মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার সেরা  উপায় গুলো – (সেরা 19 টি উপায়)

আপনি কি মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায় গুলো জানতে চান? তাহলে জেনে নিন, ঘরে বসে মাসে ২০ থেকে ২৫ হাজার টাকা আয় করার সহজ উপায়।

মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার সেরা  উপায় গুলো
মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার সেরা  উপায়

আমরা সবাই জানি যে, টাকা হল অমূল্য ধন। মূলত যদি আপনার কাছে টাকা থাকে। তাহলে আপনি সব জায়গাতে সম্মান অর্জন করতে পারবেন।

আর সে কারণেই আমরা প্রতিনিয়ত টাকা ইনকাম করার জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছি। আর এই চেষ্টা যেন অব্যাহত থাকে,

সেজন্য আমরা অনেকেই মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায় খুঁজে থাকি। যদিও বা সবার ক্ষেত্রে মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করা সহজ নয়।

তবে এমন কিছু উপায় রয়েছে, যে গুলো কে সঠিক ভাবে অনুসরণ করার মাধ্যমে। আপনিও প্রতি মাসে ২০ হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন (Earn 20,000 money every month).

এবং আপনার টাকা ইনকাম করার ইচ্ছা কে পূরণ করতে পারবেন। মূলত আজকের আর্টিকেলে আমি আপনাকে মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায় গুলো জানিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করব।

এবং আপনি যদি আজকের শেয়ার করা এই উপায় গুলো সঠিক ভাবে অনুসরণ করতে পারেন।

তাহলে আমার দীর্ঘ বিশ্বাস যে, আপনিও অন্যান্য মানুষদের মতো প্রতি মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করতে পারবেন।

তো এখন জানার বিষয় হলো যে। এমন কোন উপায় রয়েছে যে গুলো কে অনুসরণ করলে আপনিও ২০ হাজার টাকা প্রতি মাসে ইনকাম করতে পারবেন।

আপনার জন্য আরোও লেখা…

আর এই উপায় গুলো জানতে হলে অবশ্যই আপনাকে আজকের পুরো আর্টিকেল টি মনোযোগ সহকারে পড়তে হবে।

কেননা আজকে আমি মোট ১৯ টি কাজ খুব সহজেই মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায় গুলো বলব।

মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায়

তো আমরা সবাই জানি যে, টাকা ইনকাম করার জন্য অনেক উপায় রয়েছে। যেমন, আপনি চাইলে চাকরি করেও টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

আবার আপনি চাইলে ব্যবসা করেও টাকা ইনকাম করতে পারবেন। তবে আজকের এই আলোচনার মাধ্যমে আমি আপনাকে ব্যবসা কিংবা চাকরি সংক্রান্ত কোনো কিছু বলবো না।

বরং আজকে আমি আপনাকে দেখাবো যে কিভাবে অনলাইন কে কাজে লাগিয়ে প্রতি মাসে বিশ হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

তবে এখন হয়তোবা আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে। যে, অনলাইনে কি প্রতি মাসে কাজ করে ২০ হাজার টাকা ইনকাম করা সম্ভব কি না।

যদি আপনার মনে এই ধরনের প্রশ্ন জাগে  যে, মাসে ২০ থেকে ৩০ হাজার টাকা আয় করার উপায় বাংলাদেশে আছে কি  তাহলে আমি বলব অবশ্যই সম্ভব।

এমন কি মাসে লাখ টাকা আয় করাও যাবে।

দেখুন বাস্তব জীবনে আমরা যেমন বিভিন্ন কাজ করার মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পারি। ঠিক তেমনি ভাবে আপনি যদি অনলাইন প্লাটফর্ম গুলোর দিকে লক্ষ্য করেন।

তাহলে দেখতে পারবেন যে, সেই অনলাইন প্লাটফর্ম এর মধ্যে এমন অনেক ধরনের কাজ রয়েছে। যে গুলো আপনি ঘরে বসে করার মাধ্যমেও টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

আর একটা বিষয় তো আমাদের সবার জানা। যে, আপনি যত বেশি কাজ করতে পারবেন। আপনার ইনকামের পরিমাণ ঠিক তত বেশি হবে।

এখন আপনি যখন অনলাইনের মধ্যে কাজ করবেন। তখন আপনার কাজের পরিমাণ এবং দক্ষতার উপর নির্ভর করবে। যে, আপনি আসলে প্রতি মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করতে পারবেন কি না।

কিভাবে প্রতি মাসে ২০ হাজার টাকা ইনকাম করবেন, 500 টাকা আয় করা নিয়ে এই আর্টিকেল পড়ার পর অনেক ধারনা পেয়ে যাবেন।

অনলাইনে এমন অনেক কাজ আছে যে গুলা প্রশ্নের উত্তর দিয়ে টাকা আয় করতে পারবেন,অ্যাড দেখে টাকা আয় করতে পারবেন প্রতিদিন ১০০ টাকা আয়।

No.1- ব্লগিং করে আয় করুন

মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায় গুলোর মধ্যে। সর্বপ্রথম আমি যে উপায় টি আপনার সাথে শেয়ার করব, সেটি হল ব্লগিং।

যেখানে আপনি যদি আপনার দক্ষতা কে সঠিক ভাবে কাজে লাগাতে পারেন। তাহলে আপনি এর থেকেও বেশি টাকা প্রতি মাসে ইনকাম করতে পারবেন।

বিষয় টা একটু ঠান্ডা মাথায় চিন্তা করে দেখুন। প্রথমত আপনি গুগল এ গিয়ে সার্চ করেছেন মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায় কি।

তো এরপর আপনি আমার এই ওয়েব সাইটের মধ্যে প্রবেশ করেছেন। এখন আপনি সেই উপায় গুলো সম্পর্কে জানতে পারছেন।

তো আপনি যে আমার এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করেছেন। এবং এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার পরে আপনি যে সব বিজ্ঞাপন দেখতে পাচ্ছেন।

মূলত এই বিজ্ঞাপন গুলো থেকে আমি ইনকাম করতে পারি। অর্থাৎ এটি হলো আমার এটি ব্লগ।

আর আপনিও ঠিক এইভাবে ব্লগিং করার মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। যেটা আমার মত অনেকেই দীর্ঘদিন থেকে ইনকাম করে আসছে।

No.2- ইউটিউবার হয়ে আয় করুন

আপনি যদি মাসে ৫০ হাজার টাকা আয় করার উপায় খুঁজে থাকেন। তাহলে আমি আপনাকে বলব যে, আপনার ইউটিউবিং করা উচিত।

কারণ ইউটিউব হলো এমন একটি প্ল্যাটফর্ম। যেখানে আপনি ভিডিও কনটেন্ট এর মাধ্যমে কাজ করতে পারবেন।

এবং আপনি যদি আপনার কাজের মধ্যে নিজের দক্ষতার পরিচয় দিতে পারেন। তাহলে প্রতি মাসে লক্ষ টাকা পর্যন্ত ইনকাম হতে পারবেন।

আপনি যদি আপনার আশে পাশে বা পরিচিত কোন মানুষদের মধ্যে ভালোভাবে লক্ষ্য করেন। তাহলে দেখতে পারবেন যে, আপনার পরিচিত এমন অনেক মানুষ আছেন।

যারা মূলত দীর্ঘদিন থেকে ইউটিউব প্লাটফর্মে কাজ করছে। এবং এই ইউটিউব এর মধ্যে কাজ করার বিনিময়ে তারা বিপুল পরিমাণ টাকা ইনকাম করছে।

তবে আপনি যদি তাদের মত কাজ করতে চান। এবং ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করতে চান।

তাহলে অবশ্যই আপনাকে ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করার উপায় গুলো সম্পর্কে জানতে হবে।

তাহলে আপনিও একজন সফল ইউটিউবার হতে পারবেন। সেই সাথে প্রচুর পরিমাণ টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

No.3- কনটেন্ট রাইটিং করে আয়

যেহেতু আপনি মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায় গুলো সম্পর্কে জানতে চান। সেহুতু অবশ্যই আপনার কনটেন্ট রাইটিং সম্পর্কে ধারণা থাকা উচিত।

কেননা এই কন্টেন্ট রাইটিং হল এমন একটি কাজ। যেখানে আপনি আপনার লিখন শৈলীর মাধ্যমে প্রতি মাসে বিশ হাজার কিংবা এর থেকেও বেশি টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

বর্তমান সময়ে আমরা সবাই ইন্টারনেট মুখী হচ্ছি। আর সে কারণে নতুন কোন বিষয় জানার জন্য প্রথমে গুগলের মধ্যে সার্চ করি।

এবং সেই অজানা বিষয় টি সম্পর্কে জেনে নেই। তবে আমরা যেভাবে গুগল থেকে বিভিন্ন রকম তথ্য সম্পর্কে জানতে পারি।

গুগল কিন্তু নিজে থেকেই এই তথ্য গুলো প্রদান করে না।

বরং আপনার কিংবা আমার মত মানুষ ওয়েবসাইটের মাধ্যমে গুগলের সাহায্য এই তথ্য গুলো দিয়ে থাকে। আর যারা এই তথ্য গুলো লেখালেখি করে।

তাদের কে বলা হয়ে থাকে কনটেন্ট রাইটার। চাইলে আপনিও এই ধরনের কন্টেন্ট রাইটিং এর কাজ করতে পারবেন।

এবং সেই কাজ গুলো করার বিনিময়ে আপনি প্রতি মাসে ২০ হাজার থেকে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত ইনকাম করতে পারবেন।

No.4- এসইও এক্সপার্ট হয়ে কাজ করে

একটু ফুটবল খেলার মাঠের যেমন ২২ টি খেলোয়াড় একটি ফুটবল নিয়ে একে অপর কে গোল দেওয়ার জন্য প্রতিযোগিতা করে।

ঠিক তেমনি ভাবে অনলাইনে কাজ করার ক্ষেত্রে আপনি একই প্রতিযোগিতা লক্ষ্য করতে পারবেন। যেমন, আমাদের মধ্যে এমন অনেক মানুষ আছেন।

যারা মূলত ওয়েবসাইট নিয়ে কাজ করে। তবে এই ওয়েবসাইট নিয়ে কাজ করা মানুষের সংখ্যা এতটাই বেশি যে আপনি কল্পনা করতে পারবেন না।

কিন্তু তারপরেও তাদের মধ্যে বেশ কিছু ওয়েব সাইট গুগলের টপ পজিশনে থাকে।

আর এই টপ পজিশনে যারা থাকে তারা হলেন, এসইও এক্সপার্ট। মূলত তারা এসইও এর যাবতীয় কাজ গুলো সঠিক ভাবে করার মাধ্যমে।

তাদের ওয়েবসাইট গুলো কে গুগলের টপ পজিশনে নিয়ে আসতে পারে। এখন চাইলে আপনি নিজেকে একজন এসইও এক্সপার্ট হিসেবে তৈরি করতে পারবেন।

আর যখন আপনি নিজেকে একজন এক্সপার্ট হিসেবে তৈরি করবেন। তখন আপনি নিজে থেকেই আপনার ওয়েবসাইট নিয়ে কাজ করতে পারবেন।

আপনি আরোও পড়তে পারেন…

এবং সেই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। নতুবা আপনার অর্জন করা এই দক্ষতা গুলোকে ব্যবহার করে।

অন্যান্য মানুষের ওয়েবসাইট কে গুগলের টপ পজিশনে নিয়ে আসার সার্ভিস প্রদান করে প্রতি মাসে হাজার হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

No.5- ওয়েব ডিজানিং করে আয় করুন

বর্তমান সময়ে আপনি যদি ফ্রিল্যান্সিং মার্কেট প্লেস গুলোর দিকে লক্ষ্য করেন। তাহলে দেখতে পারবেন যে, প্রত্যেক টা ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস এর মধ্যে।

ওয়েব ডিজাইন এর কাজ গুলো কে অনেক হাই রেট প্রদান করা হয়ে থাকে। মূলত আপনি যদি একজন দক্ষ ওয়েব ডিজাইনার হয়ে থাকেন।

তাহলে আপনি অনলাইন এর বিভিন্ন প্রকারের প্লাটফর্মে কাজ করে। প্রতি কাজের বিনিময়ে প্রচুর পরিমাণ ডলার ইনকাম করতে পারবেন।

কারণ সময় যত অতিবাহিত হচ্ছে আমরা মানুষ হিসেবে ততই ইন্টারনেট এর উপর নির্ভরশীল হয়ে পড়ছি।

যেমন ধরুন, আমরা আমাদের অধিকাংশ সময় গুলো ফেসবুক এর মধ্যে ব্যয় করি। আবার কেউ কেউ আছেন যারা মূলত ইউটিউব এর মধ্যে সময় ব্যয় করি।

এখন একটা বিষয় চিন্তা করে দেখুন। এই ফেসবুক কিংবা ইউটিউব এ গুলো হল এক ধরনের ওয়েবসাইট।

আর এই ধরনের ওয়েবসাইট গুলো অবশ্যই কেন কেউ না কেউ ডিজাইন করেছে। আর যারা এসব ওয়েবসাইট ডিজাইন করেছে। মূলত তাদের কে বলা হয়ে থাকে ওয়েব ডিজাইনার।

তো আপনি যদি প্রতি মাসে হাজার হাজার টাকা ইনকাম করতে চান। তাহলে অবশ্যই আপনি একজন দক্ষ ওয়েব ডিজাইনের হওয়ার চেষ্টা করবেন।

যাতে করে আপনার ওয়েব ডিজাইনিং সার্ভিস প্রদান করে প্রতি মাসে প্রচুর পরিমাণ টাকা ইনকাম করা যায়।

No.6- ভিডিও এডিটিং করে আয়

ভিডিও দেখতে ভালো লাগে না এমন মানুষ কে খুঁজে পাবেন না। বরং আপনি যদি ইউটিউব কিংবা ফেসবুকের মধ্যে এত ভালো ভাবে লক্ষ্য করেন।

তাহলে দেখতে পারবেন যে, এই ধরনের প্লাটফর্ম গুলো তে আপলোড করা ভিডিও তে মিলিয়ন মিলিয়ন ভিউ হয়।

আর এখান থেকেই সহজেই অনুমান করা যায় যে, বর্তমান সময়ে মানুষ ভিডিও দেখার প্রতি কেমন আগ্রহ রয়েছে। তবে একটি ভিডিও আসলে মানুষের কাছ থেকে কতটা ভালো লাগবে।

সেটা কিন্তু অবশ্যই এডিটিং এর উপর নির্ভর করে। আপনি একটি ভিডিও কে যত ভালো ভাবে এডিটিং করতে পারবেন।

সেই ভিডিও মানুষের কাছে তত বেশি ভালো লাগবে। আর এই ধরনের ভিডিও এডিট করার কাজ গুলো আপনার কিংবা আমার মত মানুষ করে থাকে।

আর যারা এই ভিডিও এডিটিং সেক্টরে একেবারে দক্ষ। তারা এই কাজটি করার জন্য প্রচুর পরিমাণ টাকা নিয়ে থাকে।

যেমন ধরুন, আপনি কোন একটি ভিডিও এডিট করবেন। সে ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনাকে একজন দক্ষ এডিটর কে হায়ার করতে হবে।

আর এই কাজের জন্য আপনাকে তাকে প্রচুর পরিমাণ টাকা প্রদান করতে হবে।

আর সেজন্য আপনিও টাকা ইনকাম করার জন্য নিজেকে একজন দক্ষ ভিডিও এডিটর হিসেবে তৈরি করতে পারবেন। এবং প্রতি মাসে প্রচুর পরিমাণ টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

No.7- অনলাইন টিচিং এর কাজ করে আয়

আপনি যদি লেখাপড়ার দিক থেকে অনেক অভিজ্ঞ হয়ে থাকেন। এর পাশাপাশি আপনি যদি কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার দান করে থাকেন।

তাহলে সেই শিক্ষা দান করে আয় করার সাথে আপনি আপনার এই দক্ষতা কে অনলাইনের মাধ্যমে কাজে লাগিয়ে টাকা আয় করতে পারবেন।

কেননা বর্তমান সময়ে মানুষ অনলাইন ক্লাস করতে স্বাচ্ছন্দ বোধ করেন। যাতে করে তারা নিজের ঘরে থেকে শিক্ষা গ্রহণ করতে পারে।

আর এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে আপনিও অনলাইন টিচিং করতে পারবেন। যেখানে আপনি নিজের ঘরে বসে আপনার শিক্ষার্থীদের পাঠদান করাবেন।

তার বিনিময়ে আপনি আয় করতে পারবেন প্রচুর পরিমাণ টাকা। আর বর্তমানে অনলাইনে মধ্যে এমন অনেক ধরনের প্লাটফর্ম রয়েছে।

যেখানে মূলত শিক্ষা কার্যক্রম গুলো ইন্টারনেটের মাধ্যমে সম্পন্ন করা হয়।

আপনি চাইলে সেই প্ল্যাটফর্ম গুলোর সাথে যুক্ত হতে পারবেন। এবং প্রতি মাসে হাজার হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

No.8- গ্রাফিক ডিজানিং করে ইনকাম করুন

বর্তমান সময়ে আমরা অনলাইনের মধ্যে যা কিছু দেখি, তার অধিকাংশই এই গ্রাফিক্স ডিজাইন সেক্টর এর সাথে সম্পর্ক যুক্ত।

যেমন ধরুন, আপনি আপনার মোবাইলের মাধ্যমে আমার এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করেছেন। এবং এই ওয়েব সাইটি সর্বপ্রথম ডিজাইন করা হয়েছিল একজন দক্ষ গ্রাফিক্স ডিজাইনার এর মাধ্যমে।

সেই সাথে আপনার আশেপাশে যে বই, খাতা, কলম, ফ্যান লাইট, ইত্যাদি রয়েছে। সে গুলো তে যে কালার ব্যবহার করা হয়েছে। এবং যে সকল লোগো বা ডিজাইন দেখতে পারছেন।

তার সব গুলো ই কিন্তু একজন দক্ষ গ্রাফিক্স ডিজাইনারের মাধ্যমে করা হয়েছে। 

আর এই ধরনের ডিজাইন করার মাধ্যমে একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার প্রচুর পরিমাণ টাকা ইনকাম করে থাকে।

অবাক করার মতো বিষয় হলো বর্তমান সময়ে ইন্টারনেটের যুগ আসার পরে। একজন গ্রাফিক ডিজাইনার চাহিদা আরো ক্রমাগত ভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে।

তাই চাইলে আপনিও এই সুযোগটা কে কাজে লাগাতে পারবেন। এবং নিজেকে একজন দক্ষ গ্রাফিক্স ডিজাইন হিসেবে তৈরি করার পরে।

আপনি প্রতি মাসে হাজার হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন। কারণ একজন সুদক্ষ গ্রাফিক্স ডিজাইনারের কাজের কখনো অভাব হয় না।

No.9- ডিজিটাল মার্কেটিং এর মাধ্যমে আয় করুন

যেহেতু বর্তমান সময়ের মানুষ ইন্টারনেটের মাধ্যমে যাবতীয় কাজ কর্ম গুলো করতে পছন্দ করে।

সেহেতু বড় বড় কোম্পানিরা এখন তাদের প্রোডাক্ট সেল করার জন্য অনলাইন কে বেছে নিয়েছে। তবে অনলাইনে যখন আপনি আপনার কোন প্রোডাক্ট সেল করবেন।

তখন অবশ্যই আপনাকে ডিজিটাল মার্কেটিং করতে হবে। কারণ ডিজিটাল মার্কেটিং হল এমন একটি পদ্ধতি।

যার মাধ্যমে আপনার প্রোডাক্ট সম্পর্কে অনলাইন ইউজারদের পরিচিত করা যায়। সেই সাথে আপনি এই ডিজিটাল মার্কেটিং এর মধ্যে মাধ্যমে।

আপনার প্রোডাক্ট এর জন্য উপযুক্ত কাস্টমার গুলো কে অনলাইন প্ল্যাটফর্মে খুব সহজেই খুঁজে নিতে পারবেন।

আর এই ধরনের ডিজিটাল মার্কেটিং কাজ করার জন্য অবশ্যই আপনাকে একজন এক্সপার্ট ব্যক্তি কে হায়ার করতে হবে।

যার মাধ্যমে আপনি যাবতীয় কাজ গুলো করতে পারবেন। এবং আপনার প্রোডাক্ট গুলো সেল করতে পারবেন।

তবে চাইলে আপনিও নিজেই একজন ডিজিটাল মার্কেটিং এক্সপার্ট হতে পারবেন। আর অনলাইনে বড় বড় কোম্পানি গুলোর প্রোডাক্ট সেল করার জন্য যাবতীয় কাজ গুলো করতে পারবেন।

আর এই কাজগুলো করার মাধ্যমে আপনি প্রতি মাসে হাজার হাজার টাকা। ডিজিটাল মার্কেটিং করে আয় করতে পারবেন।

No.10- সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং এক্সপার্ট হয়ে

ডিজিটাল মার্কেটিং এর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ হলো সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং। কারণ বর্তমান সময়ে যত গুলো ইন্টারনেট ইউজার রয়েছে।

তাদের মধ্যে অধিকাংশ ইউজার বিভিন্ন ধরনের সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে থাকে।

আর সে কারণেই বিশ্বের বড় বড় কোম্পানি গুলো তাদের প্রোডাক্ট সেল করার জন্য সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং করে থাকে।

সে ক্ষেত্রে আপনি যদি একজন সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটার হয়ে থাকেন। এবং এই মার্কেটিং সম্পর্কে আপনার যথেষ্ট পরিমাণে দক্ষতা থাকে।

তাহলে আপনি বিশ্বের বড় বড় কোম্পানির প্রোডাক্ট সেল করার জন্য মার্কেটিং এর কাজ গুলো করতে পারবেন। মূলত এই ধরনের কাজ গুলো থেকে প্রচুর পরিমাণ টাকা ইনকাম করা যায়।

আর আপনি যদি দক্ষতার সাথে এই কাজ গুলো করতে পারেন। তাহলে আপনার প্রতি মাসে এত বেশি টাকা ইনকাম হবে। যা আপনি কল্পনা করতে পারবেন না।

No.11- প্রোডাক্ট টেস্টিং জবস করে আয়

বর্তমান বিশ্বের যত বড় বড় কোম্পানি রয়েছে। তারা প্রতিনিয়ত মানুষের জন্য নতুন নতুন প্রোডাক্ট আবিষ্কার করে থাকে। আর যখন তারা এ ধরনের প্রোডাক্ট গুলো তৈরি করে।

তখন তারা বিভিন্ন মানুষের কাছে ডেমো হিসেবে এই প্রোডাক্ট গুলো ব্যবহার করার জন্য বলে। এবং যদি কোন ধরনের সমস্যা থাকে তাহলে পরবর্তী সময়ে সেই কোম্পানি গুলো।

উক্ত প্রোডাক্ট এর মধ্যে সেই সমস্যা গুলো সমাধান করে থাকে। আর যারা মূলত এই ধরনের ডেমো প্রোডাক্ট গুলো ব্যবহার করে।

তাদের কে কিন্তু সেই কোম্পানি গুলো প্রচুর পরিমাণ টাকা দিয়ে থাকে। মূলত এই ধরনের জব গুলো কে বলা হয়ে থাকে, প্রোডাক্ট টেস্টিং জব।

তবে চাইলে আপনি বড় বড় কোম্পানির আন্ডারে এই ধরনের প্রোডাক্ট টেস্টিং জব করতে পারবেন।

আর এ ধরনের প্রোডাক্ট টেস্টিং জব করে আপনি প্রতি মাসে ২০ থেকে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত ইনকাম করতে পারবেন।

No.12- কোডার হয়ে ইনকাম করুন

আজকের দিনে প্রোগ্রামিং কিংবা কোডিং এর চাহিদা ক্রমাগত ভাবে বেড়েই চলছে। কেননা ইন্টারনেটের এই যুগে যে সকল নতুন পদ্ধতি আবিষ্কার হচ্ছে।

তার অধিকাংশই মূলত প্রোগ্রামিং এর মাধ্যমে তৈরি করা হয়ে থাকে। আর সে কারণেই একজন দক্ষ প্রোগ্রামার এর চাহিদা বরাবরই থাকবে।

মূলত যদি আপনার কোডিং কিংবা প্রোগ্রামিং করতে ভালো লাগে। তাহলে আপনি নিজেকে এই কাজে দক্ষ হিসেবে গড়ে তোলার চেষ্টা করুন।

যখন আপনি এই কাজে নিজেকে দক্ষ হিসেবে গড়ে তুলতে পারবেন। তখন আপনি উক্ত প্রোগ্রামিং করার মাধ্যমে অনলাইন এর পাশাপাশি অফ লাইনের মাধ্যমে।

বিভিন্ন সেক্টর থেকে প্রচুর পরিমাণ টাকা ইনকাম করে নিতে পারবেন।

সহজেই মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায়

আমাদের মধ্যে যে মানুষ গুলো মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায় জানতে চেয়েছেন। তাদের জন্য আমি উপরে বেশ কিছু উপায় শেয়ার করেছি।

এবং সেই উপায় গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত বলেছি। তবে এগুলো ছাড়াও আরো অনেক ধরনের মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায় রয়েছে।

যে গুলো আপনি সঠিক ভাবে অনুসরণ করতে পারলে। আপনিও প্রত্যেক মাসে বিপুল পরিমাণ টাকা আয় করতে পারবেন। যেমন:

  1. ওয়েব ডেভেলপিং
  2. ট্রাভেল রিভিউ
  3. কনটেন্ট ক্রিয়েটর
  4. সেলস
  5. অনলাইন মেন্টর
  6. পিএইচপি/এইচটিএমেল এক্সপার্ট
  7. মার্কেট রিসার্চারস

বর্তমান সময়ের যেসব মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায় রয়েছে। সে গুলো নিয়ে বিস্তারিত বলার পাশাপাশি আমি আপনাকে আরো উপায় গুলো শেয়ার করেছি।

আপনার জন্য আরোও লেখা রয়েছে…

আশা করি আপনি এগুলো থেকে স্পষ্ট ধারণা নিতে পারবেন যে। একজন মানুষ আসলে কিভাবে প্রতি মাসে বিশ হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবে।

আমাদের শেষকথা

প্রিয় পাঠক, আপনি পৃথিবীতে এমন কোন মানুষ খুঁজে পাবেন না। যাদের টাকার প্রয়োজন নেই। বরং জীবনে বেঁচে থাকার জন্য টাকার গুরুত্ব অপরিসীম।

আর সে কারণেই আমরা প্রত্যেক টা মানুষ প্রতিনিয়ত টাকা ইনকাম করার চেষ্টা করি। তবে সেই টাকার চাহিদা একেক জনের কাছে একেক রকম।

যেমন আমাদের মধ্যে এমন অনেক মানুষ আছেন। যারা মূলত প্রতি মাসে বিশ হাজার টাকা করে ইনকাম করতে চায়।

আর সে কারণেই তারা মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায় গুলো খুজে থাকে। তো সবশেষে আপনাকে একটা কথাই বলবো।

যে, টাকা ইনকাম করার কোন পথ সহজ নয়। বরং আপনি যে পথ অনুসরণ করুন না কেন। আপনাকে অবশ্যই যথেষ্ট পরিমাণে পরিশ্রম করতে হবে।

তারপরে আপনি টাকা ইনকাম করতে পারবেন। অন্যথায় আপনাকে যুক্ত হতে হবে ব্যর্থ মানুষদের দলে।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

HandsUp! কপি করা যাবে না বস!

Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap