কিভাবে টিকটক ভিডিও বানাবো | টিকটক ভিডিও বানানোর নিয়ম

How to create Tik Tok videos in Bengali: ছবি দিয়ে কিভাবে টিকটক বানাবো ? আমাদের মধ্যে এমন অনেক মানুষ আছেন।

কিভাবে টিকটক ভিডিও বানাবো | টিকটক ভিডিও বানানোর নিয়ম
টিকটক ভিডিও বানানোর নিয়ম

যারা মূলত জানতে চায় যে, কিভাবে টিকটক ভিডিও বানাবো, টিকটক ভিডিও বানানোর সফটওয়্যার কোনটি? কিভাবে টিকটক থেকে আয় করা যায়?

অর্থাৎ আপনি যদি অন্যান্য মানুষদের মধ্যে tiktok এর মধ্যে ভিডিও তৈরি করেন। তাহলে আপনাকে কোন কোন পদ্ধতি গুলো অনুসরণ করতে হবে।

 এখন যেহেতু TikTok একটি জনপ্রিয় অ্যাপ, সেখানে অনেক মানুষ এটি দিয়ে ভিডিও তৈরি করছে। কিন্তু আপনি কিভাবে সেরা ভিডিও বানাবেন? এখানে কিছু টিপস আছে যে গুলা আমি আলোচনা করব। 

টিকটক ভিডিও করার সফটওয়্যার গুলা কিভাবে ডাউনলোড করবেন এবং কিভাবে ভিডিও তৈরি করলে আপনার সেই টিকটক এর মধ্যে আপলোড করা ভিডিও গুলো ভাইরাল হবে।

তো যারা  মূলত এই বিষয় টি সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে জানতে চান। জেনেনীন টিকটক ভিডিও তৈরি করবেন যেভাবে।

তাদের জন্য আজকের এই আর্টিকেল টি অনেক বেশি প্রয়োজনীয়। কারণ আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আমি আপনাকে খুব সহজ ভাবে বুঝিয়ে বলার চেষ্টা করব।

যে, কিভাবে আপনি টিক টক ভিডিও বানাবেন। এর পাশাপাশি আমি আপনাকে বেশ কিছু গোপন টিপস শেয়ার করার চেষ্টা করব।

যে গুলো আপনার অনেক কাজে লাগবে। দেখুন বর্তমান সময়ে টিকটক হলো গোটা বিশ্বের মধ্যে পরিচিত একটি শর্ট ভিডিও প্ল্যাটফর্ম।

যেখানে আপনার বা আমার মত এমন লক্ষ লক্ষ মানুষ প্রতিনিয়ত টিকটক এর জন্য ভিডিও তৈরি করছে।

এবং সেই ভিডিও গুলো কে তারা জনপ্রিয় এই শর্ট ভিডিও প্ল্যাটফর্মে আপলোড করছে। আর যখন আমরা সেই tiktok ভিডিও গুলো দেখি।

তখন আমাদের মনেও এই ধরনের ভিডিও তৈরি করার ইচ্ছা জাগে। আর সেই ইচ্ছা থেকে আমরা অনেকেই জানতে চাই যে, টিকটক ভিডিও কিভাবে বানাবো।

তবে আপনি চাইলে বেশ কয়েকটি পদ্ধতি অনুসরণ করে অন্যান্য মানুষদের মতো আকর্ষণীয় সব tiktok ভিডিও তৈরি করতে পারবেন।

তবে তার আগে আপনাকে এই ভিডিও তৈরি করার পদ্ধতি গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে জেনে নিতে হবে।

মূলত টিক টক ভিডিও তৈরি করার (How to make a Tiktok video) এই পদ্ধতি গুলো শেয়ার করার জন্যই আজকের এই আর্টিকেল টি লেখা হয়েছে।

কেননা আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনি জেনে নিতে পারবেন যে। কিভাবে আপনিও অন্যান্য মানুষদের মতো আকর্ষণীয় সব ভিডিও গুলো তৈরি করতে পারবেন।

আপনার জন্য আরোও লেখা…

এবং কিভাবে আপনার তৈরি করা সেই ভিডিও গুলো টিকটক এর মধ্যে আপলোড করবেন। আর আপনি যদি সেই পদ্ধতি গুলো সম্পর্কে জানতে চান।

তাহলে আপনাকে আজকের পুরো আর্টিকেল টি মনোযোগ দিয়ে পড়তে হবে। আর আপনি যদি আজকের এই আর্টিকেল টি পড়েন।

তাহলে আপনিও অন্যান্য মানুষদের মতো কিভাবে টিকটক ভিডিও বানাবেন সেসব সহ জনপ্রিয় সব টিকটক ভিডিও তৈরি (Tiktok Video Create) করতে পারবেন।

কিভাবে টিকটক ভিডিও বানাবো – How to make a Tiktok video

তো উপরের আলোচনা তে আমি আপনাকে একটা কথা বলেছি। আর সেই কথা টি হলো আপনি যদি জানতে চান যে, কিভাবে টিকটক ভিডিও বানাবো।

তাহলে কিন্তু আপনাকে বেশ কিছু পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে। আর এবার আমি সেই পদ্ধতি গুলোর সাথে আপনাকে পরিচিত করার চেষ্টা করব।

আর আপনি যদি সঠিক ভাবে tiktok ভিডিও তৈরি করতে চান। তাহলে অবশ্যই আপনাকে এ পদ্ধতি গুলো কে যথেষ্ট পরিমাণে গুরুত্ব দিতে হবে।

তো সবার শুরুতে জেনে নেয়া যাক যে, একজন নতুন ব্যক্তি হিসেবে যখন tik tok ভিডিও তৈরি করবে। তখন তাকে কি কি পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে।

Tik Tok এপ ডাউনলোড করুন

যদি আপনি tiktok ভিডিও তৈরি করতে চান। তাহলে অবশ্যই প্রথমে আপনাকে টিক টক অ্যাপস ডাউনলোড করে নিতে হবে। কারণ যখন আপনি ভিডিও তৈরি করবেন।

তখন অবশ্যই সেই ভিডিও গুলো আপনাকে টিকটক এর মধ্যে পাবলিশ করতে হবে। আর আপনি তখনই আপনার তৈরি করা ভিডিও গুলো কে tiktok এর মধ্যে পাবলিশ করতে পারবেন।

যখন আপনার মোবাইলের মধ্যে উক্ত টিক টক অ্যাপস টি ইন্সটল করা থাকবে। আর সে কারণে মূলত সবার আগে আপনাকে এই tiktok অ্যাপ টি ডাউনলোড করে নিতে হবে।

চলুন এবার জেনে নেওয়া যাক যে, কিভাবে টিক টক ভিডিও বানাবো এর প্রথম স্টেপ অথবা কিভাবে আপনি এই tiktok অ্যাপস ডাউনলোড করবেন।

কেননা না অনেকেই জনাতে চায়, কিভাবে টিক টক অ্যাপস ডাউনলোড করব

  1. প্রথমে আপনাকে গুগল প্লে স্টোরে যেতে হবে।
  2. গুগল প্লে স্টোরে যাওয়ার পরে আপনাকে Tiktok লিখে সার্চ করতে হবে।
  3. এরপরে আপনার সামনে যে অ্যাপস টি আসবে। সেটি আপনার ফোনে ইন্সটল করে নিতে হবে।

যদিও বা আমরা এখন সবাই tiktok অ্যাপ ডাউনলোড করতে পারি। কিন্তু তারপরেও আর্টিকেল লেখার স্বার্থে আমি আপনাকে দেখিয়ে দিলাম।

যে, কিভাবে আপনি আপনার স্মার্টফোনে এই জনপ্রিয় টিকটক অ্যাপস টি ডাউনলোড করবেন।

টিকটক একাউন্ট খুলুন

যখন আপনি উপরের পদ্ধতি গুলো অনুসরণ করে টিকটক অ্যাপস ডাউনলোড করবেন। তখন আপনাকে এই অ্যাপস এর মধ্যে প্রবেশ করতে হবে।

আর একজন নতুন হিসেবে যখন আপনি tiktok অ্যাপস এর মধ্যে প্রবেশ করবেন। তখন অবশ্যই আপনাকে সেই অ্যাপস থেকে একটি একাউন্ট তৈরি করতে হবে।

কারণ tiktok নামক এই অ্যাপটির মধ্যে তখনই আপনি আপনার ভিডিও গুলো পাবলিশ করতে পারবেন। যখন আপনার নিজস্ব একটি টিকটক একাউন্ট থাকবে।

আর আপনি চাইলে খুব সহজেই একটি টিকটক একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন। সেক্ষেত্রে আপনি চাইলে আপনার মোবাইল নম্বর দিয়ে একটি টিকটক একাউন্ট খুলতে পারবেন।

অথবা আপনি চাইলে আপনার ফোনে লগইন করার জিমেইল আইডি দিয়েও টিকটক একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন।

টিক টক ভিডিও বানানোর উপায়

তো যে মানুষ গুলো আসলে জানতে চেয়েছিলেন যে, কিভাবে টিকটক ভিডিও বানাবো। তাদের জন্য উপরের দুটি পদ্ধতি আলোচনা করা হয়েছে।

আর আপনি যদি আপনার স্মার্ট ফোন থেকে tiktok ভিডিও তৈরি করতে চান, অথবা জিও মোবাইলে কিভাবে টিকটক বানাবো শিখতে চান।

তাহলে অবশ্যই আপনাকে উপরোক্ত এই পদ্ধতি সঠিক ভাবে অনুসরণ করতে হবে। আর যখন আপনি উপরের এই দুটো পদ্ধতি কে সঠিক ভাবে অনুসরণ করবেন।

তখন আপনাকে পরবর্তী ধাপ গুলো ফলো করতে হবে। মূলত আপনি যদি নতুন ব্যক্তি হিসেবে tiktok ভিডিও তৈরি করতে চান।

তাহলে আপনার জন্য এই ধাপ গুলো অতি প্রয়োজনীয়। চলুন এবার তাহলে tik tok ভিডিও তৈরি করার সেই ধাপ গুলো সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

সঠিক নিশ বাছাই করুন

দেখুন আপনি যদি নিয়মিত tiktok এর মধ্যে ভিডিও দেখেন। তাহলে একটা বিষয়ে অবশ্যই খেয়াল করে দেখেছেন যে। টিকটক এর মধ্যে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ভিডিও তৈরি করা হয়ে থাকে।

যেমন, আপনি এমন অনেক মানুষ কে খুঁজে পাবেন। যারা মূলত ফানি ভিডিও তৈরি করে। আবার এমন অনেক মানুষ রয়েছেন। যারা মূলত নাচের ভিডিও তৈরি করে।

আবার আপনি কিছু কিছু মানুষের ভিডিও দেখবেন। যারা শুধুমাত্র মোটিভেশনাল ভিডিও তৈরি করে।

তো tiktok এর মধ্যে যখন নির্দিষ্ট কোন ব্যক্তি নির্দিষ্ট কোন বিষয় নিয়ে ভিডিও তৈরি করে। তখন সেই নির্দিষ্ট বিষয় কে বলা হয়ে থাকে টিক টক নিশ।

এখন আপনি আসলে কোন নিশ এর উপর নির্ভর করে টিকটক ভিডিও তৈরি করবেন। সেটা কিন্তু সম্পূর্ণ আপনাকে বিবেচনা করতে হবে।

কারণ আপনাকে সেই বিষয়ে ভিডিও তৈরি করতে হবে। যে বিষয় সম্পর্কে আপনার দক্ষতা রয়েছে।

যেমন ধরুন, আপনি যদি ভালো নাচতে পারেন, তাহলে অবশ্যই আপনাকে নাচের ভিডিও তৈরি করতে হবে।

অথবা আপনি যদি ভালো গান গাইতে পারেন, তাহলে আপনাকে গান গাওয়ার ভিডিও তৈরি করতে হবে।

তবে আপনি যদি জানতে চান যে, টিকটক এর মধ্যে কোন বিষয় নিয়ে ভিডিও করলে দ্রুত ভাইরাল হবে।

তাহলে আমি আপনাকে বলব যে, বর্তমান সময়ে প্রায় সব ধরনের ভিডিও শাড়িং প্ল্যাটফর্ম গুলো তে ফানি ভিডিও তে প্রচুর পরিমাণে ভিউ হয়।

কারণ মানুষ হিসেবে আমরা সবাই হাসতে ভালবাসি। আর আপনি যদি এই মানুষ কে হাসার জন্য ভিডিও তৈরি করেন।

সেক্ষেত্রে কিন্তু আপনার ভিডিও গুলো তে প্রচুর পরিমাণে ভিউ আসবে এটাই স্বাভাবিক বিষয়।

তবে সব মানুষ এই ধরনের ফানি ভিডিও তৈরি করে করবে বিষয়টা আসলে এমন নয়।

বরং আপনাকে খুঁজতে হবে যে, আপনি আসলে কোন বিষয়ে ভিডিও তৈরি করতে এক্সপার্ট।

ভিডিও তৈরি করার জন্য পরিকল্পনা করুন

দেখুন আপনি হুট করে যে কোন একটা টিকটক ভিডিও তৈরি করবেন। আর মানুষ পাগলের মত আপনার সেই tik tok ভিডিও টি দেখবে।

বিষয়টা মোটেও এরকম নয় বরং মানুষ তখনই আপনার ভিডিও টি দেখবে। যখন তাদের কাছে আপনার ভিডিও টি অনেক আকর্ষণীয় মনে হবে।

আর এই ধরনের আকর্ষণীয় ভিডিও তৈরিও করার জন্য অবশ্যই আপনাকে পূর্ব পরিকল্পিত পরিকল্পনা করতে হবে। এবং সেই পরিকল্পনা অনুযায়ী আপনাকে ভিডিও তৈরি করতে হবে।

আর সব শেষে সেই ভিডিও টি আপনাকে টিকটক নামক সেই জনপ্রিয় প্লাটফর্মের মধ্যে আপলোড করতে হবে।

এখন হয়তো আপনার মাথায় একটি প্রশ্ন জেগে থাকতে পারে যে। এই ধরনের ভিডিও তৈরি করার জন্য কি রকম পরিকল্পনা করার প্রয়োজন হয়।

তো আপনার মনে যদি এই ধরনের প্রশ্নের উদ্ভব হয়। তাহলে আমি আপনাকে বলব যে একটু ঠান্ডা মস্তিষ্কে ভেবে দেখুন। tiktok এর মধ্যে মূলত ক্যামেরা কনটেন্ট নিয়ে কাজ করতে হয়।

আপনি আরোও দেখতে পারেন…

অর্থাৎ টিকটক এর জন্য ভিডিও তৈরি করার ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনাকে ক্যামেরা দিয়ে শুট করতে হবে। এখন আপনাকে দেখতে হবে যে, আপনি আসলে যে ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও শুট করতে চান।

সেই ক্যামেরা টি ভিডিও শুট করার জন্য কতটুকু উপযুক্ত। মূলত আপনি আপনার ক্যামেরা দিয়ে যত ভালো কোয়ালিটির ভিডিও করতে পারবেন।

মানুষের কাছে আপনার ভিডিও টি তত বেশি প্রাধান্য পাবে। এর পাশাপাশি একটি ভিডিও তৈরি করার আগে অবশ্যই স্ক্রিপ্ট তৈরি করে নেওয়ার চিন্তা ভাবনা করবেন।

ভিডিও তৈরীর সফটওয়্যার সংগ্রহ করুন

আমরা tiktok এর মধ্যে যে ভিডিও গুলো দেখতে পাই। সেই ভিডিও গুলো কিন্তু সরাসরি ক্যামেরা দিয়ে শুট করার পরেই আপলোড করা হয় না।

বরং সেগুলো কে বিভিন্ন ভাবে এডিট করা হয়। এবং এডিট করার পরেই সেই ভিডিও গুলো এই টিকটক এর মধ্যে পাবলিশ করা হয়ে থাকে।

আর যখন আপনি কোন একটি ভিডিও কে এডিট করতে যাবেন। তখন অবশ্যই আপনাকে বিভিন্ন ধরনের ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার কিংবা অ্যাপস এর প্রয়োজন হবে।

আর আপনি এই সফটওয়্যার কিংবা অ্যাপস গুলো কে কাজে লাগিয়ে যত আকর্ষণীয় ভাবে ভিডিও এডিট করে নিতে পারবেন।

আপনার সেই ভিডিও গুলো তত বেশি ভাইরাল হওয়ার সম্ভাবনা থাকবে।

আর বর্তমান সময়ে আপনি কম্পিউটারের জন্য বিভিন্ন প্রকারের ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার খুজে পাবেন। এবং যদি আপনি আপনার স্মার্টফোন দিয়ে tiktok এর জন্য ভিডিও এডিট করতে চান।

তাহলে আপনি গুগল প্লে স্টোরে এমন অনেক ধরনের মোবাইল দিয়ে ভিডিও এডিট করার অ্যাপস খুঁজে পাবেন।

আর আপনি যদি এ গুলোর মাধ্যমে আপনার টিকটক ভিডিও এডিট করতে চান তবে অবশ্যই আপনাকে একটু অ্যাপস কিংবা সফটওয়্যার গুলো সম্পর্কে সঠিক ভাবে জানতে হবে।

এবং কিভাবে কাজ করতে হয় তা নিয়ে আপনাকে ইউটিউব এ ভিডিও দেখতে হবে। আর যখন আপনি এই অ্যাপস সফটওয়্যার গুলোর ব্যবহার সম্পর্কে জানতে পারবেন।

তখন আপনি আপনার ইচ্ছা মতো আপনার টিকটক ভিডিও কে এডিট করতে পারবেন।

সেরা আকর্ষণীয় Tik Tok ভিডিও তৈরি করার টিপস

কিভাবে টিকটক ভিডিও বানাবো এই প্রসঙ্গ নিয়ে আমি আপনাকে উপরের বেশ কিছু উপায় শেয়ার করেছি।

যে উপায় গুলোর মাধ্যমে আপনি tiktok এর জন্য ভিডিও তৈরি করতে পারবেন। তবে এই বিষয় গুলো শেয়ার করার পাশাপাশি আমি আপনাকে বলেছি যে।

এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আমি আপনাকে বিশেষ কিছু টিপস শেয়ার করার চেষ্টা করব। যে গুলো মূলত বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় tiktok কনটেন্ট ক্রিয়েটররা অনুসরণ করে থাকে।

তো চলুন এবার সেই টিক টক ভিডিও তৈরি করার গোপন টিপস গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে জেনে নেওয়া যাক। এবং জেনে নেওয়া যাক যে tiktok ভিডিও তৈরি করার সেই গোপন টিপস গুলো কি কি।

হাই-কোয়ালিটির ভিডিও তৈরী করুন

দেখুন যখন আপনি tiktok এর মধ্যে কোনটি ভিডিও তৈরি করার চেষ্টা করবেন। তখন অবশ্যই সেই ভিডিওর কোয়ালিটির দিকে যথেষ্ট পরিমাণে খেয়াল রাখবেন।

কারণ মানুষ তখনই আপনার ভিডিও টি দেখতে চাইবে। যখন আপনার ভিডিওর মধ্যে মানসম্মত কোয়ালিটি থাকবে।

কিন্তু আপনি যদি ঘোলা কিংবা অস্পষ্ট ভিডিও তৈরি করেন। তাহলে দর্শকরা আপনার ভিডিও দেখার আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে।

সেজন্য অবশ্যই আপনি আপনার tiktok ভিডিও এইচডি কোয়ালিটি তে তৈরি করার চেষ্টা করবেন।

যাতে করে মানুষ আপনার ভিডিও দেখার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেন। এবং দর্শকরা আপনার পুরো ভিডিও টি দেখে।

স্লো মোশন ভিডিও বানান

আপনি tiktok এর মধ্যে বিভিন্ন প্রকারের ভিডিও দেখতে পারবেন। তবে এখন  স্লো মোশন ভিডিও গুলো অনেক ট্রেন্ডিং এ আছে।

আর আপনি যদি এই সুযোগ কে কাজে লাগিয়ে অন্য মানুষদের মতো আপনিও এই ধরনের স্লো মোশন ভিডিও তৈরি করেন। তাহলে কিন্তু আপনার সেই ভিডিও গুলোতে প্রচুর পরিমাণে ভিউ আসবে।

এবং আপনি আপনার সেই টিকটক এর মধ্যে আপলোড করা ভিডিও গুলো কে ভাইরাল করতে পারবেন।

কিন্তু সেজন্য আপনাকে অবশ্যই স্লো মোশন ভিডিও তৈরি করা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে হবে।

এবং এই ধরনের ভিডিও তৈরি করতে যে সকল অ্যাপস কিংবা সফটওয়্যার এর প্রয়োজন হয়। সে গুলো আপনাকে সংগ্রহ করতে হবে।

তাহলে আপনি এই ধরনের স্লো মোশন ভিডিও তৈরি করতে পারবেন।

সাউন্ড সম্পর্কে যত্নশীল হন

কোন একটি tiktok ভিডিও এর কোয়ালিটির উপর খেয়াল রাখার পাশাপাশি। সেই ভিডিও তে যে সকল সাউন্ড ব্যবহার করা হবে।

অবশ্যই আপনাকে সাউন্ডের উপর যথেষ্ট পরিমাণ গুরুত্ব দিতে হবে। কারণ আপনি যদি আপনার ভিডিওর কোয়ালিটি ভালো রেখে সাউন্ড মানসম্মত না করেন।

তাহলে কিন্তু আপনার ভিডিও মাধুর্যতা হারিয়ে ফেলবে। এতে করে মানুষ আপনার ভিডিও তে ক্লিক তো ঠিকই করবে।

কিন্তু আপনার সেই ভিডিও টি দেখার আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে। তাই যখন আপনি কোন একটি টিকটক ভিডিও তৈরি করবেন।

তখন অবশ্যই আপনাকে সেই ভিডিও তে ব্যবহার করা সাউন্ড এর ওপর যথেষ্ট পরিমাণে গুরুত্ব দিতে হবে।

এবং আপনাকে এমন সব কোয়ালিটি সম্পন্ন সাউন্ড ব্যবহার করতে হবে। যাতে করে মানুষের কাছে তা অনেক ভালো লাগে।

How To’ ভিডিও বানান

যখন আপনি আপনার ভিডিও তে নতুন কিছু যুক্ত করতে পারবেন। তখন মানুষ প্রচুর পরিমাণে আপনার ভিডিও দেখবে।

আর এই টিপস টি কাজে লাগানোর জন্য আপনাকে How To টাইপের ভিডিও তৈরি করতে হবে। কারণ এই ধরনের ভিডিও গুলো মানুষ প্রচুর পরিমাণে দেখে।

আর আপনি যদি মানুষের আগ্রহ কে কাজে লাগিয়ে এ ধরনের ভিডিও তৈরি করেন। তাহলে কিন্তু আপনি খুব সহজে আপনার সেই tiktok ভিডিও গুলো কে ভাইরাল করতে পারবেন।

এবং অনেক বেশি মানুষের ভালোবাসা অর্জন করতে পারবেন।

অন্য TikTok ইউসারদের সাথে যোগাযোগ করুন

যখন আপনি একটি টিকটক একাউন্ট তৈরি করবেন। তখন অবশ্যই আপনাকে অন্যান্য সব টিকটক ইউজারের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রাখতে হবে।

এবং তাদের কাছ থেকে আপনাকে জানতে হবে যে। তারা আসলে কিভাবে ভিডিও তৈরি করছে, তারা তাদের ভিডিও গুলো তে কি ধরনের ইফেক্ট ব্যবহার করছে।

বর্তমান সময়ে কোন কোন সাউন্ড গুলো ব্যবহার করলে ভিডিও ভাইরাল করতে পারছে। এই বিষয় গুলো নিয়ে আপনাকে আলোচনা করতে হবে।

যাতে করে আপনি তাদের কাছ থেকে কোন কিছু শিখতে পারেন। আর এভাবে আপনি যত বেশি মানুষের সাথে যোগাযোগ করতে পারবেন।

আপনি ঠিক তত বেশি ধারণা অর্জন করতে পারবেন।

পপুলার ভিডিও নিজের ভার্সন বানান

টিকটকের মধ্যে আপনি বিভিন্ন সময় বিভিন্ন বিষয় এর ভিডিও হঠাৎ করেই ভাইরাল হতে দেখবেন। আর যখন কোন একটি বিষয় tiktok এর মধ্যে ভাইরাল হয়ে যায়।

তখন আপনাকে সেই ভাইরাল বিষয় নিয়ে ভিডিও তৈরি করতে হবে। এবং অন্যান্য মানুষদের থেকে আপনার ভিডিও তে একটু আলাদা কিছু রাখতে হবে।

আর এই কাজটি করার জন্য আপনাকে সেই ভাইরাল টপিক গুলো নিয়ে নিজের ভার্সনে ভিডিও তৈরি করতে হবে।

এতে করে আপনি সেই ভাইরাল টপিক নিয়ে ভিডিও করার পাশাপাশি। নিজের ভার্সনে ভিডিও তৈরি করার কারণে মানুষের কাছে আপনি আলাদা একটা প্রাধান্য পাবেন।

এবং আপনার ভিডিও গুলো অতি দ্রুত ভাইরাল হয়ে যাবে।

ডুয়েট ভিডিও বানান

হঠাৎ করে যখন tiktok এর মধ্যে কোন একজন টিকটকার ভাইরাল হয়ে যায়। তখন অবশ্যই এখানে আপনাকে একটা টিপস অনুসরণ করতে হবে।

আর সেটি হল আপনি অতি দ্রুততার সাথে সেই ব্যক্তির ভিডিওর মাধ্যমে আপনাকে ডুয়েট করতে হবে।

কারণ টিকটক এর মধ্যে যখন কোন একজন ব্যক্তি হঠাৎ করে ভাইরাল হয়ে যায়। তখন মানুষ প্রচুর পরিমাণে সেই ব্যক্তির ভিডিও দেখে থাকে।

আর আপনি যদি সেই ব্যক্তির সাথে ডুয়েট ভিডিও তৈরি করেন। তাহলে খুব দ্রুততার সাথে আপনি আপনার ভিডিও কে ভাইরাল করতে পারবেন।

এবং আপনি আপনার ভিডিও তে আশানরূপ ভিউ নিয়ে আসতে পারবেন।

কারেন্ট ইভেন্টগুলো কভার করুন

টিক টক ভিডিও বানানোর জন্য অবশ্যই আপনাকে আগামী ইভেন্ট গুলো কে মাথায় রাখতে হবে।

যেমন, কোন দিন স্বাধীনতা দিবস, কোন দিন বিজয় দিবস, কোন দিন মা দিবস, বাবা দিবস এই জাতীয় ইভেন্ট গুলো কে আপনাকে যথেষ্ট গুরুত্ব দিতে হবে।

এবং সেই ইভেন্ট অনুযায়ী আপনাকে প্রতিনিয়ত ভিডিও তৈরি করতে হবে। আর সেই ভিডিও গুলো কে সেই ইভেন্ট অনুযায়ী সঠিক সময়ে tiktok এর মধ্যে পাবলিশ করতে হবে।

যদি আপনি এই কাজটি করতে পারেন। তাহলে আপনি আলাদা একটা বেনিফিট পাবেন।

প্রতিদিন পোস্ট করার চেষ্টা করুন

যখন আপনার একটি tiktok অ্যাকাউন্ট থাকবে। এবং আপনি যদি সেই একাউন্ট এর মধ্যে আপনার নিজের তৈরি করা ভিডিও গুলো পাবলিশ করতে চান।

তাহলে অবশ্যই আপনাকে একটা বিষয়ের দিকে যথেষ্ট পরিমাণে গুরুত্ব দিতে হবে। আর সেই বিষয় টি হলো আপনাকে প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিডিও পাবলিশ করতে হবে।

আর যখন আপনি আপনার সেই টিকটক একাউন্ট এর মধ্যে প্রতিদিন নির্দিষ্ট পরিমাণ ভিডিও আপলোড করবেন।

তখন টিক টক অ্যালগরিদম এর কাছে আপনার টিকটক একাউন্ট টি আলাদা একটা গুরুত্ব পাবে।

ট্রেন্ডিং হ্যাসট্যাগ ও TikTok ট্রেন্ডের সাথে পরিচিত হন

দেখুন tiktok এর মধ্যে আপনি অবশ্যই হ্যাশট্যাগ এর নাম শুনে থাকবেন। মূলত যারা নিয়মিত টিকটক এর মধ্যে ভিডিও পাবলিশ করে।

তারা সবাই এই হ্যাশ ট্যাগ কে যথেষ্ট পরিমাণে গুরুত্ব দিয়ে থাকে। মূলত এই হ্যাশ ট্যাগ এর মাধ্যমে আপনি টিকটক অ্যালগরিদম কে বুঝিয়ে দিতে পারবেন।

আপনি যে ভিডিও টি তৈরি করেছেন, সেটা আসলে কোন বিষয়ের উপর নির্ভর করে তৈরি করা হয়েছে।

আর যখন আপনি এই বিষয় টি সম্পর্কে টিকটক অ্যালগরিদম কে সঠিক ভাবে ধারণা দিতে পারবেন।

তখন কিন্তু আপনার সেই ভিডিও টি টার্গেট করা দর্শকদের নিউজ ফিডে গিয়ে পৌঁছাবে। তাই অবশ্যই আপনি এই হ্যাশ ট্যাগ কে যথেষ্ট পরিমাণে গুরুত্বপূর্ণ দিবেন।

Q: ছবি দিয়ে কিভাবে টিকটক বানাবো?

A: যদি আপনি বিভিন্ন প্রকারের ছবি দিয়ে টিক টক ভিডিও বানাতে চান। তাহলে অবশ্যই আপনাকে মানসম্মত Photo to video তৈরি করার অ্যাপ ব্যবহার করতে হবে।

মূলত এই অ্যাপস গুলোর মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই যে কোনো ধরনের ছবি দিয়ে আকর্ষণীয় ভিডিও তৈরি করতে পারবেন।

Q: টিকটক লেখা ভিডিও কিভাবে বানাবো?

A: আমাদের মধ্যে এমন অনেক মানুষ আছেন। যারা মূলত টিকটক লেখার ভিডিও কিভাবে বানাবে সে সম্পর্কে জানতে চায়।

আপনি যদি টিকটক লেখার ভিডিও তৈরি করতে চান। তাহলে আপনাকে বেশ কিছু অ্যাপস ব্যবহার করতে হবে।

যেমন, Text video apps for android লিখে সার্চ করলেই আপনি লেখা ভিডিও তৈরি করার অনেক অ্যাপস দেখতে পারবেন।

Q:কিভাবে টিকটক ভিডিও ভাইরাল করবো?

A: যদিওবাtiktok ভিডিও ভাইরাল করার উপায় গুলো নিয়ে আমি আলাদা আর্টিকেল পাবলিশ করেছি। তবে আপনি যদি আপনার tik tok ভিডিও ভাইরাল করতে চান।

তাহলে আপনাকে বেশ কিছু উপায় অনুসরণ করতে হবে। যেমন, আপনাকে ট্রেন্ডিং টপিক নিয়ে ভিডিও তৈরি করতে হবে।

আপনার ভিডিও তে ট্রেন্ডিং সাউন্ড ব্যবহার করতে হবে। আপনার ভিডিওর কোয়ালিটি অনেক মানসম্মত হতে হবে।

এর পাশাপাশি আপনার tiktok ভিডিও তে যথাযথ হ্যাশ ট্যাগ ব্যবহার করতে হবে।

Q: টিকটক ভিডিও কিভাবে ডাউনলোড করে?

A: আপনি চাইলে সরাসরি টিকটক অ্যাপস এর মাধ্যমে যেকোনো ধরনের tiktok ভিডিও গুলো ডাউনলোড করতে পারবেন।

তবে আপনি যদি ওয়াটার মার্ক ছাড়া টিক টক ভিডিও ডাউনলোড করতে চান। তাহলে অবশ্যই আপনাকে বিভিন্ন প্রকারের অ্যাপস কিংবা ওয়েবসাইটের সহায়তা নিতে হবে।

আপনি আরোও পড়ুন…

আমাদের শেষকথা

আমাদের মধ্যে যে মানুষ গুলোর মনে এই প্রশ্ন টি ছিল যে, কিভাবে টিকটক ভিডিও বানাবো। তাদের জন্য আজকের এই আর্টিকেল টি অনেক বেশি প্রয়োজনীয়।

কারণ যারা সত্যিকার অর্থেই জানতে চান টিকটক ভিডিও কিভাবে বানাবো।

তাদের উদ্দেশ্যে টিক টক ভিডিও তৈরি করার বেশ কিছু উপায় নিয়ে আলোচনা করেছি আজকের এই আর্টিকেলে।

আশা করি আজকের আলোচিত এই আলোচনা গুলো আপনি খুব সহজ ভাবে বুঝতে পেরেছেন।

আর আপনি যদি tiktok সম্পর্কিত আরো অজানা কিছু জানতে চান। তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

HandsUp! কপি করা যাবে না বস!

Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap