৬টি অনলাইন জব করে টাকা ইনকাম করার উপায় ২০২২

অনলাইন জব করে টাকা ইনকাম : বাংলাদেশী অনলাইন জব কিংবা অনলাইন চাকরি এগুলো এখন সবার কাছেই অতি পরিচিত একটি বিষয়।

কারন আজকের দিনে এমন অনেক মানুষ আছে, যারা মূলত অনলাইন জব করে লক্ষ লক্ষ টাকা ইনকাম করে আসছে।

অনেক মানুষ আছেন,যারা তাদের ক্যারিয়ার গড়ে নিয়েছেন এই  Online Job বা ফ্রি অনলাইন জবএর মাধ্যমে।

অনলাইন জব করে টাকা ইনকাম
অনলাইন জব করে টাকা ইনকাম

এখন এই লক্ষ টাকা ইনকাম করার কথাটা শুনে হয়তবা আপনার হাসি পেতে পারে। আবার অনেকেই এই কথা গুলোকে বিশ্বাস করতে চায় না।

তাদের ধারনা অনলাইন থেকে কখনই এতো টাকা আয় করা পসিবল না। কিন্তুু তাদের ধারনা যে সম্পূর্ণ ভুল, সেটা আমি অন্যান্য আর্টিকেল গুলোতে বার বার প্রমান করে দিয়েছি।

আমি অন্যান্য আর্টিকেল গুলোতে অনলাইন জব মোবাইল 2022 এ করার এমন শত শত উপায় সম্পর্কে বলেছি।

যে উপায় গুলো অবলম্বন করতে পারলে আপনিও অন্যদের মতো বিপুল পরিমান টাকা অনলাইন থেকে আয় করতে পারবেন।

সেই ধারাবাহিকতায় আজকে আরও একটা নতুন আর্টিকেল নিয়ে আপনার সামনে হাজির হয়েছি।

আগের দিন গুলোতে অনলাইন থেকে ইনকাম করার বিভিন্ন উপায় সম্পর্কে আলোচনা করলেও আজকে আপনি জানতে পারবেন অনলাইন জব সম্পর্কে।

বাস্তবিক জীবনে আমরা যেমন লেখাপড়া শেষ করার পরে চাকরি করি। ঠিক তেমনি একইভাবে আপনি অনলাইন এর মাধ্যমে চাকরি করতে পারবেন।

তবে পার্থক্য শুধু একটাই রিয়েল লাইফে চাকরি করতে হয় অফিসে বসে।

আর আপনি যদি অনলাইন জব করেন, তাহলে আপনি অফিসে কাজ করার পাশাপাশি নিজের ঘরে বসেও অনলাইন চাকরি করতে পারবেন।  

তো কিভাবে আপনি অনলাইনে জব করবেন, সেজন্য আপনাকে কি কি করতে হবে, আর অনলাইন জব করে আপনি কত টাকা আয় করতে পারবেন। অনলাইন জব ওয়েবসাইট গুলা কি কি ?

সে বিষয় গুলো নিয়েই আজকের আর্টিকেলটি লেখা হয়েছে। যদি আপনার অনলাইনে চাকরি করার ইচ্ছা থাকে। তাহলে আজকের পুরো আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে পড়বেন।

তাহলে আমি মনে করি, আজকের পর থেকে আপনি অনলাইন জব সম্পর্কে অনেক অজানা তথ্য সম্পর্কে জানতে পারবেন। 

[💡NOTE: ছেলেদের পাশাপাশি এখন মেয়েদের জন্য অনলাইন জব রয়েছে। যে অনলাইন জব মোবাইল দিয়েও করা সম্ভব। আজকে মেয়েদের জন্য অনলাইন জব সম্পর্কেও বিস্তারিত আলোচনা করবো।

আর্টিকেল সূচি

অনলাইন জব কাকে বলে? 

বাস্তবিক জীবনে আমরা যেমন পড়াশোনা করি। এবং পড়াশোনা শেষ করার পর বিভিন্ন সরকারি বা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করি।

এবং সেই চাকরি করার বিনিময়ে আমরা মাস শেষে উক্ত প্রতিষ্ঠান থেকে বেতন পাই। 

ঠিক একইভাবে আপনি যখন অনলাইন এর মাধ্যমে কোনো কাজ করবেন। এবং অনলাইন এ কাজ করে আপনি যখন টাকা ইনকাম করবেন। তখন এই পুরো প্রক্রিয়া কে বলা হবে অনলাইন জব। 

আপনি আরো পড়তে পারেন…

আপনি অনলাইনে এমন অনেক ধরনের জব করতে পারবেন। যেগুলো করার মাধ্যমে আপনি বাস্তবিক জীবন এ চাকরি করার মতো বেতন পাবেন। 

কেন আপনি অনলাইন জব করবেন? 

আর্টিকেল এর এই পর্যন্ত আসার পর আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে, আমরা তো রিয়েল লাইফে চাকরি করতে পারি। তাহলে কি জন্য আমরা অনলাইনে জব করবো? তাহলে শুনুন….

আপনি যদি অনলাইনে জব করেন। তাহলে আপনি অনেক দিক থেকে বেনিফিট পাবেন। যা আপনি রিয়েল লাইফে পাবেন না।

আর এজন্য আপনার মতো অনেক মানুষ এখন নিজেকে অনলাইনে চাকরির ক্ষেত্র গুলোতে যুক্ত করে নিচ্ছে। আপনি এখানে টাকা ইনকাম করার সহজ উপায় বাংলাদেশে ২০২২ নিয়ে জানতে পারবেন

তবে প্রশ্ন হলো যে, আপনি যদি অনলাইনে জব করেন। তাহলে আপনি কি কি বেনিফিট পাবেন? -এবার চলুন সেই বেনিফিট গুলো সম্পর্কে ছোট্ট করে আলোচনা করা যাক। 

নম্বর-১ঃ ঘরে বসে কাজ করার সুবিধা

অনলাইনে জব করার সবচেয়ে বড় সুবিধা আছে। সেটি হলো আপনি এই কাজটি নিজের ঘরে বসে সম্পন্ন করতে পারবেন। এরফলে আপনাকে প্রতিদিন সকালে উঠে অফিসে যাওয়ার কোনো তাগিদ থাকবে না।

রাস্তায় ট্রাফিক জ্যাম আছে কিনা, সে নিয়েও আপনাকে কোনো প্রকার টেনশন করতে হবে না। আপনি নিজের ঘরে বসে কম্পিউটার বা ল্যাপটপ এর সামনে থেকে কাজ করতে পারবেন।

এর ফলে আপনি নিজের সময় ও শিডিউল অনুযায়ী কাজ করতে পারবেন। এবং কাজ করার পাশাপাশি আপনি আপনার পরিবার কে সময় দিতে পারবেন। 

নম্বর-২ঃ বেতনের কোনো সীমাবদ্ধতা না থাকা

দেখুন আপনি যখন রিয়েল লাইফে কোনো প্রতিষ্ঠানে চাকরি করবেন। তখন কিন্তুু আপনার বেতন এর একটা সীমাবদ্ধতা থাকবে। যেমন, আপনার মাসিক বেতন যদি ৫০ হাজার টাকা হয়।

তাহলে আপনি প্রতি মাসে শুধু ঐ ৫০ হাজার টাকা পাবেন ৷ এর বাইরে আপনার আয় করার কোনো অপশন থাকবে না।

অপরিদকে অনলাইনে চাকরি করার ক্ষেএে আপনি কিন্তুু ভিন্ন রুপ দেখতে পারবেন। এখানে কিন্তুু আপনার বেতন এর কোনো সীমাবদ্ধতা থাকবে না।

কারন এখানে আপনি আপনার কাজের উপর নির্ভর করে টাকা আয় করতে পারবেন।

অনলাইনে এমন অনেক ধরনের জব আছে। যেগুলো তে আপনি যতো বেশি কাজ করবেন। আপনার অনলাইন থেকে আয় করার পরিমান ঠিক ততোই বেশি হবে।

অর্থ্যাৎ, আপনি যদি রানিং মাসে ৫০ হাজার টাকা ইনকাম করেন ৷ তাহলে পরবর্তী মাসেও যে ঐ একই পরিমান টাকা পাবেন। বিষয়টা আসলে তেমন নয়, বরং আপনি বেশি কাজ করতে পারলে আরও বেশি টাকা আয় করে নিতে পারবেন। 

নম্বর-৩ঃ আপনি নিজেই নিজের বস 

এই দিকটা খুবই মজার একটা বিষয়। সচারাচর আপনি যখন কোনো প্রতিষ্ঠানে জব করবেন ৷ তখন সেখানে আপনার অনেক গুলো বস বা সিনিয়র পারসন থাকবে।

যাদের কথা মতো আপনাকে অফিসের কাজ করতে হবে। আর আপনি যদি তাদের কথা মতো কাজ না করেন। তাহলে কিন্তুু হিতে বিপরীত হয়ে যাবে। 

অপরদিকে আপনি যদি অনলাইনে চাকরি করেন ৷ তাহলে কিন্তুু আপনি ভিন্ন চিএ দেখতে পারবেন ৷ কারন এখানে আপনার কোনো বস থাকবে না, বরং এখানে আপনিই আপনার বস।

এবং আপনার নিজের সুযোগ এবং সুবিধা মতো কাজ করতে পারবেন। 

যেমন, দিনের বেলায় আপনি যদি অন্য কোনো কাজে ব্যস্ত থাকেন। তাহলে আপনি রাতের বেলায় অনলাইন এর কাজ গুলো করতে পারবেন ৷ অর্থ্যাৎ, এখানে আপনাকে অর্ডার করার মতো কেউ থাকবে না।

কারন হলো, আপনিই আপনার বস। সত্যি বলতে এই দিকটা আমার ভীষন ভালো লাগে। 

[💡Important Note] দেখুন উপরের আলোচনা টি পড়ার পর এটা ভাববেন না যে রিয়েল লাইফের চাকরির কোনো সুবিধা নেই। হুমমম, রিয়েল লাইফ এর চাকরিও অনেক উওম। তবে আমি শুধুমাএ অনলাইন এবং বাস্তবিক জীবনে চাকরির কিছুটা পার্থক্য বর্ননা করেছি।

বাংলাদেশ থেকে অনলাইন জব করা সম্ভব? 

দেখুন পৃথিবীতে অসম্ভব বলতে তেমন কিছুই নেই। কারন আমাদের দেশে অসম্ভব কে সম্ভব করার মতো অনেক মানুষ আছে। স্যরি! একটু মজা করলাম।

হুমমম, বাংলাদেশ থেকেও আপনি খুব সহজেই অনলাইন জব করতে পারবেন। বর্তমানে এমন অনেক মানুষ আছে যারা, অনলাইন জব বাংলাদেশ থেকেই করছে।

অনলাইন চাকরি বাংলাদেশ থেকে করার মাধ্যমে বিপুল পরিমান টাকা আয় করতে পারছে।

আর যেহুতু বাংলাদেশ থেকে অনেক মানুষ অনলাইনে জব করতে পারছে। সেহুতু আপনিও চাইলে তাদের মতো বাংলাদেশ থেকে অনলাইনে চাকরি করতে পারবেন। এবং চাকরি করে তাদের মতো হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন ৷

তবে আপনি যদি বাংলাদেশ থেকে Online Job করতে চান। তাহলে আপনাকে কোনো একটা সময়ে গিয়ে একটু বিপাকে পড়তে হবে। সেটি হলো পেমেন্ট মেথড এর সমস্যা।

আরোও দেখতে পারেন…

কারন অনলাইনে কাজ গুলো মূলত বহিরাগত দেশ থেকে পরিচালনা করা হয়ে থাকে। আর ঐ দেশ গুলোতে পেমেন্ট করার জন্য অনেক সময় PayPal কে ব্যবহার করা হয়ে থাকে ৷

কিন্তুু দুঃখজনক হলেও সত্য যে, পেপাল কিন্তুু বাংলাদেশ থেকে ব্যান করে দেয়া হয়েছে। যার কারনে আপনি বাংলাদেশ থেকে আর এই Paypal কে ব্যবহার করতে পারবেন না।

তবে এমন অনেক ধরনের অনলাইন জব বিকাশ পেমেন্ট করে থাকে। সেক্ষেএে আপনি খুব সহজেই ঐ জব গুলো করে পেমেন্ট নিতে পারবেন ৷

কিন্তুু এই পেমেন্ট এর ঝামেলা এড়ানোর জন্য আপনি আপনার Bank Account কে ব্যবহার করতে পারবেন।

[💡PRO TIPS: বাংলাদেশ থেকে এখনও কিছু টিপস এন্ড ট্রিকস ফলো করে PayPal ব্যবহার করা সম্ভব। আপনি যদি বাংলাদেশি হওয়ার পরও পেপাল ব্যবহার করতে চান ৷ তাহলে কমেন্ট করে জানাবেন।]

অনলাইন জব করে টাকা ইনকাম করার উপায়

যাক, এবার আমরা মূল টপিকে ফিরে আসবো। এতোক্ষন ধরে আমরা অনলাইন জব রিলেটেড অনেক বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছি।

আশা করি আপনি উপরোক্ত আলোচনা গুলো ঠিক মতো বুঝতে পেরেছেন।

তবে আপনি যদি উপরের আলোচনা গুলো স্কিপ করে থাকেন। তাহলে পুনরায় আরেকবার পড়ুন ৷ নাহলে আপনি পরবর্তী আলোচনা গুলোর কিছুই বুঝতে পারবেন না।

তো এবার আমরা জানবো যে, কিভাবে আপনি নিজের ঘরে বসে Online Job করবেন।

এবং অনলাইন জব করে আপনি কত টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন। বাংলাদেশে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার উপায় গুলা কি কি?

এর পাশাপাশি আর্টিকেল এর মাঝে মাঝে আপনাকে কিছু টিপস প্রদান করবো। যে টিপস গুলো ফলো করলে আপনি খুব কম সময় এর মধ্যে দিয়ে অনেক বেশি পরিমানে টাকা অনলাইন থেকে ইনকাম করতে পারবেন।

জব- ০১ঃ অনলাইন সার্ভে জব করে টাকা আয় 

মনে করুন আপনি স্যাভলন কোম্পানির সাবান ব্যবহার করেন। এখন সেই কোম্পানির মালিক আপনার কাছে স্যাভলন সাবান সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য জানতে চাইলো যেমন, 

  • দাম হিসেবে সাবানের কোয়ালিটি কেমন 
  • ব্যবহার করার পর আপনার কেমন লেগেছে
  • এই সাবান এর ফ্লেভার (সুগন্ধ) কেমন ইত্যাদি ইত্যাদি। 

এখন আপনি এই প্রশ্ন গুলোর উওর দিবেন। এবং উওর দেয়ার বিনিময়ে স্যাভলন কোম্পানি থেকে আপনাকে টাকা প্রদান করবে। এবং এভাবে আপনি বিভিন্ন কোম্পানির ফিডব্যাক দিয়ে টাকা আয় করতে পারবেন।

হয়তবা আপনি ভাবছেন যে, আমি এসব কি ওলট পালট কথা বলছি, তাইনা? – তাহলে শুনুন….

আপনি জানলে অবাক হবেন যে, বর্তমানে অনলাইনে এমন জব পাওয়া যায়। যেখানে আপনাকে শুধু কোম্পানির ফিডব্যাক দিতে হবে। এবং এই ধরন এর কাজ কে অনলাইনে বলা হয়, সার্ভে জব। 

কেন আপনি সার্ভে জব করবেন? 

যদি আপনি সার্ভে জব করেন। তাহলে আপনি বিভিন্ন দিক থেকে বেনিফিট পাবেন। যেমন, 

Support All Device 

Survey Job করার এক সবচেয়ে বড় সুবিধা আছে। সেটি হলো এই কাজটি আপনি মোবাইল বা কম্পিউটার এই দুই ধরনের ডিভাইস দিয়েই করতে পারবেন। 

Easy Online Job

অনলাইন এ যতো প্রকার জব আছে। তার মধ্যে সবচেয়ে সহজ জব হলো, সার্ভে করা। যেখানে আপনাকে প্রতিটা কোম্পানি একই ক্যাটাগরির প্রশ্ন করবে। আপনি সেগুলো একবার দেখলেই মনে রাখতে পারবেন। 

No Earning Limitation 

দেখুন আমি আর্টিকেল এর শুরুতে একটা কথা বলেছি। সেটি হলো অনলাইন ইনকামে কোনো প্রকার সীমাবদ্ধতা থাকে না। এর জলন্ত উদাহরন হলো, অনলাইনে সার্ভে করা।

কারন এখানে আপনি যতো বেশি Survey করতে পারবেন। আপনার অনলাইন থেকে আয় করার পরিমান ঠিক ততোটাই বৃদ্ধি পাবে। 

কিভাবে সার্ভে জব করে টাকা আয় করবেন? 

যাক, সার্ভে জব টি আপনার ভালো লেগেছে। সেজন্য এখনও আপনি এই আর্টিকেলটি পড়ছেন। যাইহোক, যেহুতু আপনার এই Online Job টি অনেক ভালো লেগেছে।

সেহুতু সবার আগে আপনাকে জেনে নিতে হবে যে, কিভাবে আপনি Survey Job করে টাকা আয় করবেন। দেখুন যদি আপনি এই সহজ জবটি করতে চান। তাহলে আপনাকে একটা আইপি কিনতে হবে।

এরপর সেই আইপি কে Connect করে আপনাকে কাজ করতে হবে। 

[💡PRO TIPS:আইপি কি“- ” সার্ভে করার জন্য আইপি কিনতে কত টাকা লাগে“- এই বিষয় গুলো নিয়ে আমি একটা ডেডিকেটেড আর্টিকেল লিখেছি।]

তো যখন আপনি আইপি কিনবেন। এবং তার সাথে আপনার মোবাইল বা কম্পিউটার দিয়ে কানেক্ট করবেন। তখন আপনাকে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে যেতে হবে। যেগুলো তে মূলত সার্ভে জব করানো হয়।

এবার আমরা জানবো, বিশ্বের টপ কিছু ওয়েবসাইট সম্পর্কে। যেখানে আপনি নিজের ঘরে বসে অনলাইনে কাজ করে লক্ষ টাকা পর্যন্ত আয় করে নিতে পারবেন। 

Top Website List For Survey Job 

  • Survey Junkie
  • Swagbucks
  • InboxDollars
  • InboxPounds
  • LifePoints
  • OnePoll
  • i-Say (IPSOS
  • Branded Surveys
  • Toluna
  • Valued Opinions
  • Pinecone Research
  • Marketagent
  • PrizeRebel
  • YouGov
  • PopulusLive
  • Opinion Outpost
  • Triaba Panel

জব- 0২ঃ অনলাইন টিউশন (Online Tuition) 

আমরা সবাই জানি যে, সময় পরিবর্তনের সাথে সাথে আমরাও নিজেকে অনেকখানি পরিবর্তন করছি। আর সেই সুবাদে আমরা অনলাইন এর উপর সম্পূর্ন ভাবে নির্ভরশীল হয়ে পড়ছি।

কারনে হোক কিংবা অকারনে, আমরা যথেষ্ট পরিমান সময় অনলাইনে কাটিয়ে দিচ্ছি।

আর বর্তমানে তো আমরা নিজের লেখাপড়ার কাজটাও অনলাইন এর মাধ্যমে করতে পারছি। যেহুতু সব কিছু এখন অনলাইন এর মাধ্যমে করা সম্ভব।

সেহুতু আজকের দিনে আপনি চাইলে Online এর মাধ্যমে টিউশনি এর কাজটাও করতে পারবেন।

কি অবাক হয়ে গেলেন, তাইনা? -হুমম, যখন আমি প্রথম এই বিষয় সম্পর্কে জানতে পারি। তখন আমিও আপনার মতো রিতীমতো অবাক হয়ে গেছিলাম।

আপনার জন্য আরো লেখা…

এরপর যখন এ বিষয়টি নিয়ে অনলাইনে ঘাটাঘাটি করলাম। তখন দেখলাম, এমন অনেক মানুষ আছেন। যারা এখন অনলাইন এ টিউশনি করেই প্রচুর পরিমান টাকা আয় করে নিচ্ছে। 

অনলাইন টিউশন করতে গেলে কি কি যোগ্যতা লাগবে? 

এবার তো আপনি জানতে পারলেন যে, বর্তমানে অনলাইন এর মাধ্যমে টিউশনি করা যায়। এবং অনেকেই এই কাজটি করে বিপুল পরিমানে টাকা আয় করতে পারছে।

তো এবার আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে, যদি আপনিও অন্যদের মতো অনলাইনে টিউশনি করাতে চান। তাহলে আপনার কি কি যোগ্যতা লাগবে।

দেখুন রিয়েল লাইফে যদি আপনি কোনো টিউশনি করাতে যান ৷ তাহলে আপনার অনেক কিছুর প্রয়োজন পড়বে। যেমন, আপনার কোয়ালিফিকেশন, টিউশনি করার পূর্ব দক্ষতা, আপনি কোনো বিষয়ে বেশ দক্ষতাসম্পন্ন ইত্যাদি ইত্যাদি।

কিন্তুু আপনি যদি টিউশনি করার কাজটা অনলাইন এর মাধ্যমে করেন। তাহলে কিন্তুু আপনার এতো কিছুর প্রয়োজন হবে না। সেক্ষেত্রে আপনি কোনো এক বা একাধিক সাবজেক্ট দক্ষতাসম্পন্ন হলেই যথেষ্ট।

কিন্তুু অনলাইনে টিউশনি করাতে গেলে আপনার বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ ইকুইপমেন্ট এর প্রয়োজন পড়বে। যেমন, আপনার কাছে একটি স্মার্ট ডিভাইস থাকতে হবে।

যেমন, কম্পিউটার, ল্যাপটপ অথবা একটি ভালো মানের মোবাইল থাকতে হবে। যার মাধ্যমে আপনি অনলাইন এর সাথে কানেক্টেড হতে পারবেন

কোথায় অনলাইন টিউশন এর জব করে টাকা আয় করবেন? 

দেখুন বর্তমানে অনেক অনলাইন ইনকাম সাইট রয়েছে। যেখানে মানুষ কাজ করে টাকা আয় করে থাকে ৷ এখন আপনি যদি অনলাইনে টিউশনি করতে চান।

তাহলেও আপনার সামনে এমন অনেক ওয়েবসাইট চলে আসবে ৷ যেখানে আপনিও অন্যদের মতো টিউশনি করিয়ে টাকা আয় করতে পারবেন ৷

আর যদি আপনি একজন ছাএ বা ছাএী হয়ে থাকেন ৷ তাহলে এই Online Job টি আপনার জন্য একটি উপযুক্ত কাজ হবে। স্টুডেন্টদের জন্য পার্ট টাইম জব হিসেবে এই কাজটি যথেষ্ট উপযুক্ত।

তাই আপনি পড়াশোনা করার পাশাপাশি অনায়াসেই উক্ত কাজটি করতে পারবেন।

তো অনলাইনে টিউশনি করে টাকা আয় করা যায়। এমন অনেক ধরনের ওয়েবসাইট থাকলেও, আমি আজকে সবচেয়ে জনপ্রিয় ওয়েবসাইট গুলোর একটা লিষ্ট দিবো।

এখন আপনার কোন ওয়েবসাইটে কাজ করতে ভালো লাগবে। তা এই আর্টিকেল এর নিচে কমেন্ট করে জানাবেন। 

Top Website List For Online Tuition 

  • Aim-for-A Tutoring – (Read full review)
  • Cambly – (Read full review)
  • Chegg – (Read full review)
  • iDTech
  • Revolution Prep
  • Skooli
  • SmartThinking by Pearson
  • TeacherOn
  • Tutor.com
  • Tutor Extra
  • Sunlyt
  • SuperProf
  • TutorMe
  • VIPKid – (Read full review) 
  • Wyzant

জব- 0৩ঃ সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার

অনলাইনে আরও একটি জনপ্রিয় জব রয়েছে। সেটি হলো সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার ৷ যে কাজটি আপনি নিজের ঘরে বসেই করতে পারবেন। আর এই কাজটি কিন্তুু অন্যান্য কাজের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ডিমান্ডেবল একটা জব। 

তো এই অনলািন জব টি নিয়ে অবশ্যই বিস্তারিত জানবো। তবে তার আগে আমাদের জানতে হবে যে, সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার আসলে কাকে বলে। 

এই জবটি মূলত কোনো সেলিব্রিটি থেকে শুরু করে বিত্ত্বশালী ব্যক্তিদের আওতায় করতে হবে। যেমন ধরুন, আমাদের দেশে বর্তমানে সিনেমা জগতের জনপ্রিয় নায়ক হলো সাকিব খান।

এখন আপনি যদি ফেসবুকে গিয়ে Sakib Khan লিখে সার্চ করেন। তাহলে আপনি একটা ফেসবুক ভেরিফাই করা পেজ দেখতে পারবেন। যেখানে তার নতুন সিনেমা কিংবা সিনেমার গান ছাড়াও তার ব্যক্তিগত বিষয় গুলো পোষ্ট করা হয়ে থাকে। 

ঠিক একইভাবে শুধু ফেসবুক নয় বরং অন্যান্য যে সোশ্যাল মিডিয়া গুলো রয়েছে। সেগুলোতেও কিন্তুু সাকিব খানের একটি করে ভেরিফাই করা আইডি আছে। 

এখন প্রশ্ন হলো যে, এই সোশ্যাল মিডিয়াতে থাকা একাউন্ট গুলো কি সাকিব খান নিজেই পরিচালনা করেন? -উওরটা হবে, না! এগুলো তিনি নিজে পরিচালনা করেন না।

কারন তিনি সিনেমার শুটিং করতেই বিজি থাকেন। আর এসব একাউন্ট চালানোর মতো তার এতো সময় নেই। 

তো জানার বিষয় হলো যে, কে তার সোশ্যাল মিডিয়া তে থাকা একাউন্ট গুলো পরিচালনা করে? – এর উওরটা হবে, যারা সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার এর কাজ করে। মূলত তারা এই একাউন্ট গুলোকে পরিচালনা করে থাকে। 

হুমমম, আপনার অনুমান একেবারে সত্য। কারন সাকিব খান বেতন দিয়ে একজন মানুষকে রেখেছে। যার মূল কাজ হলো, তার যত গুলো সোশ্যাল একাউন্ট রয়েছে।

সেগুলোর দেখভাল করা। এর বাইরে তাকে আর কোনো কাজ করতে হবে না। বিষয়টা খুব ইন্টারেস্টিং, তাইনা?

কিভাবে সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার এর জব করে টাকা ইনকাম করবেন? 

আপনি হয়তবা বুঝে গেছেন যে অনলাইন প্লাটফর্ম এ যেসব জব রয়েছে। তার মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার এর জবটি অনেক সহজ একটা কাজ। এর পাশাপাশি উক্ত জবটি কিন্তুু অন্যান্য জব এর মধ্যে অনেক ডিমান্ডেবল।

এই জব সম্পর্কে জানার পর আপনারও এই কাজের প্রতি আগ্রহ জন্মাতে পারে। তো এখন জানার বিষয় হলো যে, কিভাবে আপনিও সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার এর জব করে অনলাইন থেকে টাকা আয় করতে পারবেন।

প্রথমত যে বিষয়টি অনেক গুরুত্বপূর্ণ, তা হলো আপনার যোগ্যতা। অর্থ্যাৎ, কেমন যোগ্যতা সম্পন্ন ব্যক্তিরা এই চাকরিটি করতে পারবে।

দেখুন, এই জবটি করতে আপনার কিরকম যোগ্যতা লাগবে। সেটা কিন্তুু স্পষ্ট করে বলা সম্ভব নয়। কারন এক্ষেএে একেক ব্যক্তি ভিন্ন ভিন্ন যোগ্যতা সম্পন্ন ব্যক্তিদের নিয়োগ দিয়ে থাকে।

তবে আমার দৃষ্টিকোন থেকে যা মনে হয় তা হলো, এই চাকরি টি করার জন্য আপনার উচ্চ শিক্ষা শিক্ষিত হতে হবে। এর পাশাপাশি আপনার সোশ্যাল মিডিয়া গুলো পরিচালনা করার জন্য যথেষ্ট ধারনা থাকতে হবে। 

Top Website List For Social Media Manager Job

যোগ্যতার বিষয়টি নিয়ে আলোচনার পর এবার আমাদের জানতে হবে যে, কিভাবে আপনি এই Online Job টি খুজবেন? এবং কোথায় খুজলে এই জব এর সন্ধান পাবেন?

তো যদি আপনি এই অনলাইন চাকরি টি করতে চান। তাহলে আপনাকে বিভিন্ন ওয়েবসাইট এ একটিভ থাকতে হবে। আপনার সুবিধার জন্য আমি নিচে কিছু ওয়েবসাইট এর লিষ্ট দিলাম। আপনি এই সাইট গুলো তে নিয়মিত একটিভ থাকার চেস্টা করবেন। 

  • Acadium
  • Linkedin 
  • Upwork 
  • Guru
  • Hubstaff Talent
  • Freelancer 
  • Fiver
  • Facebook 
  • Twitter 
  • Instagram 
  • People Per Hour 
  • Cloud Peeps 
  • Authentic Job
  • Simply Hired 
  • Working Nomads

জব- ০৪ঃ অনলাইন ডাটা এন্ট্রি করে টাকা আয়

যারা মূলত অনলাইন এর ইনকাম জগতে সর্বপ্রথম পা রাখে। তারা প্রায় সবাই ডাটা এন্ট্রি এর নাম শুনে থাকে। সবাই বলে এই কাজটি অনেক সহজ।কিন্তুু কিভাবে এই কাজটি করতে হয় সে সম্পর্কে কেউ পরিস্কার ধারনা দেয় না।

Data Entry একটি টাইপিং রিলেটেড জব। যেখানে আপনার কাছে একটা কম্পিউটার বা ল্যাপটপ থাকবে। এবং সেখানে আপনি বিভিন্ন ডাটা (Data) কে লিপিবদ্ধ করবেন। মূলত এই কাজটি কে বলা হয়, অনলাইন ডাটা এন্ট্রি জব।

হতে পারে এটি একটি টাইপিং জব। কিন্তুু এই সহজ কাজটি করে এমন অনেক মানুষ আছেন। যারা প্রতি মাসে হাজার হাজার টাকা অনলাইন থেকে আয় করে আসছে। আর এই সুযোগ কে আপনিও চাইলে কাজে লাগাতে পারবেন। 

Top Website List For Data Entry Job 

এমন অনেক ওয়েবসাইট রয়েছে। যেগুলো তে শুধুমাএ ডাটা এন্ট্রি নিয়ে কাজ করা হয়ে থাকে। অর্থ্যাৎ, এই ওয়েবসাইট গুলোতে বিভিন্ন দেশ থেকে মানুষ ডাটা এন্ট্রির জব দিয়ে থাকে। যেমন, 

  • Rev
  • Transcribeme
  • Scribie
  • Go transcript
  • Fiverr
  • Mturk
  • Upwork
  • Smart Crowd
  • FFT Transcription
  • Indeed
  • Megatypers
  • Clickworker
  • Birch Creek Community
  • Sigtrack

এগুলো ছাড়াও আরও অনেক ধরনের ডাটা এন্ট্রি জব সাইট রয়েছে। আপনি যদি গুগলে সার্চ করেন, তাহলে এমন অনেক ধরনের ওয়েবসাইট সম্পর্কে জানতে পারবেন।

[💡NOTE: “ডাটা এন্ট্রি কি” এবং “কিভাবে ডাটা এন্ট্রি করে আয় করবেন“- সে নিয়ে আমার ওয়েবসাইটে একটি ডেডিকেটেড আর্টিকেল পাবলিশ করা আছে।]

জব- ০৫ঃ কন্টেন্ট রাইটিং জব করে অনলাইন থেকে টাকা আয়

অনলাইনে যতো প্রকার জব রয়েছে, তার মধ্যে সবচেয়ে সম্মানজনক একটি পেশা হলো কন্টেন্ট রাইটিং। যদি আপনার ভেতরে লেখালেখি করার মতো দক্ষতা থাকে ৷

তাহলে আপনি আপনার এই দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে প্রচুর পরিমান টাকা অনলাইন থেকে আয় করে নিতে পারবেন।

Content Writing হলো, কোনো একটি বিষয়কে নতুন আঙ্গিকে লিখিত আকারে প্রকাশ করা। সেই লেখাটি হতে পারে কোনো পএিকার জন্য, কিংবা কোনো ওয়েবসাইট এর জন্য।

আর এই জবটির বিশেষ সুবিধা হলো, এটি আপনি চাইলে অফলাইনে কাজ করতে পারবেন। আবার আপনার চাইলে অনলাইন এর মাধ্যমেও উক্ত জবটি করতে পারবেন।

আপনি যদি অনলাইন এর ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস গুলোর দিকে তাকান। তাহলে দেখতে পারবেন Content Writing এর জবটি অনেক বেশি ডিমান্ডেবল।

আর এই জব এর এতো বেশি ডিমান্ড থাকার কারনে এখানে আগের তুলনায় প্রতিযোগীতাও অনেক গুন বেড়ে গেছে।

তাই আপনি যদি কন্টেন্ট রাইটিং করে টাকা আয় করতে চান। তাহলে অবশ্যই আপনাকে একজন ভালো মানের রাইটার হতে হবে। আপনার লেখা কন্টেন্ট এর মধ্যে কিছু নতুনত্ব থাকতে হবে।

নাহলে আপনি তাদের সাথে প্রতিযোগীতা করে পেরে উঠতে পারবেন না। 

কন্টেন্ট রাইটিং জব এর কিছু গুরুত্বপূর্ণ দিক

উপরে আমি বলেছি যে, Content Writing হলো এক ধরনের অনলাইন টাইপিং জব। যদি আপনি কন্টেন্ট রাইটিং জব করে টাকা আয় করতে চান।

তাহলে আপনাকে একজন দক্ষ রাইটার হতে হবে। তবে এবার প্রশ্ন হলো যে, একজন রাইটার এর ভিতরে কি কি গুন থাকলে তাকে দক্ষ রাইটার বলা যেতে পারে।

তো একজন দক্ষ Content Writer এর ভেতরে বেশ কিছু গুনাবলি থাকতে হবে। যেমন, 

  • যথেষ্ট রিসার্চ করার মতো দক্ষতা থাকতে হবে। কোনো একটি বিষয় সম্পর্কে জানার পর সেই বিষয়টি নিয়ে যথোপযুক্ত তথ্য সংগ্রহ করার মতো অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। 
  • কন্টেন্ট রাইটার হতে হলে ব্যাকরন সম্পর্কে জ্ঞান রাখাটা অতি আবশ্যক একটি বিষয়। কারন আপনার লেখা পড়ে মানুষ যদি কিছুই বুঝতে না পারে। তাহলে কিন্তুু আপনি কোনো প্রকার বেনিফিট পাবেন না। 
  • আপনার লেখার ভাষা গুলো সহজ এবং সাবলীল হতে হবে। যেন, কোনো মানুষ আপনার লেখা পড়ার পর মূল টপিক সম্পর্কে জানতে পারে। 
  • কোনো একটা ছোট্ট বিষয়কে নতুন আঙ্গিকে লিখিত আকারে প্রকাশ করার মতো যথেষ্ট দক্ষতা থাকতে হবে। 

Top Website List For Content Writing Job

এবার আমরা জানবো, কন্টেন্ট রাইটিং জব করা যায়। এমন কিছু গুরুত্বপূর্ণ ওয়েবসাইট সম্পর্কে। যেখানে আপনিও অন্যদের মতো কন্টেন্ট রাইটিং জব করে প্রচুর পরিমানে টাকা আয় করে নিতে পারবেন।

তো আপনি যদি অনলাইনে সার্চ করেন। তাহলে এমন অনেক ধরনের অনলাইন জব সম্পর্কে জানতে পারবেন। যেমন,

  • Upwork
  • iWriter
  • FlexJobs
  • BloggingPro
  • Guru
  • Freelancer
  • People-Per-Hour
  • Craigslist
  • The Writer Finder
  • Constant Content
  • Textbroker
  • Writer Access
  • Self Publishing School

জব- ০৬ঃ ট্রান্সেলেশন জব করে অনলাইন টাকা টাকা ইনকাম

অনলাইনে অন্যান্য জব এর মতো আরও একটি ডিসান্ডেবল জব এর নাম হলো, ট্রান্সেলেশন জব। যেখানে আপনি একটি ভাষাকে অন্য ভাষাতে রুপান্তর বা Translated করতে হবে।

এবং এই কাজের বিনিময়ে আপনি অনলাইন থেকে বেশ ভালো পরিমানে ইনকাম জেনারেট করতে পারবেন।

মনে করুন, আপনি একজন বাংলাদেশি মানুষ। এখন আপনার বাংলা ভাষা জানার পাশাপাশি ইংরেজি সম্পর্কেও যথেষ্ট ধারনা আছে। এখন আপনি এই ধারনা কে কাজে লাগাতে পারবেন।

আর এই কাজটি করে আপনিও অনলাইন হতে টাকা আয় করে নিতে পারবেন।

তবে শুধু ইংরেজি ভাষাতেই যে ট্রান্সেলেট জব করা হয়। বিষয়টা আসলে তেমন নয়, বরং ইংরেজি ছাড়াও আপনি অন্যান্য দেশের ভাষা জেনেও উক্ত কাজটি করতে পারবেন।

যেমন, চীন, জাপান, হিন্দি ভাষা রপ্ত করেও খুব সহজেই উক্ত জবটি করতে পারবেন। 

কিভাবে ট্রান্সলেশন জব খুজে পাবেন? 

তো এই জবটি করার জন্য আপনার কি রকম যোগ্যতা লাগবে ৷ আশা করি সে সম্পর্কে বুঝে গেছেন। তো এবার আমরা জানবো যে, কিভাবে আপনি অনলাইন এর মাধ্যমে ট্রান্সেলেশন জব করতে পারবেন।

আপনার জন্য আরো আর্টিকেল…

যদি আপনি অনলাইন থেকে আয় করার জন্য Translation Job করতে চান। তাহলে আপনাকে বেশ কিছু ওয়েব সাইট এর সাহায্য নিতে হবে। এবার সেই ওয়েবসাইট এর নাম গুলো সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক।

তো এমন অনেক ধরনের ওয়েবসাইট রয়েছে। যেখানে আপনি খুব সহজেই Translation Online Job খুজে পাবেন ৷ যেমন, 

  • Gengo
  • Smartling
  • Onehourtranslation
  • Upwork 
  • Fiver 
  • Freelancer 
  • People Per Hour 

আমাদের শেষকথা 

আজকের আর্টিকেলটি মূলত অনলাইন জব সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। অর্থাৎ, আপনি কিভাবে রিয়েল লাইফ এর মতো অনলাইন চাকরি করবেন। তার প্রত্যেকটা বিষয় স্টেপ বাই স্টেপ আলোচনা করা হয়েছে।

তো যদি আপনি পুরো আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে পড়েন ৷ তাহলে আশা করা যায়, আপনার Online Job রিলেটেড যাবতীয় বিষয় গুলো ভালোভাবে বুঝতে পেরেছেন।

এরপরও যদি আপনার অনলাইন জব রিলেটেড আরও কোনো জানার থাকে। তাহলে প্লিজ কমেন্ট করে জানাবেন ৷

আরো নতুন নতুন অনলাইন ইনকাম আর্টিকেল পড়তে বাংলা আইটি ব্লগ নিয়মিত ভিজিট করুন।

10 thoughts on “৬টি অনলাইন জব করে টাকা ইনকাম করার উপায় ২০২২”

      1. আমি ফারহানা,
        অনলাইন জব সম্পর্কে জানার আগ্রহ ছিল অনেক দিন থেকে। এই বিষয়ে অনেকেই লিখেছেন কিন্তু আমার মনে হয়েছে এতটা স্পষ্টভাবে কেউ লিখতে পারেননি।

        কনটেন্ট রাইটার: এই বিষয়ে আমার জানার ইচ্ছে ছিল কারণ আমার পড়াশোনার সাথে রিসার্চ বিষয়ে একটা যোগসূত্র ছিল। তাই এই বিষয়ে পরিষ্কার ধারণা পেয়ে ভালো লেগেছে।

        1. আমি সার্ভে বা টিশনিতে কাজ করতে হলে কি কি করতে হবে

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap