গুগল এডসেন্স এর জন্য হাই সিপিসি কিওয়ার্ড তালিকা

হাই সিপিসি কিওয়ার্ড :  যদি আপনার কোনো এডেসন্স বেস ওয়েবসাইট থাকে। তাহলে আপনার হাই সিপিসি (Cpc) এবং লো সিপিসি কিওয়ার্ড সম্পর্কে জানা অত্যন্ত জরুরি। কেননা, আপনি মাস শেষে গুগল এডসেন্স থেকে কত টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

তা সম্পূর্ণ নির্ভর করবে আসলে আপনি কোন ধরনের সিপিসি কিওয়ার্ড নিয়ে কাজ করছেন।

গুগল এডসেন্স এর জন্য হাই সিপিসি কিওয়ার্ড
হাই সিপিসি কিওয়ার্ড তালিকা

অনেক সময় লক্ষ্য করলে দেখতে পারবেন। কিছু ওয়েবসাইট একই  সময় থেকে কাজ শুরু করার স্বত্বেও কোনো ওয়েবসাইটের ইনকাম অনেক বেশি হয়। আবার কোনো ওয়েবসাইট এর ইনকাম তুলনামূলক কম হয়।

এই ইনকাম তারতম্যের মূল কারন হলো সিপিসি। অর্থ্যাৎ, যে ওয়েবসাইটে High Cpc কিওয়ার্ড নিয়ে কাজ করা হবে। সেই ওয়েবসাইটের ইনকাম বেশি হবে। আর যে ওয়েবসাইটে Low Cpc কিওয়ার্ড নিয়ে কাজ করা হবে। সেই সাইটের ইনকাম তুলনামূলক কম হবে।

তাই আপনিও যেন হাই সিপিসি কিওয়ার্ড নিয়ে বেশি করে ইনকাম করতে পারেন। মূলত সেই কারনে আজকের আর্টিকেলটি লেখা হয়েছে।

তো যদি আপনার মূল ফোকাস গুগল এডসেন্স হয়। এবং আপনি এই Adsense থেকে অন্যদের তুলনায় বেশি পরিমানে ইনকাম করতে চান। তাহলে আজকের এই আর্টিকেলটি আপনার জন্য অনেক হেল্পফুল হবে।

[💡PRO TIPS: গুগল এডসেন্স কি এবং কিভাবে আপনি গুগল এডসেন্স থেকে ইনকাম করবেন। তা নিয়ে অলরেডি আমার ওয়েবসাইটে অনেক গুলো পোষ্ট আছে। যদি আপনিও গুগল এডসেন্স থেকে ইনকাম করতে চান। তাহলে বাপ পাশের নিল লিখাতে ক্লিক করে বিস্তারিত জেনে নিন]

সিপিসি কি (CPC মানে কি)

তো ইনকাম সম্পর্কে আমরা একটু পরে আলোচনা করবো। তবে সবার আগে আপনাকে জানতে হবে, এই সিপিসি আসলে কাকে বলে।

যখন নির্দিষ্ট কোনো কিওয়ার্ড এর উপর নির্ভর করে গুগল তার পাবলিশারদের সাথে যে পরিমান রেভিনিউ শেয়ার করে। সেই রেভিনিউ এর পরিমানকে বলা হয়, সিপিসি।

বিষয়টি বুঝেন নাই, তাইনা? ওকে তাহলে আরেকটু ক্লিয়ার করে বলি।

CPC এর পূর্নরুপ হলো, Cost Per Click. অর্থ্যাৎ, প্রতি একটা সিঙ্গেল ক্লিক থেকে আপনি যে পরিমান ইনকাম করতে পারবেন। মূলত তাকেই বলা হয়, CPC.

আপনার জন্য আরো লেখা…

দেখুন, আপনি যখন কোনো ওয়েবসাইটে যাবেন। তখন কিছু ওয়েবসাইটে বিভিন্ন ধরনের বিজ্ঞাপন চোখে পড়বে। তো এই বিজ্ঞাপন (Ad) গুলো মূলত গুগল প্রচার করে থাকে।

তো কোনো ভিজিটর যখন এই বিজ্ঞাপন গুলোতে ক্লিক করবে। তখন সেই ওয়েবসাইটের মালিককে গুগল কিছু পরিমান অর্থ প্রদান করবে। তবে এই অর্থের পরিমানটা কিন্তুু কিওয়ার্ড ভেদে ভিন্ন হয়ে থাকে।

যেমন, আপনি যদি গুগলে “Make money online “- লিখে সার্চ করার পর কোনো ওয়েবসাইটে গিয়ে একটি বিজ্ঞাপনে ক্লিক করবেন। তখন গুগল যদি 1$ দেয়।  অপরদিকে আপনি যদি ” অনলাইন ইনকাম”- লিখে সার্চ করার পর কোনো বিজ্ঞাপনে ক্লিক করেন। তাহলে কিন্তুু গুগল 0.50$ দিবে।

[💡NOTE: উল্লেখিত সিপিসি এর পরিমান শুধুমাএ বোঝানোর উদ্দেশ্যে লেখা হয়েছে। কেউ এই উদাহরনকে সত্যি মনে করবেন না]

তো এই যে কিওয়ার্ডের ভিন্নতার কারনে আপনি ইনকামের যে ভিন্নতা লক্ষ্য করতে পাচ্ছেন। মূলত তাকেই বলা হয়, কিওয়ার্ড বেস সিপিসি। এবং আপনি যে ইনকামের যে পরিমান দেখতে পাচ্ছেন। তাকে বলা হয় সিপিস। 

হাই সিপিসি কিওয়ার্ড কি?

আশা করি, উপরের আলোচনা থেকে “সিপিসি কি” – সে সম্পর্কে একটা ক্লিয়ার ধারনা পেয়ে গেছেন। তো এবার আপনাকে হাই সিপিসি কিওয়ার্ড এবং লো সিপিসি কিওয়ার্ড এর মধ্যে যে পার্থক্য আছে। আপনাকে সেই পার্থক্য সম্পর্কে জানতে হবে।

অর্থ্যাৎ, কোনো কিওয়ার্ড গুলোকে হাই সিপিসি বলা হয় এবং কোন কিওয়ার্ড গুলোকে লো সিপিসি বলা হয়। সে সম্পর্কে এবার বিস্তারিত আলোচনা করা হবে।

তো যে কিওয়ার্ড গুলোকে নিয়ে কাজ করলে বেশি পরিমানে ইনকাম করা যায় । তাকে বলা হয়, High Cpc Keyword. অপরদিকে যে কিওয়ার্ড গুলোকে নিয়ে কাজ করলে কম পরিমানে ইনকাম করা যায়। তাকে বলা হয়, Low Cpc Keyword. 

যেমন আমি উপরে একটা উদাহরন দিয়েছি যে, যখন আপনি গুগলে গিয়ে “Make Money Online”- লিখে সার্চ করার পর কোনো ওয়েবসাইটে যাবেন ৷ এবং সেই ওয়েবসাইট এর কোনো বিজ্ঞাপনে যখন আপনি ক্লিক করবেন।

তখন সেই ওয়েবসাইটের মালিক যে পরিমান ইনকাম করতে পারবে। অপরদিকে আপনি যদি ” Video editing apps”- লিখে গুগলে সার্চ করার পর কোনো ওয়েবসাইটে যান। এবং আপনি যদি কোনো বিজ্ঞাপনে ক্লিক করেন।

তাহলে কিন্তুু ঐ ওয়েবসাইটের মালিকের ইনকামের পরিমান একটু হলেও কম হবে।

তো কিওয়ার্ড অনুযায়ী ইনকামের কিছুটা পার্থক্য রয়েছে। এবং যেসব Keyword এ বেশি ইনকাম করা যায়। তাকে বলা হয়, হাই সিপিসি কিওয়ার্ড। 

সিপিসি হাই এবং লো হওয়ার কারন কি?

আর একটা বিষয় আপনাকে ক্লিয়ার হতে হবে যে, সিপিসি High এবং Low হওয়ার কারন কি। গুগল কেন কিছু কিওয়ার্ডে বেশি ডলার দেয় আবার কেন কিছু কিওয়ার্ডে কম ডলার দেয়?

দেখুন, কোন Keyword এ বেশি ডলার দেয়া হবে।  এবং কোন কিওয়ার্ডে কম ডলার দেয়া হবে। সেটা কিন্তুু গুগল নিজেও নির্ধারন করে দেয় না। ডলার কম বেশি হওয়ার বিষয়টি নির্ধারন করে দেয় বিজ্ঞাপন দাতারা।

এই বিজ্ঞাপনদাতা এবং গুগলের মধ্যে যে একপ্রকার সম্পর্ক আছে। সে সম্পর্কে জানতে হলে আপনাকে গুগল এডসেন্স নিয়ে লেখা আর্টিকেলটি পড়তে হবে।

তবে আমি ছোট্ট করে বলে নেই যাতে আপনার পরবর্তী আলোচনা গুলো বুঝতে সুবিধা হয়।

যেমন, আমরা উদাহরন হিসেবে Bkash এর কথা ধরে নেই। তো এই Bkash কর্তৃপক্ষ গুগলকে মোটা অংকের টাকা দিলো এবং তারা বললো যে, বাংলাদেশের মানুষ যেন Bkash app কে ডাউনলোড করে। সেজন্য বিজ্ঞাপন দেখাতে হবে।

এবং যেসব পাবলিশার এর মাধ্যমে মানুষ BKash App কে ডাউনলোড করাবে। সেই সব পাবলিশারকে প্রতি ডাউনলোড এর জন্য 0.50$ করে দিবে ৷

তো এটা শুধুমাএ বিকাশের জন্য নেয় বরং প্রত্যেকটা এড নেটওয়ার্কের সাথে বিজ্ঞাপন দাতাদের এমন ডিল হয়ে থাকে। এবং এই ডিলের উপরেই নির্ভর করে যে কোন Keyword এর সিপিসি হাই হবে এবং কোন Keyword এর সিপিসি লো হবে।

এছাড়াও এই বিজ্ঞাপন দাতারা কোন কিওয়ার্ড গুলোকে হাই সিপিসি প্রদান করবে। সেটা নির্ধারন করার জন্য আরও বেশ কিছু বিষয় জুড়ে দেয়। এবার সেই বিষয় গুলো সম্পর্কে ছোট করে আলোচনা করবো। 

High CPC Depand On Location

গুগল এডসেন্সের বিজ্ঞাপন থেকে বেশি ইনকাম করার জন্য লোকেশন খুব গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা পালন করে থাকে। যদি আপনি এডসেন্স ব্যবহার করে থাকেন, তাহলে আপনাকে এই বিষয়টির দিকে যথেষ্ট ফোকাস রাখতে হবে।

তো যখন আপনি নতুন একটি ওয়েবসাইট তৈরি করবেন। তখন শুরুতেই আপনাকে ঠিক করতে হবে যে, আসলে আপনি কোন দেশের মানুষকে টার্গেট করে ওয়েবসাইট তৈরি করবেন।

এখন যদি আপনার তৈরি করা ওয়েবসাইটে বাংলাদেশের ভিজিটরদের টার্গেট করেন। তাহলে কিন্তুু বাংলাদেশি ভিজিটর ছাড়া আর অন্য দেশের ভিজিটর আসবে না। কারন আপনার কন্টেন্ট এর ভাষা হবে বাংলা ভাষায়।

অপরদিকে আপনি যদি বিশ্বের উন্নত দেশের ভিজিটরকে টার্গেট করে ওয়েবসাইট তৈরি করেন। তাহলে কিন্তুু ভিন্ন ভিন্ন দেশ থেকে আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর আসবে। অর্থ্যাৎ, আপনি যদি US বা UK এর ভিজিটরকে টার্গেট করেন।

তাহলে কিন্তুু সেই দেশের ভিজিটররা আপনার ওয়েবসাইটে আসবে।

আপনি আরো পড়ুন…

তো যখন আপনি বাংলাদেশের ভিজিটরকে টার্গেট করে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করবেন৷ সেক্ষেএে কিন্তুু আপনার ইনকাম তুলনামূলক কম হবে যতোটা ইনকাম আপনি US বা UK এর ভিজিটর থেকে করতে পারবেন।

এর প্রধান কারন হলো, Cpc Depand On Location. অর্থ্যাৎ, আপনার ওয়েবসাইটে US থেকে আসা একজন ভিজিটর থেকে যদি 1$ ইনকাম করতে পারেন। তাহলে সেই 1$ ইনকাম করতে হলে কমপক্ষে ১০ জন বাংলাদেশি ভিজিটর এর প্রয়োজন হবে।

অর্থ্যাৎ, লোকেশন অনুযায়ী আমেরিকা থেকে আসা একজন ভিজিটর এর এক ক্লিকে যদি ১ ডলার ইনকাম হয়। তাহলে বাংলাদেশের কমপক্ষে ১০-২০ টি ক্লিক করতে হবে সেই ১ ডলার ইনকাম করার জন্য।

এবং এই ক্লিকের উপর ডিপেন্ড করে আমরা যদি হিসেব করি। তাহলে আমাদের দেশি ভাইদের সিপিসি রেট হবে 0.05$ – 0.10$. 

High CPC Depand On Language

তো স্থান এবং ভাষার বিষয়টি কিছুটা একই রকম। তবে ভাষাভেদেও কিন্তুু সিপিসি এর তারতম্যতা লক্ষ্য করা যায়। তো আমরা যখন একটি ওয়েবসাইট তৈরি করি।

তখন আমরা শুরুতেই নির্ধারন করে নেই যে আসলে আপনি কোন ভাষাতে ওয়েবসাইট তৈরি করবেন। হয়তবা কেউ বাংলা ভাষা নির্ধারন করে, আবার কেউ ইংরেজি ভাষাকে, আবার অনেকেই আছেন যারা হিন্দি ভাষাকে নির্ধারন করে থাকে ৷

কিন্তুু এখানে একটা বিষয় আপনাকে ভালোভাবে বুঝতে হবে। মনে করুন, আপনি বাংলা ভাষাতে একটা ওয়েবসাইট তৈরি করলেন। এখন আপনার ওয়েবসাইটে কোন দেশ থেকে ভিজিটর আসবে?

যেহুতু বাংলা ভাষা শুধুমাএ বাঙ্গালিরা ভালো বোঝে। সেহুতু আপনার ওয়েবসাইটে শুধুমাএ বাংলাদেশি ভিজিটর আসবে। এর পাশাপাশি আপনি কিছু পরিমান ইন্ডিয়ান ভিজিটরকেও নিয়ে আসতে পারবেন।

অপরদিকে আপনি যদি হিন্দি ভাষায় একটি ওয়েবসাইট তৈরি করেন। তাহলে কিন্তুু ইন্ডিয়া এবং পাকিস্তান থেকে ভিজিটর আসবে ৷ কারন এই দুটো দেশ ছাড়া হিন্দি ভাষা কেউ বোঝেনা।

তবে আপনি যদি ইংরেজিতে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করেন। তাহলে কিন্তুু আপনি পৃথিবীর সব দেশ থেকেই ভিজিটর নিয়ে আসতে পারবেন। কারন ইংরেজি ভাষা সব দেশের মানুষদের কাছে একটু হলেও বোধগম্য হয়। 

তো এবার আমরা সিপিসি এর প্রসঙ্গে আসবো। যদি আপনার ওয়েবসাইটের ভাষা বাংলা হবে। তখন আপনি লো সিপিসি নিয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হবে।

আবার আপনি যদি ইংরেজি ভাষাতে ওয়েবসাইট তৈরি করেন। তাহলে কিন্তুু বাংলাদেশ ছাড়াও, আমেরিকা, ইউরোপ, কানাডা থেকেও ভিজিটর নিয়ে আসতে পারবেন। এর পাশাপাশি আপনি হাই সিপিসি এর স্বাদ গ্রহন করতে পারবেন। 

High CPC Depend On Niche

Location এবং Language এর পরে আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো, নিস। আর এই নিসের জন্যও কিন্তুু কিছু কিওয়ার্ডে হাই সিপিসি পাওয়া যায় এবং কিছু কিওয়ার্ডে লো সিপিসি পাওয়া যায়।

[💡PRO TIPS:নিস কি এবং কিভাবে নিস বাছাই করতে হয়। তা নিয়ে আমার ওয়েবসাইটে বিস্তারিত আলোচনা করা আছে। নিস সম্পর্কে জানতে চাইলে উপরের নিল লেখাতে ক্লিক করে পড়ে নিন ]

সবচেয়ে বড় কথা হলো, আমরা একটু আগে জেনেছি যে, লোকেশন এবং ভাষা ভেদে সিপিসি কম বেশি হয়ে থাকে। ঠিক তেমনি নিসের উপর নির্ভর করেও কিন্তুু এই পার্থক্য লক্ষ্য করা যায়।

যার অর্থ হলো, কিছু কিছু নিস আছে। আপনি যদি সেই নিস গুলোকে নিয়ে কাজ করেন। তাহলে আপনি হাই সিপিসি পাবেন। এবং আপনার ইনকামও দ্বিগুন হারে বেড়ে যাবে।

উদাহরন হিসেবে বলা যায়, মনে করুন আপনি একটি টেকনোলজি নিসে ওয়েবসাইট তৈরি করলেন। এখন এই নিসের যে কিওয়ার্ড গুলো আছে। আপনি যদি সেই কিওযার্ড গুলো নিয়ে কাজ করেন।

তাহলে একটি হেলথ নিসের কিওয়ার্ডের তুলনায় সিপিসির অনেক পার্থক্য লক্ষ্য করতে পারবেন।

[💡NOTE: কোন নিসে কাজ করলে সবচেয়ে বেশি সিপিসি পাওয়া সম্ভব ৷ সে বিষয়ে নিচে একটি লিষ্ট দেওয়া আছে। আপনি যদি গুগল এডসেন্স থেকে বেশি পরিমানে ইনকাম করতে চান। তাহলে আপনি সেই নিস গুলো নিয়ে কাজ করতে পারবেন]

কেন হাই সিপিসি কিওয়ার্ড নিবেন?

যদি আপনি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে গুগল এডসেন্স থেকে ইনকাম করতে চান ৷ তাহলে অবশ্যই আপনাকে হাই সিপিসি কিওয়ার্ড নিয়ে কাজ করতে হবে। কেননা, কম পরিশ্রমে বেশি ইনকাম হোক। এটা তো আমরা সবাই চাই, তাইনা?

দেখুন, আপনি যদি লো সিপিসি কিওয়ার্ডের সাথে High Cpc keyword এর কম্পেয়ার করেন। তাহলে লক্ষ্যে করবেন, দুটোতেই কিন্তুু আপনাকে সমান পরিশ্রম করতে হবে।

লো সিপিসি কিওয়ার্ড নিয়ে কাজ করলেও আপনাকে সমানভাবে কন্টেন্ট পাবলিশ করতে হবে। সেই কন্টেন্টকে এসইও অপটিমাইজ করতে হবে। তাহলে এই শ্রম গুলো যদি আপনি হাই সিপিসি কিওয়ার্ডের পেছনে ব্যয় করেন।

তাহলে কিন্তুু আপনার পরিশ্রমের বিনিময়ে বেশি বেনিফিট পাবেন। তাই, লক্ষ্য সর্বদাই বড় জিনিসের প্রতি হওয়া উচিত। এতে করে আপনার সফলতার সিঁড়ির কয়েকধাপ এগিয়ে যেতে পারবেন। 

কিভাবে হাই সিপিসি কিওয়ার্ড খুজে পাবেন?

যাক, অবশেষে আমরা মূল টপিকে ফিরে এসেছি। আমরা এতোক্ষ ধরে জানলাম, সিপিসি কি এবং কেন আপনার হাই সিপিসি কিওয়ার্ড নিয়ে কাজ করতে হবে।

তো এবার আমরা জানবো, কিভাবে আপনি আপনার ওয়েবসাইট এর জন্য হাই সিপিসি কিওয়ার্ড খুজে বের করবেন। দেখুন, এই কাজটি সফলভাবে করার জন্য আপনি ২ (দুই) টি উপায় অবলম্বন করতে পারবেন। 

  1. টুলসের মাধ্যমে এবং 
  2. Google adword এর মাধ্যমে 

তো আমি যতো আপনাদের টুলসের সাথে পরিচিতি প্রদান করি। তাহলে সবগুলো টুলস সম্পর্কে বলা সম্ভব না। কারন বর্তমান সময়ে অনলাইনে এতো বেশি টুলসের সংখ্যা বেড়ে গেছে। তা হিসেব করে কুলাতে পারবেন না।

তো যদি আপনি একজন নিউবি হয়ে থাকেন বা নতুন হয়ে থাকেন। সেক্ষেএে আমি আপনাকে Free Tools ব্যবহার করার জন্য রেকমেন্ড করবো। আর বর্তমানে আমার দৃষ্টিকোন থেকে ফ্রি টুলসের মধ্যে সবচেয়ে ভালো টুলস হলো, SEMrush.

আর দ্বিতীয় উপায়ের নাম হলো, Google Adwords. হুমমম এটি হলো সবচেয়ে উপযোগী এবং বিনামূল্যে যেকোনো কিওয়ার্ডের সিসিপি বের করার মাধ্যম। যা গুগলের নিজস্ব একটি প্রোডাক্ট। আপনি গুগল এডওয়ার্ডের মাধ্যমে খুব সহজেই যেকোনো কিওয়ার্ডের সিপিসি সম্পর্কে জানতে পারবেন।

আর যদি আপনার ব্যয় করার মতো সামর্থ্য থাকে। তাহলে অনলাইনে এমন অনেক পেইড টুলস আছে। আপনি যে টুলসের সাহায্য এই কাজটি করতে পারবেন। যেমন, Ahref.

হাই সিপিসি কিওয়ার্ড এর লিস্ট

তো যদি আপনি আমার মতো অলস হয়ে থাকেন। তাহলে এবার আপনার জন্য একটু বোনাস টিপ রয়েছে। আপনি যদি অনলাইনে খোজাখুজি করে কিওয়ার্ড বের করতে না চান ৷ তাহলে আপনাকে আমি একটা লিষ্ট দিচ্ছি।

যেখানে হাই সিপিসি কিওয়ার্ড গুলোকে সাজিয়ে রাখা হয়েছে। আপনি শুধু এই কিওয়ার্ড গুলোকে দেখে নিবেন। এবং যেগুলো আপনার কাছে ভালো মনে হবে৷ সেই কিওয়ার্ড গুলো নিয়ে কাজ শুরু করে দিতে পারবেন।

আপনার জন্য আরো আর্টিকেল…

মূল কারন হলো, আমরা এখনও অনুন্নত দেশ। আমরা এখনও ততোটুকু অনলাইন নির্ভর হতে পারিনি। যতোটা উন্নত দেশগুলো হয়েছে। তবে শুধমাএ একটা কারনেই আমাদের দেশের সিপিসি কম হয়?

না ভাই, আরও অনেক কারন আছে। সেটা নিয়ে অন্য কোনোদিন আলোচনা করবো। আজকে শুধু এটুকুই জেনে নিন যে, আমাদের বাংলাদেশের সিপিসি অনেক কম। 

আমাদের শেষকথা 

শেষকথা বলতে আর কিছুই নাই। যা বলার তা উপরের আলোচনাতে বলে দিয়েছি। এখন সিন্ধান্ত আপনাকে নিতে হবে। যদি আপনার বেশি ইনকাম করার ইচ্ছা থাকে। তাহলে হাই সিপিসি কিওয়ার্ড নিয়ে কাজ শুরু করতে পারেন।

 আর কিছুই করতে না পারলে বাংলা আইটি ব্লগের আর্টিকেল গুলো পড়া শুরু করুন ৷  দেরি করে হলেও অনলাইন ইনকাম নিয়ে আরো অনেক কিছু জানতে পারবেন।

সবশেষে একটা কথা বলবো, বাংলা আইটি ব্লগের সাথে থাকুন। ধন্যবাদ 

আমি নিলয় হাসান-এই ব্লগের প্রতিষ্ঠাতা পাশাপাশি লেখালেখির কাজটাও করি। অনলাইনে প্রযুক্তির বিষয় নিয়ে যা জানি তা মানুষের মাঝে শেয়ার করার ইচ্ছায় এ ব্লগ টি তৈরি করা।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: কপি করা যাবে না !!
Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap