গুগল ট্রান্সলেট : বাংলা থেকে ইংরেজিতে অনুবাদ করুন সহজে

গুগল ট্রান্সলেট : হ্যালো বন্ধু আশা করি সবাই ভাল আছেন। বরাবরের মতো আজকে আপনার জন্য চমৎকার একটি আর্টিকেল নিয়ে হাজির হয়েছি।

কারণ আজকে আমি আলোচনা করব গুগল ট্রান্সলেট সম্পর্কে। এটি হলো গুগলের নিজস্ব একটি প্রোডাক্ট বা সার্ভিস।

গুগল ট্রান্সলেট : বাংলা থেকে ইংরেজিতে অনুবাদ
বাংলা থেকে ইংরেজিতে অনুবাদ

যার মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই পৃথিবীর একটি ভাষাকে অন্য আরেকটি ভাষায় রূপান্তর করতে পারবেন।

যেমন, আপনি কোন কিছু বাংলায় লিখবেন এবং সেই ভাষাকে আপনি (Bangla to English, Bangla To Hindi, Bangla To China) ইত্যাদি ভাষাতে ট্রান্সলেট করতে পারবেন।

আর সবচেয়ে অবাক করার মত বিষয় হলো, এত বড় একটা সার্ভিস আপনি একদম বিনামূল্যে ব্যবহার করতে পারবেন।

আপনি ট্রান্সলেট করার কাজটি অ্যাপসের মাধ্যমে করতে পারবেন আবার ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে খুব সহজেই এই ট্রান্সলেট করার কাজটি করতে পারবেন।

সত্যি বলতে বর্তমান সময়ে অনলাইনে এমন অনেক ধরনের ওয়েবসাইট বা সফটওয়্যার পাবেন, যেগুলোর মাধ্যমে ট্রান্সলেট করা সম্ভব।

কিন্তু এই সবগুলোর মধ্যে Google translate হলো অন্যতম।

কেননা অনলাইনে থাকা অন্যান্য ট্রান্সলেটর অ্যাপস বা ওয়েবসাইট গুলোর তুলনায় গুগল ট্রান্সলেট থেকে একবারে নির্ভুলভাবে যেকোনো দেশের ভাষায় ট্রান্সলেট করা সম্ভব।

আর আজকের আর্টিকেলে আমি গুগল ট্রান্সলেট নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব।

মূলত গুগল ট্রান্সলেট কি (What is Google Translate) এবং কিভাবে গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহার করা যায়, তার প্রত্যেকটা বিষয় নিয়ে আসতে স্টেপ বাই স্টেপ আলোচনা করবো।

For Example: google translate bengali to english, google translate english to bengali, google translate bangla,  বাংলা টু ইংরেজি ট্রান্সলেশন।

এছাড়াও গুগলে অনেকেই google bangla translate, Google translate bangla to english, google bangla translation, translate english to bangladesh সার্চ করে।

তাই আমি ভাবলাম যে এসকল ট্রান্সলেশন এর জন্য একটি ফুল আর্টিকেল তৈরি করলে অনেকের বুঝতে সুবিধা হবে।যার জন্য আজকের এই আর্টিকেলটি লেখা হয়েছে।

আপনার জন্য আরোও লেখা…

আর আপনার মতে যদি গুগল ট্রান্সলেট সম্পর্কে জানার আগ্রহ থাকে। তবে চেষ্টা করবেন আজকের পুরো লেখাটি মনোযোগ সহকারে পড়ার।

তাহলে আজকের পর থেকে এ নিয়ে আপনার মনে কোনো প্রকার google translate english into bengali প্রশ্নের সুযোগ থাকবে না। 

এমনকি bengali to english translation online google রিলেটেড সকল ট্রানসলেশন নিয়ে আপনার মনে কোন প্রকার প্রশ্নের আক্ষেপ সৃষ্টি হবে না।

গুগল ট্রান্সলেট (Google translate) কি ?

বর্তমান সময়ে অনলাইন প্লাটফর্মে গুগল হলো বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি কোম্পানি।

যে কোম্পানিটির অনেক অনেক ধরনের প্রোডাক্ট রয়েছে। ঠিক তেমনিভাবে Google Translate হলো গুগলের নিজস্ব একটি প্রোডাক্ট।

যার মাধ্যমে আপনার নিজস্ব ভাষা কে খুব সহজেই অন্য আরেকটি ভাষাতে ট্রান্সলেট করতে পারবেন।

এবং এই প্রোডাক্টটি আপনি একেবারে বিনামূল্যে ব্যবহার করতে পারবেন। সেজন্য আপনাকে বাড়তি কোন টাকা ব্যয় করার প্রয়োজন পড়বে না।

যা খুব ভালো একটা দিক।

যেমন ধরুন, আপনি ফেসবুক ব্যবহার করছেন। আমার সেই সময়ে কোন একজন ব্যক্তি অন্য কোন দেশ থেকে তাদের দেশের ভাষায় আপনাকে একটা ফেসবুকে মেসেজ দিলো।

এখন আপনি যদি সেই মেসেজের অর্থ না বুঝে থাকেন। তাহলে ইংরেজি থেকে বাংলা অনুবাদ অনলাইন থেকে উক্ত মেসেজটি কপি করবেন।

তার পর ইংরেজি থেকে বাংলা অনুবাদ গুগল ট্রান্সলেট এর মধ্যে পেস্ট (Paste) করে দিলেই আপনি সেই মেসেজটি বাংলায় ট্রান্সলেট করে নিতে পারবেন।

আর এটিই হলো গুগোল ট্রান্সলেট এর মূল কাজ।

কেন গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহার করবেন ?

একটা সময় ছিলো, যখন অন্য কোনো দেশের ভাষার একটি শব্দের অর্থ খুঁজতে আমাদের বড় বড় ডিকশনারি ঘাটতে হতো।

যা ছিল অনেক বেশি কষ্টকর এবং সময় সাপেক্ষ ব্যাপার। কিন্তু অবাক করার মত বিষয় হলো গুগল ট্রান্সলেট হলো এমন একটি প্ল্যাটফর্ম।

যেখানে আপনি মাত্র কয়েকটা ক্লিকের মাধ্যমে যে কোন দেশের যে কোন শব্দের অর্থ কে নিজের ভাষায় ট্রান্সলেট করে নিতে পারবেন।

এছাড়াও আমাদের মধ্যে এমন অনেক মানুষ আছেন যারা মূলত অন্যান্য দেশের ভাষা শিখতে চান। অতীতের দিন গুলো তে যদি কেউ অন্য কোন দেশের ভাষা শেখার আগ্রহ প্রকাশ করতো।

তাহলে সেই ব্যক্তিকে কোনো না কোনো ট্রেনিং কোর্সে গিয়ে ভর্তি হওয়ার প্রয়োজন পড়তো।

আর বেশ ভালো পরিমাণ টাকা ব্যয় করে উক্ত ট্রেনিং কোর্স থেকে অন্য দেশের ভাষা শিখতে হতো।

কিন্তু এই কাজটিকে তুলনামূলকভাবে অনেক সহজ করে দিয়েছে গুগল ট্রান্সলেট।

আবার মনে করুন যে আপনি চীন দেশে ঘুরতে গেছেন। আর চীন গেলেও কিন্তু আপনার চীনা ভাষা সম্পর্কে কোনো অভিজ্ঞতা নেই।

উক্ত সময়ে আপনি চীনের কোথাও ঘুরতে গেলে কিংবা হোটেলে খাবার সময় উক্ত হোটেলের কর্মরত ব্যক্তিদের কি বলবেন সেটা যদি বুঝে উঠতে না পারেন।

তবে আপনার বলা কথাগুলো গুগল ট্রান্সলেট এ লিখে দিবেন এবং কিছুক্ষণের মধ্যেই তা চীনা ভাষায় ট্রান্সলেট করে নিতে পারবেন।

তো আপনি যদি একান্তভাবেই প্রশ্ন করে থাকেন যে কেন আপনি গুগল ট্রান্সলেটর ব্যবহার করবেন।

তাহলে আমি বলব যে আপনি বিভিন্ন কারণে গুগল ট্রান্সলেটর ব্যবহার করতে পারবেন। যেমন, 

  • আপনার যখন কোন শব্দের অর্থ জানার প্রয়োজন পড়বে, 
  • যখন কোন অন্য দেশের ভাষা শেখার প্রয়োজন পড়বে 
  • কিংবা অন্য কোন দেশের ভাষা কে নিজের দেশের ভাষায় রুপান্তর করে বোঝার জন্য আপনার অবশ্যই গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহার করার দরকার পড়বে।

আর বর্তমানে যারা গুগল ট্রান্সলেট (Google Translate) ব্যবহার করে। তারা মূলত এই কয়টি কারণেই গুগল ট্রান্সলেট কে কাজে লাগিয়ে আসছে।

তাই আপনাকেও এইসব কাজে গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহার করতে হবে।

কিভাবে গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহার করবেন ? (How to use translator)

যদিও বা Google এর অন্যান্য প্রোডাক্ট এর মত এই প্রোডাক্ট এর অনেক বেশি উপকারিতা রয়েছে। তারপরও আপনি এই উপকারী প্রডাক্টিভ একেবারে বিনামূল্যে ব্যবহার করতে পারবেন।

কিন্তু কিভাবে এই প্রোডাক্ট ব্যবহার করতে হয়, আপনার যদি সে ধারনা না থাকে।

তাহলে কিন্তু গুগল ট্রান্সলেট আপনার কোন কাজেই আসবে না। তাই সবার আগে আপনাকে জেনে নিতে হবে যে কিভাবে গুগল ট্রান্সলেট কে ব্যবহার করতে হয়।

উপরের আলোচনা থেকে আপনি জানতে পারলেন যে গুগল ট্রান্সলেট কি এবং কেন আপনি গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহার করবেন।

আর ধারাবাহিকভাবে এবার আপনাকে জেনে নিতে হবে যে কীভাবে একজন মানুষ গুগল ট্রান্সলেট কে ব্যবহার করতে পারবে।

বলা বাহুল্য যে আপনি মোট তিন ভাগে এই সার্ভিসটি কে ব্যবহার করতে পারবেন। যেমনঃ

  1. অনলাইন ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে,
  2.  গুগল সার্চের মাধ্যমে
  3.  অ্যাপস এর মাধ্যমে

বর্তমান সময়ে যারা এই জনপ্রিয় সার্ভিসটি কে ব্যবহার করছে, তারা সবাই মূলত তিনটি মাধ্যমকে কাজে লাগিয়ে থাকে।

তো চলুন এবার জনপ্রিয় এই সার্ভিসটি ব্যবহার করার তিনটি মাধ্যম সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক।

০১| অনলাইন ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহার করার উপায় 

যদি আপনি অনলাইন ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে গুগল ট্রান্সলেট নামক জনপ্রিয় এই সার্ভিসটি ব্যবহার করতে চান।

তাহলে আপনাকে বেশ কিছু ধাপ অতিক্রম করতে হবে। এবার আমি সেই ধাপগুলোকে পর্যায়ক্রমে আলোচনা করবো।

আর আপনার কাজ হলো সেই ধাপগুলো কে মনোযোগ সহকারে অনুসরন করা ।

  1. সবার আগে আপনাকে আপনার হাতে থাকা মোবাইল, ল্যাপটপ অথবা কম্পিউটারের ব্রাউজার চালু করতে হবে।
  2. এরপর আপনাকে গুগল ট্রান্সলেট এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। আপনি চাইলে এখানে ক্লিক করেও সরাসরি অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে যেতে পারবেন।
  3. এরপর আপনি দুটি বক্স দেখতে পারবেন।
  4. প্রথম বক্সে আপনার নিজস্ব ভাষা কে সিলেক্ট করে নিতে হবে। এখানে আমি নিজস্ব ভাষা বলতে বুঝিয়েছি যে আপনি যে ভাষায় লিখে সেই ভাষাকে অন্য ভাষায় ট্রান্সলেট করতে চান উক্ত ভাষাটি প্রথম বক্সে সিলেক্ট করে নিতে হবে।
  5. যেমন ধরুন আমি বাংলা ভাষাকে অন্য ভাষায় রূপান্তর করতে চাচ্ছি, সেক্ষেত্রে আমাকে প্রথম বক্সে বাংলা ভাষা সিলেক্ট করে নিতে হবে।
  6. এর পরে আপনি তার ডান পাশে আরও একটি ফাঁকা বক্স দেখতে পারবেন। মূলত আপনি আপনার নিজস্ব ভাষাকে অন্য কোন দেশের ভাষায় ট্রান্সলেট করতে চান। সেই দেশটি এই ডান পাশের বক্সে সিলেক্ট করে নিতে হবে।
  7. যেমন ধরুন আমি বাংলা ভাষা থেকে ইংলিশ ভাষা ট্রান্সলেট করতে চাচ্ছি সেক্ষেত্রে প্রথম বক্সে যেহেতু আমি বাংলা ভাষা সিলেক্ট করেছি তাহলে দ্বিতীয় বক্সে আমাকে অবশ্যই অবশ্যই ইংরেজি ভাষা সিলেক্ট করে নিতে হবে।

তো এই ভাষা সিলেকশন করার পরে আপনি বাম পাশে যে বক্সটি দেখতে পারবেন। সেই বক্সে যা কিছু লিখবেন, তা আপনার ডান পাশের বক্সে সিলেক্টেড ভাষায় অটোমেটিক ট্রান্সলেট হয়ে যাবে।

আর এভাবেই আপনি অনলাইনে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে খুব সহজেই গুগলকে ব্যবহার করতে পারবেন।

 যেকোন দেশের ভাষা থেকে অন্য আরেকটি দেশের ভাষায় রূপান্তর করতে পারবেন।

০২| গুগল সার্চের মাধ্যমে গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহার করার উপায়

আপনি যদি চান যে কোন প্রকার ট্রান্সলেটর টুল ব্যবহার না করে সরাসরি গুগল সার্চ করে ট্রান্সলেটর ব্যবহার করবেন।

তবে আপনাকে বেশ কিছু ধাপ অতিক্রম করতে হবে।

এবং সেই ধাপগুলো সম্পর্কে আমি এবার পর্যায়ক্রমে আলোচনা করব। চলুন এবার তাহলে জেনে নেয়া যাক যে কিভাবে  গুগল সার্চের মাধ্যমে আপনি ট্রান্সলেটর ব্যবহার করবেন।

  1. সবার আগে আপনার মোবাইল অথবা কম্পিউটার থেকে গুগলে গিয়ে “Google Translate”- লিখে সার্চ করতে হবে।
  2. এরপর আপনি পুনরায় দুটি বক্স দেখতে পারবেন এবং প্রথম বক্সে ” Enter Text” লেখা থাকবে এবং দ্বিতীয় বক্সে লেখা থাকবে “Translation”.
  3. উপরের দিকে আমরা যেমন প্রথম বক্সে ভাষা সিলেক্ট করছিলাম। ঠিক একই ভাবে এবারও আপনাকে প্রথম বক্সে থাকা আপনার নিজস্ব ভাষাটি সিলেক্ট করে নিতে হবে। 
  4. এর পাশাপাশি আপনি আপনার নিজস্ব ভাষাকে যে ভাষায় ট্রান্সলেট করতে চান সেটি আপনাকে দ্বিতীয় বক্সে সিলেক্ট করতে হবে।
  5. যেমন ধরুন, আপনি বাংলা ভাষায় কোনো কিছু লিখে তা ইংরেজিতে ট্রান্সলেট করতে চাচ্ছেন। সেক্ষেত্রে আপনাকে প্রথম বক্সের বাংলা ভাষা সিলেক্ট করতে হবে এবং দ্বিতীয় বক্সে আপনাকে ইংরেজি ভাষা সিলেক্ট করে নিতে হবে।

তো এই দুটি কাজ সঠিক ভাবে করতে পারলেই আপনি প্রথম বক্সে যা কিছু লিখেন না কেন তার বক্সে অটোমেটিক ট্রান্সলেট হয়ে যাবে।

আপনি আরোও দেখতে পারেন…

আর এভাবেই আপনি খুব সহজেই গুগল সার্চের মাধ্যমে গুগল ট্রান্সলেট কে ব্যবহার করতে পারবেন।

০৩| অ্যাপস এর মাধ্যমে গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহার করার উপায়

যদি আপনার কাছে একটি অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস থাকে, তাহলে আপনি খুব সহজেই উক্ত ডিভাইসের মাধ্যমে গুগল সার্চ অথবা গুগলের ওয়েবসাইট বাদেও ইংরেজি থেকে বাংলা অনুবাদ এপপ্স

এর মাধ্যমে খুব সহজেই গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহার করতে পারবেন।

তবে সেক্ষেত্রে আপনাকে বেশ কিছু ধাপ অতিক্রম করতে হবে চলুন এবার সেই ধাপগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা যাক।

  1. সবার আগে আপনাকে যেতে হবে গুগল প্লে স্টোরে এবং সেখানে গিয়ে ” Google Translate “- লিখে সার্চ করতে হবে। এরপর প্রথমেই আপনি যে অ্যাপটি দেখতে পারবেন সেটি আপনার ফোনে ইন্সটল করে নিতে হবে।
  2. যখন আপনি গুগল ট্রান্সলেট নামক সেই অ্যাপটি আপনার ফোনে ইন্সটল করবেন তখন আপনাকে সেই অ্যাপটি ওপেন করতে হবে।

আর যখন আপনি এই অ্যাপটি ওপেন করবেন তখন উপরোক্ত পদ্ধতি গুলোর মতই আপনি ফোন থেকে আপনার নিজস্ব ভাষাকে অন্য কোনো ভাষায় ট্রান্সলেট করতে পারবেন।

তবে মোবাইলের ক্ষেত্রে আপনি বিশেষ কিছু সুবিধা ভোগ করবেন। যেমন আপনি ওখানে ভয়েস দিয়ে টাইপ (Voice Type) করতে পারবেন।

গুগল ট্রান্সলেট অ্যাপ ডাউনলোড | Google translate App Download 

আপনি যদি আপনার ফোন থেকে গুগল ট্রান্সলেট অ্যাপ ব্যবহার করতে চান তাহলে সর্বপ্রথম আপনাকে উক্ত অ্যাপটি আপনার ফোনে ডাউনলোড করে নিতে হবে।

আর কিভাবে আপনি অরজিনাল গুগল ট্রান্সলেট অ্যাপ টি ডাউনলোড করবেন তা নিয়ে এবার আমি বিস্তারিত আলোচনা করবো।

  1. সর্বপ্রথম আপনার একটি জিমেইল একাউন্টের প্রয়োজন হবে। এবং সেই Gmail টি অবশ্যই আপনার ফোনে লগইন করা থাকতে হবে।
  2. এরপর আপনাকে সরাসরি যেতে হবে গুগল প্লে স্টোরে এবং সেখানে যাওয়ার পর আপনাকে টাইপ করতে হবে ” Google Translate”.
  3. এরপর আপনি সবার উপরে যে অ্যাপস টি দেখতে পারবেন। এই Apps টি আপনার ফোনে ইন্সটল করে নিতে হবে।

আর এই সহজ পদ্ধতি অনুসরণ করে আপনি খুব সহজেই আপনার মোবাইল ফোনে গুগল ট্রান্সলেট অ্যাপ টি ডাউনলোড করতে পারবেন।

এর সাথে উক্ত অ্যাপটির মাধ্যমে আপনি যেকোন দেশের ভাষা কে অন্য আরেকটি দেশের ভাষায় রূপান্তর করতে পারবেন।

ইংরেজি থেকে বাংলা অনুবাদ করার নিয়ম

বর্তমান সময়ে কোন ইংরেজি শব্দের মানে খোঁজার জন্য আপনাকে আর ডিকশনারি ঘাটতে হবে না।

সেক্ষেত্রে আপনি এখন সবচেয়ে সহজ মাধ্যম গুগল ট্রান্সলেট কে ব্যবহার করতে পারবেন।

আমাদের মধ্যে এমন অনেক মানুষ আছেন যারা ইংরেজি থেকে বাংলা অনুবাদ করার নিয়ম গুলো সম্পর্কে জানতে চান।

তো এই মানুষগুলো আসলে কিভাবে ইংলিশ টু বাঙ্গালী ট্রান্সলেট করবে তা নিয়ে এবার একটু আলোচনা করবো।

আপনি যদি ইংলিশ টু বেঙ্গলি (English To Bangali) ট্রান্সলেট করতে চান।

তাহলে সবার আগে আপনাকে গুগল ট্রান্সলেট এর অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে যেতে হবে। সাধারণ ভাবে অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে যাওয়ার পর আপনি দুটি বক্স দেখতে পারবেন।

যেহেতু আপনি English To Bangali Translate (ট্রান্সলেট) করবেন, সেহেতু প্রথম বক্সে আপনাকে ইংলিশ ভাষা সিলেক্ট করতে হবে।

আর দ্বিতীয় বক্সে আপনাকে বেঙ্গলি অর্থাৎ বাংলা ভাষা সিলেক্ট করে নিতে হবে।

এরপর আপনি প্রথম বক্সে যে ইংরেজি শব্দগুলো লিখবেন। সেগুলো অটোমেটিক পরবর্তী বক্সে বাংলা ভাষায় ট্রান্সলেট হয়ে যাবে।

বাংলা থেকে ইংরেজি করার নিয়ম

উপরের আলোচনায় আপনি ইংরেজি থেকে বাংলা ভাষায় ট্রান্সলেট করার উপায় গুলো জানতে পেরেছেন।

এবার অনেকের মনেই প্রশ্ন জাগতে পারে যে কিভাবে বাংলা থেকে ইংরেজি অনুবাদ অনলাইন বা বাংলা থেকে ইংরেজিতে ট্রান্সলেট করা যায়।

চলুন এবার তাহলে জেনে নেয়া যাক কিভাবে আপনি বাংলা ভাষা কে ইংরেজি ভাষায় গুগল ট্রান্সলেটের দিয়ে ট্রান্সলেট করবেন।

তো সেজন্য আপনাকে গুগল ট্রান্সলেট এর মূল ওয়েবসাইটে যেতে হবে এবং সচারাচার ভাবে আপনি এটি বক্স দেখতে পারবেন।

সবার বামপাশে আপনি যে বক্সটি দেখতে পারবেন সেই বক্সে আপনাকে বাংলা ভাষা সিলেক্ট করে নিতে হবে।

এবং ডান পাশে যে দ্বিতীয় বক্সটি দেখতে পারবেন সেই বক্সে আপনাকে ইংরেজি ইংরেজি ভাষা সিলেক্ট করতে হবে।

যখন আপনি ভাষা সিলেকশনের কাজটি সঠিকভাবে করতে পারবেন।

তখন আপনি প্রথম বক্সে যে টেক্সট গুলো বাংলা ভাষায় লিখবেন সেগুলো পরবর্তী বক্সে অটোমেটিক ইংরেজি ভাষায় ট্রান্সলেট হয়ে যাবে।

এছাড়াও আপনি খুব সহজেই গুগল ট্রান্সলেটর অ্যাপস ব্যবহার করে খুব ইজিলি এবং দ্রুত গতির ইন্টারনেট ব্রাউজিং করা ছাড়া ব্যবহার করতে পারবেন।

ইন্টারনেট ছাড়া গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহার করা সম্ভব ? 

উপরের আলোচনায় আমি যে সমস্ত গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহার করার উপায় সম্পর্কে বলেছি।

সেই সব গুলো উপায় অনুসরণ করার সময় আপনার ডিভাইসে অবশ্যই অবশ্যই ইন্টারনেট কানেকশন এর প্রয়োজন হবে।

কিন্তু জানার বিষয় হল যে, যখন আপনার ডিভাইসের কোন ধরনের ইন্টারনেট কানেকশন থাকবে না, তখন কি আপনি ইন্টারনেট ছাড়াই এই গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহার করতে পারবেন কিনা ৷

তো চলুন এবার তাহলে এই বিষয়টি নিয়ে একটু বিস্তারিত আলোচনা করা যাক।

বিভিন্ন ভাষাভাষী মানুষদের যোগাযোগ অক্ষুণ্ণ রাখার জন্য গুগল ট্রান্সলেট এর কর্তৃপক্ষ প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছে ।

আর মানুষ যেন ইন্টারনেট কানেকশন ছাড়াই এই গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহার করতে পারে।

বাংলা থেকে ইংরেজি অনুবাদ এপপ্স ডাউনলোড এর জন্য গুগল ট্রান্সলেট অ্যাপস বেস্ট হবে।

ইতিমধ্যেই তার কিছু বিশেষ উপায়ে প্রকাশ করা হয়েছে। যেমন অন্যান্য উপায়ে গুলোর মধ্যে একটি বিশেষ উপায় ল্যাঙ্গুয়েজ ফাইল ডাউনলোড (Language File Download) করে রাখা ৷

আপনার যে যে ভাষা প্রয়োজন সে ভাষাগুলো খুব সহজে গুগল ট্রান্সলেট অ্যাপ এর মাধ্যমে ভাষা গুলো ডাউনলোড করে  রাখতে পারবেন।

পরবর্তীতে আপনি কোন প্রকার ইন্টারনেট কানেকশন ছাড়াই খুব সহজে  বাংলা থেকে ইংরেজি অনুবাদ এবং ইংরেজি থেকে বাংলা অনুবাদ সহ যেকোনো ভাষায় অনুবাদ করতে পারবেন।

এর জন্য অবশ্যই আপনাকে সেই সকল ভাষাগুলোর অফলাইন ভার্সন এর ল্যাঙ্গুয়েজ গুলো ডাটা কানেকশন অন করে আপনার মেমোরি কার্ড অথবা মোবাইলের স্টোরেজে ডাউনলোড করে রেখে দিতে হবে।

আপনি আরও পড়ে দেখতে পারেন…

আপনি শুধু এইটার ভাষাগুলোতে ট্রান্সলেট করতে পারবেন যে সকল ভাষা গুলো আপনি ডাউনলোড করে রেখেছিলেন অফলাইন ফাইল গুগল ট্রান্সলেট অ্যাপ এর মাধ্যমে।

 ইন্টারনেটের পাশাপাশি ইন্টারনেট ছাড়াই অর্থাৎ অফলাইনে খুব ভালো ট্রান্সলেটর ব্যবহার করতে পারবো।

গুগল ট্রান্সলেট নিয়ে আমাদের শেষকথা

গুগল নামক এই অনলাইন ভিত্তিক জনপ্রিয় কোম্পানি টি মানুষের সেবার জন্য প্রতিনিয়ত নতুন নতুন প্রোডাক্ট নিয়ে হাজির হয়।

আর তাদের আবিষ্কৃত প্রতিটি প্রোডাক্ট হয় নজর কাড়ার মতো। যেমনটা আজকের দিনের গুগল ট্রান্সলেট।

গুগলের তৈরি এই গুগল ট্রান্সলেট নামক প্রোডাক্ট টি এতটাই গুনাগুত মানের যে, বর্তমানে আমরা খুব সহজেই মাত্র কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই একটি ভাষা থেকে অন্য দেশের ভাষায় ট্রান্সলেট করতে পারছি।

আর কিভাবে আপনি খুব দ্রুততার সাথে একটি ভাষাকে অন্য ভাষায় ট্রান্সলেট করতে পারবেন।

সেই বিষয়গুলো নিয়েই আজকে আর্টিকেলে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

আশা করি গুগল ট্রান্সলেট এর মত আজকের এই আর্টিকেলটিও আপনার অনেক ভালো লেগেছে।

আর এভাবে আপনি যদি কোন কিছু অজানা বিষয়কে খুব সহজ ভাষায় জেনে নিতে চান। তাহলে বাংলা আইটি ব্লগের সাথে থাকবেন। ধন্যবাদ।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

HandsUp! কপি করা যাবে না বস!
Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap