বিটকয়েন আয় করার সহজ উপায় – বিট কয়েন ইনকাম করুন

বিটকয়েন আয় করার সহজ উপায় (How to earn bitcoin online free) 2009 সালের শেষের দিকে বিটকয়েন এর যাত্রা শুরু হয়েছিল। কিন্তু যখন বিটকয়েন সর্ব প্রথম যাত্রা শুরু করেছিল।

বিটকয়েন আয় করার সহজ উপায় - বিট কয়েন ইনকাম করুন
বিটকয়েন আয় করার সহজ উপায়

তখন এই অনলাইন কারেন্সি এতটাই জনপ্রিয়তা পেয়েছিল, যা আসলে কল্পনার বাইরে। মূলত বিটকয়েন হলো এক ধরনের ডিজিটাল মুদ্রা।

যার মাধ্যমে আপনি অনলাইনে লেনদেন করতে পারবেন। বাস্তবিক জীবনে আমরা যেভাবে টাকার মাধ্যমে লেনদেন করি।

ঠিক একইভাবে আপনি বিটকয়েন নামক ডিজিটাল কারেন্সি দিয়ে। অনলাইনে খুব সহজেই সব ধরনের লেনদেন করতে পারবেন।

তবে আপনি কি জানেন, এই বিটকয়েন আয় করার সহজ উপায় কি? আপনি কি জানেন, কিভাবে বিটকয়েন আয় করতে হয়? 

যদি আপনি কিভাবে বিটকয়েন আয় করা যায় এই বিষয় গুলো সম্পর্কে না জেনে থাকেন। তাহলে আজকের এই আলোচনা টি আপনার জন্য অনেক বেশি প্রয়োজনীয়।

কারণ আজকে আমি আপনাকে খুব সহজ ভাবে বিটকয়েন আয় করার উপায় গুলো জানিয়ে দিব।

আপনার জন্য আরোও লেখা…

এবং আপনি যদি এই বিটকয়েন আয় করার সহজ উপায় গুলো অনুসরণ করেন। তাহলে কিন্তু আপনি ও অন্যান্য মানুষের মত বিটকয়েন ইনকাম করতে পারবেন।

তো চলুন এবার বিটকয়েন আয় করার সহজ উপায় বা bitcoin আয় করার উপায় গুলো জেনে নেওয়া যাক।

বিটকয়েন আয় করার সহজ উপায়

দেখুন বিটকয়েন আয় করার সহজ উপায় হল, মাইনিং করা। অর্থাৎ আপনি যদি বিটকয়েন মাইনিং করেন।

তাহলে খুব সহজেই প্রচুর পরিমানে বিটকয়েন আয় করতে পারবেন। অপর দিকে আপনার যদি এমন কোনো অনলাইন প্লাটফর্ম থাকে।

যেখানে মানুষ আপনার প্রোডাক্ট কিনে নেওয়ার বিনিময়ে বিটকয়েন প্রদান করবে। তাহলে কিন্তু আপনি এই পদ্ধতি অনুসরন করে খুব সহজেই বিটকয়েন আয় করতে পারবেন।

তবে বর্তমান সময়ের দিকে লক্ষ্য করলে দেখতে পারবেন। আমাদের মধ্যে এমন অনেক মানুষ আছেন। যারা মূলত মাইনিং করে বিটকয়েন আয় করে থাকে।

আর সময়ের সাথে সাথে বিটকয়েন এর যেমন জনপ্রিয়তা বাড়ছে। ঠিক তেমনিভাবে মাইনিং করার মত এমন অনেক প্লাটফ্রম তৈরি হয়েছে।

আর এবার আমি আপনাকে সেই সকল প্ল্যাটফর্ম গুলোর সাথে পরিচয় করিয়ে দিব। যে গুলো তে মাইনিং করার মাধ্যমে বিটকয়েন আয় করা যায়।

তো চলুন এবার সেই প্ল্যাটফর্ম গুলো সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক। 

সেরা বিটকয়েন আয় করার উপায় 

দেখুন সবার শুরুতেই আমি আপনাকে একটা কথা বলব। আর সেই কথাটি হলো, টাকা ইনকাম করার কোন পথ সহজ নয়।

ঠিক তেমনি ভাবে বর্তমান সময়ে আপনি যদি অনলাইন মধ্যে বিটকয়েন আয় করতে চান। তাহলে কিন্তু আপনাকে অনেক শ্রম ও সময় ব্যয় করতে হবে।

কিন্তু আমাদের মধ্যে এমন অনেকেই আছেন। যারা মাত্র কয়েকটা ক্লিক করার মাধ্যমে বিটকয়েন আয় করতে চায়।

তো যারা আসলেই এমন স্বপ্ন দেখেন, তারা এই স্বপ্ন দেখা বন্ধ করে দিন। কারণ মানুষ যদি কয়েকটা ক্লিক করার মাধ্যমে বিটকয়েন আয় করতে পারতো।

তাহলে পৃথিবীতে আর কোন মানুষ গরিব থাকবে না। কারণ সবাই হাতে একটা মোবাইল অথবা কম্পিউটার নিয়ে কয়েকটা ক্লিক করেই বিটকয়েন আয় করতে পারত।

তবে আজকে আমি আপনাকে বেশ কয়েকটি অ্যাপস এর সাথে পরিচয় করিয়ে দিব। মূলত আপনি যদি এই অ্যাপস গুলো আপনার মোবাইলে ইন্সটল করে রাখেন।

এবং নিয়ম অনুযাযী কাজ করেন। তাহলে কিন্তু আপনার বিটকয়েন আয় করার সম্ভাবনা তৈরী হবে।

তো চলুন এবার সেই  বিটকয়েন আয় করার প্ল্যাটফর্ম গুলো সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

ক্রিপ্টোট্যাব (CryptoTab)

সবার শুরুতেই আমি আপনাকে এমন একটি বিটকয়েন আয় করার উপায় সম্পর্কে বলব।

যার মাধ্যমে আপনি আপনার যে কোন ডিভাইস থেকে নিয়ম অনুযায়ী কাজ করে বিটকয়েন আয় করতে পারবেন।

আর সেই বিটকয়েন আয় করার প্লাটফর্ম এর নাম হলো, CryptoTab. যার সাহায্য আমরা খুব সহজেই বিটকয়েন আয় করতে পারবো।

তো এখন আপনার মনে প্রশ্ন জাগে থাকতে পারে যে, এই প্লাটফর্ম থেকে কিভাবে বিটকয়েন আয় করা যাবে। এবং বিটকয়েন আয় করার জন্য কি কি কাজ করতে হবে।

তো আর আপনার মনে যদি এই ধরনের প্রশ্ন জেগে থাকে। তাহলে শুনে নিন,,, আপনি যদি CryptoTab থেকে বিটকয়েন ইনকাম করতে চান।

তাহলে এখানে আপনাকে মাইনিং করতে হবে। আর মাইনিং করার মাধ্যমে আপনি উক্ত প্ল্যাটফর্ম থেকে বিটকয়েন আয় করতে পারবেন।

তবে অবাক করার মত বিষয় হলো, এই প্ল্যাটফর্মের সকল ডিভাইসের জন্য ভার্সন রয়েছে।

অর্থাৎ আপনি চাইলে মোবাইল থেকে এই প্লাটফর্ম ব্যবহার করতে পারবেন।

অথবা আপনার কাছে যদি কম্পিউটার থাকে তাহলেও আপনি ব্রাউজিং এর মাধ্যমে ক্রিপ্টোট্যাব নামক বিটকয়েন আয় করার জন্য  মাইনিং করতে পারবেন।

সোয়েট কয়েন (Sweatcoin)

আমি আপনাকে বিটকয়েন আয় করার এমন একটি উপায় সম্পর্কে বলব। যে উপায়ে বিটকয়েন ইনকাম করার জন্য তেমন কোন ধরনের পরিশ্রম করার প্রয়োজন হবে না।

অর্থাৎ এখানে আপনি কোন প্রকার কাজ না করেই বিটকয়েন আয় করতে পারবেন। আর যখন আপনার ডিভাইসের মধ্যে এই সোয়েট  কয়েন নামক অ্যাপস কিংবা সফটওয়ারটি থাকবে।

তখন ওখান থেকে আপনাকে বিভিন্ন ধরনের টাস্ক প্রদান করা হবে। আর আপনাকে সেই টাস্ক গুলো সঠিক ভাবে অনুসরণ করতে হবে।

যেমন ধরুন,  এই অ্যাপসটি ইন্সটল করার সাথে সাথেই তারা আপনার বিভিন্ন কার্যকলাপ পর্যবেক্ষণ করবে। যেমন, আপনাকে কিছু ব্যায়াম দিবে।

আপনি যদি সঠিক ভাবে সেই ব্যায়াম গুলো করতে পারেন। তাহলে উক্ত প্ল্যাটফর্ম থেকে আপনাকে কিছু কয়েন প্রদান করা হবে।

আর এভাবে আপনি যখন অনেক গুলো কয়েন জমা করতে পারবেন। তখন আপনার সেই কয়েন গুলো উইথড্রো করার মাধ্যমে বিটকয়েন আয় করতে পারবেন।

তবে এই প্লাটফর্ম থেকে আপনি কি পরিমান বিটকয়েন আয় করতে পারবেন। সেটা সম্পূর্ণ আপনার উপর নির্ভর করবে।

কেননা এই ভাবে আপনার পারফরমেন্সের উপর ভিত্তি করে বিট কয়েন প্রদান করবে।

ব্লকচেইন গেম (Blockchain Game)

এই বিটকয়েন আয় করার অ্যাপস এর মধ্যে আপনি এমন অনেক ধরনের গেম দেখতে পারবেন। যে গুলো মূলত ব্লকচেইন গেম হিসেবে পরিচিত।

আর এই গেম গুলোর বিশেষ বৈশিষ্ট্য আছে। সেগুলো হলো, এখানে আপনি বিনোদনের জন্য গেম খেলার পাশাপাশি। এই গেম খেলার বিষয়ে আধুনিক বিটকয়েন আয় করতে পারবেন।

হয়তোবা আপনার কাছে অবিশ্বাস্য মনে হলেও এটাই সত্যি। কারন বর্তমান সময়ে আপনি গেম খেলেও বিটকয়েন আয় করতে পারবেন।

তবে আপনি যদি এই গেম খেলার মাধ্যমে বিটকয়েন আয় করতে চান। তাহলে কিন্তু আপনাকে সেই গেমস গুলো খুঁজে নিতে হবে। যে গুলো খেলে বিটকয়েন আয় করা যায়।

আর একটা কথা বলে রাখা ভালো যে, এই পদ্ধতি অনুসরণ করে আপনি যদি বিটকয়েন আয় করতে চান। তাহলে কিন্তু আপনার অনেক সময় ব্যয় করতে হবে।

কেননা এই সহজ কাজ গুলো করে বিটকয়েন আয় করতে গেলে প্রচুর সময় ব্যয় করতে হয়।

এবং এই সময় ব্যয় করার বিনিময়ে খুব অল্প পরিমাণ বিটকয়েন আয় করা যায়। তবুও চেষ্টা করবেন বর্তমান সময়ে বিটকয়েন প্রদান করে এমন গেমস গুলো খেলার।

আর অনলাইনের মধ্যে আপনি যদি ব্লকচেইন গেমস লিখে সার্চ করেন। তাহলে কিন্তু এমন অনেক গেমসের তালিকা দেখতে পারবেন।

যে গুলো থেকে গেম খেলে বিটকয়েন আয় করা সম্ভব। 

লনমাওয়ার (Lawnmower)

আমাদের মধ্যে এমন অনেকেই আছেন, যারা মূলত ইনভেস্ট করার মাধ্যমে বিটকয়েন আয় বলতে চায়।

তো আপনিও যদি আপনার অর্থ ইনভেস্ট করার মাধ্যমে বিটকয়েন আয় করতে চান।

তাহলে আপনার জন্য উপযুক্ত একটি প্লাটফর্ম হবে, Lawnmower. এই পদ্ধতি অনুসরণ করে আপনি খুব সহজেই অনেক বেশি বিটকয়েন আয় করতে পারবেন।

কিন্তু এখানে আপনি কি পরিমান বিটকয়েন আয় করতে পারবেন। সেটা আপনার ইনভেস্ট এর উপর নির্ভর করবে। অর্থাৎ আপনি যত বেশি টাকা ইনভেস্ট করতে পারবেন।

তার উপর ভিওি করে আপনার বেশি বিটকয়েন আয় করার সম্ভাবনা বাড়তে থাকবে। তবে এই ধরনের ইনভেস্টমেন্ট প্ল্যাটফর্ম গুলো তে ইনভেস্ট করার আগে।

অবশ্যই তাদের সম্পর্কে যাচাই বাছাই করবেন। কেননা বর্তমান সময়ে এমন অনেক ভুয়া প্লাটফর্ম তৈরি হয়েছে।

যারা আপনাকে বিটকয়েন আয় করার লোভ দেখিয়ে আপনার ইনভেস্ট করার টাকা হাতিয়ে নেওয়ার ধান্দা থাকবে।

তাই এই ধরনের প্ল্যাটফর্ম গুলো তে আপনার মূল্যবান অর্থ ইনভেস্ট করার আগে বারবার যাচাই বাছাই করবেন। এছাড়ও অনলাইন থেকে এই ধরনের প্লাটফর্ম গুলোর রিভিউ দেখে নিবেন।

তারপর এই ইনভেস্টমেন্ট প্ল্যাটফর্ম গুলো তে আপনার প্রথম ইনভেস্ট করার মাধ্যমে বিটকয়েন আয় করার চেষ্টা করবেন। 

এলিয়েন রান (Alien Run)

এলিয়েন রান গেমস এর নাম শুনে হয়তো আপনি বুঝতে পেরেছেন যে এর মাধ্যমে বিটকয়েন আয় করার জন্য আপনাকে কি কি কাজ করতে হবে।

মূলত আমরা আমাদের মোবাইলের মধ্যে বিভিন্ন ধরনের গেমস খেলে থাকি। তো সেই ধরনের গেমস গুলো খেলার পরে আমরা কোন ধরনের বিটকয়েন কিংবা অর্থ ইনকাম করতে পারি না।

কিন্তু আপনি যদি এলিয়েন রান নামক এই গেমটি ইন্সটল করার পর আপনার মোবাইলের মধ্যে নিয়মিত খেলেন।

তাহলে কিন্তু এই গেমস থেকে আপনার বিটকয়েন আয় করার একটা চমৎকার সুযোগ তৈরি হবে। কেননা এখানে আপনি যত বেশি গেম খেলবেন।

আপনার ততবেশি বিটকয়েন আয় করার সম্ভাবনা বৃদ্ধি পাবে। তবে এই ধরনের গেমস থেকে বিটকয়েন আয় করতে হলে আপনাকে দীর্ঘ সময় পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

কারণ এই সহজ পদ্ধতি গুলো অনুসরণ করে বিটকয়েন আয় করতে হলে। আপনাকে খুব স্বল্প পরিমাণে বিটকয়েন আয় করে সে গুলো কে জমা করতে হবে।

আর সে কারণে এই পদ্ধতি অনুসরন করে বিটকয়েন আয় করতে অনেক সময়ের প্রয়োজন হয়। 

ক্যাশ পাইরেট (CashPirate)

এবার আমি আপনাকে চমৎকার একটি অ্যাপস এর সাথে পরিচয় করিয়ে দিব। যার মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন প্রকারের পদ্ধতি অনুসরণ করে বিটকয়েন আয় করতে পারবেন।

কারণ আপনার মোবাইল এর মধ্যে যদি এই অ্যাপস টি ইন্সটল করা থাকে। তাহলে ওপেন করার সাথে সাথে আপনি বিভিন্ন প্রকারের গেমস দেখতে পারবেন।

এবং আপনি যদি আপনার মোবাইলের সাহায্যে এই গেম গুলো খেলেন। তাহলে কিন্তু আপনার বিটকয়েন আয় করার একটা পথ তৈরি হবে।

আপনি আরোও পড়তে পারেন…

এর পাশাপাশি এই অ্যাপস এর ভিতর আপনি আরও অনেক ধরনের  টাস্ক দেখতে পারবেন। তো আপনি টাস্ক গুলো পূরণ করার মাধ্যমে খুব সহজেই অনেক বেশি বিটকয়েন আয় করতে পারবেন।

তবে সেজন্য আপনাকে অ্যাপস এর ভেতরে থাকা সকল ধরনের গেমস এবং টাস্ক গুলো পূরণ করতে হবে। তাহলে আপনি মোবাইল থেকে বিটকয়েন আয় করতে পারবেন। 

স্ট্রম প্লে (Storm Play)

তো অন্যান্য অ্যাপস এর মত আপনার মোবাইলের মধ্যে যদি স্ট্রম প্লে নামক এপ্লিকেশন টি ইন্সটল করা থাকে।

তাহলে কিন্তু আপনি আপনার মোবাইল থেকে উক্ত অ্যাপসের মাধ্যমে খুব সহজেই বিটকয়েন আয় করতে পারবেন। তবে এই অ্যাপস থেকে আপনি যদি বিটকয়েন আয় করতে চান।

তাহলে কিন্তু আপনাকে বিভিন্ন কোম্পানির প্রোডাক্ট ব্যবহার করতে হবে। অর্থাৎ আপনি যখন অন্যান্য কোম্পানি গুলো প্রোডাক্ট ব্যবহার করবেন।

তখন এই স্পন্সর কোম্পানি গুলো থেকে আপনাকে স্বল্প পরিমাণে বিটকয়েন প্রদান করবে। আর এভাবে আপনি অল্প অল্প করে বিটকয়েন জমিয়ে উক্ত অ্যাপস থেকে অনেক বেশি বিটকয়েন ইনকাম করতে পারবেন। 

আর একটা কথা বলে রাখা ভালো যে, আপনি যদি প্ল্যাটফর্ম থেকে বিটকয়েন আয় করতে চান। তাহলে কিন্তু এখানেও আপনাকে দীর্ঘ সময় পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

কারণ উক্ত অ্যাপ থেকে খুব স্বল্প পরিমাণে বিটকয়েন আয় করা যায়। তাই আপনি যদি উক্ত অ্যাপস এর মধ্যে কাজ করেই বিটকয়েন এর পরিমাণ বাড়াতে চান।

তাহলে কিন্তু আপনাকে দীর্ঘ সময় পর্যন্ত কাজ করতে হবে। তাহলে আপনি একটা সময় বেশ ভালো পরিমাণে বিটকয়েন জমা করতে পারবেন। 

ক্রিপ্টো.কম (Crypto.com)

এই প্লাটফর্ম এর নাম শুনেই হয়তোবা আপনি বুঝতে পেরেছেন যে, এর কাজ আসলে কি। তো এটি হলো এক ধরনের বিট কয়েন আর্ন করার অন্যতম একটি মাধ্যম।

কেননা এর সাহায্যে খুব সহজেই ক্রিপ্ট এক্সচেঞ্জ করা যায়। এবং অবাক করার মত বিষয় হলো, আপনি যখন এই প্লাটফর্ম টি ব্যবহার করবেন।

তখন লক্ষ করতে পারবেন, এই প্লাটপর্ম এর ভেতরে প্রচুর পরিমাণে অ্যাপস সংযুক্ত করা আছে। যে গুলো দিয়ে আপনি খুব সহজেই বিটকয়েন আয় করতে পারবেন।

তবে আপনি যদি এই প্লাটফর্ম থেকে বিটকয়েন আয় করতে চান। তাহলে আপনাকে এখানে বিটকয়েন জমা করে রাখতে হবে। যেমন টা আমরা ব্যাংকের মধ্যে টাকা জমা রাখি।

এবং ব্যাংক আমাদের কে নির্দিষ্ট পরিমাণে সুদ প্রদান করে। ঠিক তেমনি ভাবে ক্রিপ্টো নামক প্ল্যাটফর্ম এর মধ্যে আপনি আপনার অর্জন করা বিটকয়েন গুলো জমা রাখবেন।

এবং আপনার সেই জমা করা বিটকয়েন এর উপর ভিত্তি করে আপনাকে এক ধরনের সুদ প্রদান করা হবে। আর এই সুদের হার মূলত বিটকয়েন পরিশোধ করা হবে।

আপনারা যারা খুব সহজ উপায়ে বিটকয়েন ইনকাম করতে চান। তাদের জন্য এই প্ল্যাটফর্মটি সবচেয়ে কার্যকরী ভূমিকা পালন করবে।

তাই চেষ্টা করবেন বিটকয়েন আয় করার জন্য crypto.com নামক এই  প্ল্যাটফর্ম টি ব্যবহার করার।

ফিচার পয়েন্টস (Feature Points)

আপনারা যারা মোবাইল থেকে বিটকয়েন আয় করার সহজ উপায় খুঁজছেন। তাদের জন্য এবার আমি চমৎকার একটি প্লাটফর্মে কথা বলব।

যেখানে আপনি অনেক ছোট ছোট কাজের বিনিময়ে বিটকয়েন আয় করতে পারবেন। কারণ আপনার মোবাইলের মধ্যে যদি ফিচার পয়েন্টস নামক এই এপ্লিকেশন টি ইন্সটল করা থাকে।

তাহলে কিন্তু এই অ্যাপ্লিকেশন থেকে আপনাকে বিভিন্ন সার্ভে কমপ্লিট করতে হবে।

আর আপনি যখন এই সার্ভেগুলো সঠিক ভাবে কমপ্লিট করতে পারবেন। তখন এর বিনিময় আপনার অ্যাকাউন্টের মধ্যে নির্দিষ্ট পরিমাণে বিটকয়েন জমা হবে।

আর এভাবে আপনি যত বেশি সার্ভে করতে পারবেন। আপনার বিটকয়েন আয় এর পরিমাণ ঠিক ততো বেশি বৃদ্ধি পাবে।

তবে অবাক করার মত বিষয় হলো যে, এখানে আপনি সার্ভে করে বিটকয়েন আয় করার পাশাপাশি।

আরও বিভিন্ন ধরনের ভিডিও দেখা, গেম খেলা, টাস্ক পূরণ করা ইত্যাদির মাধ্যমেও ফিউচার পয়েন্ট থেকে বিটকয়েন আয় করতে পারবেন।

এর পাশাপাশি উক্ত প্ল্যাটফর্ম এর মধ্যে ইনভেস্ট করার মাধ্যমে বিটকয়েন আয় করার সুযোগ রয়েছে।

আপনি চাইলে আপনার মূল্যবান অর্থ উক্ত প্ল্যাটফর্ম এর মধ্যেই ইনভেস্ট করে প্রচুর পরিমাণ বিটকয়েন আয় করতে পারবেন। 

হানি গেইন (Honeygain)

উপরের আলোচনা থেকে আপনি যতগুলো বিটকয়েন আয় করার উপায় সম্পর্কে জানতে পেরেছেন।

সে গুলো তে আপনাকে বিটকয়েন আয় করার জন্য কোন না কোন কাজ করার প্রয়োজন হবে। কিন্তু আপনি যদি হানি গেইন নামক এই প্লাটপর্ম টি ব্যবহার করেন।

তাহলে কিন্তু আপনাকে কোন ধরনের কাজ করতে হবে না। কারণ উপরের লিঙ্ক থেকে আপনি যখন এই অ্যাপটি আপনার মোবাইলের মধ্যে ইন্সটল করে রাখবেন।

তখন এই অ্যাপসটিি আপনার মোবাইলে স্বয়ংক্রিয় ভাবে কাজ করবে। আর সেজন্য অবশ্যই আপনার ডিভাইসেএর মধ্যে ইন্টারনেট কানেকশন এর প্রয়োজন হবে।

আর এভাবে আপনি উক্ত অ্যাপস টি কে যত বেশি স্বয়ংক্রিয় ভাবে কাজ করতে দিবেন। ঠিক ততো বেশি ফ্রি বিটকয়েন আয় করতে পারবেন।

আশা করি, বিটকয়েন আয় করার এই অ্যাপস টি আপনার অনেক ভালো লাগবে। 

FAQ: Bitcoin আয় করার উপায়

Q: ফ্রীতে বিট কয়েন ইনকাম করার উপায় কি?

A: আপনি যদি ফ্রিতে বিটকয়েন ইনকাম করতে চান। তাহলে আপনাকে বিটকয়েন মাইনিং করতে হবে। এছাড়াও বর্তমান সময়ে আপনি এমন অনেক ধরেনর অ্যাপস বা সফটওয়্যার খুজে পাবেন।

যে গুলো তে অনেক ছোট ছোট কাজের বিনিময়ে বিটকয়েন আয় করা সম্ভব।

Q:কিভাবে বিটকয়েন আয় করা যায় ?

A:যারা বিটকয়েন কিভাবে ইনকাম করবো এ সম্পর্কে জানতে চান। তাদের বলবো, প্রথমত বিটকয়েন আয় করার অন্যতম উপায় হলো, মাইনিং করা। এছাড়াও বিভিন্ন অ্যাপস বা ওয়েবসাইট থেকেও বিটকয়েন আয় করা যায়।

Q:মোবাইল দিয়ে বিটকয়েন আয় করা যায়?

A: হ্যা, এখন মোবাইল খেকেও বিটকয়েন আয় করা সম্ভব। তবে সেজন্য আপনাকে বিভিন্ন ধরনের অ্যাপস বা ওয়েবসাইট এর ব্যবহার করতে হবে।

Q:বিটকয়েন একাউন্ট খোলার নিয়ম কি?

A: বিটকয়েন একাউন্ট খোলার জন্য আপনাকে Coinbase Account খুলতে হবে। আর সেই একাউন্ট এর মাধ্যমে আপনি বিটকয়েন লেনদেন করতে পারবেন।

বিটকয়েন আয় নিয়ে আমাদের শেষকথা

আপনারা যারা বিটকয়েন আয় করার সহজ উপায় খুজছিলেন। তাদের জন্য আজকের এই আলোচনা টি অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ন।

কারন আজকের আলোচনায় আমি আপনাকে এমন সব অ্যাপস এর সাথে পরিচয় করিয়ে দিয়েছি। যে গুলোর সাহায্য আপনি ফ্রি বিটকয়েন আয় করতে পারবেন। 

আপনি আরোও দেখুন…

তবে আপনি যদি ইনভেস্ট করে বিটকয়েন আয় করতে চান। তাহলে অবশ্যই সেই প্লাটফর্ম সম্পর্কে যথেস্ট যাচাই বাচাই করার পর ইনভেস্ট করবেন।

আর আপনি যদি এই ধরনের অনলাইন ইনকাম করার উপায় গুলো সম্পর্কে সঠিক তথ্য জানতে চান। তাহলে আমাদের সাথে থাকবেন।

আর এতক্ষন ধরে আমাদের সাথে থাকার জন্য আপনাকে জানাচ্ছি অনেক অনেক ধন্যবাদ। ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন। 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap