গুগল সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে – (How Google Works)

গুগল সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে : (How search engine works) আমরা যারা ইন্টারনেট ব্যবহার করি। তারা অবশ্যই একবার হলেও google সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহার করে থাকবেন।

গুগল সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে – (How Google Works)
গুগল সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে

কিন্তু আপনি কি জানেন, এই সার্চ ইঞ্জিন কাকে বলে, গুগল কিভাবে কাজ করে ? আপনি কি জানেন বর্তমান সময়ে বিশ্বে মোট কত গুলো সার্চ ইঞ্জিন রয়েছে?

যদি আপনি না জেনে থাকেন, তাহলে আজকের এই আলোচনা টি আপনার জন্য অনেক বেশি প্রয়োজনীয়।

কারণ আজকে আমি আপনাকে জানিয়ে দিব, সার্চ ইঞ্জিন কি, সার্চ ইঞ্জিন এর সুবিধা এবং সার্চ ইঞ্জিন এর কাজ কি?

এর পাশাপাশি বর্তমান বিশ্বে মোট কত গুলো সার্চ ইঞ্জিন রয়েছে। তার প্রত্যেক টা সার্চ ইঞ্জিন নিয়ে আজকে আলোচনা করব।

Search engine কি  (What Is Search Engine)

সহজ কথায় বলতে গেলে সার্চ ইঞ্জিন হলো এমন এক ধরনের ওয়েবসাইট। যেখানে বিভিন্ন ডাটা স্টোর করা থাকে। এবং পরবর্তী সময়ে উক্ত ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার পরে।

কোন কিছু লিখে সার্চ করলে আমরা সেই ডেটা গুলো দেখতে পাই। মূলত এই ধরনের বিশেষ প্রোগ্রাম এর সমন্বয়ে তৈরি করা ওয়েব সাই টকে বলা হয়ে থাকে, সার্চ ইঞ্জিন।

আর বর্তমান সময়ে আমরা অধিকাংশ মানুষ সার্চ ইঞ্জিন হিসেবে গুগোল কে ব্যবহার করে থাকি।

কিন্তু আপনি জানলে অবাক হয়ে যাবেন। কারণ বর্তমান সময়ে google সার্চ ইঞ্জিন ছাড়াও আপনি আরো বিভিন্ন ধরনের সার্চ ইঞ্জিন দেখতে পারবেন।

যে গুলো তে কোন কিছু লিখে সার্চ করার পর তার স্টোর করা ডেটার গুলো দেখতে পারি।

সার্চ ইঞ্জিন এর কাজ কি ?

উপরের আলোচনা থেকে আমরা জানতে পেরেছি, সার্চ ইঞ্জিন কাকে বলে। তো এবার আপনাদের জানতে হবে, সার্চ ইঞ্জিন এর কাজ কি।

অর্থাৎ আমরা যে সকল সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহার করি। সেই সার্চ ইঞ্জিন গুলো কি কাজে ব্যবহার করা হয়। এবার আমি আপনাকে সে সম্পর্কে সঠিক তথ্য দেওয়ার চেষ্টা করব।

চলুন এবার তাহলে সার্চ ইঞ্জিন এর কাজ কি সে সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক। সার্চ ইঞ্জিন এর মূল কাজ হলো বিভিন্ন প্রকার ডাটা কে নিজের মধ্যে জমা করে রাখা।

এবং পরবর্তী সময়ে যদি কখনো উক্ত সার্চ ইঞ্জিনে কোন বিষয়ে লিখে সার্চ করা হয়। তখন তার নিজের মধ্যে থাকা ডেটা গুলো সার্চ রেজাল্টে দেখানো।

মূলত এটাই হলো প্রত্যেকটা সার্চ ইঞ্জিন এর মূল কাজ। যার ফলে আমরা বিভিন্ন বিষয়ে কোন কিছু লিখে সার্চ করার সাথে সাথেই উক্ত বিষয়টি সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য জানতে পারি।

যেমন, আমরা এখন যদি গুগলে কোন কিছু লিখে সার্চ করি।

তাহলে তাৎক্ষণিক ভাবে উক্ত বিষয় টি সম্পর্কে অনেক তথ্য জানতে পারবো। তো এটাই হলো প্রত্যেকটা সার্চ ইঞ্জিন এর মূল কাজ।

সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে ?

একটা বিষয় চিন্তা করে দেখুন, আমরা যখন কোন কিছু জানতে চাই। তখন সরাসরি গুগল এর মধ্যে যাই। এবং সেখানে আমাদের জানার বিষয়টি লিখে সার্চ করি।

আর তারপরেই google আমাদের সার্চ করা বিষয় সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য জানিয়ে দেয়। কিন্তু কখনো কি আপনি ভেবে দেখেছেন যে, google কিভাবে আপনার সার্চ করা বিষয়টি সম্পর্কে জানতে পারলো?

এবং সে কিভাবে উক্ত বিষয় গুলো সম্পর্কে এত তথ্য সংগ্রহ করতে পারলো? তো আপনি যদি এই প্রশ্নের উত্তর খুজে পেতে চান। তাহলে আপনাকে জানতে হবে, সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে।

How does a search engine work? (Bangla guide)

দেখুন আপনি বর্তমান বিশ্বে মোট যত গুলো সার্চ ইঞ্জিন দেখতে পারবেন। সেই সার্চ ইঞ্জিন গুলো তিনটি ধাপে কাজ করে থাকে।

তার মধ্যে প্রথম ধাপের নাম হলো, ক্রোলিং, ইন্ডেক্সিং এবং রেংকিং। তো এই বিষয় টি জানার পর এখন আপনার মনে প্রশ্ন জেগে থাকতে পারে। যে, একটি সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে এই তিন টি পদ্ধতির মাধ্যমে কাজ করে থাকে। 

আর আপনার মনে যদি এই ধরনের প্রশ্ন জেগে থাকে। তাহলে আপনাকে নিজের আলোচিত আলোচনায় নজর রাখতে হবে। কারণ এবার আমি আপনাকে এই তিনটি ধাপ সম্পর্কে সঠিক তথ্য দেয়ার চেষ্টা করব।

Crawling – ক্রোলিং

একটি সার্চ ইঞ্জিন এর সর্বপ্রথম ধাপ হলো, ক্রোলিং করা। যার মাধ্যমে কোন একটি সার্চ ইঞ্জিনের মধ্যে বিভিন্ন ধরনের তথ্যের সন্ধান পাওয়া যায়।

কেননা ইন্টারনেটের মধ্যে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ধরনের ডাটা আপডেট করা হয়ে থাকে। আর ইন্টারনেটে কোন ধরনের আপডেট ডেটা আসবে।

সে গুলো কে কাউন্ট করা এবং প্রয়োজনে সেই আপডেট বিষয় গুলো কে নিজের কাছে জমা করার জন্য।

ক্রোলিং গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। কেননা একটি সার্চ ইঞ্জিন এর মধ্যে থাকা ক্রলার সর্বদাই ইন্টারনেট এর মধ্যে ঘোরাঘুরি করতে থাকে।

এবং যে সকল নতুন তথ্য আপডেট হয়। সেই তথ্য গুলো কে সংগ্রহ করার প্রক্রিয়া শুরু করে দেয়।

আর এই কাজটি সঠিকভাবে করার জন্য একটি সার্চ ইঞ্জিন এর মধ্যে বিভিন্ন ধরনের অটোমেটিক বট, স্পাইডার থাকে। যারা ইন্টারনেট এর মধ্যে থাকা বিভিন্ন ধরনের ডেটা গুলো কে এক্সেস করে।

এর পাশাপাশি বিভিন্ন ওয়েবসাইট গুলো কে স্ক্যান করার মাধ্যমে। সেই ওয়েব পেজ গুলো তে কি কি নতুন ডেটা আপডেট হচ্ছে সে গুলো খোঁজাখুঁজি করে।

তবে এই ধরনের স্পাইডার বা অটোমেটিক বট গুলো যখন ইন্টারনেটের মধ্যে থাকা কোন ধরনের ডেটা এক্সেস করে। তখন তারা বেশ কিছু বিষয় দিকে গুরুত্ব দেয়। যেমনঃ

  1. একটি ওয়েব পেজের মধ্যে কি ধরনের টাইটেল এবং ডেসক্রিপশন রয়েছে।
  2. সেই ওয়েব পেজে কোন বিষয় কে কেন্দ্র করে নতুন ডেটা দেওয়া হয়েছে।
  3. উক্ত ওয়েবপেজ এর মধ্যে কোন ধরনের ফাইল রয়েছে কিনা। যেমন, ভিডিও ফাইল, অডিও ফাইল, ইমেজ ফাইল ইত্যাদি।
  4. উক্ত ওয়েব পেজের মধ্যে কি ধরনের নতুন আপডেট ডেটা রয়েছে।
  5. এর সাথে কোন ধরনের ইন্টারনাল লিংক রয়েছে।

তো যখন নতুন নতুন ডাটা গুলো সংগ্রহ করার জন্য একটি সার্চ ইঞ্জিনের ক্রোলার। যখন পুরো ইন্টারনেট এর মধ্যে থাকা ওই পেজগুলো ভিজিট করে।

তখন যে বিষয় গুলো কে সবচেয়ে গুরুত্ব দেয়। সেই বিষয় গুলো সম্পর্কে উপরে আলোচনা করা হলো। চলুন এবার সার্চ ইঞ্জিনের পরবর্তী কাজের ধাপ জেনে নেওয়া যাক।

Indexing – ইনডেক্সিং

যখন কোন একটি সার্চ ইঞ্জিন এর ক্রোলার ইন্টারনেটের মধ্যে থাকা বিভিন্ন ওয়েব পেজ ঘোরাঘুরি করে। এবং যখন সেটি অনেক ধরনের ডাটা সংগ্রহ করে।

তখন সে গুলো কে নিজের কাছে স্টোর করে রাখতে হয়। আর এই পর্যায়ে একটি সার্চ ইঞ্জিনের ইনডেক্সিং এর কার্যক্রম শুরু হয়।

মূলত যখন ক্রোলার বিভিন্ন ধরনের ওয়েব পেজ থেকে যেটা সংগ্রহ করে। তখন সে গুলো নিজের মধ্যে ইন্ডেক্সিং করে রাখতে হয়।

যেন পরবর্তী সময়ে উক্ত বিষয়টি সম্পর্কে কেউ সার্চ করলে। উক্ত সার্চ ইঞ্জিন তাৎক্ষণিক ভাবে সেই বিষয় টি সম্পর্কে বিভিন্ন প্রকারের তথ্য দিতে পারে।

তবে এই ইনডেক্সিং এর প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হতে অনেকটা সময় লাগে। কেননা ইনডেক্সিং কখনোই সেই ধরনের ডেটা গুলো কে নিজের কাছে স্টোর করবে না।

যে গুলো তার কাছে অলরেডি আছে। বরং এই ধরনের ইন্ডেক্সিং গুলো শুধুমাত্র সেই ধরনের ডেটা গুলো নিজের কাছে ইনডেক্স করবে।

যে গুলো সম্পূর্ণ নতুন এবং যে সকল ডেটা গুলো থেকে অনেক তথ্য নিজের কাছে স্টোর করা যাবে। আর যদিও বা এই কাজটি ক্রোলার নিজে থেকেই করে।

তবে ইনডেক্সিং হওয়ার সময় একটি সার্চ ইঞ্জিন এর ইনডেক্সার এই বিষয় গুলো কে যথেষ্ট পরিমাণে গুরুত্ব দিয়ে থাকে।

Ranking – রেংকিং

একটি সার্চ ইঞ্জিন এর যে সকল কাজ রয়েছে। সেই কাজ গুলোর মধ্যে সর্বশেষ কাজ হলো, রাঙ্কিং প্রদান করা।

অর্থাৎ আমরা যখন একটি সার্চ ইঞ্জিন এর মধ্যে কোন কিছু লিখে সার্চ করিম তখন বিভিন্ন ওয়েবসাইট কে সার্চ রেজাল্টে দেখায়।

কিন্তু একটা বিষয়ে লক্ষ্য করতে পারবেনম সেই বিষয় টি হলো, আমরা একটি সার্চ ইঞ্জিন এর মধ্যে যা কিছু লিখে সার্চ করি না কেন।

উক্ত সার্চ ইঞ্জিন গুলো একবারে সেই বিষয় সম্পর্কে সঠিক তথ্য দেওয়ার চেষ্টা করে।

অর্থাৎ আপনি যদি এখন গুগলে গিয়ে লিখেন যে, নতুন নাটকের তালিকা। তাহলে আপনি শুধুমাত্র নতুন নতুন নাটকের তালিকা দেখতে পারবেন।

আর এক্ষেত্রে একটি সার্চ ইঞ্জিন এর রেংকিং অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

কেননা একটি সার্চ ইঞ্জিন বিশেষ ভাবে বিবেচনা করে সেইসব ওয়েব পেজ গুলো কে সার্চ রেজাল্টের টপে দেখাবে। যারা উক্ত সার্চ ইঞ্জিন এর কাছে বিশ্বস্ত এবং যে সকল ওয়েব পেজগুলো কোন ধরনের ভুল তথ্য প্রদান করে না।

আর যদি আপনার এমন একটি ওয়েবপেজ থাকে। তাহলে খুব সহজেই আপনি আপনার সেই ওয়েব পেজকে।

যে কোনো ধরনের সার্চ ইঞ্জিন এর মধ্যে রেংকিং এ নিয়ে আসতে পারবেন।

সার্চ ইঞ্জিন এর প্রকার – (Types of search engine)

এতক্ষণের আলোচনা থেকে আমরা জানতে পারলাম যে, সার্চ ইঞ্জিন কি। এবং সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে।

তো এই বিষয় গুলো সম্পর্কে জানার পাশাপাশি এবার আপনাকে সার্চ ইঞ্জিন রিলেটেড আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় জানতে হবে।

সেটি হলো, বর্তমান সময়ে আপনি বিভিন্ন ধরনের সার্চ ইঞ্জিন দেখতে পারবেন। তাই সার্চ ইঞ্জিন এর প্রকারভেদ সম্পর্কে আপনার জেনে নেওয়াটা অতি প্রয়োজনীয়।

আর বর্তমান সময়ে আপনি মোট চার (০৪‌) ধরনের সার্চ ইঞ্জিন দেখতে পারবেন। যেমনঃ

Crawler based search engine

বর্তমান বিশ্বে আমরা যে সকল জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন দেখতে পাই। সেই সার্চ ইঞ্জিন গুলোর মধ্যে অধিকাংশই Crawler based search engine.

কেননা এই ধরনের সার্চ ইঞ্জিন গুলোর মধ্যে যে সকল অটোমেটিক বট বা স্পাইডার রয়েছে। সে গুলো প্রতিনিয়ত ইন্টারনেট এর মধ্যে আপডেট তথ্য গুলো খোঁজাখুঁজি করে।

আর যদি ওয়েব পেজের মধ্যে কোন ধরনের নতুন আপডেট তথ্য থাকে। তাহলে এই ধরনের সার্চ ইঞ্জিনিয়ার এর মধ্যে থাকা স্পাইডার বা বট গুলো।

এই তথ্য গুলো সংগ্রহ করে রাখে এবং নিজের কাছে জমা করে রেখে দেয়। এবং পরবর্তী সময়ে সেই আপডেট ডেটা গুলো কে ইনডেক্স করে।

এবং সবশেষে মানুষ যখন সেই আপডেট ডেটা গুলো সম্পর্কে জানতে চায়।

তখন এই ধরনের সার্চ ইঞ্জিন গুলো তাদের নিজের কাছে স্টোর থাকা ডাটা গুলো রেংকিং এর মাধ্যমে সার্চ রেজাল্টে শো করে।

আর আমরা এখন যে সকল সার্চ ইঞ্জিন গুলো ব্যবহার করি। তার অধিকাংশ সার্চ ইঞ্জিন এই Crawler based search engine এর নিয়ম অনুযায়ী কাজ করে থাকে। যেমন,

  1. Yahoo,
  2. Google,
  3. Bing,
  4. Ask,

তো উপরে আপনি যে সকল সার্চ ইঞ্জিন এর নাম দেখতে পাচ্ছেন। সেই সকল সার্চ ইঞ্জিন গুলো মূলত Crawler based search engine এর আওতায় পড়ে।

তবে এগুলো ছাড়াও আপনি আরো তিন ধরনের সার্চ ইঞ্জিন দেখতে পারবেন। যে সার্চ ইঞ্জিন গুলো সম্পর্কে নিচে ধাপে ধাপে আলোচনা করা হয়েছে।

Web directories search engine

এবার আপনাকে একটি ভিন্নধর্মী সার্চ ইঞ্জিনের সাথে পরিচয় করিয়ে দিব। আর সেই সার্চ ইঞ্জিন এর নাম হলো, Web directories search engine.

আমরা গুগল কিংবা অন্যান্য সার্চ ইঞ্জিন গুলো তে যে কাজের প্রক্রিয়া দেখতে পাই। তার থেকে ভিন্ন প্রক্রিয়া কাজ করে থাকে এই ধরনের ওয়েব ডিরেক্টরি সার্চ ইঞ্জিন গুলো।

কেননা এই ধরনের সার্চ ইঞ্জিন গুলোতে কোন ধরনের অটোমেটিক বট বা স্পাইডার থাকে না। বরং যখন এই ধরনের ওয়েব ডিরেক্টরি ওয়েব পেজ গুলো তৈরি করা হয়।

তখন এই ধরনের ওয়েব পেজের মালিক নিজে থেকেই তার ওয়েব পেজ কে ডিরেক্টরির মধ্যে সাবমিট করে দেয়। আর যখন এই ধরনের ওয়েব পেজগুলো জমা দেওয়া হয়।

তখন উক্ত ওয়েব পেজ গুলো কে ম্যানুয়ালি রিভিউ করা হয়।

এর মধ্যে যে সকল ওয়েব গুলোত মানসম্মত। সেই ওয়েব পেজ গুলো কে ডিরেক্টরি তে অ্যাড করে দেওয়া হয়। এবং যে ওয়েব পেজ গুলো কোয়ালিটি সম্পন্ন নয়।

সেই ওয়েব পেজ গুলো রিজেক্ট করা হয়। এছাড়াও এই ধরনের ওয়েব ডিরেক্টরি সার্চ ইঞ্জিন গুলো তে এক ধরনের সার্চ বক্স থাকে।

যেখানে আপনি আপনার কাঙ্ক্ষিত বিষয় টি টাইপ করার মাধ্যমে বিস্তারিত জেনে নিতে পারবেন। আর এই ধরনের জনপ্রিয় ওয়েব ডিরেক্টরী সার্চ ইঞ্জিন এর তালিকা নিচে দেওয়া হলঃ

  1. DMOZ,
  2. Yahoo Directory,
  3. 9sites,
  4. Blogarama,
  5. A1webdirectory,

উপরে আপনি বেশ কিছু সার্চ ইঞ্জিন এর তালিকা দেখতে পাচ্ছেন। মূলত এই ধরনের সার্চ ইঞ্জিন গুলো কে বলা হয়ে থাকে Web directories search engine.

যার মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন ধরনের অজানা তথ্য গুলো জেনে নিতে পারবেন।

Hybrid search engines

এবার আমি আপনাকে হাইব্রিড সার্চ ইঞ্জিন এর সাথে পরিচয় করিয়ে দিব। মূলত এই ধরনের সার্চ ইঞ্জিন গুলো ইন্টারনেট এর মধ্যে থাকা যে কোনো ধরনের ডাটা গুলো কে ক্রল করে।

এবং এর পরবর্তী সময়ে এই ধরনের ক্রোলার বিভিন্ন ডেটা গুলো কে সংগ্রহ করার পরে। অটোমেটিক ভাবে ইনডেক্সিং করে এবং তারপরে যখন উক্ত বিষয়টি সম্পর্কে সার্চ করা হয়।

তখন সেই বিষয়ে রিলেটেড যে সকল ডেটা তার কাছে ইন্ডেক্স করা থাকে। সে গুলো পর্যায়ক্রমে র‍্যাংকিং এর মাধ্যমে সার্চ রেজাল্টে শো করে।

আর আমাদের সবার পরিচিত গুগোল এবং ইয়াহু সার্চ ইঞ্জিন হলো এই ধরনের হাইব্রিড সার্চ ইঞ্জিন এর আওতাভুক্ত।

Meta search engines

আজকের আলোচিত সর্বশেষ সার্চ ইঞ্জিন এর নাম হল, Meta search engines. এই ধরনের সার্চ ইঞ্জিন গুলোর বিশেষ একটি বৈশিষ্ট্য রয়েছে।

আর সেই বৈশিষ্ট্য হলো, এই সার্চ ইঞ্জিন গুলো ভিন্ন ভিন্ন ধরনের ডিরেক্টোরি ওয়েব পেজ গুলো থেকে ডেটা সংগ্রহ করে।

এবং সেই সংগ্রহ করা ডেটা বা ইনফরমেশন গুলো পরবর্তী সময়ে সার্চ রেজাল্টে শো করে।

অর্থাৎ আমরা যখন এই ধরনের মেটা সার্চ ইঞ্জিন এর মধ্যে কোন কিছু লিখে সার্চ করব।

তার পরবর্তী সময়ে এই ধরনের মেটা সার্চ ইঞ্জিন পুনরায় অন্য আরেক সার্চ ইঞ্জিন গুলো তে গিয়ে সার্চ করে। এবং তারপর সে যে ডেটা গুলো সংগ্রহ করে।

সে গুলো রাঙ্কিংয়ের উপর ভিত্তি করে সার্চ রেজাল্টের শো করে। আর এই ধরনের বিশেষ মেটা সার্চ ইঞ্জিন এর উদাহরণ হিসেবে Dogpile, Metacrawler ধরা হয়ে থাকে।

বিশ্বের সেরা এবং জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন কোন গুলো ?

আমরা উপরের আলোচনা তে জানতে পেরেছি, সার্চ ইঞ্জিন কাকে বলে। এর পাশাপাশি আমি আপনাকে বিভিন্ন ধরনের সার্চ ইঞ্জিন এর সাথে পরিচয় করিয়ে দিয়েছি।

তো এবার আমি আপনাকে বিশ্বের সেরা এবং বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় কিছু সার্চ ইঞ্জিন এর নাম বলবো। যে গুলো তে আপনি আপনার অজানা বিষয় গুলো সার্চ করে।

তাৎক্ষণিক ভাবে সঠিক তথ্য জেনে নিতে পারবেন। আর এই ধরনের জনপ্রিয় কিছু সার্চ ইঞ্জিন হলোঃ সার্চ ইঞ্জিন এর উদাহরণ

  1. Google,
  2. Bing,
  3. Yahoo,
  4. Baidu,
  5. Ask,
  6. Yandex,
  7. Aol,
  8. Duckduckgo,
  9. Altavista,
  10. Dogpile,

তো উপর আপনি বেশ কিছু সার্চ ইঞ্জিন এর নাম দেখতে পাচ্ছেন। যদিও বা এ গুলোর বাইরে আরও অনেক ধরনের সার্চ ইঞ্জিন রয়েছে।

তবে আমি চেষ্টা করেছি, বর্তমান সময়ে বিশ্বের জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন গুলোর নাম উপরে উল্লেখ করার।

সার্চ ইঞ্জিন নিয়ে আমাদের শেষ কথা

প্রিয় পাঠক, বর্তমান সময়ে আমরা যদি কোন কিছু জানতে চাই। তাহলে তাৎক্ষণিক ভাবে বিভিন্ন ধরনের সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহার করি।

কিন্তু আমরা অনেকেই জানিনা যে, এই সার্চ ইঞ্জিন কি এবং এই সার্চ ইঞ্জিন গুলো কিভাবে কাজ করে? এর পাশাপাশি বর্তমান বিশ্বে মোট কত ধরনের সার্চ ইঞ্জিন পাওয়া যায়।

সে সম্পর্কে আমরা অনেকেই জানিনা। তো সে জন্য আজকের আলোচনায় আমি আপনাকে এই বিষয় গুলো সম্পর্কে সঠিক ধারণা দিয়েছি।

তো আপনি যদি টেকনোলজি রিলেটেড এই ধরনের অজানা বিষয় গুলো খুব সহজ ভাষায় জেনে নিতে চান।

তাহলে নিয়মিত আমাদের ওয়েবসাইটে পাবলিশ করা আর্টিকেল গুলো তে নজর রাখবেন।

এর পাশাপাশি আপনি কোন ধরনের বিষয় গুলো সম্পর্কে জানতে চান। তা কমেন্ট করে জানিয়ে দিবেন।

ধন্যবাদ! এতক্ষণ ধরে আমাদের সাথে থাকার জন্য। আজ আর নয়, দেখা হবে অন্য কোনো আর্টিকেলে। সে পর্যন্ত সুস্থ থাকুন, ভালো থাকুন।

2 thoughts on “গুগল সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে – (How Google Works)”

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap