পারবেন। 

০৩| লাইক, কমেন্ট করতে পারবেন 

যখন অন্য কোনো মানুষের কথা বা কাজ আপনার ভালো লাগে। তখন আপনি সেই মানুষকে অনেক প্রসংশা করেন।

কিন্তুু অনলাইনে থাকা ফেসবুক নামক এই সোশ্যাল প্লাটফর্মে ভালো কথা বলা বা ভালো কাজের প্রসংশা করার জন্য অভিনব একটি পদ্ধতি আবিস্কার করেছে।

যেখানে আপনি অন্যের বলা ভালো কথা বা কাজের প্রসংশা করার জন্য Like করতে পারবেন। এছাড়াও কারো কোনো বিষয়ে মন্তব্য করার জন্য Comment করতে পারবেন।

০৪| ফেসবুকে অন্যান্য ফিচার এর সুবিধা নিতে পারবেন 

যারা মূলত নিয়মিত ফেসবুক ব্যবহার করে। তারা বেশ ভালোভাবে জেনে থাকবেন যে, একটি ফেসবুক আইডি থেকে মেসেজ/লাইক/কমেন্ট/পোষ্ট করার পাশাপাশি আপনি আরও অনেক ধরনের কাজ করতে পারবেন।

যেমন, যদি আপনার একটি FB ID থাকে। তাহলে আপনি সেই আইডি দিয়ে ভিডিও দেখতে পারবেন। বিশ্বের বড় বড় সেলিব্রিটির সব আপডেট গুলো তাদের ফেসবুক পেজ থেকে জানতে পারবেন।

তো এই সুবিধা গুলো ভোগ করার জন্য আপনার অবশ্যই একটি ফেসবুক আইডি তৈরি করা উচিত।

এবং কিভাবে ফেসবুক আইডি খুলতে হয়। সে সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেয়া উচিত। তবে এগুলো ছাড়াও এমন অনেক বিষয় আছে। সেগুলো নিয়ে আমি ধাপে ধাপে আলোচনা করবো। 

ফেসবুক আইডি খুলতে কি কি লাগে?

আপনি যদি নতুন ফেসবুক আইডি খোলার নিয়ম মেনে New Facebook Account Create করতে চান। তাহলে আপনার বেশ কিছু জিনিস এর দরকার হবে।

আপনার কাছে যদি প্রয়োজনীয় সেই জিনিস গুলো থাকে৷ তাহলে আপনি খুব সহজেই একটি FB আইডি তৈরি করে নিতে পারবেন।

আর আপনার কাছে যদি সেই জিনিস গুলো না থাকে। তাহলে আপনি কোনো ভাবেই একটি ফেসবুক আইডি খুলতে পারবেন না। যেমনঃ

০১| ইন্টারনেট ব্যবহার করা যায় এমন মোবাইল

যদি আপনি নিজের ঘরে বসে খুব সহজেই এক বা একাধিক ফেসবুক আইডি তৈরি করতে চান ৷

তাহলে সবার আগে আপনাকে একটি স্মার্টফোন এর সহায়তা নিতে হবে ৷ যার মাধ্যমে আপনি ফেসবুকে এক্সেস করতে পারবেন। এবং তাদের সার্ভারে একটি নতুন একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন ৷

শুধু তাই নয়, একটি স্মার্টফোন এর পাশাপাশি সেই ফোনে যেন অবশ্যই ইন্টারনেট কানেকশন থাকে। সে দিকে যথেষ্ট খেয়াল রাখবেন।

কেননা, আপনার হাতে থাকা ডিভাইসে যদি ইন্টারনেট না থাকে। তাহলে আপনি কোনো ভাবেই অনলাইন প্লাটফর্মে পৌছাতে পারবেন না। 

০২| পিসি বা ল্যাপটপ সাথে ইন্টারনেট কানেকশন

তবে আপনি যদি চান যে, আপনার পছন্দের ফেসবুক আইডিটি মোবাইল দিয়ে না খুলে কম্পিউটার দিয়ে খুলবেন। তাহলে সবার আগে আপনার হাতে একটি ল্যাপটপ বা কম্পিউটার এর দরকার হবে।

এবং সেই ডিভাইস গুলো দিয়ে যেন ইন্টারনেট কানেকশন ব্যবহার করা যায়। সেই দিকে যথেষ্ট নজর রাখতে হবে। কেননা, আপনার হাতে থাকা ডিভাইস টি যদি ইন্টারনেট এর সাথে কানেক্টেড না হয়।

তাহলে কিন্তুু আপনি কোনো ভাবেই একটি ফেসবুক আইডি খুলতে পারবেন না। 

০৩| একটি নতুন জিমেইল আইডি

একটি ফেসবুক আইডি তৈরি করার সময় অবশ্যই সেই আইডিতে Gmail যুক্ত করার দরকার হয়ে থাকে। তবে বর্তমান সময়ে এসেও বেশিরভাগ মানুষ এই অপশন কে তেমন একটা গুরুত্ব দেয়না।

কিন্তুু বলে রাখা ভালো যে, কোনো একটি ফেসবুক আইডির জন্য জিমেইল আইডি ভীষন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।

কেননা, পরবর্তী সময়ে যদি আপনি FB ID রিলেটেড কোনো সমস্যায় পড়েন। তাহলে আপনি সেই জিমেইল একাউন্ট এর মাধ্যমে রিকভার করে নিতে পারবেন। 

০৪| আপনার ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বর 

একটি নতুন ফেসবুক আইডি খোলার নিয়ম হিসেবে আপনার Facebook Account এ অবশ্যই একটি নতুন মোবাইল নম্বর যুক্ত করার প্রয়োজন হবে।

কেননা, একটি নতুন আইডি তৈরি করার পরে সেই একাউন্টে পরবর্তী সময়ে নানা রকম সমস্যা এসে পড়ার সম্ভাবনা থাকবে।

এবং আপনি আপনার নতুন একাউন্টে যুক্ত করা মোবাইল নম্বর এর সাহায্য সেই সমস্যা গুলোর সমাধান করতে পারবেন ৷

তাই যখন আপনি কোনো ফেসবুক একাউন্ট তৈরি করবেন। তখন অবশ্যই একটি Mobile Number যুক্ত করে নিবেন। 

কিভাবে ফেসবুক আইডি খুলতে হয়

উপরের আলোচনা থেকে আপনি অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সম্পর্কে জানতে পেরেছেন ৷ যেমন, সবার শুরুতে আপনি জেনেছেন যে, ফেসবুক কাকে বলে।

এবং এরপরে আপনি জেনেছেন, আপনার তৈরি করা নতুন ফেসবুক একাউন্ট দিয়ে কি কি কাজ করতে পারবেন ৷ আশা করি উপরের আলোচনা গুলো আপনি বেশ ভালো ভাবে বুঝতে পেরেছেন।

তো এবার আপনি মূল টপিক সম্পর্কে জানতে পারবেন। মূলত আপনি যদি একটি নতুন Facebook account তৈরি করতে চান। তাহলে আপনাকে কি কি কাজ করতে হবে।

আপনি আরোও পড়তে পারেন…

এবং নতুন ফেসবুক আইডি খোলার নিয়ম গুলো কি কি। এবার সে বিষয়ে একেবারে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

তবে আপনি যদি একটি নতুন আইডি খুলতে চান। তাহলে আমি উপরে যে জিনিস গুলোর কথা বলছি। সেগুলো অবশ্যই আপনার নিকট থাকতে হবে।

আর যদি আপনার কাছে সেগুলো না থাকে। তাহলে আগে থেকে সেগুলোকে কালেক্ট করে নিবেন। যেমন, একটি নতুন Gmail account এবং একটি New Mobile Number ইত্যাদি। 

নতুন ফেসবুক আইডি খোলার নিয়ম

প্রত্যেকটা কাজের যেমন নির্দিষ্ট কিছু নিয়ম কানুন থাকে। ঠিক তেমনি ভাবে আপনি যখন আপনার কাজের প্রয়োজনে Facebook account create করবেন।

তখনও কিন্তুু আপনাকে নিয়ম মেনে বেশ কিছু ধাপ অতিক্রম করতে হবে। যদি আপনি সেই নিয়ম গুলো নির্ভুল ভাবে অতিক্রম করতে পারেন।

তাহলে আপনিও খুব সহজে যে কোনো ধরনের fB Id Create করে নিতে পারবেন।

তবে সেই নিয়ম গুলো বলার আগে আপনাকে কিছু কথা বলে নেই। সেগুলো হলো, আপনার বোঝার সুবিধার জন্য আমি প্রত্যেকটা বিষয়কে স্টেপ বাই স্টেপ আলোচনা করবো।

তাই আপনিও চেস্টা করবেন নিচে আলোচিত ধাপ গুলো সঠিক ভাবে অনুসরন করার। তাহলে আমার বিশ্বাস যে, আপনি কোনো প্রকার সমস্যার সম্মুখীন হবেন না।

তো চলুন এবার জেনে নেয়া যাক যে, কিভাবে আপনি কোনো প্রকার ঝামেলা ছাড়াই Facebook Account create করতে পারবেন। 

Step/1: Go to Facebook Website

যদি আমাকে কেউ প্রশ্ন করে যে, কিভাবে ফেসবুক আইডি খুলতে হয়। তাহলে আমি সবার আগে যে কাজ টি করতে বলবো। সেটি হলো, আপনাকে প্রথমে Facebook এর অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে যেতে হবে ৷

এখন আপনি কোনো ব্রাউজার থেকে সরাসরি সেই www.facebook.com এ যেতে পারবেন ৷ অথবা আপনি চাইলে ফেসবুক এর অরজিনাল Facebook Apps কিংবা Facebook Lite এর মাধ্যমে যেতে পারবেন। 

Step/2: Create A New Account 

তো যখন আপনি ফেসবুক এর অফিশিয়াল লিংকে প্রবেশ করবেন। তখন আপনার সামনে বেশ কিছু অপশন চলে আসবে।

যেমন, Log in, Password ইত্যাদি। কিন্তুু আপনি যেহুতু নতুন একটি ফেসবুক একটি ফেসবুক আইডি তৈরি করবেন। সেহুতু আপনাকে Create New Account এ ক্লিক করতে হবে। 

Step/3: Provide personal details

যখন আপনি উপরের অপশনে ক্লিক করবেন ৷ তখন আপনার সামনে একটা বড়সড় ফর্ম চলে আসবে। যা আপনাকে কিছু তথ্য দিয়ে সেই Facebook Form টি ফিলআপ করতে হবে। যেমনঃ

  1. সবার আগে আপনি দুটি অপশন দেখতে পারবেন। একটি হলো First name এবং অন্যটি হলো Last name. 
  2. কিন্তুু অনেক মানুষ আছেন। যারা এই নামের বক্স দুটিতে কিছু ভুল করেন। কেননা, একই নামে দুটি বক্স দেখার পর আপনি ঠিক বুঝে উঠতে পারেনা। 
  3. তাই এই বক্স দুটিতে আপনার নামকে ভাগ করে লিখবেন। যেমন, আপনার নাম যদি Abdur Razzak হয়। তাহলে আপনাকে প্রথম বক্সে Abdur এবং দ্বিতীয় বক্সে Razzak দিয়ে পূরন করতে হবে। 
  4. এরপর আপনার জন্ম তারিখ টি বসিয়ে দিতে হবে। মনে রাখবেন, এখানে আপনার দেওয়া জন্ম তারিখটি কোথাও নোট করে রেখে দিবেন। 
  5. এবার আপনি একটা গুরুত্বপূর্ণ জিনিস দেখতে পারবেন। সেটি হলো Password. মনে রাখবেন, আপনার এই ফেসবুক পাসওয়ার্ড টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। 
  6. এখানে আপনি এমন একটা শক্তিশালী Facebook Password দিবেন। যেন কোনো মানুষ আপনাকে ফেসবুক আইডি হ্যাক করতে না পারে। 
  7. একটি শক্তিশালী পাসওয়ার্ড এর উদাহরন হলোঃ [email protected]@Blog##00
  8. তো এরপর আপনার ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বর দেয়ার দরকার হবে। মনে রাখবেন, এখানে আপনি সেই Mobile Number টি দিবেন। যেটা আপনি সবসময় ব্যবহার করতে পারবেন।

Fb Id Create Note: আপনি যদি জিমেইল আইডি দিয়ে ফেসবুক আইডি খুলতে চান তাহলে মোবাইল নম্বরের পরিবর্তে ক্রিয়েট জিমেইল অথবা ই-মেইল লেখাতে ক্লিক করবেন।

আপনার মোবাইল নাম্বার অথবা ইমেইল আইডি দেওয়ার পর  ক্রিয়েট লেখাতে ক্লিক করলে আপনার মোবাইল নাম্বার অথবা ইমেইল আইডিতে একটি ভেরিফিকেশন কোডটা চলে আসবে।

আপনার মোবাইল নম্বরে অথবা আপনার ইমেইল একাউন্টে যাওয়া ভেরিফিকেশন কোড টি আপনার ফেসবুক আইডি খোলার সময় একটি খালি বক্স দেখতে পাবেন।

সেখানে ইনপুট করে আপনাকে সাবমিট এ ক্লিক করতে হবে।

তো আপনি যদি উপরের ধাপ গুলো সঠিক ভাবে অনুসরন করতে পারেন। তাহলে আপনার নতুন ফেসবুক একাউন্ট তৈরি করার কাজ শেষ হবে।

তবে এরমধ্যে আপনার সামনে আরও বেশ কিছু অপশন চলে আসবে। আপনি সেগুলোকে Skip করে চলে যাবেন।

আরও অপশন বলতে, Profile picture সেট করতে বলবে।

Cover Picture এবং আপনার স্কুল কলেজ এর তথ্য চাইবে। কিন্তুু এগুলো আপনি পরবর্তী সময়েও দিতে পারবেন। তাই সেগুলো নিয়ে একটু পরে আলোচনা করবো। 

কিভাবে ফেসবুক প্রোফাইলে তথ্য যুক্ত করবেন?

আপনি যখন নতুন একটি ফেসবুক একাউন্ট তৈরি করার প্রথম ধাপ অতিক্রম করবেন ৷ তখন আপনাকে আরও কিছু কাজ করতে হবে।

আপনার সেই কাজ গুলো অবশ্যই গুরুত্বের সাথে করতে হবে। একটা কথা বলে রাখা ভালো যে, আপনি যদি এই গুরুত্বপূর্ণ সেটিংস গুলো না করেন ৷ তাহলে আপনি নানাবিধ সমস্যায় পড়বেন। যেমনঃ

  • ফেসবুক এর বড় যে সমস্যাটি হয় সেটি হলো Facebook Account Hack হওয়া। কিন্তুু অবাক করার মতো বিষয় হলো, ফেসবুক এর এমন কিছু সিকিউরিটি সেটিংস আছে। যেগুলো করতে পারলে আপনার একাউন্ট আর হ্যাক হবে না। 
  • আপনি যদি এই সেটিংস গুলো না করেন ৷ তাহলে কিছু দিন ফেসবুক কতৃপক্ষ আপনার নতুন একাউন্টকে নানা রকম ভেরিফিকেশনে ফেলে দিবে।

তো একটা ফেসবুক একাউন্ট বারবার Verification এ পড়াটা যে কতটা বিরক্তিকর।

সেটা শুধুমাএ সেই বুঝতে পারবে, যার একাউন্ট কোনো না কোনো সময়ে ভেরিফাই তে পড়েছে৷ তাই নিজে উল্লেখ করা সেটিংস গুলো অবশ্যই মন দিয়ে দেখবেন৷ 

Update Your Facebook Profile Info

যখন একটি নতুন ফেসবুক একাউন্ট তৈরি করবেন। তখন সেটিকে অনেকটা সাদামাটা মনে হবে।

আর সে কারনে আপনাকে সেই একাউন্ট কে সাজিয়ে নেয়ার জন্য আরও বিভিন্ন রকমের ইনফরমেশন জমা দিতে হবে। এবং আপনি এখানে যেসব ইনফো জমা দিবেন।

সেগুলো একবারে সঠিকভাবে দেয়ার চেস্টা করবেন ৷ যেমনঃ

01) Insert Your Bio 

আপনি যখন আপনার ফেসবুক প্রোফাইলে প্রবেশ করবেন। তখন আপনাকে পুনরায় Edit Profile এ যেতে হবে।

এবং প্রথমেই আপনি “bio”- নামের নতুন একটা অপশন দেখতো পারবেন। এখানে আপনাকে এমন কিছু লিখে সেট করতে হবে।

যা আপনার ব্যক্তিত্ব কে প্রকাশ করবে। সেরকম ছোট্ট একটা বায়ো লিখে দিবেন। 

02) Add Your School & Collage 

তো যখন আপনি আপনার ফেসবুক প্রোফাইলে bio দিবেন। তখন আপনাকে স্কুল এবং কলেজ এর তথ্য জমা দিতে হবে।

যেমন, আপনি কোন School থেকে পড়াশোনা করেছেন। সেটা আপনাকে সার্চ করে সিলেক্ট করে দিতে হবে।

এরপর আপনি যখন আপনার স্কুলকে সিলেক্ট করবেন। তখন আপনাকে আপনার Collage যুক্ত করে দিতে হবে।

আর এগুলো সিলেক্ট করে দেয়ার সময় আপনি কোন Year এ স্কুল কলেজ পাস করছেন। তা আপনাকে বেশ ভালোভাবে সিলেক্ট করে দিতে হবে। 

03) Select Your Location 

এবার ফেসবুক আপনার একটা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য চাইবে। যেমন, আপনি বর্তমানে কোন স্থানে বাস করছেন।

তা আপনাকে সিলেক্ট করে দিতে হবে। তো এখানে আপনি মূলত ২ টি Location সেট করার মতো অপশন পাবেন।

তো আপনি দুইটি অপশনে আপনার Real Location টি দেয়ার চেস্টা করবেন। 

04) Setup Your Contact info

এর ঠিক নিচে আপনি আপনার ব্যক্তিগত নম্বর দেয়ার একটি অপশন দেখতে পারবেন। যেখানে আপনাকে একটি সঠিক Phone Number দিতে হবে।

এবং সেই নম্বরটি যেন অবশ্যই আপনার ফোনে সচল থাকে। তবে আপনার নম্বর এর পাশাপাশি আপনার যেসব আলাদা Social Account আছে ৷ সেগুলো এখানে যুক্ত করে নিতে পারবেন। 

05) Basic Info  

এই অপশনে আপনি বেশ কিছু সেটিংস পাবেন। যেমন, প্রথমে আপনার Gender সিলেক্ট করতে হবে।

আপনি যদি পুরুষ হয়ে থাকেন ৷ তাহলে অবশ্যই আপনি Male সিলেক্ট করবেন ৷ আর নারী বা মহিলা হয়ে থাকে Female সিলেক্ট করে দিবেন।

এরপর ধারাবাহিক ভাবে আপনার ভাষা, আপনি কোন ধর্মের অনুসারী এবং আপনি রাজনৈতিক কোনো দল করেন কিনা ৷ সেগুলো আপনাকে সঠিকভাবে দিতে হবে।  

06) Other Facebook Feature 

এরপর আপনি আরও অনেক নতুন নতুন অপশন দেখতে পারবেন ৷ যেমন, আপনার Blood Group কি, আপনি বিবাহিত নাকি সিঙ্গেল ইত্যাদি।

তো আমার মনে হয় আপনি এই কাজ গুলো নিজে থেকেই করতে পারবেন ৷ আর আপনি যদি এই অপশন গুলো ফাঁকা রাখেন। তাহলেও আপনার কোনো প্রকার এর সমস্যা হবে না। 

07) Setup Profile/Cover Picture 

এবার আপনাকে যে গুরুত্বপূর্ণ সেটিংস টি করতে হবে ৷ সেটি হলো আপনার ফেসবুক প্রোফাইলে একটি ভালো মানের নজর কাড়ানো Cover Picture সেট করে নিতে হবে ৷

এতে করে আপনার প্রোফাইল টি কেউ ভিজিট করার সাথে সাথে এই পিকটার টি দেখতে পারবে।

এরসাথে আপনাকে একটি Profile Picture আপলোড করতে হবে। যেখানে আপনি আপনার নিজের ছবি ব্যবহার করবেন।

এবং আপনার ছবি দেখে অন্যান্য মানুষ যারা ফেসবুক ব্যবহার করে৷ তারা আপনাকে চিনতে পারবে। 

বোনাস টিপস : ফেসবুক আইডি খোলার নিয়ম

কিছু কিছু বিষয় আছে, যেগুলো একজন ফেসবুক ব্যবহারকারীর জেনে নেয়া উচিত। কেননা, আপনি ভালো করেই জানেন যে, বর্তমান সময়ে ফেসবুক এর একটি পোষ্ট নিয়েও অনেক বড় বড় খারাপ কাজ হচ্ছে।

তাই এবার আমি বোনাস টিপস হিসেবে ফেসবুক এর কিছু অজানা বিষয়ে কথা বলবো ৷

  1. কখনও নিজের Facebook id এর পাসওয়ার্ড অন্য কারো সাথে শেয়ার করবেন না। 
  2. আপনি যদি অন্য কারো মোবাইল দিয়ে আপনার Facebook account লগ ইন করেন। তাহলে ফেসবুক ব্যবহার করা শেষে অবশ্যই সেই মোবাইল থেকে আপনার ফেসবুক আইডিটা Log out করে নিবেন ৷ 
  3. আপনার আইডিটা সুরক্ষিত রাখার জন্য অবশ্যই Two-step Verification চালু করে রাখবেন ৷ 
  4. আপনার পাসওয়ার্ড টি যেন অনেক বেশি শক্তিশালী হয়। সেই দিকে যথেষ্ট খেয়াল রাখবেন। 
  5. মনে রাখবেন, ফেসবুকে ভুল করেও কোনো স্প্যামিং বা ফিশিং লিংকে ক্লিক করবেন না। যদি করেন, তাহলে আপনার ফেসবুক একাউন্টটি হ্যাক হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকবে।

তো আপনি যদি উপরে আলোচিত নিয়ম গুলোর দিকে একটু নজর রাখেন। তাহলে আশা করা যায়, একটি Facebook Account তৈরি করা থেকে ব্যবহার করা পর্যন্ত কোনো প্রকার অসুবিধা হবেনা। 

Article Finishing Word 

কিভাবে ফেসবুক আইডি খুলতে হয়, তার সব গুলো বিষয়কে আমি স্টেপ বাই স্টেপ আলোচনা করেছি।

আশা করি আজকের আলোচিত নতুন ফেসবুক আইডি খোলার নিয়ম গুলো আপনি বেশ ভালোভাবে বুঝতে পেরেছেন।

আর এমন সব মজার টপিক সম্পর্কে জানতে অবশ্যই Bangla it blog এর সাথে থাকবেন।  

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

HandsUp! কপি করা যাবে না বস!
Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap